বিশ্ব

ঘুষ দিতে বাধ্য হচ্ছেন উত্তর কোরিয়ার নাগরিকরা, রিপোর্ট রাষ্ট্রসংঘের

ঘুষ দিতে বাধ্য হচ্ছেন উত্তর কোরিয়ার নাগরিকরা, রিপোর্ট রাষ্ট্রসংঘের

মঙ্গলবার রাষ্ট্রসংঘের ওই সমীক্ষা রিপোর্ট প্রকাশ্যে এসেছে। তার জেরে হইচই পড়ে গিয়েছে বিশ্বের তাবড় মানবাধিকার সংগঠনের মধ্যে। কিন্তু এই রিপোর্টকে উড়িয়ে দিয়েছে পিয়ংইয়ং। কিম জং উন প্রশাসন এই সমীক্ষাকে রাজনৈতিক উদ্দশ্যে প্রণোদিত বলে ব্যাখ্যা করেছে।কিন্তু ওই সমীক্ষা বলছে, উত্তর কোরিয়ার অবস্থা ভয়ঙ্কর। সেখানে সরকারি আধিকারিকরাই দেশের সাধারণ নাগরিকদের হুমকি দিচ্ছে ভয় দেখাচ্ছে। গ্রেফতার করার আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। আর তাই নিজেদের বাঁচাতে সরকারি আধিকারিকদের ঘুষ দিতে বাধ্য হচ্ছেন উত্তর কোরিয়ার নাগরিকরা।

উত্তর কোরিয়া পরমাণু শক্তিধর দেশ। তাদের পরমাণু শক্তিকে বৃদ্ধি করা নিয়ে বিতর্ক লেগেই থাকে সবসময়। এই পরিস্থিতিতে উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকারের বিষয়টি নজরেই আসে না। সেই সুযোগে উত্তর কোরিয়ার মানুষ মানবাধিকার খর্ব হচ্ছে বলে রাষ্ট্রসংঘের দাবি।মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিওলে রাষ্ট্রসংঘের তরফে একটি সাংবাদিক বৈঠক করা হয়। সেখানে উত্তর কোরিয়ায় জীবনযাত্রার মান কীভাবে নেমে গিয়েছে, তার বর্ণনা দেন অনেকে। তাদের দাবি, ঘুষ হিসেবে নগদে টাকা দিতে হয়। না হলে সরকারি আধিকারিকরা সিগারেটও নেন ঘুষ হিসেবে। 

Shankar Chakraborty

aappublication@gmail.com

Editor of AAP publicaltions

Post your comments about this news