সরস্বতী পূজার আগে কুল না খাওয়া রীতি না কুসংস্কার? - Newsbazar24
স্বাস্থ্য

সরস্বতী পূজার আগে কুল না খাওয়া রীতি না কুসংস্কার?

সরস্বতী পূজার আগে  কুল না খাওয়া রীতি না  কুসংস্কার?

ঋতুপর্না সাহা,newsbazar 24: ছোটবেলা থেকেই এই ধারণার বশবর্তী অনেকেই বিশেষত স্কুল পড়ুয়ারা । পরীক্ষায় ফেল করার ভয় থেকে বাঁচতে বেশিরভাগ পরুয়ারা পূজার আগে কুল না খাওয়ার প্রতিজ্ঞা  । বহু সুস্বাদু এই ফলের লোভ সামলে পূজা পর্যন্ত অপেক্ষা থাকে অনেকের । অনেকে আবার মা সরস্বতীর প্রতি ভক্তি নিবেদনের উপায় ও মনে করে থাকেন । আসলে এক একজনের এক এক মতবাদ এই কুল খাওয়া নিয়ে । এমন ও কিছুজন আছে যারা আবার পুরো এই ব্যাপারটাকেই অস্বীকার করেন । তবে হ্যাঁ কিছু Scientifical এবং কিছু আধ্যাত্মিক ব্যাপার তো রয়েছেই এর পেছনে ।

শাস্ত্রে খাওয়ার বিষয়ে বহু বচনের মধ্যে একটি এই যে – “ বার্তাকু কার্তিকে বরজ্যং মুলং বা বদরং মাঘে “ ।চৈত্রে শিম্বী পুন্সতুম্বি ভাদ্রে বরজংদিজাতিভিহ । অর্থাৎ দিজাতিগন কার্তিকে বেগুন , মাঘে মুলো বা কুল, চৈত্রে সিম এবং ভাদ্রে গোলাকার লাউ খাবেন না ।

সাস্থগত কারনে  পুজার আগে কুল না খাওয়াই ভাল কারন মাঘ মাসের মাঝামাঝি সময়ের আগে কুল কাঁচা এবং কশ যুক্ত থাকে । কাঁচা কুল খেলে শরীর খারাপ করতে পারে এমনকি acidity হতে পারে । খুসখুসে কাশির সৃষ্টি হতে পারে এই কাঁচা কুলের জন্য । এবারে জেনে নি এর ধর্মীয় কারণ – একবার সরস্বতী দেবীকে তুষ্ট করতে মহামুনি ব্যাসদেব বদ্রিকা আশ্রমে তপস্যা করছিলেন । তার তপস্যা স্থলে একটি কুল বীজ রেখে দিয়ে দেবী শর্ত দেন যতদিন না এই কুল বীজ অঙ্কুরিত হয়ে কুল বড় হয়ে পেকে পেকে ব্যাসদেবের মাথায় পড়বে ততদিন দেবীর তপস্যা করতে হবে । ব্যাসদেব সমস্ত শর্ত মেনেই তপস্যায় বসেন এবং যে দিন পাকা কুল তাঁর মাথায় এসে পড়ে সেই দিনটি ছিল পঞ্চমি । তাই বাগদেবীর পুজার আগে কুল খাওয়া হয় না ।

NewsDesk - 3

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news