Share on whatsapp
Share on twitter
Share on facebook
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

ভোটার কার্ড সহ সব কাগজ উড়ে গেছে ঝড়ে! ভোট কিভাবে দেবে চিন্তায় মানুষ

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

 news bazarer : ঝড় থেমে গেছে রবিবার রাতেই। কিন্তু থামেনি আতঙ্কের ঝড় । থামেনি কিছু খোঁজার চেষ্টা। সোমবার সকালেও ঝড়ে লন্ড ভন্ড হয়ে যাওয়া ধ্বংসস্তূপে কাগজপত্র খুঁজছিলেন ভিক্টর মজুমদার । প্রতিবেশী মানবেন্দ্র রায়ও ঠিক একইভাবে ঘরের ভাঙাচোরা টিন বাশ সরিয়ে খুঁজছিলেন বিভিন্ন কাগজ পত্র । কবে ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে ফের ঘর তৈরি হবে তা ওঁরা কেউ জানেন না। কিন্তু এই ধ্বংসস্তূপ থেকে ভোটার কার্ড ,আধার কার্ড খুঁজে বের করতেই হবে ,কারণ সামনেই যে ভোট দিতে হবে । ময়নাগুড়ির (Maynaguri) বার্নিশ গ্রাম পঞ্চায়েতের কালীবাড়ি এলাকার পবন , সুদীপ, বা গোপাল বর্মনেরা মরিয়া হয়ে তাই ভোটের সচিত্র পরিচয়পত্র খুঁজে চলেছেন । তাদের মনে একটাই প্রশ্ন নাগরিকত্বের পরিচয়পত্র সমেত ফাইল কি ঝড়ে উড়ে গেল? বার্নিশ পঞ্চায়েতের কালীবাড়ি, ঘাটপাড়া, বসুনিয়াপাড়া, সর্দারপাড়া, ফুলতলির মতো সাতটি গ্রামের ভোটার রয়েছেন প্রায় পনেরশোর কাছাকাছি। এঁরা সকলেই ভোট দিয়ে আসেন ফুলতলি স্কুলের ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে। আগামী ১৯ এপ্রিল জলপাইগুড়ি (Jalpaiguri) লোকসভা আসনে নির্বাচন। এদের সবার মনে একটাই ভয়, (Lok Sabha Election 2024) দিন ভোটার কার্ড (Voter Card) না থাকলে ভোট দেবেন কী করে? যদিও ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বার্নিশের বাসিন্দাদের ভোটার কার্ড না থাকলেও ভোট দেওয়ার জন্য বিকল্প ব্যবস্থা থাকবে বলে জেলা নির্বাচন দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে। তবে অনেক মানুষের বিকল্প বলে কিছুই নেই, সব উড়ে গেছে ঝড়ে । মন্দির বর্মনের বাড়ি ঘর বলে আর কিছুই নেই। ঝড়ের রাত থেকেই ত্রিপলের তাঁবুতে স্বপরিবারে বসবাস করছেন । ঝড়ের তাণ্ডবের পর কোথায় ভোটার কার্ড, আধার কার্ড ছিল, সেই ফাইল ঝড়ে কোথায় উড়ে গিয়েছে, খুঁজেই পাচ্ছেন না। নিজের ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের নাম জানা থাকলেও কোন পার্টের বাসিন্দা, সিরিয়াল নম্বর কিছুই জানা নেই এঁদের। অনেক মানুষের অবস্থা আরও সঙ্গিন। ভোটার কার্ডের পাশাপাশি বাড়ির দলিলের নথিও খুঁজে পাচ্ছেন না এরা । জেলা শাসক ও জেলা নির্বাচন আধিকারিক শামা পারভিন জানান, ভোটার কার্ডের বিকল্প হিসেবে আধার, প্যান, ১০০ দিনের কাজের জব কার্ড, ব্যাংকের ছবি সহ পাসবুক, ড্রাইভিং লাইসেন্স, পাসপোর্ট নিয়ে এলেও ভোট দিতে পারবেন। তাছাড়া যাঁদের ভোটার কার্ড খোয়া গিয়েছে তাঁদের ভোটার ইনফরমেশন স্লিপ দেওয়া হবে। এই ইনফোমেশন স্লিপ দিয়ে ভোট দেওয়া যেতে পারে। তবে যাদের দলিল উড়ে গেছে তাদের দলিল সমস্যা এই মুহূর্তে করা যাবে না। পরে কোন একটা ব্যবস্থা করা হবে।

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

সম্পর্কিত খবর