লাইফ স্টাইল

পূজোর সাঁজ ! আপনার ফিনিশিং টাচের অভাব দূর করতে রোজকার সঙ্গী করুণ গোলাপজলকে

পূজোর সাঁজ ! আপনার ফিনিশিং টাচের অভাব দূর করতে রোজকার সঙ্গী করুণ গোলাপজলকে

পূজোর সময় প্রাণহীন, ড্যামেজ ত্বক একাবারেই ভাললাগবে না। সুন্দর করে সাজলেও যেন কিছু একটা মিসিং মনে হয়। ঠিক ফিনিশং টাচের মত। তাই যাতে এই ফিনিশিং টাচের অভাব না ঘটে, সেই জন্য রোজকার সঙ্গী করুণ গোলাপজলকে। ব্যাস আলাদা করে আর কিছু করতে হবে না। - নাজমা সিদ্দেকি

সতেজ ত্বক  

এই গরমে প্যান্ডেল হপিং করতে করতে ত্বক প্যাচপ্যাচে হয়ে যায়। দেখতে একদম বাজে লাগে। ত্বককে সতেজ রাখতে গোলাপজলের জুড়ি নেই। এটি ত্বককে পুষ্টি যোগায় ও ভেতর থেকে ফ্রেশ রাখে। ত্বককে ঠাণ্ডা রাখে। তাই গোলাপজল ফ্রিজে রেখে সেটা একটু ব্যাগে করে নিয়ে নিন। আর মাঝে মাঝে স্প্রে করে নিন। দেখবেন কেমন ফ্রেশ লাগবে। এছাড়াও স্নানের জলে একটু গোলাপজল মিশিয়ে স্নান করুণ। সারাদিন ফ্রেশ থাকবেন।

ব্রণ দূর করে  

মুখের ব্রণ এখনো কমেনি? চিন্তা না করে ব্যবহার করুন গোলাপজল। একটু গোলাপজলে চন্দন পাউডার ভিজিয়ে রাখুন। ভালো ভাবে ভিজে গেলে পেস্ট করুণ। এবার এটা লাগান। শুকিয়ে এলে ধুয়ে ফেলুন। এছাড়াও গোলাপজল ও মুলতানি মাটির পেস্ট বানান। এবার এটি ত্বকে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট মত। ব্রণর সমস্যা কমবে।

ড্রাই স্কিন  

স্কিন খুব ড্রাই হলে স্কিনে কোন উজ্জ্বলতা থাকে না। একেবারে প্রাণহীন দেখায়। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ব্যবহার করুণ গোলাপজল ব্যাস আর কিছুই লাগবে না। গোলাপজল ত্বকে লাগাবার পর দেখবেন স্কিন কেমন নরম কোমল থাকছে।

মেকআপ রিমুভার   

পূজোয় সারাদিন প্যান্ডেল হপিং, আড্ডা এইজন্য মনের মত করে সাজাতো হল। কিন্তু বাড়ি ফিরে সেই মেকআপকে তুলতেও তো হবে। এক্ষেত্রে শুধু ফেসওয়াশ না ব্যবহার করে, মুখ পরিষ্কার করুণ গোলাপজল দিয়ে। এতে ত্বক যেমন ফ্রেশ লাগবে, তেমনি ত্বক নরম ও কোমল থাকবে। যাতে পরেরদিনও সুন্দর ভাবে মেকআপটা করা যায়।

ঠোঁটকে গোলাপি করতে  

সুন্দর গোলাপি ঠোঁট সবাই চায়। এটা পাওয়াও কিন্তু কঠিন নয়। জাস্ট ব্যবহার করতে হবে একটু গোলাপজল আর একটু বিট। বিট কেটে ভালো করে রোদে শুকিয়ে নিন। তারপর পাউডার তৈরি করুণ। এবার এই বিটের পাউডারের সঙ্গে যোগ করুণ গোলাপজল। এই পেস্টটি ঠোঁটে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট মত। এটি ধুয়ে ফেলার পর ঠোঁট দেখবেন কেমন কোমল ও গোলাপি বর্ণ ধারন করেছে। এইভাবে সপ্তাহে দু থেকে তিনদিন করলেই, পূজার আগে গোলাপি ঠোঁট পাওয়া কোন সমস্যাই নয়।

সান ট্যান   

সারাদিন গরমে, রোদে ঘুরে ঠাকুর দেখার পরত্বক যদি কালো হয়ে যায়, বা চুলকোয় তাহলেও ব্যবহার করুণ গোলাপজল। মুহূর্তে ত্বককে করে তুলবে তরতাজা। এর জন্য প্রথমে তুলসির রস বানান। এই রসের সঙ্গে যোগ করুণ গোলাপজল। এটি ফ্রিজে রেখে দিন। এবার এই ঠাণ্ডা মিশ্রণটা স্কিনে স্প্রে করুণ।

চোখের ফোলা ভাব কমায়  

অনেকেরই চোখের নীচটা খুব ফোলা থাকে। সুন্দর ভাবে আই মেকআপ করলেও চোখ তেমন ভালো লাগেনা। এর জন্য ব্যবহার করুণ গোলাপজল। জাস্ট গোলাপজলে তুলো ভিজিয়ে চোখের ওপর রাখুন। কয়েক মিনিট এভাবে থাকুন। আস্তে আস্তে চোখের ফোলা কমবে। তবে পুরোপুরি কমাবার জন্য শুধু গোলাপজল লাগালেই হবে না। নিজেকে টেনশন মুক্ত ও উপযুক্ত বিশ্রাম নিতে হবে। কারণ এসবের কারনেই এই সমস্যা হয়।

তাহলে পূজোর নিজের ত্বককে একদম পারফ্যাক্ট রাখতে, আজ থেকেই ব্যবহার করুণ গোলাপজল। কারণ গোলাপজলের মত স্পেশাল যত্ন আর কে করবে! তবে একটু ভালো কোম্পানির গোলাপ জল কেনার চেষ্টা করবেন ।

 

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news