সোশ্যাল মিডিয়ায় বৃদ্ধর দুর্দশার কাহিনী জানতে পেরে পাশে দাঁড়াবার সিদ্ধান্ত স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের - Newsbazar24
মালদা

সোশ্যাল মিডিয়ায় বৃদ্ধর দুর্দশার কাহিনী জানতে পেরে পাশে দাঁড়াবার সিদ্ধান্ত স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের

সোশ্যাল মিডিয়ায় বৃদ্ধর দুর্দশার কাহিনী জানতে পেরে পাশে দাঁড়াবার সিদ্ধান্ত স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের

 

মহম্মদ নাজিম আক্তার,Newsbazar 24:  একমাত্র সম্বল ছিল এক চিলতে মাটির ঘর। মাটির দেওয়ালের  উপরে টালির ছাউনি। সেখানেই বসবাস করতেন রতুয়া-১ নং ব্লকের সামসী পঞ্চায়েতের ভগবানপুর গ্রামের বৃদ্ধ নরেন মন্ডল। বৃহস্পতিবার প্রবল বর্ষণে তার একমাত্র শোবার ঘরটি ভেঙে পড়ে।  সোশ্যাল মিডিয়ায় বৃদ্ধ নরেন মন্ডলের দুর্দশার কাহিনী জানতে পেরে তার পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষর  স্বামী  যোগাযোগ করেন সামসি অঞ্চলের তৃণমূল নেতৃত্ব ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে। সবার সাথে আলোচনা সেরে শুক্রবার সকালে রওনা দেন নরেন মন্ডলের বাড়ি। সঙ্গে নিয়ে যান ৫০ কেজি চাল, ১০ কেজি ডাল, লুঙ্গি, শাড়ি, জামা। এছাড়াও কিছু নগদ আর্থিক সাহায্য দিয়ে পাশে দাঁড়ান নরেন মন্ডলের। এত দ্রুত সাহায্য পেয়ে খুশিতে দুচোখ বেয়ে জল ঝরে পড়ে নরেন মন্ডলের। তিনি ভেজা গলায় জানান, একমাত্র শোবার ঘরটি গত বৃহস্পতিবার দিনের বেলা ধ্বসে পড়ে যায়। ভাগ্যিস দুর্ঘটনার সময় সেখানে কেউ ছিলেন না। নইলে হয়তো মাটি চাপা পড়ে মারা যেতেন। তারপর থেকে পুরো ২৪ ঘণ্টা কাটাতে হয়েছে খোলা আকাশের নিচে। তৃণমূল নেতাদের কাছ থেকে এই সাহায্য পেয়ে তিনি আপ্লুত। নরেনবাবু তাদের কাছে আবদার করেন তার যদি একটি পাকা ঘরের ব্যবস্থা করা হতো তাহলে জীবনের বাকি সময়টুকু হয়তো সেখানে নিরাপদে বসবাস করতেন। তার কথা শুনে মালদা জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ পায়েল খাতুনের স্বামী ও তৃণমূল নেতা শেখ ইয়াসিন জানান, পঞ্চায়েত সমিতি বা জেলা পরিষদের মাধ্যমে তাকে একটি পাকা ঘর করে দেওয়া হবে। এদিনের প্রতিনিধি দলে  ছিলেন জেলা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি মুশারফ হোসেন, পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য নাজমুল হক, আবদুল তোয়াফ, ছাত্রনেতা আবদুস সামাদ, মিসবাহুল হক, জুবায়ের সহ অনেকেই।

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news