Share on whatsapp
Share on twitter
Share on facebook
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Kolkata news:বাম ছাত্র যুবর জনজোয়ারে ভাসলো কলকাতা শহরের প্রাণকেন্দ্র, উড়ে গেল নিষেধাজ্ঞা

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Newsbazar24:-লালের দখলে গোটা ধর্মতলা চত্বর ভিক্টোরিয়া হাউস পর্যন্ত। সিপিএমের যুব সংগঠন ডিওয়াইএফআই ও ছাত্র সংগঠন এসএফআইয়ের ডাকে ইনসাফ সভা শুরু হওয়ার কথা ছিল বেলা বারোটায় ধর্মতলা ট্রামডিপোর কাছে।
সেই মতো চেয়ার পেতে সাজানো হয়েছিল সভাস্থল। কিন্তু
কিন্তু তিনটে মিছিল যখন ধর্মতলায় পৌঁছল, তখন কার্যত লালে লাল শহরের প্রাণ কেন্দ্র। পুলিশের অনুমতিকে তোয়াক্কা না করে ভিক্টোরিয়া হাউসের সামনে অস্থায়ী মঞ্চ বেঁধে ফেলল বামেরা। আর সেখানে তারুণ্যের জয়জয়কার। চারিদিকে শুধু ছাত্র যুবদের মাথা। তাদের এই সমাবেশ ছিল আনিস হত্যার ইনসাফ, আন্দোলনরত চাকরী প্রার্থীদের চাকরীর দাবিতে।
মঙ্গলবার বামেদের ওই সভায় বক্তৃতা দেন সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সেলিম, রাজ্য সম্পাদক মীনাক্ষী, সিপিআইএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আভাস রায়চৌধুরী, এসএফআইয়ের রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্য, এসএফআইয়ের রাজ্য সভাপতি প্রতীকুর রহমান, এসএফআইয়ের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ময়ূখ বিশ্বাস, ডিওয়াইএফআইয়ের রাজ্য সভাপতি ধ্রুবজ্যোতি সাহা। এ ছা়ড়াও উপস্থিত ছিলেন নিহত ছাত্র নেতা আনিস খানের বাবা সালেম খান। তিনিও সভায় বক্তৃতা করেন। উপস্থিত ছিলেন, বরুণ বিশ্বাসের দিদিও।

প্রসঙ্গত তৃণমূল জমানায় রাজ্য সরকারের নির্দেশিকা ছিল ২১ জুলাই ভিক্টোরিয়া হাউস চত্বরে শুধু তৃণমূলই সভা করতে পারবে। কিন্তু এদিন ছাত্র যুবদের সমাবেশে সেই নির্দেশিকা ধূলায় লুটিয়ে গেল। কার্যত বিনা বাঁধায় তারা সেখানে জমায়েত করল। পুলিশ ছিল নিরব দর্শকের ভূমিকায়।
পাশাপাশি বাম ছাত্র-যুবদের বক্তব্য দু’মাস আগে এই জায়গায় তৃণমূল সভা করতে পারলে তারা কেন পারবে না। বিনা প্ররোচনায় নিজেদের শক্তি দেখাল সিপিএমের ছাত্র-যুবরা। তবে আগামীতে দেখার বামেদের এই ছাত্র যুবর জনজোয়ার কতখানি ভোট বাক্সে প্রতিফলিত হয়।

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Latest News