শুভ মহালয়া কেন? - Newsbazar24
মহালয়া

শুভ মহালয়া কেন?

শুভ মহালয়া কেন?

ওঁ পিতা স্বর্গঃ পিতা ধর্ম পিতা হি পরমন্তপঃ ।।পিতরি প্রীতিমাপন্নে প্রীয়ন্তে সর্বদেবতাঃ ।।''

পিতৃপক্ষ হল  পিতৃপুরুষের উদ্দেশ্যে  শ্রাদ্ধ ও তর্পণ করার অনুষ্ঠান বা রীতি । অন্য দিকে এই পক্ষ জিতিয়া মহালয়াপক্ষ, ষোলোশ্রাদ্ধ, কানাপাত,   নামেও পরিচিত।

প্রধানতঃ দক্ষিণ ও পশ্চিম ভারতে গণেশ উত্‍সবের পরবর্তী পূর্ণিমা তিথিতে এই পক্ষ শুরু হয় । শেষ হয় মহালয়া অমাবস্যা তিথিতে। অন্যদিকে, উত্তর ভারত ও নেপালে ভাদ্রের পরিবর্তে আশ্বিন মাসের কৃষ্ণপক্ষকে পিতৃপক্ষ বলা হয়।

জলদানের মাধ্যেমে পিতৃলোকের আত্মার শান্তি কামনাই  হল তর্পণ বিধি।পিতৃপক্ষে 'পুত্র বিনা মুক্তি নাই'। পুত্র কর্তৃক শ্রাদ্ধানুষ্ঠান হিন্দুধর্মে অবশ্য করণীয় একটি অনুষ্ঠান। হিন্দু শাস্ত্র মতে, অনুপবীত দ্বিজাতি, অসংস্কৃত শূদ্র ও স্ত্রীলোকের তর্পণ করবার অনুমতি নেই। কেবলমাত্র প্রেততর্পণে অদিকার রয়েছে।কিন্তু বিধবা, পুত্র পৌত্রের অভাবে স্বামী-শ্বশুর ও শ্বশুরের পিতা এই তিন পুরুষের মাত্র তর্পণ করতে পারেন।

মহালয়া পক্ষ সাধারণত পনেরোটি তিথিতে বিভক্ত। সেগুলি হল, প্রতিপদ, দ্বিতীয়, তৃতীয়া, চতুর্থী, পঞ্চমী,ষষ্ঠী, সপ্তমী, অষ্টমী, নবমী,দশমী, একাদশী, দ্বাদশী, ত্রয়োদশী, চতুর্দশী ও অমাবশ্যা। হিন্দু বিশ্বাস অনুযায়ী, যে ব্যক্তি তর্পণে ইচ্ছুক হন, তাঁকে তাঁর পিতার মৃত্যুর তিথিতে তর্পণ করতে হয়।

সর্বপিতৃ অমাবস্যা দিবসে তিথির নিয়মের বাইরে সকল পূর্বপুরুষেরই শ্রাদ্ধ করা হয়।। যাঁরা নির্দিষ্ট দিনে শ্রাদ্ধ করতে ভুলে যান, তাঁরা এই দিন শ্রাদ্ধ করতে পারেন। এই দিন গয়ায় শ্রাদ্ধ করলে তা বিশেষ ফলপ্রসূ হয়। উল্লেখ্য, গয়ায় সমগ্র পিতৃপক্ষ জুড়ে মেলা চলে।। বাংলায় মহালয়ার দিন দুর্গাপূজার সূচনা হয়। লোকবিশ্বাস অনুযায়ী, এই দিন দেবী দুর্গা মর্ত্যলোকে আবির্ভূতা হন। মহালয়ার দিন অতি প্রত্যুষে চণ্ডীপাঠ করার রীতি রয়েছে।। আশ্বিন শুক্লা প্রতিপদ তিথিতে দৌহিত্র মাতামহের তর্পণ করেন।

 

 

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news