Share on whatsapp
Share on twitter
Share on facebook
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

রাধাবল্লভির প্রচলন কোথা থেকে ? কি ভাবে বাড়িতেই বানাবেন রাধাবল্লভি

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

দীপিকা সরকার (news bazar24) : বাঙালির বিয়ে বাড়ির উদ্বোধনী সঙ্গীত মানেই আজকাল  রাধাবল্লভি। কেও কাশন্দি দিয়ে তো কেও ছোলা ভাতরা দিয়ে এই বল্লভিকে পরিবেশন করে। এক কথায়  ডালের পুর দিয়ে তৈরি এই পদটি সম্পূর্ণরুপে নিরামিষ , আর সেই কারনেই  পুজাবাড়ি থেকে শুরু করে নিমন্ত্রন বাড়ি পর্যন্ত সব জায়গাতেই এর কদর একই রকম ।

রাধাবল্লভির উৎপত্তিগত ইতিহাস ?

রাধাবল্লভির উৎপত্তি হয় মুর্শিদাবাদের কান্দি রাজা অনাদিবর সিংহের পরিবার থেকে। তাঁর পরিবার বৈষ্ণব ধর্মের পৃষ্ঠপোষকতা করতেন,  আর তাই তাঁরা রাধাবল্লভ বা কৃষ্ণের একটি মন্দিরও সেখানে তৈরি করান। মন্দিরের দেবতার প্রসাদ হিসাবে যে কচুরি তৈরি করা হত তা ছিল সম্পূর্ণরুপে নিরামিষ যা মন্দিরে আসা ভক্তরা প্রসাদ হিসাবে পেত। রাধাবল্লভের মন্দিরের এই নিরামিষ কচুরিই রাধাবল্লভি নামে পরিচিতি লাভ করে।তবে এই নিরামিষ কচুরি সেই রাজার পাচক নিজেই কিন্তু আবিষ্কার করেছিলেন।

আজ আমি আপনাদের কাছে হাজির হয়েছি, রাধাবল্লভি নিয়ে। আপনারা অনেকেই রাধাবল্লভির আস্বাদ গ্রহন করেছেন, কিন্তু বুঝে উঠতে পারেন না বাড়িতে কি করে বানাবেন ? তাই আজ জেনে কিভাবে বাড়িতেই তৈরি করবেন রাঁধা বলভী-

রাধাবল্লভি তৈরি করার জন্য যে সব জিনিষ লাগবে ?

১. বিউলির ডাল ১ কাপ।

২. ময়দা ২ কাপ।

৩. খোয়া ক্ষীর ১/২ কাপ।

৪. আদা ১ ইঞ্চির মত

৫. কাঁচা লঙ্কা ১টি।

৬. মৌরি ১/২ চা-চামচ।

৭. হিং ১/২ চা-চামচ।

৮. ভাজা মশলা ১ চা-চামচ।

৯. সয়াবিন অয়েল রাধাবল্লভি ভাজার মত

১০. সর্ষের তেল ৪ চা-চামচ

১১. নুন স্বাদমতো।

১২. চিনি ১/২ চা-চামচ।

রাধাবল্লভি তৈরির প্রণালী-

প্রথমে বিউলির ডালকে ভাল করে জলে ধুয়ে সারারাত ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে এবং পরের দিন সকালে জল থেকে ছেঁকে তাতে আদা ও কাঁচালঙ্কা দিয়ে মিক্সিতে নিয়ে ভাল করে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে।মিক্সি না থাকলে শিল নোড়াতে পেস্ট করে নিতে হবে।

এরপর, একটি পাত্রে ময়দা নিয়ে তাতে ২ চা-চামচ সয়াবিন অয়েল নিয়ে তাতে স্বাদমত নুন দিয়ে তা ময়দার সাথে ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে এবং উষ্ণ গরম জল নিয়ে অল্প অল্প করে তা ময়দার সাথে মিশিয়ে ভাল করে একটি তাল বা ডো বানিয়ে নিতে হবে এবং সেটিকে ঢাকা দিয়ে ১৫ মিনিটের জন্য রেখে দিতে হবে।

এরপর, একটি কড়াই নিয়ে তাতে সর্ষের তেল দিয়ে তা গরম করতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে, ওই তেলে হিং ও মৌরির ফোড়ন দিতে হবে। ফোড়ন থেকে সুন্দর গন্ধ বের হলে, তাতে বেটে রাখা ডাল দিয়ে দিতে হবে এবং মাঝারি আঁচে নাড়াচাড়া করতে হবে।

কিছুক্ষণ পর এতে খোয়া ক্ষীর ও নুন দিয়ে দিতে হবে এবং নাড়াচাড়া করতে হবে। মিশ্রণটি যখন হাল্কা শুকিয়ে আসবে তখন এর মধ্যে ১ চামচ ভাজা মশলা ও স্বাদমত চিনি এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে এবং ভাল করে নাড়াচাড়া করে, আঁচ বন্ধ করে ঠাণ্ডা হতে দিতে হবে।

এরপর আগে থেকে মেখে রাখা ময়দা লুচির লেচির থেকে বড় আকারের লেচি কেটে নিতে হবে। এরপর ডালের মিশ্রণ ঠাণ্ডা হয়ে গেলে, আটার লেচিকে বাটির আকারে গড়ে তাতে ডালের মিশ্রণের পুর ভরে নিতে হবে।

এরপর, একটি কড়াই বসিয়ে তাতে রাধাবল্লভি ভাজার মত  তেল দিয়ে তা গরম করতে হবে। তেল গরম হবে, কিন্তু ফুটন্ত গরম হবে না এইরকম তেলে পুর ভরে রাখা লেচিগুলিকে হাল্কা হাতে বেলে নিয়ে একে একে ভেজে নিলেই তৈরি হয়ে গেলে সুস্বাদু মনমাতানো রাধাবল্লভি। এই কচুরি বা মনমাতানো রাধাবল্লভি আপনি লুচির বদলে দেব দেবীকে প্রসাদ হিসেবেও দিতে পারবেন।

 

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin