ভারতের সর্বোচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তি কে ? একটি বিশেষ প্রতিবেদন - Newsbazar24
বিশেষ প্রতিবেদন

ভারতের সর্বোচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তি কে ? একটি বিশেষ প্রতিবেদন

ভারতের সর্বোচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তি কে ? একটি বিশেষ প্রতিবেদন

  প্রিয়া চক্রবর্তী,( news bazar24):   আশা করি আপনাদের অনেকেরই জানা নেই শ্রীকান্ত জিচকার এর সম্বন্ধে। লিমকা বইয়ের রেকর্ড অনুযায়ী তিনি ভারতের সবথেকে শিক্ষিত ব্যক্তি। তিনি  1954 খ্রিস্টাব্দের  14 সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেছিলেন মহারাষ্ট্রের একটি ছোট্ট শহর কেটলে।

জিচকার মাত্র 18 বছর বয়সে নিজের শিক্ষাযাত্রা শুরু করেন। তিনি তার জীবনের শীত-গ্রীষ্ম সবই পড়াশুনায় অতিবাহিত করেছেন। তিনি বেশিরভাগ পরীক্ষায় প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং বেশ কয়েকটি স্বর্ণপদক দ্বারা সম্মানিত হয়েছেন।

তিনি MBBS,  LLB, MBA, DBM এবং সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর লাভ করেন,শুধু এতেই থেমে থাকেননি,পরবর্তীকালে তিনি সোশিয়লজি,দর্শনশাস্ত্র ,প্রত্নতত্ত্ব ,মনস্তত্ত্ব এবং ইংরেজি সাহিত্যের উপর নিজের মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। শুধু তাই নয়,তিনি জ্যোতিষ বিদ্যায় উপাধি লাভ করেন,সংস্কৃততে ডি লিট নামক একটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন এবং পরবর্তীকালে মহারাষ্ট্রে সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেন।

কিছুদিন IAS পদে থাকার পরেই তিনি IS পদের পরীক্ষায় যোগদান করেন এবং তাতে সফলতা লাভ করেন। তিনি তার জীবনকালে 28 টি স্বর্ণপদকের দ্বারা সম্মানিত হয়েছেন।

আশির দশকের গোড়ার দিকে বিধানসভা নির্বাচনে তিনি জয়লাভ করেন এবং দেশের সবচেয়ে কনিষ্ঠ MLA হিসাবে নির্বাচিত হন এবং তার কিছু বছর পর তাকে রাজ্যসভার সদস্য পদে নিয়োগ করা হয়। তিনি মহারাষ্ট্র সরকারের রাজ্য মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন,যদিও হাজার 1999 খ্রিস্টাব্দে হওয়া রাজ্যসভা নির্বাচনে তিনি বিফল হন।কিন্তু পরবর্তীকালে তিনি UNESCO তে ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন।

2000 সালে তিনি ফ্যালসিপেরাম নামক একটি রোগে আক্রান্ত হন,সেটির চিকিৎসা চলাকালীন তার টিউবারকুলোসিস ধরা পড়ে এবং তার শরীরের অবনতি ঘটলে তাকে নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। যেখানে ধরা পড়ে  যে তিনি একটি বিরল ধরনের ক্যান্সারে আক্রান্ত। চিকিৎসকরা বলেন যে তিনি মাত্র পনের দিনের অতিথি। কিন্তু রোগীর সাথে লড়াই করে তিনি খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ওঠেন।

কিন্তু নিয়তি তার জন্য অন্য কিছু অন্য কিছু  পরিকল্পনা করে রেখেছিল। তাই 2004 সালের 2সরা জুন একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় তার মৃত্যু হয়।

শুধু একমাত্র ভগবানই জানেন যে ভারত কতও মহান একটি শিক্ষাবিদকে হারিয়েছেন কিন্তু তার সফলতা এবং কর্ম সারা ভারতের কাছে অনুপ্রেরণ যোগ্য হয়ে থাকবে।

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news