ক্রিকেট

বাংলাদেশকে ২৮ রানে হারিয়ে সেমিফাইনালে ভারত

বাংলাদেশকে ২৮ রানে হারিয়ে সেমিফাইনালে ভারত

গতকাল মঙ্গলবার  ভারত এজবাস্টনে যেভাবে শুরু করেছিল  তাতে তামাম ভারতবাসী মনে করেছিল ভারতের রান  ৩৫০ পেরিয়ে যাবে রোহিত শর্মা কেএল রাহুলের মধ্যে ১৮০ রানের পার্টনারশিপ  যা এখনও পর্যন্ত এই বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ অন্যদিকে, ইংল্যান্ডের পর বাংলাদেশের বিরুদ্ধেও সেঞ্চুরি করলেন রোহিত শর্মা একই বিশ্বকাপে ৪টি সেঞ্চুরি করে  সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে পেরিয়ে গেলেন হিটম্যান ছুঁলেন শ্রীলঙ্কান লেজেন্ড কুমার সাঙ্গাকারাকে ৯২ বলে ১০৪ রান করে তিনি আউট হন ৯২ বলে ৭৭ রাব করে রোহিতকে যোগ্য সঙ্গত দেন কেএল রাহুল
    কিন্তু এই  মিডল অর্ডার নিয়ে  ভারতকে যে  সমস্যায় পড়তে হবে তা  আর একবার  বুঝতে পারলেন  বিরাট কোহলি টিম ম্যানেজমেন্ট কখনও দুই ওপেনার তো কখনও বিরাট কোহলি (Virat Kohli) খেলে দিচ্ছেন প্রথম তিন জন ফ্লপ করলে যে বাকিরা ভারতের ব্যাটিংকে ভরসা দিতে পারবেন এমন কোনও ইঙ্গিত এখনও পাওয়া যায়নি বাংলাদেশের বিরুদ্ধেও আরও একবার তার প্রমান মিলল হাতে নাতে  ভাগ্যিস লোকেশ রাহুল   রোহিত শর্মার ওপেনিং জুটি ১৮০ রানের ভিত তৈরি করে দিয়েছিল না হলে যে সমস্যায় পড়তে হত তা পরিষ্কার দিন ব্যাট হাতে ফ্লপ বিরাট কোহলিও পন্থ কিছুটা রান করলেও ভরসা দেওয়ার মতো কিছু করেননি ভারতের ৩১৫ রানের লক্ষ্যে দারুণ লড়াই দিল বাংলাদেশ কিন্তু শেষরক্ষা হল না ২৮ রানে হেরে বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেল বাংলাদেশের 

বার্মিংহ্যামের এজবাস্টনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বিরাট কোহলি। এই মাঠের অভিজ্ঞতা বলছে পরের দিকে রানের গতি মন্থর হয়ে যায়। তাই প্রথমে ব্যাট করে যতটা সম্ভব রান তুলে নেওয়া। তবে ভারতের দুই ওপেনার ছাড়া বাকিরা প্রথমে ব্যাট করার সুযোগ নিতে পারল না

৯২ বলে ৭৭ রানের ইনিংস খেললেন লোকেশ রাহুল। নিজের ইনিংস নিয়ে সন্তুষ্ট লোকেশ নিজে। অন্যদিকে শুরুতেই আউট হওয়া থেকে বেঁচে সেঞ্চুরি হাঁকালেন রোহিত শর্মা। . ওভারে মুস্তাফিজুরের বলে তামিম ইকবাল সহজ ক্যাচ না ফেললে এই বিরাট রান হত কিনা তা সন্দেহ আছে। সেখান থেকেই রোহিত শর্মা থামলেন ৯২ বলে ১০৪ রানে। রোহিত এই ইনিংস সাজানো ছিল সাতটি বাউন্ডারি পাঁচটি ওভার বাউন্ডারি দিয়ে। সঙ্গে করে ফেললেন রেকর্ড। তিন নম্বরে নামা বিরাট কোহলি ২৬ রানে আউট হওয়ার পর ঋষভ পন্থ ৪১ বলে ৪৮ রানের ইনিংস খেলেন। হার্দিক পাণ্ড্যে কোনও রান না করেই ফিরে যান। এমএস ধোনি ৩৫, দীনেশ কার্তিক , ভুবনেশ্বর কুমার রানে আউট হন। ৫০ ওভারে ভারত থামে ৩১৪--এ। বাংলাদেশের হয়ে পাঁচ উইকেট নেন মুস্তাফিজুর রহমান। একটি করে উইকেট শাকিব আল হাসান, রুবেল হোসেন সৌম্য সরকারের

জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের দুই ওপেনার বড় রানের ইনিংস খেলতে পারেননি। তামিম ইকবাল ২২ সৌম্য সরকার ৩৩ রানে আউট হয়ে যান। এর পর দলের ব্যাটিংয়ের হাল ধরেন একমাত্র ভরসা শাকিব আল হাসান। যদিও রোহিতের মতো তার ব্যাট থেকে আবার শতরান আসেনি। তবে ২০১৯ বিশ্বকাপে এই নিয়ে 'বার ৫০-এর উপর রান করে ফেললেন তিনি

দিনও ৭৪ বলে ৬৬ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। বাংলাদেশের হয়ে এটাই সর্বোচ্চ ব্যাক্তিগত রান। এর পর আর কেউই বড় রানের ইনিংস খেলতে পারেননি। তার আগেই আউট হয়ে যান মুশফিকুর রহিম (২৪), লিটন দাস (২২) মোসাদ্দেক হোসেন () বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ে হামলা চালান হার্দিক পাণ্ড্যে। ব্যাট হাতে সাফল্য না এলেও বল হাতে তা পুষিয়ে দেন তিনি। এর পর কিছুটা রান তোলে সাব্বির রহমান (৩৬) মহম্মদ সইফুদ্দিন  জুটি (অপরাজিত ৫১) আট রান করে আউট হয়ে যান মাশরাফি মোর্তজা। রুবেল আউট হন রানে, মুস্তাফিজুর রানের খাতাই খুলতে পারেননি

৪৮ ওভারে ২৮৬ রানে শেষ হয়ে গেল বাংলাদেশের ইনিংস। চার উইকেট যশপ্রীত বুমরার। একটি করে উইকেট নেন মহম্মদ শামি, যুজবেন্দ্র চাহাল ভুবনেশ্বর কুমার

Kartik Pal

aappublication@gmail.com

english bazar Reporter



Post your comments about this news