হিন্দুদের বাড়ি ঘর জ্বালালেও আমরা বাংলাদেশেই ভালো আছি ! দাবি অনেক বাংলাদেশী নাগরিকের - Newsbazar24
বিশ্ব

হিন্দুদের বাড়ি ঘর জ্বালালেও আমরা বাংলাদেশেই ভালো আছি ! দাবি অনেক বাংলাদেশী নাগরিকের

হিন্দুদের বাড়ি ঘর জ্বালালেও আমরা বাংলাদেশেই ভালো আছি ! দাবি অনেক বাংলাদেশী নাগরিকের

হিন্দুদের বাড়ি ঘর জ্বালালেও আমরা বাংলাদেশেই ভালো আছি ! দাবি অনেক বাংলাদেশী নাগরিকের

গোবিন্দ বিশ্বাস, বাংলাদেশ (news bazar24) : আরও একবার হামলার শিকার হাসিনার দেশ বাংলাদেশের কুমিল্লায় হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ জ্বালিয়ে দেওয়া হল ১০টির বেশি হিন্দুদের ঘর-বাড়ি

বাংলাদেশের বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে গত ৩১ অক্টোবর ফেসবুকে মহম্মদের ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে ফরাসী প্রেসিডেন্টের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শঙ্কর দেবনাথ অনীক ভৌমিক ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে তাঁদের গ্রেফতার করে পুলিস জামিন অযোগ্য মামলাও হয় তাঁদের বিরুদ্ধে। কিন্তু    

তার পরেও অশান্তি থামেনি,থামাতে পারেনি হিন্দু দরদি হাসিনা প্রধান মন্ত্রী ইসলাম অবমাননার অভিযোগে ওই দুজনের পাশাপাশি বাকি হিন্দুদের ঘরবাড়ি ভেঙে দিল উন্মত্ত জনতা লাগিয়ে দেওয়া হয় আগুন ১০টিরও বেশি বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত করা হয় বাড়ির মা বোনেদের উপর অত্যাচার।বলা বাহুল্য,   

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশ অনেকেটাই এগিয়ে।আর সামাজিক যোগাযোগে   গুজব ছড়িয়ে হিংসার ঘটনা বাংলাদেশে নতুন নয়  কিছুদিন আগে লালমনিরহাটে এক ব্যক্তিকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে পিটিয়ে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয় ২০১৬ সালে কুমিল্লার নাসিরনগরে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে হিন্দুদের মন্দির বাড়িঘরে হামলা চালানো হয়েছিল 

এদিকে বাংলাদেশের হিন্দুদের দাবি।আমরা এখনও বলবো বাংলাদেশেই আমরা ভালো আছি। কারন আমরা জানি এটাই স্বাভাবিক। যেখানে ভারতের কোন চিত্রকর কোন হিন্দু দেবির ন্যাংটা ছবি আঁকলে পুরুস্কার দেওয়া হয়।সেই দেশের বুদ্ধিজীবীরা ভাত আর মাছের মাথা চিবিয়ে সেই শিল্পিকে সম্বর্ধনা দিতে রাস্তায় বের হয়।শিল্পির উপর অত্যাচার তো দুরের কথা সামান্য আপত্তি জানালেই মোমবাতি নিয়ে রাস্তায় হাঁটেন অন্য ধর্মের মানুষকে পিটিয়ে মাড়লে দেশ জুড়ে আগুন জ্বলে। আর আমাদের বাংলা দেশে দুইজন হিন্দু সামাজিক মাধ্যমে কিছু মতামত দিলে বাকি হিন্দুদের বাড়ি ঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়। মা বোনদের রাস্তায় টেনে নামানো হয়। তাও আমরা বাঙলা দেশে ভালো আছি। কারন আমারা জানি আমারা হিন্দু দেশে বাস করি, আমাদের জন্য কোন অহিন্দুরা মোমবাতি নিয়ে গিরগিটির মত রঙ বদলে রাস্তায় হাঁটবে না।এখান কার হিন্দুরা পার্টির দোহাই দিয়ে ‘’মৃত বাবা মার সাধ্য করবে না, কিন্তু বৌ এর দাঁত খিঁচুনির ভয়ে লুকিয়ে লক্ষ্মী পুজা করবে’’ –এমন কাজ এখানকার হিন্দুরা করেনা।তাই ভারতের কোন সাহায্য আমাদের চাইনা।এদিকে বাংলাদেশ সরকারের দাবি, কোন কোন গোষ্ঠী হিংসা ছড়িয়ে অস্থিরতা তৈরি করতে চাইছে উস্কানিদাতাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছেতাই দুই জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে যারা বাড়ি ঘর জালালো তাঁদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়া হলো সেই বিষয়ে মুখ খুলেননি বাংলদেশ সরকার

( আমরা কোন ধর্মের বিরুদ্ধে নয়। প্রত্যেক মানুষ তার ধর্মকে বিশ্বাস ও সন্মান করবে এটাই স্বাভাবিক।কিন্তু আমরা স্বার্থের জন্য মুখোশ ধারিদের বিরুদ্ধে ছিলাম, আছি এবং থাকবো )  

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news