চুক্তিকে দূরে সরিয়ে রেখে মুখ্য মন্ত্রীর হস্তক্ষেপে অবশেষে আইএসএলে খেলতে নামবে ইস্টবেঙ্গল, সমস্যা মিটলো কি ?এপ্রশ্ন কিন্তু থেকেই গেল।।। - Newsbazar24
খেলা

চুক্তিকে দূরে সরিয়ে রেখে মুখ্য মন্ত্রীর হস্তক্ষেপে অবশেষে আইএসএলে খেলতে নামবে ইস্টবেঙ্গল, সমস্যা মিটলো কি ?এপ্রশ্ন কিন্তু থেকেই গেল।।।

চুক্তিকে দূরে সরিয়ে রেখে মুখ্য মন্ত্রীর হস্তক্ষেপে অবশেষে আইএসএলে খেলতে নামবে ইস্টবেঙ্গল, সমস্যা মিটলো কি ?এপ্রশ্ন কিন্তু থেকেই গেল।।।

newsbazar 24 ::অবশেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হস্তক্ষেপে ইস্ট বেঙ্গলের আইএসএল খেলার জট কাটল ।  শ্রী সিমেন্ট এর পক্ষ থেকে জানানো হলো এবছর ইস্টবেঙ্গল আইএসএল খেলছে। বুধবার মুখ্যমন্ত্রীর আহবানে ইস্টবেঙ্গলের কর্মকর্তা ও শ্রী সিমেন্ট এর মধ্যে এক বৈঠক বসে নবান্নে ‌। বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা করেন, 'সমস্যা মিটে গিয়েছে। ইস্টবেঙ্গল আইএসএল-এ খেলছে। ইস্টবেঙ্গলের সমস্ত সমর্থক এবং কর্তাদের আমার শুভেচ্ছা। খেলা হবে। মোহনবাগান, ইস্টবেঙ্গল, মহমেডান সকলকেই বলছি, আমরা তোমাদের নিয়ে গর্বিত।' এ ব্যাপারে ক্রীড়া মহলের অভিমত,  শেষ অবধি যেন জয় হল ক্লাবকর্তাদের। ফাইনাল এগ্রিমেন্টে সইও হল না, এদিকে ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলাও নিশ্চিত করল লগ্নিকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্ট। আর এর জন্য আবারও ইস্টবেঙ্গল কর্তারা ঋণী হয়ে থাকলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কাছে। সংশয় কিন্তু থেকেই গেল আদৌ জট কাটল কি?  দীর্ঘ দিন ধরে জটে আবদ্ধ থাকা ফাইনাল এগ্রিমেন্ট কি অবশেষে সই হল? এগ্রিমেন্টে সই আপাতত স্থগিত থাকলো।

 মুখ্যমন্ত্রীর উপর ভরসা এবং তার অনুরোধেই ইস্টবেঙ্গলকে আইএসএলে খেলাবে  লগ্নিকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্ট। এদিনের আলোচনা থেকে একটা জিনিস পরিষ্কার আবারও এক বছরের জন্য দুই পক্ষ একসাথে মিলেমিশে কাজ করবে।  তবে তাদের আশা এই এক বছরের মধ্যে ফাইনাল এগ্রিমেন্ট চুক্তি নিয়ে কোন একটা পথ খুলবে ‌। কিন্তু সর্মথকরা এখনো দোলাচলে রয়েছেন ফাইনাল এগ্রিমেন্ট সই না হওয়ায় সমস্যাতো থেকেই গেল‌। এবারের আইএসএল শেষ হবার পর আগামী বছর আইএসএলে খেলা হবে কিনা সে নিয়ে আবার চিন্তা করতে হবে ।এত অল্প সময়ের মধ্যে বাতিল ফুটবলারদেরকে নিয়ে দল গঠন করে আবারো আইএসএলে গতবারের মতো হতাশাজনক পারফরম্যান্স দেখাবে ইস্ট বেঙ্গল ।এ খুশির মধ্যেও এই চিন্তা কিন্তু ঘুরপাক খাচ্ছে ফুটবল মহলে।

 

NewsDesk - 3

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news