Share on whatsapp
Share on twitter
Share on facebook
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Malda Theatre news:মালদহের ঐতিহ্যবাহী নাট্য দল মালদা মালঞ্চর ৩০ বছর পূর্তি উৎসব উদযাপন

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Newsbazar 24:-মালদহ জেলার ঐতিহ্যবাহী নাট্য দলের অন্যতম মালদা মালঞ্চর ৩০ বছর পূর্তি উৎসব পালিত হল স্থানীয় দুর্গা কিংকর সদনে গত ২৬শে আগস্ট। ১৯৯৩ সালের ২৬ আগস্ট মালদা মালঞ্চর যাত্রা শুরু হয়েছিল। বহু বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে জেলা তথা রাজ্যে ও জাতীয় স্তরে বেশ কিছু নাটক সুনামের সাথে উপস্থাপন করেছেন মালদা মালঞ্চর কর্ণধার পরিমল ত্রিবেদীর নেতৃত্বে।দেখতে দেখতে ইতিমধ্যে যৌবনে পদার্পণ করেছে মালদা মালঞ্চ।
প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে এই বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্ট নাট্য গবেষক আশিস গোস্বামী, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ইংরেজ বাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী,ভাইস চেয়ারম্যান সুমালা আগরওয়ালা, মালদহ কলেজের অধ্যক্ষ মানস কুমার বৈদ্য, বিশিষ্ট চিকিৎসক বঙ্গরত্ন দ্বিজেন্দ্র সরকার, বিশিষ্ট সমাজসেবী আশীস কুন্ডু এবং নাট্যপ্রেমি সোমেশ চন্দ্র দাস সহ মালদহের বিশিষ্ট নাট্যকারগন। উদ্বোধনী সঙ্গীত পরিবেশন করেন মালদা থিয়েটার প্ল্যাটফর্মের পরিচালক শ্রী সুব্রত পাল।
সমগ্র অনুষ্ঠানটিকে চারটি পর্যায়ে ভাগ করা হয়। প্রথম পর্যায়ে বিশিষ্ট মানুষজনদের কে নিয়ে ছিল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। দ্বিতীয় পর্যায়ে মালদহের থিয়েটার গ্রুপগুলোর মধ্যে অন্যতম ১১টি গ্রুপ যারা নিয়মিত নাট্য চর্চা করেন তাদের ১১ জন পরিচালককে সম্মাননা জ্ঞাপন করা হয়।
তৃতীয় পর্বে ছিল আলোচনা সভা। বিষয় ছিল”কৃত্যের মুকুরে নাট্য”। মূখ্য বক্তা হিসেবে ছিলেন বিশিষ্ট নাট্য গবেষক আশিস গোস্বামী। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন পরিমল ত্রিবেদী সঙ্গে নীলকণ্ঠ দত্ত।
অনুষ্ঠানের চতুর্থ এবং শেষ পর্বে, নবাগতদের নিয়ে নাট্য কর্মশালা ভিত্তিক দুটি নাটক পরিবেশিত হয়। প্রথম নাটক ছিল ‘এপারে’ দ্বিতীয় নাটক ছোটদের দ্বারা অভিনীত “সকাল বেলার রোদ্দুর”। নাটক ও নির্দেশনায় ছিলেন, বিশিষ্ট নাট্য পরিচালক ও মালদা মালঞ্চের কর্ণধার পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য নাট্য একাডেমী পুরস্কারপ্রাপ্ত ও বঙ্গরত্ন পরিমল ত্রিবেদীর সুযোগ্য পুত্র জয়রাজ ত্রিবেদী। নাটক দুটির মধ্য দিয়ে নাট্যকার সমাজের কাছে বার্তা তুলে ধরেছেন। প্রথম নাটক ‘এপারে’র মধ্যে দিয়ে আত্মহত্যা বিরোধী বার্তা পৌঁছে দিতে চেয়েছেন। নাটকের মঞ্চ-সজ্জা অভিনয় দর্শক সাধারণ কে মুগ্ধ করে রেখেছে। দ্বিতীয় নাটক ‘সকাল বেলার রোদ্দুর’এ সাম্প্রতিককালের জ্বলন্ত সমস্যা শিশুদের মোবাইলের প্রতি অতিমাত্রায় আসক্তি। এই নাটকে প্রতিটি শিশুর অভিনয় এক কথায় সাবলীল। সকল শিশুদের অভিনয় অর্থাৎ টিমওয়ার্ক অভিনন্দন যোগ্য।
এদিনের এই অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে মালদা মালঞ্চর অন্যতম সদস্য নীলকন্ঠ দত্ত জানান মালদা মালঞ্চর ৩০ বছর পূর্তি উৎসব পালিত হলো। বিগত ১৯৯৩ সালের ২৬ শে আগস্ট এই প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু হয়েছিল মালদহের বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব ও নাট্য পরিচালক, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য একাডেমির পুরস্কারপ্রাপ্ত ও বঙ্গরত্ন পরিমল ত্রিবেদীর নেতৃত্বে। দেখতে দেখতে ৩০ টা বছর পার হয়ে এই প্রতিষ্ঠান যৌবনের মধ্য গগনে। এদিনের এই অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্ট নাট্য গবেষক আশীষ গোস্বামী। উপস্থিত ছিলেন মালদহের বিশিষ্ট জ্ঞানী গুণী ব্যক্তিগন। অনুষ্ঠান উদ্বোধনের পর মালদহের বিশিষ্ট নাট্যদলের ১১ জন পরিচালককে সম্মাননা জ্ঞাপন করা হয় এরপর ছিল মনোজ্ঞ আলোচনা সভা। আলোচনা সভার মূল বক্তা ছিলেন নাট্য গবেষক আশীষ গোস্বামী।
অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে নবাগতদের নিয়ে দুটি নাটক পরিবেশিত হয়। প্রথম নাটক ছিল ওপারে,দ্বিতীয় নাটক ছোটদের দ্বারা অভিনীত”সকাল বেলার রোদ্দুর”। নাটক ও নির্দেশনাঃ জয়রাজ ত্রিবেদী। দর্শক সাধারণের কাছে নাটক দুটি বিশেষভাবে সমাদর লাভ করে।

ছবিটিতে নবাগত শিশু শিল্পীদের নিয়ে নাটক সকাল বেলার রোদ্দুর”এ শিশু শিল্পীরা।

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Latest News