মালদহে করোনা আক্রান্ত দুইজন সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরলেন। - Newsbazar24
মালদা

মালদহে করোনা আক্রান্ত দুইজন সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরলেন।

মালদহে করোনা আক্রান্ত দুইজন সুস্থ  হয়ে ঘরে ফিরলেন।

 

Newsbazar 24   এদিন পুরাতন মালদার কোভিড হাসপাতাল থেকে  করোনা আক্রান্ত দুইজন সুস্থ  হয়ে ঘরে ফিরলেন এরমধ্যে একজন মঙ্গলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের জলঙ্গা গ্রামের অপরজন মুচিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ইংলিশটোলা গ্রামের বাসিন্দা যদিও মঙ্গলবাড়ির বলাতলি গ্রামের একজন আক্রান্ত এখনও কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন

উল্লেখ্য এই মাসেই  করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছিল পুরাতন মালদহের  মঙ্গলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের জলঙ্গা বলাতলি গ্রামে দুজন পরিযায়ী শ্রমিকের ১২ মে তাঁদের পুরাতন মালদার কোভিড  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর তিনদিন পর মুচিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ইংলিশটোলা গ্রামের আরও এক পরিযায়ী শ্রমিকের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ায় তাঁকেও ১৫ মে কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়

তবে কোভিড হাসপাতাল সূত্রে খবর, তাঁরা প্রত্যেকেই ছিলেন করোনা উপসর্গহীন। যদিও করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার পরই পুরাতন মালদার ওই গ্রামগুলিতে আতঙ্ক ছড়ায়। পুলিশের তরফে সিল করে দেওয়া হয় গ্রামগুলি। করোনা আতঙ্কের জেরে জলঙ্গায় বেহুলা নদীর সেতু ভেঙে ফেলার ঘটনাও ঘটে। এমনকি জলঙ্গার আক্রান্ত ব্যক্তি বাজারে ঘোরাফেরা করেছিলেন বলে মঙ্গলবাড়ি শরৎচন্দ্র মিনি মার্কেটও সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছিল। তবে অবশেষে করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে জয়ী হয়ে ঘরে ফিরলেন জলঙ্গা ইংলিশটোলার দুই ব্যক্তি

কোভিড হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৮ মে তাঁদের লালার নমুনা রিপিট টেস্টের জন্য মালদা মেডিকেলের ভিআরডিএলে পাঠানো হয়। ২০ মে রাতে সেই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপর ২১ মে সন্ধ্যায় ওই দুজনকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হয়। যদিও বাড়ি গিয়ে ১৪ দিনের হোম কোয়ারান্টিনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁদের

অন্যদিকে, পুরাতন মালদার দুজন আক্রান্ত করোনা মুক্ত হলেও বলাতলির আক্রান্তের রিপিট টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসে বলে খবর। তাই তাঁকে কোভিড হাসপাতালেই রাখা হয়েছে। পুরাতন মালদা ছাড়াও মানিকচকের দুজন, ইংলিশবাজারের কেতুয়ালীর ১ জন  এবং এ বং কালিয়াচক- এর জালালপুরের  ১ জনের  রিপিট টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় তাঁদেরও ছাড়া হয়। বর্তমানে পুরাতন মালদার কোভিড হাসপাতালে মোট ১২ জন আক্রান্তের চিকিৎসা চলছে

NewsDesk - 3

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news