সান্তাক্লজের আসল পোশাকের রং কিন্ত লাল নয়। কি ছিলো সান্তা দাদুর আসল নাম ?কোথায় থাকতেন তিনি ? - Newsbazar24
ধর্ম কথা

সান্তাক্লজের আসল পোশাকের রং কিন্ত লাল নয়। কি ছিলো সান্তা দাদুর আসল নাম ?কোথায় থাকতেন তিনি ?

সান্তাক্লজের আসল পোশাকের রং কিন্ত লাল নয়। কি ছিলো সান্তা দাদুর আসল নাম ?কোথায় থাকতেন তিনি ?

শঙ্কর চক্রবর্তী, (newsbazar24) 

আজ বড় দিন। খুশির দিন। বাচ্চাদের গিফট পাওয়ার দিন। সান্তা দাদুর সাথে দেখা করার দিন। ছোট বয়স থেকেই আমাদের মনে সান্তা ক্লজ কে নিয়ে নানা কৌতূহল লুকিয়ে থাকে। সান্তা ক্লজ কোথায় থাকে হথাত করে আজকের দিনে চলে আসে। আবার আজকের দিনেই চলে যায় ,এই রকম হাজার প্রশ্ন । আমি বিভিন্ন ওয়েব সার্ফিং করে এবং চার্চের সাথে যুক্ত মানুষদের সাথে কথা বলে যা জানতে পেরেছি। তা তুলে ধরার চেষ্টা করছি-সান্তাক্লজকে ঘিরে রয়েছে একাধিক ঘটনা ও কাহিনী।

১) চারের শতকে তুরস্কে নিকোলাস ক্রিস্টাননামের এক ধর্মগুরু ছিলেন। তাঁর অনেক নাম ছিলো,কেউ ডাকতেন  সেন্ট নিকোলাস,কেউ  ফাদার ক্রিসমাস, ক্রিস কিংগল বা সান্টা। তিনি খুব বড় লোক ছিলেন কিন্তু তাঁর সমস্ত সম্পত্তি গরিবদের দান করে দিয়েছিলেন। পর্তুগিজ ভাষায় তাঁকে সেন্টার ক্লাস বলা হতো। এই নাম থেকেই তাঁকে আদর করে পরবর্তী কালে সান্তাক্লজ বলে ডাকা শুরু হয় ।তবে সান্তার জন্মস্থান ,বাড়ি তাঁর কাজ ও কাহিনির বহু ভিন্ন তথ্য পাওয়া যায়। কেও কেও  তাঁকে উত্তর মেরুর বাসিন্দা আবার কোথাও তাঁকে ফিনল্যান্ডের ল্যাম্পল্যান্ড প্রদেশের নাগরিক বলে ব্যখ্যা করা হয়েছে।

২)  সান্তাক্লজের আসল পোশাকের রং প্রথমে লাল ছিল না।তিনি সাদা পোশাক পড়তেন।একটি বিজ্ঞাপনের জন্য ১৯৩০ সালে কোকাকোলা কোম্পানি সান্তাক্লজের ছবি ব্যবহার করা করে। তখনই সান্তাক্লজের পোশাকে রং কোকাকোলার অফিশিয়াল রং লাল-সাদার সঙ্গে মিলিয়ে লাল-সাদা করে দেওয়া হয়।আর তখন থেকেই সান্তা ক্লজ লালসাদা সাদা চুল দাড়ির রুপে সবার মনে গেঁথে যায়।

৩) রোমে এক জন গরিব মানুষ ক্রিসমাসের আগের দিন রাতে তাঁর বাড়ির ফায়ার প্লেসের পাশে ভেজা মোজা শুকোতে দিয়েছিলেন। সকালে উঠে তিনি দেখেন ওই মোজা মধ্যে বেশ কিছু সোনার কয়েন। তার পর থেকেই সাধারণের মধ্যে এই ধারণা জন্মায় যে ক্রিসমাসের দিন বাড়ির মোজা ঝুলিয়ে রাখলে সান্তাক্লজ এসে তাতে উপহার রেখে যাবেন।

৪) জিঙ্গেল বেল গানটি কিভাবে জন্ম নিলো জানেন ?এই গানটি কিন্তু ক্রিসমাস উপলক্ষ্যে বানানো হয়নি । আসলে এই গানটি ছিল ওয়ান হর্স ওপেন স্লেজ। থ্যাংকস গিভিং-এর জন্য এটি গাওয়া হয়েছিল। যা পরে এই গানটিও খুবই জনপ্রিয় হয়ে যায়। তখনই এর কথা বদলে শুর ঠিক রেখে জিঙ্গেল বেল গানটির কথা বসানো হয়। এবং গানটিকে ক্রিসমাসের আনুষ্ঠানিক গান হিসাবে বেছে নেওয়া হয়।যা ছোটোদের খুব প্রিয় গান ও রাইমস হিসেবে জায়গা করে নেয়।

NewsDesk - 1

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news