উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর

জলের অপচয় রোধ ও সংরক্ষন নিয়ে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পরিকল্পনাকে বাস্তবায়িত করার লক্ষে বালুরঘাট পৌরসভা

জলের অপচয় রোধ ও সংরক্ষন নিয়ে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পরিকল্পনাকে বাস্তবায়িত করার লক্ষে বালুরঘাট পৌরসভা

পূজা দাস, বালুরঘাট, ৯ জুলাইঃ জলের অপচয় রোধ ও সংরক্ষন এর দাবি নিয়ে    "উতসাহ" নামে একটি পরিবেশ চিন্তক সংগঠনের সংগে আলোচনার পরের দিনই শহরের নিকাশিব্যাবস্থাকে পরিবেশবান্ধব করে গড়ে তুলতে উদ্যোগী হলেন মহকুমাশাসক তথা বালুরঘাট পুরসভার প্রশাসক। ভূগর্ভস্থ জলস্তর বৃদ্ধি করতে শহরের নিকাশি ব্যবস্থা কে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিল পুরসভা। এদিন জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরকে নিয়ে এক বৈঠকে মহকুমাশাসকের উপস্থিতিতে এমনই আলোচনা হয়েছে। একদিকে খরা মরসুমে জলস্তর নেমে যাওয়া এবং অন্য দিকে বৃষ্টি হলেই জল রাস্তা  আটকে থাকা, নিকাশি দিয়ে জল না গড়ানো ইত্যাদি নান সমস্যা নিয়ে এদিন  বৈঠক ডেকেছিলেন প্রশাশক।এদিনের সভার আগে এই বিষয়গুলিই  মাথায় রেখে ছিলেন প্রশাসক। এ দিনের বৈঠকে সেচ দপ্তর, জাতীয় সড়ক দপ্তর, জনসাস্থ কারিগরি দপ্তর, পূর্ত দপ্তর, পূর্ত বিভাগের রোড দপ্তর, বিএসএনএল কর্তৃপক্ষ এবং বিদ্যুৎ দপ্তরে আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসংগত গতকাল সোমবার  বালুরঘাটে জল অপচয় রোধ এবং জল সংরক্ষণ সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সচেতনতা প্রচারে পথে নেমেছিল কলেজ পড়ুয়া এবং সাধারণ মানুষেরা। উৎসাহ নামে একটি  সংগঠনের ব্যানারে বালুরঘাট কলেজ মোড়ে গণস্বাক্ষর অভিযান, সচেতনতা  প্রচার করার পাশাপাশি মহকুমা শাসক কে একটি স্মারকলিপি দিয়ে একগুচ্ছ দাবি জানানো হয়।

এরপরই এদিন সভাতে শহরের নিকাশি ব্যাবস্থাকে পরিবেশ বান্ধব করে গরে তোলার উদ্যগ নেওয়া হয়। সভা সূত্রে জানা গেছে যে বালুরঘাট শহরের নিকাশি ব্যবস্থা জোরদার করতে এবারে ভূগর্ভস্থ জল বৃদ্ধিতে জোর দেয়া হচ্ছে।  নিকাশি ব্যবস্থার জল যাতে ফিল্টার করে, সেগুলো যাতে মাটির নিচে নিয়ে যাওয়া যায় তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এবং খুব শীঘ্রই এ বিষয়ে কাজ শুরু করবে পুরসভা বলে জানা গেছে।

বৈঠক শেষে মহকুমাশাসক মুখার্জি বলেন শহরে বিভিন্ন এলাকাতে নিকাশি ব্যবস্থা কিছুটা বেহাল অবস্থায় রয়েছে। নিকাশি জল সবটাই যাতে নদিতে না গিয়ে পরে, বরং শহরেই মাটির নিচে পাঠিয়ে জলস্তর বৃদ্ধি করা যায়, সেই  চিন্তাভাবনা শুরু হয়েছে। বিজ্ঞানকে  কাজে লাগিয়ে শহরের নিকাশি ব্যবস্থা কে ঢেলে সাজানো এবং  ভূগর্ভস্থ জল স্তর বৃদ্ধির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যাতে করে নিকাশি জলকে বিশেষ পদ্ধতির ব্যবহার করে পরিশ্রুত করে মাটির নিচে পাঠানো যায়। দ্রুত এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

পুরসভার এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে পরিবেশপ্রেমী সংগঠনগুলিও। পরিবেশচিন্তকদের পক্ষে পিণ্টু কুন্ডু, অভিজিত চক্রবর্তীরা বলেন,গতকাল স্মারকলিপি দিতে গিয়ে প্রশাসকের সঙ্গে এসব বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে এবং লিখিতভাবে ও আমরা ওনাকে এই জল সংরক্ষণের বিষয় নিয়ে জানিয়েছিলাম তারপরই এদিনের সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া কে সাধুবাদ জানাই।

Kartik Pal

aappublication@gmail.com

english bazar Reporter

Post your comments about this news