Mom Tips: নতুন মা হওয়ার পর এই ভুলগুলো অনেকেই করেন, এখন থেকেই শুধরে নিন নিজেকে! - Newsbazar24
সবার জন্য

Mom Tips: নতুন মা হওয়ার পর এই ভুলগুলো অনেকেই করেন, এখন থেকেই শুধরে নিন নিজেকে!

Mom Tips: নতুন মা হওয়ার পর এই ভুলগুলো অনেকেই করেন, এখন থেকেই শুধরে নিন নিজেকে!
  • Newsbazar24: মা হওয়ার পর নারীর জীবনে আসে নতুন দায়িত্ব। এই সময়ে, তারা অনেক বিষয়ে সচেতনও থাকে না এবং এমন পরিস্থিতিতে তারা কিছু ভুলও করে। এই প্রতিবেদনে, আমরা আপনাকে মায়েদের এমন কিছু ভুলের কথা বলছি, যা প্রায়শই নতুন মায়েরা করে থাকেন,বলা হয় মা এই পৃথিবীর সবচেয়ে সুখের অনুভূতি, কিন্তু যতক্ষণ না আপনি নিজে এই অনুভূতি অনুভব করবেন, ততক্ষণ আপনি এই সুখের কথা জানতে পারবেন না। আর প্রথমবার মা হওয়ার অনুভূতি আরও আলাদা। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই সময় বেশিরভাগ মহিলাই মা হওয়া বা মা হওয়া সম্পর্কে অনেক কিছুই জানেন না।

মায়ের সঙ্গে তার সন্তানের সম্পর্কটা খুবই নিবিড়।

মায়ের সঙ্গে মায়ের একটা অন্যরকম টান থাকে বলে একজন মা তাঁর সন্তানকে প্রথমবার দেখলে সেই মায়ের প্রসব যন্ত্রণা মুছে যায়। সন্তান জন্মাবার পরে মায়ের শরীর সম্পূর্ণ ভাবে সুস্থ হতে বেশ কিছুটা সময় লাগে। মায়ের জীবনে বিভিন্ন ওঠাপড়াও মধ্যে দিয়ে যেতে হয় যতক্ষণ

শিশুর মুখের দিকে তাকালে সব কঠিন পরিস্থিতি ম্লান হয় যায়।​আতঙ্কিত হবেন না

শিশুটি কথা বলতে পারে না, কান্নার মাধ্যমে সে তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করে। শিশুর কান্না দেখে প্রায়ই মায়েরা খুব অস্থির হয়ে পড়েন। তারা জানেন না যে কী করতে হবে বা কী ভাবে তাঁদের বাচ্চাকে শান্ত করতে হবে। কোনও কোনও মা শিশুকে একটানা কাঁদতে দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। আপনিও যদি নতুন মা হন, তাহলে আপনার খুব বেশি আতঙ্কিত হওয়ার দরকার নেই। আপনার সঙ্গে আপনার বাড়ির বড়রা অবশ্যই থাকবেন, আপনার শিশু কেন কাঁদছে তাঁদের একটা ধারণা থাকবে। তাঁদের সাহায্য নিয়ে আপনি আপনার শিশুকে শান্ত করতে পারেন।মা হওয়ার পর, শিশুকে খাওয়ানো অনেক সময় ক্লান্তিকর হয়ে ওঠে এবং অনেক সময় মায়েরাও এতে চাপে পড়েন। মহিলারা এই নতুন অভিজ্ঞতা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েন। ব্রেস্ট ফিডিং পাম্প দিয়েও খাওয়াতে পারেন। আবার শিশুর বোতলে ভোরেও রাখতে পারেন। এ সময় অন্য কেউ শিশুকে দুধ খাওয়াতে পারে।শিশুর মুখ, জিহ্বা, কান এবং নখ পরিষ্কার ২.৫ মাস পরে বা শিশু বিশেষজ্ঞের সঙ্গে কথা বলে শুরু করা উচিত। কিছু মায়েরা পরিবারের বড়দের পরামর্শ অনুসরণ করেন এবং শিশুর আড়াই মাস হওয়ার আগেই মৌখিক স্বাস্থ্যবিধি শুরু করুন। নইলে অকারণে শিশুর মানসিক চাপ সৃষ্টি করবে।

শিশুর জন্মের পর ঘুমের অভাব হয় মায়েদের। আর মায়েদের পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়া একটি বড় সমস্যা। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার শিশুর ঘুমের প্রশিক্ষণ দিতে শুরু করুন। এটি বাবা-মার পাশাপাশি সন্তানের জন্যও ভালো।

NewsDesk - 8

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news