রান্না ঘর

খালি ঘণ্ট খেলে হবে ? জেনে নিন বাধাকপি নিয়ে নানা মুখরোচক খাবার ।

খালি ঘণ্ট খেলে হবে ? জেনে নিন বাধাকপি নিয়ে নানা মুখরোচক খাবার ।

বাঁধাকপি দিয়ে ডিম ভুনা

 

উপকরণ: ডিম ৫টি। বাঁধাকপি-কুচি ৪ কাপ। পেঁয়াজ-কুচি আধা কাপ। আদা ও রসুন বাটা ১ চা-চামচ করে। ধনে ও জিরা বাটা ১ চা-চামচ করে। হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ করে। গরম মসলা পরিমাণ মতো। কাঁচা-মরিচ ৭,৮টি। ধনেপাতা-কুচি পরিমাণ মতো। লবণ স্বাদ মতো। তেল ও পানি পরিমাণ মতো।

পদ্ধতি: ডিম সিদ্ধ করে খোসা ফেলে লবণ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া দিয়ে মেখে হালকা করে গরম তেলে ভেজে নিতে হবে।

পরে এই তেলেই পেঁয়াজ-কুচি ও গরম মসলা দিয়ে বাদামি করে ভেজে আদা, রসুন, ধনে ও জিরা বাটা, হলুদ এবং মরিচ গুঁড়া দিয়ে মাখা মাখা ঝোল তৈরি করে এরমধ্যে বাঁধাকপি কুচি দিয়ে ১৫ মিনিট অল্প আঁচে রান্না করতে হবে।

এই সময় ভালোভাবে ভুনতে হবে। প্রয়োজন হলে অল্প পানি দিয়ে রান্না করুন।

সিদ্ধ হয়ে এলে ডিমগুলো দিয়ে ১০ মিনিট রান্না করুন। তারপর কাঁচা-মরিচ ও ধনেপাতা দিয়ে কিছুক্ষণ দমে রেখে মাখামাখা হলে নামিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

বাঁধাকপি রোল

উপকরণ :বাঁধাকপি ভিতরের দিকের কচিপাতা ভাজ খুলে নেওয়া ৮ থেকে ১০টি।

পুরের জন্য: ১ কাপ মুরগির মাংসের কিমা। ১/৪ কাপ বিস্কুটের গুঁড়া। গরম মসলাগুঁড়া আধা চা-চামচ। লবণ স্বাদ মতো। গোলমরিচ পরিমাণ মতো। জিরাগুঁড়া আধা চা-চামচ। ১টি পেঁয়াজ মিহিকুচি। আদা ও রসুন বাটা ১ চা-চামচ। টমেটো পেস্ট সামান্য।

গ্রেইভি বা ঝোলের জন্য লাগবে: টমেটো-কুচি ১ কাপ। পেঁয়াজকুচি আধা কাপ। আদা ও রসুন বাটা ১ টেবিল-চামচ। হলুদগুঁড়া সামান্য। মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ বা স্বাদ মতো। তেল পরিমাণ মতো।

পদ্ধতি

প্রথমে মুরগির কিমার সঙ্গে পুরের বাকি সব উপকরণ দিয়ে মাখিয়ে এক ঘণ্টা মেরিনেইট করতে হবে।

বাঁধাকপির পাতাগুলো গরম লবণ পানিতে দুতিন মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে নিন। একটি একটি করে বাঁধাকপির পাতা নিয়ে মাঝখানের সাদা শক্ত অংশ কাটুন।

মেরিনেইট করা মুরগির কিমা কয়েকটি ভাগ করে নিন। এবার এর মাঝে মুরগির কিমা দিয়ে রোল করুন এবং টুথপিক দিয়ে আটকে দিন।

একটি প্যানে তেল গরম করে, পেঁয়াজকুচি লাল করে ভেজে নিন। এরপর একে একে গ্রেইভির জন্য রাখা বাকি সব মসলা দিয়ে দিন। তেল উপরে ওঠা পর্যন্ত কষাতে থাকুন। তারপর টমেটো কুচি দিন।

কিছুক্ষণ রান্না করে টমেটো কিছুটা নরম হলে রোল করে রাখা বাঁধাকপিগুলো দিয়ে দিন। লবণ আর পরিমাণ মতো পানি দিয়ে ঢেকে ২০ মিনিট রান্না করুন।

পছন্দ মতো পরিমাণ ঝোল রেখে ধনেপাতার কুচি (ইচ্ছে) উপরে ছড়িয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

 

রেসিপি: বাঁধাকপি ভাজি

উপকরণ: অর্ধেকটা বাঁধাকপি কুচি করা। ছোট চিংড়ি ব্লেন্ড করা আধা কাপ। পেঁয়াজ-কুচি ২টি। কাঁচা-মরিচ ৪,৫টি। তেজপাতা ১টি। হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ করে। লবণ ও তেল পরিমাণ মতো। আদা ও রসুন বাটা ১ চা-চামচ করে। টমেটো সস ১ চা-চামচ। ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ চা-চামচ করে।

পদ্ধতি: প্যানে তেল গরম করে তেজপাতা ও পেঁয়াজ-কুচি দিয়ে বাদামি করে ভেজে আদা, রসুন, ধনে ও জিরা গুঁড়া, টমেটো সস, হলুদ, মরিচ এবং লবণ দিয়ে কষিয়ে নিন।

এবার ব্লেন্ড করা চিংড়ি দিয়ে আরও একটু কষিয়ে বাঁধাকপির কুচি, কাঁচা-মরিচ দিয়ে নেড়ে-চেড়ে ঢেকে দিন।

একটু পরপর নেড়ে দিন। ভাজা ভাজা হয়ে গেলে নামিয়ে নিন।

 

বাঁধাকপির মাঞ্চুরিয়ান তৈরির রেসিপি

উপকরণ: ২ কাপ বাঁধাকপি কুচি। ১টি গাজর কুচি। আধা চা-চামচ লাল মরিচের গুঁড়া। আধা চা-চামচ আদা ও রসুন বাটা। ২ টেবিল-চামচ কর্নফ্লাওয়ার। আধা চা-চামচ লবণ। আধা কাপ ময়দা। ২ টেবিল-চামচ পানি। ডুবো তেলে ভাজার জন্য পরিমাণ মতো তেল।

সস তৈরির জন্য লাগবে: ২ টেবিল-চামচ তেল। ২ কোঁয়া রসুন কুচি করা। ৪ টেবিল-চামচ পেঁয়াজ পাতা কুচি। ১/৪ পেঁয়াজ কুচি। ১টি কাঁচামরিচ কুচি। অর্ধেক ক্যাপ্সিকাম কিউব করে কাটা। ১ চা-চামচ চিলি সস। ২ টেবিল-চামচ সয়া সস। ২ টেবিল-চামচ ভিনিগার। ১/৪ চা-চামচ লবণ। ২ টেবিল-চামচ টমেটো সস। ১/৪ চা-চামচ গোলমরিচের গুঁড়া।

পদ্ধতি:  প্রথমে বাঁধাকপি কুচি, গাজর কুচি, লাল মরিচের গুঁড়া, আদা ও রসুন পেস্ট, লবণ, ময়দা ও কর্নফ্লাওয়ার দিয়ে একটা নরম ডো তৈরি করতে হবে।

এবার ডো থেকে অল্প অল্প করে নিয়ে বল আকারে তৈরি করে ডুবো তেলে ভাজতে হবে একদম মচমচে করে।

এখন সস তৈরি করতে একটা বড় প্যানে তেল দিয়ে রসুন কুচি, পেঁয়াজ-পাতা, পেঁয়াজ-কুচি, কাঁচামরিচ-কুচি ও ক্যাপ্সিকাম দিয়ে ভালোভাবে নাড়তে হবে। তারপর চিলি সস, সয়া সস, টমেটো সস, ভিনিগার, লবণ, গোলমরিচের গুঁড়া দিন।

নেড়ে নেড়ে রান্না করতে হবে যতক্ষণ না এতে একটা থকথকে ভাব আসে।

যখন হয়ে আসবে তখন ভেজে রাখা বাঁধাকপির বলগুলো দিয়ে দিতে হবে।

ব্যাস তৈরি হয়ে গেল মজাদার বাঁধাকপির মাঞ্চুরিয়ান। সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

বাঁধাকপির পাকোড়া

উপকরণ: বাঁধাকপির পাতা ৩,৪টি। টেম্পুরা ফ্লাওয়ার আধা কাপ (বাজারে পাবেন) অথবা বেসন ও চালের গুঁড়ার মিশ্রণ। লালমরিচ-গুঁড়া আধা চা-চামচ। লবণ স্বাদ মতো। ডুবো ভাবে ভাজার জন্য পরিমাণ মতো তেল।

পদ্ধতি: বাঁধাকপির পাতা বেগুনের মতো সমান ও লম্বা করে কেটে নিন। ফ্রিজের ঠাণ্ডা পানি দিয়ে টেম্পুরার ব্যাটার বা মণ্ড তৈরি করুন। খেয়াল রাখবেন যেন খুব বেশি পাতলা বা ঘন না হয়।

লবণের পরিমাণ স্বাদ বুঝে দিন। কারণ, টেম্পুরা ফ্লাওয়ারে লবণ মেশানো থাকে।

মাঝারি আঁচে তেল গরম করে একটা একটা করে পাতা মণ্ডতে মাখিয়ে ডুবো তেলে সোনালি করে ভেজে পেপার টাওয়েলের ওপর উঠিয়ে রাখুন। এইভাবে সবগুলো ভেজে নিন।

বেসনের মণ্ড যেভাবে তৈরি করবেন: আধা কাপ বেসনে ১ মুঠ চালের গুঁড়া, আধা চা-চামচ বেইকিং সোডা, স্বাদ মতো লবণ, মরিচগুঁড়া এবং ১ চা-চামচ করে আদা ও রসুন বাটা মিশিয়ে পরিমাণ মতো পানি দিয়ে মণ্ড তৈরি করে নিন।

 

NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news