সারা ভারত

জম্মু কাশ্মীরের বাসিন্দাদের হেনস্তার অবসান ঘটাতে “৩৭০ ধারার প্রতিবন্ধকতা” দুর করার প্রয়োজন ছিলঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জম্মু কাশ্মীরের বাসিন্দাদের  হেনস্তার অবসান ঘটাতে “৩৭০ ধারার প্রতিবন্ধকতা” দুর করার প্রয়োজন ছিলঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ডেস্ক, ৫আগস্টঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ আজ রাজ্য সভায় বলেন জম্মু কাশ্মীরের বাসিন্দাদের  হেনস্তার অবসান ঘটাতে৩৭০ ধারার প্রতিবন্ধকতাদুর করার প্রয়োজন ছিল, ভারতের বাকি অংশের সঙ্গে যোগ করে উন্নয়ন ঘটানো

৩৭০ নম্বর ধারায় জম্মু কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া হয়, সেটির অবসান করা উচত ছিল, কারণ, রাজ্যে সন্ত্রাসের মূল ঊতস ছিল এটি। , জম্মু কাশ্মীরকে ভেঙে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা সরকারের সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্কের জবাবে এমনটাই বললেন তিনি। বেশ কয়েকটি আঞ্চলিক দলের সমর্থন নিয়ে  রাজ্যসভায় সংখ্যালঘু থাকা সত্ত্বেও, সোমবার পাশ হয়ে গেল জম্মু কাশ্মীর পুনর্গঠন সংক্রান্ত বিল ২০১৯। ভোটাভুটির সময় রাজ্যসভায় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। রাজ্যসভায় অমিত শাহ বলেন, “জম্মু কাশ্মীরে সন্ত্রাসের প্রবেশদ্বার ছিল ৩৭০ ধারা। এবার এটার অবলুপ্তির সময় হয়েছে...আজ যদি এটার অবলুপ্তি না হয়, তাহলে জম্মু কাশ্মীর থেকে আমরা সন্ত্রাসবাদ নির্মূল করতে পারব না

বিতর্কের সময়, কংগ্রেসের দাবি, এটিগণতন্ত্রের হত্যা

বিরোধীদলগুলির উদ্বেগের উত্তরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “কিছুই হবে না...আরেকটা কসোবো হতে দেওয়া যাবে না তিনি বলেন, “জম্মু কাশ্মীর ভুস্বর্গ ছিল এবং থাকবে তিনি বলেন, রাজ্যের অবস্থা ফেরানো হবেসঠিক সময়েএবংস্বাভাবিক পরিস্থিতিতৈরি হলেই

জম্মু কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল ২০১৯ পাশ হয়ে যায় রাজ্যসভায়। সংখ্যালঘু হলেও, সরকারের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানায় অনেক আঞ্চলিক দল

সিদ্ধান্তটিকে ব্যাপক এবং অন্তর্দৃষ্টিসম্পন্ন বলে মন্তব্য করে ট্যুইট করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পাশাপাশি তিনি লেখেন, “প্রকৃতপক্ষে তুলে ধরে, অতীতের স্মরণীয় অবিচার এবং জম্মু কাশ্মীরের ভাই বোনদের নিয়ে আমাদের ভাবনাচিন্তাকে

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ৩৭০ ধারা, জম্মু কাশ্মীরকে শেষ করে দিয়েছে, উন্নয়নকে থমকে দিয়ে, যথাযথ স্বাস্থ্য পরিষেবায় ব্যাঘাত ঘটানো শিক্ষা এবং শিল্পকে থমকে দিয়েছে তিনি আরও বলেন  জম্মু কাশ্মীর ভারতের মণিমুক্তো। আমাদের পাঁচবছর সময় দিন. আমরা একে দেশের চেয়ে উন্নত রাজ্যে পরিণত করব

রাজ্যসভায় কংগ্রেস নেতা তথা বিরোধী দলনেতা গুলাম নবি আজাদ বলেন, জম্মু কাশ্মীরকেখণ্ড খণ্ড করে ফেলা হয়েছেএবং সেরাজ্যের মানুষ কেন্দ্রের সঙ্গে নেই

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “আমরা প্রধানমন্ত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রী পেয়েছি, এখন আমাদের হবে উপরাজ্যপাল। আপনি রাজ্যপালকে একজন কেরাণিতে পরিণত করেছেন। আপনি জম্মু কাশ্মীরকে নগণ্য বস্তুতে পরিণত করেছেন। আপনি আপনার রাজ্যে এটা করুন, এবং দেখুন কী হয়

সরকারকেক্ষমতায় মত্ত না হওয়ারজন্য সতর্ক করে দেন কংগ্রেস নেতা  গুলাম নবি আজাদ

 এর পর ভোটাভূটিতে জম্মু কাশ্মীরের পুনর্গঠন এবং দুটি কেন্দ্রশাসিক অঞ্চলে ভাগ করা সংক্রান্ত বিল পাশ হয়ে গেল রাজ্যসভায়। এদিন ওয়াকআউট করে বহু বিরোধীদল, ফলে কমে যায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা। অন্যান্যরা সরকারের পক্ষেই যায়। এনডিএ রাজ্যসভায় সংখ্যালঘু। সরকারের পক্ষে যায় মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি, নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল, জগনমোহন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেস, চন্দ্রবাবু নাইডুর তেলেগু দেশম পার্টি, এবং বিষ্ময়করভাবে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি। সব মিলিয়ে সরকারের পক্ষে সংখ্যা দাঁড়ায় ১৭। ২৪২ সদস্যের রাজ্যসভায় শাসক এডিএ- পক্ষে ১০৭, সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজন ১২১। রাজ্যসভায় ভোট বয়কট করে নীতিশ কুমারের জেডিইউ এবং ওয়াকআউট করে ১৩ সদস্য থাকা তৃণমূল কংগ্রেস

কাশ্মীর নিয়ে সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিরোধীদের বিক্ষোভর নেতৃত্ব দেয় কংগ্রেস। বিরোধিতায় সামিল হয় সমাজবাদি পার্টি, ডিএমকে, আরজেডি এবং বামেরা

বিরোধিতা করে নীতিশ কুমারের দলও, তবে ভোট বয়কট করে তারা।অমিত শাহের ঘোষণার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করায়, সংবিধানক লঙ্ঘন করায় দুজন পিডিপি সাংসদকে সাসপেন্ড করা হয়। অনেকে ভোট বয়কট করার খবর মিলেছে

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news