সারা ভারত

দেশের রাজনৈতিক মহল কে চমক দিয়ে মহারাষ্ট্রে সরকার গড়লেন বিজেপি ও এনসিপি জোট।

দেশের রাজনৈতিক মহল কে চমক দিয়ে মহারাষ্ট্রে সরকার গড়লেন বিজেপি ও এনসিপি জোট।

 Newsbazar24 ডেস্ক:মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনে অবশেষে শেষ হাসি হাসল  বিজেপি। ন্যাশনাল কনফারেন্স পার্টির  সহযোগিতায়  সেই  রাজ্যে   সরকার গড়ল বিজেপি। দ্বিতীয়বারের জন্য  মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে  শপথ নিলেন দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। উপমুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন ন্যাশনাল কনফারেন্স পার্টির প্রধান শরদ পওয়ারের ভাইপো এনসিপির অজিত পাওয়ার। মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির  এক সপ্তাহের মধ্যেই সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে  সবাইকে চমক দিয়ে  হাওয়া নিজেদের দিকে  ঘুরিয়ে  সরকার গঠন করল  ভারতীয় জনতা পার্টি। শপথ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী  "বিজেপি দেবেন্দ্র ফড়নবিশ বলেন, “ জনাদেশ ছিল মহারাষ্ট্রের জনগণকে একটি স্থিতিশীল সরকার দেওয়ার বিজেপি ও শিবসেনা জোটের, কিন্তু  শিবসেনা জনগণের আদেশ মানেনি"। আমি এনসিপিকে এই সরকার গঠনের জন্যে সমর্থন করায় ধন্যবাদ জানাই। আমরা সকলেই জানি যে গত কয়েকদিন ধরে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি ছিল মহারাষ্ট্রে । তিনি আরও বলেন  "মহারাষ্ট্রের খিচুড়ি সরকার নয়, একটি স্থিতিশীল সরকার দরকার ছিল", 

প্রসঙ্গত শুক্রবার  মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের জন্য এনসিপি, শিবসেনা এবং কংগ্রেস জোট করে   একসঙ্গে বৈঠকের পর তিনটি দলই ঘোষণা করে যে শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরেই মুখ্যমন্ত্রী হবেন। আর তারপরেই শনিবার সকালে  সকলকে চমকে  দিয়ে শেষপর্যন্ত মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ল বিজেপি-এনসিপি জোট।

উপ-মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেওয়ার পরে অজিত পাওয়ার সাংবাদিকদের বলেন: "ফলাফলের দিন থেকে আজ পর্যন্ত  কোনও দলই সরকার গঠন করতে পারেনি। মহারাষ্ট্র কৃষক সমস্যা সহ অনেক সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে। তাই আমরা এখানে একটি স্থিতিশীল সরকার গঠন করতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।"

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইটে শুভেচ্ছা জানালেন নয়া মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ ও উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ারকে। 

টুইটে তিনি জানান, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী এবং উপ-মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেওয়ার জন্য যথাক্রমে দেবেন্দ্র ফড়নবিশ জি এবং অজিত পাওয়ার জিকে অভিনন্দন জানাই। আমি বিশ্বাস করি যে মহারাষ্ট্রের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এর জন্য তারা একসঙ্গে ভালভাবে কাজ করবেন।  

NewsDesk - 3

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news