স্বাস্থ্য

হঠাৎ ব্লাড প্রেসার বা রক্ত চাপ কমে গেলে ওষুধ ছাড়া কি ভাবে নিয়ন্ত্রণ করবেন ?

হঠাৎ ব্লাড প্রেসার বা রক্ত চাপ কমে গেলে ওষুধ ছাড়া কি ভাবে নিয়ন্ত্রণ করবেন ?

         কারণে হঠাৎ ব্লাড প্রেসার বা রক্ত চাপ কমে গেলে কি করবেন ?

-     ডাঃ কৈলাস গুপ্ত

অতিরিক্ত পরিশ্রম, দুশ্চিন্তা, ভয় ও স্নায়ুর দুর্বলতা ইত্যাদির কারণে হঠাৎ ব্লাড প্রেসার বা রক্ত চাপ কমে যায়। প্রেসার কমলে মাথা ঘোরা, ক্লান্তি, অজ্ঞান হয়ে যাওয়া, বমি বমি ভাব, বুক ধড়ফড়, অবসাদ, দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যাওয়া এবং স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে অসুবিধা হতে দেখা দেয়। এ সমস্ত লক্ষণ দেখা দিলে বাড়িতেই প্রাথমিক কিছু জরুরী পদক্ষেপ নেয়া দরকার। এতে তাৎক্ষণিকভাবে প্রেসার নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব। আসুন দেখে নেয়া যাক কি করলে কমে যাওয়া ব্লাড প্রেসার স্বাভাবিক করা যায়।

১. লবণে আছে সোডিয়াম, যা রক্তচাপ বাড়ায়। তবে বেশি লবণ না খাওয়াই ভালো। সবচেয়ে ভালো হয়, এক গ্লাস পানিতে দুই চা-চামচ চিনি ও আধা চা-চামচ লবণ মিশিয়ে খেলে। তবে ডায়াবেটিস থাকলে চিনি বাদ দিন।খাবার স্যালাইন খেলেও প্রেসার স্বাভাবিক হয়।

২. আদিকাল থেকেই যষ্টিমধু বিভিন্ন রোগের মহৌষধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এক কাপ জলে এক টেবিল চামচ যষ্টিমধু দিয়ে পান করুন। এছাড়া, দুধে মধু দিয়ে খেলেও উপকার পাবেন।

 

৩. হাইপার টেনশনের ওষুধ হিসেবে প্রাচীনকাল থেকে ব্যবহৃত হয়ে আসছে কিসমিস। আধা কাপ কিসমিস সারা রাত জলে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে খালি পেটে কিসমিস ভেজানো জল খেয়ে নিন। এছাড়া, পাঁচটি কাঠবাদাম ও ১৫ থেকে ২০টি চিনাবাদাম খেতে পারেন।

 

৪. স্ট্রং কফি, হট চকোলেট এবং যেকোনো ক্যাফেইন সমৃদ্ধ পানীয় দ্রুত ব্লাড প্রেসার বাড়াতে সাহায্য করে। ফলে হঠাৎ করে লো প্রেসার দেখা দিলে এক কাপ কফি খেয়ে নিতে পারেন।

 

৫. ভিটামিন সি’, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম ও প্যান্টোথেনিক উপাদান যা দ্রুত ব্লাড প্রেসার বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে মানসিক অবসাদও দূর করে। পুদিনাপাতা বেটে এতে মধু মিশিয়ে পান করলে কাজে দেবে।

 

৬. বিটের রস হাই ও লো প্রেসার- উভয়টির জন্য সমান উপকারী। এটি রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে ভূমিকা রাখে। এভাবে এক সপ্তাহ খেলে উপকার পাবেন।

Shankar Chakraborty

aappublication@gmail.com

Editor of AAP publicaltions



Post your comments about this news