Share on whatsapp
Share on twitter
Share on facebook
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Malda:ক্ষুদে আদিবাসী ফুটবলারদের ভাইরাল ভিডিও দেখে খেলার সামগ্রী দিয়ে উৎসাহিত করল জেলা পুলিশ

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Newsbazar 24:- প্রত্যন্ত আদিবাসী গ্রামের কয়েকজন খুদে খেলোয়াড়ের এক ফুটবল খেলার ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মাধ্যমে। তাদের স্কিল দেখে মুগ্ধ নেটিজেনেরা। একজন খালি পায়ে বলে একের পর এক শট মারছেন আবার একজন গোলে দাঁড়িয়ে শূন্যে ঝাঁপিয়ে গোল বাঁচাচ্ছেন। সত্যিই অসাধারণ এক দৃশ্য। ভিডিওতে এই দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হয়ে খুদে ফুটবলারদের খোঁজা শুরু করেন মালদহ জেলা পুলিশ। অবশেষে খুঁজতে খুঁজতে জানতে পারেন,
হবিবপুর থানার আইহো গ্রাম পঞ্চায়েতের উপর কেন্দুয়া আদিবাসী গ্রামে বাড়ি ওই খুদেদের। গোটা গ্রামের প্রায় ১০ থেকে ১১ জন খুদে নিয়মিত বাড়ির পাশের মাঠে নিজেদের মত করে ফুটবল খেলে। স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে নিয়মিত তারা খেলে। গ্রামের বড়দের মধ্যে মাঝে মধ্যেই মাঠে ফুটবল ম্যাচ হয়। সেই খেলা মনযোগ সহকারে দেখে এই খুদেরা। তারপর মাঠ ফাঁকা হলে বড়দের পুরাতন বল নিয়ে মাঠে নেমে পড়ে।
মিল্টন, শিবা, লক্ষণ বিকাশ এদের প্রত্যেকের মধ্যে ফুটবল খেলার আগ্রহ রয়েছে। তাই সোশ্যাল মাধ্যমে ভিডিও ভাইরাল হতেই খুদেদের ফুটবলে আরো উৎসাহিত করতে এগিয়ে আসল মালদহ জেলা পুলিশ। সোশ্যাল মাধ্যমে ভিডিও দেখে খুদেদের বাড়ির ঠিকানা খোঁজ করার নির্দেশ দেন জেলা পুলিশ সুপার প্রদীপ কুমার যাদব। সেই মত হবিবপুর থানার আইসি সুবীর কর্মকার নিজে খোঁজখবর নিয়ে উপরকেন্দুয়া গ্রামে গিয়ে খুদেদের একত্রিত করেন। শুক্রবার বিকেলে জেলা পুলিশ ও হবিবপুর থানার পুলিশের পক্ষ থেকে গ্রামের ১১ জন খুদে কে ফুটবল খেলার সামগ্রী প্রদান করা হয়। উপস্থিত ছিলেন মালদহ জেলা পুলিশের ডেপুটি পুলিশ সুপার ( আইনশৃঙ্খলা) মহম্মদ আজহারউদ্দিন, হবিবপুর থানার আইসি সুবীর কর্মকার সহ অন্যান্য পুলিশ কর্তা আধিকারিকেরা। ১১ জন শিশুকে জার্সি, ফুটবল খেলার জুতো ও ফুটবল দেওয়া হয়। আগামীতে তারা যেন আরো ভাল করে ফুটবল খেলায় মনযোগী হতে পারে সেই লক্ষ্যে জেলা পুলিশের এমন উদ্যোগ। মালদহ জেলা পুলিশ সুপার প্রদীপ কুমার যাদব বলেন, ছোট ছোট শিশুরা ভাল ফুটবল খেলছে। তাদের মধ্যে উৎসাহ বাড়াতে এমন উদ্যোগ।
ক্ষুদে আদিবাসী ফুটবলারদের ভাইরাল ভিডিও দেখে খেলার সামগ্রী দিয়ে উৎসাহিত করল জেলা পুলিশ