রামনবমী পুজোতে ভিড় জমাতে বাঁধা পুলিশের। কলকাতা থেকে জেলা একই চিত্র সব জায়গায় - Newsbazar24
কলকাতা

রামনবমী পুজোতে ভিড় জমাতে বাঁধা পুলিশের। কলকাতা থেকে জেলা একই চিত্র সব জায়গায়

রামনবমী পুজোতে ভিড় জমাতে বাঁধা পুলিশের। কলকাতা থেকে জেলা একই চিত্র সব জায়গায়

রামনবমী পুজোতে ভিড় জমাতে বাঁধা পুলিশের। কলকাতা থেকে জেলা একই চিত্র সব জায়গায়

   News bazar24 :   কলকাতায় গিরিশ পার্ক থানা এলাকায় রামনবমী পালনে  রামমন্দিরে বৃহস্পতিবার দুপুরবেলায় প্রায় ৫০ থেকে ৬০ জন মানুষ ভিড় করেন। যদিও পুলিশ খবর পেয়েই মন্দিরের সামনে হাজির হয়ে যায়। মন্দিরে জড়ো হওয়া দর্শনার্থীদের বাড়ি যেতে বলে। অন্যদিকে, বালুরঘাটের রঘুনাথপুর এলাকায় রামনবমীর মেলা বসেছিল। সকাল থেকেই কয়েকশো মানুষ এই মেলায় যোগ দেন। মেলায় পুজো কমিটির তরফে বলা হয় এই মেলায় এলে নাকি করোনা সংক্রমণ হবে না। এই গুজবের জেরে আশপাশের বহু মানুষ ভিড় করেন। বেলা বাড়তেই মেলায় জমায়েতের বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসে। জেলা পুলিশের বড় বাহিনী এসে মেলা বন্ধ করে দেয়। উদ্যোক্তাদের সঙ্গে পুলিশের তর্কাতর্কিও হয়। অতিরিক্ত জেলাশাসক (‌ভূমিরাজস্ব)‌ প্রণব ঘোষ জানান, সরকারের নির্দেশে যে কোনও ধরনের জমায়েতে প্রশাসন সতর্ক। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা হয়েছে। এদিন কলকাতায় রামমন্দিরে সকাল থেকে স্থানীয় বেশ কিছু মানুষ যাতায়াত করছিলেন। অনেকেই বাইক ও গাড়ি নিয়ে এসেছিলেন। পুলিশ লক্ষ করার পর তাদের বলে, এখন জমায়েত করা যাবে না। খানিক কথা কাটাকাটি হয়। পরে ভিড় ফাঁকা হয়ে যায়।
পূর্ব বর্ধমানের টাউন হলময়দানে রামনবমীর বড় জমায়েত এবার হয়নি। তবে জেলার ১৮টি জায়গায় পুজো হয়েছে। পুরুলিয়া শহরের বিভিন্ন মন্দিরে পুজো দিতে আসেন মানুষ। পুরোহিত জানিয়ে দেন নিদিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে যাঁরা দাঁড়াবেন একমাত্র তাঁদেরই পুজো নেওয়া হবে। তবে, প্রশাসন সতর্ক থাকায় কোনও ধরনের বড় জমায়েত হয়নি।
এবছরও পূর্ব বর্ধমানে ব্যাপক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল রামনবমী পালনে। কিন্তু প্রশাসন থেকে নিষেধ করায় সেই মূল অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই হাতেগোনা কয়েকজনকে নিয়ে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ভাতার, মেমারি, জৌগ্রাম, খানা জংশন ও বর্ধমান শহরের বিভিন্ন এলাকায় নিয়ম রক্ষার রামনবমী পুজো করা হয়েছে। পুলিশ কোথাও জমায়েত করতে দেয়নি। পুরুলিয়া শহরের বিভিন্ন মন্দিরে বৃহস্পতিবার রামনবমীর পুজো দিতে এসেছেন মানুষ। এদিন পুরুলিয়ার গোশালা হনুমান মন্দির, দশেরবাঁধ পাড়া মন্দিরে দেখা যায় মানুষের ভিড়।‌ 
এছাড়াও বিক্ষিপ্তভাবে কয়েকটি জেলায় মানুষ রামমন্দিরে পুজো দিতে গিয়েছিলেন। মন্দিরে ভিড় বা জমায়েত করতে দেয়নি পুলিশ। ‌

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news