গ্রহ শান্তি

আপনার লগ্ন কি ? জেনে নিন আপনার লগ্নের ভালো খারাপ প্রভাব !

আপনার লগ্ন কি ? জেনে নিন আপনার লগ্নের ভালো খারাপ প্রভাব !

আপনার লগ্ন কি ? জেনে নিন আপনার লগ্নের ভালো খারাপ প্রভাব !

 যে কোন লগ্নের ক্ষেত্রে বিভিন্ন অধিপতি গ্রহ শুভ না অশুভ সেটা নিয়ে আলোচনা করতে হলে প্রথমেই বলা জরুরি যে, এটা থেকে অত্যন্ত সাধারণভাবে একটা ফলাফলের আভাস পাওয়া যায় মাত্র। একটি গ্রহ কোন লগ্নে কোন ভাবের অধিপতি শুধু তার উপরই ফল নির্ভর করে না। গ্রহটির অবস্থান কি, কি গ্রহের দ্বারা দৃষ্ট, গ্রহটির বল কি রকম ইত্যাদি বিশ্লেষণ করে সামগ্রিক ভাবে ফল বিচার করতে হবে।

১। মেষলগ্ন

(ক) এই লগ্নের রবি পঞ্চম পতি। কোণপতি হিসাবে অবশ্যই শুভ। রবি বলবান হলে এর দশায় প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সফলতা আসতে পারে। সম্মান ও সুনাম বৃদ্ধি হতে পারে ইত্যাদি।


(খ) মেষলগ্নে চন্দ্র চতুর্থ কেন্দ্রের অধিপতি। অতএব ক্ষীণচন্দ্র হলে পরাশরের মতে শুভ ফলদায়ক। কিন্তু শুক্লপক্ষের চন্দ্র হলে শুভ নয়। তবে কেন্দ্রাধিপত্য দোষ চন্দ্রের ক্ষেত্রে অতটা প্রযোজ্য নয়। চন্দ্র শুভ হলে গৃহলাভ, গৃহসুখ, আত্মীয়-বন্ধুদের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল ইত্যাদি হতে পারে। কিন্তু চন্দ্র দুর্বল হলে অন্যান্য অশুভ ফল ছাড়াও পিতার শারীরিক সমস্যা হওয়া অসম্ভব নয়। কারণ, চতুর্থ স্থান হ'ল নবম (পিতৃস্থান) স্থানের অষ্টম (নিধন) স্থান।

(গ) মঙ্গল লগ্নপতি ও অষ্টম পতি। লগ্নপতি হিসাবে শুভ, আবার মূলত্রিকোণ লগ্ন হওয়ায় মঙ্গল মুলত লগ্নপতি হিসাবেই ফল দেবে। মঙ্গল সবল হ'লে মঙ্গলের দশায় সুস্বাস্থ্য লাভ, সম্মান বৃদ্ধি, জমি ও অর্থাগম ইত্যাদি হতে পারে। কিন্তু মঙ্গল দুর্বল হ'লে অর্শ, মূত্রাশয় ইত্যাদি সংক্রান্ত সমস্যা দেখা দিতে পারে।

(ঘ) বুধ এই লগ্নে তৃতীয় ও ষষ্ঠ পতি। দুটি অশুভ স্থানের অধিপতি হিসাবে শুভ নয়। তবে তৃতীয় ও ষষ্ঠ দুই-ই উপচয় স্থান। কাজেই কিছু শুভ ফল দিতেই পারে। তবে বুধ যেহেতু বালক গ্রহ এবং যে গ্রহের দ্বারা প্রভাবিত হয় সেই গ্রহেরই ফল দেয় বলে বলা হয়েছে, অতএব শুভ গ্রহের সঙ্গে যুক্ত বা শুভ দৃষ্ট হলে শুভ ফল দিতে পারে। তবে একটা কথা আগেও উল্লেখ করা হয়েছে। তৃতীয়, ষষ্ঠ অষ্টম বা দ্বাদশ পতি হলে সেই সমস্ত গ্রহদের অন্য কোন গ্রহের সঙ্গে সম্পর্ক শূন্য হয়ে আলাদা ভাবে বসে থাকাই ভাল। উদাহরণ স্বরূপ, মেষ লগ্নের একটি ছকে বুধ (তৃতীয় ও ষষ্ঠ পতি) একাদশে কুম্ভ রাশিতে অবস্থিত এবং কোন গ্রহের দ্বারা দৃষ্ট নয় বা কোন গ্রহকে দৃষ্টিও দিচ্ছে না। জাতকের এই বুধের দশা সামগ্রিক ভাবে খুব খারাপ কাটে নি।


(ঙ) বৃহস্পতি নবম ও দ্বাদশ পতি। যেহেতু বৃহস্পতির মূলত্রিকোণ লগ্ন থেকে নবম স্থান ধনুরাশি। অতএব বৃহস্পতি শুভ। বৃহস্পতি বলবান হলে এর দশায় নানা ভাবে ভাগ্যোন্নতি সম্ভব। কিন্তু বৃহস্পতি দুর্বল বা পাপগ্রহ যুক্ত হলে পিতার দুর্ভাগ্য বা পিতার শারীরিক সমস্যা ডেকে আনতে পারে।


(চ) এই লগ্নের শুক্র দ্বিতীয় ও সপ্তম পতি। দুটিই মারকস্থান। আবার শুক্র নৈসর্গিক শুভ গ্রহ হয়ে সপ্তম কেন্দ্রের অধিপতি হওয়ায় অশুভ। অতএব শুক্র সম্পূর্ণই অশুভ ফলদায়ক। তবে সব সময় তত্ব অনুযায়ী ফল হয় না। এটা দেখা গেছে, যদি শুক্র অত্যন্ত বলশালী হয় ও অন্যান্য অশুভ সম্পর্ক থেকে মুক্ত থাকে, তবে শুক্রের দশা জাগতিক সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যের পক্ষে শুভই হয়। কিন্তু দুর্বল হলে, চক্ষুরোগ বা শারীরিক সমস্যা হতে পারে। অনেক জ্যোতিষী বলেন, শুক্র মারক হলেও মেষ লগ্নের জাতকের সাধারণতঃ মৃত্যু ডেকে আনে না। সেটা অনেক সময়েই করে শনি।


(ছ) শনি দশম ও একাদশ ভাবের অধিপতি। নৈসর্গিক পাপগ্রহ হয়ে দশম পতি হওয়ায় শুভ কিন্তু একাদশ পতি হিসাবে অশুভ। এ কারণেই মেষলগ্ন জাতকের বৃহস্পতি ও শনির (নবম কোণ ও দশম কেন্দ্রের অধিপতি হওয়া সত্বেও) রাজযোগকারক নয় বলা হয়েছে। বৃহস্পতি ও শনি যদি সংযুক্ত থাকে, তবে বৃহস্পতির সংযোগে শনির শুভত্ব বৃদ্ধি হবে ঠিকই কিন্তু শনির সংস্পর্শে বৃহস্পতি অশুভ হয়ে পড়বে এবং এই বৃহস্পতি ভাল ফল দেবে না। তবে বৃহস্পতি ও শনি যদি অন্য শুভ গ্রহের দ্বারা প্রভাবিত হয় তবে শুভ ফল দিতেও পারে।


২। বৃষলগ্ন

(ক) এই লগ্নে রবি নৈসর্গিক পাপগ্রহ হয়ে ৪র্থ পতি হওয়ায় শুভ। রবি বলবান হলে এই গ্রহের দশায় চাকরীতে উন্নতি ইত্যাদি হতে পারে। কিন্তু রবি দুর্বল বা অশুভত্ব প্রাপ্ত হলে, বন্ধু বা আত্মীয়দের সঙ্গে মনোমালিন্য, শারীরিক সমস্যা ইত্যাদি হওয়া অসম্ভব নয়।


(খ) চন্দ্র তৃতীয় পতি হিসাবে শুভ নয়। তবে শক্তিশালী হলে শুভ ফল দিতে পারে।


(গ) মঙ্গল সপ্তম ও দ্বাদশ পতি। কেন্দ্রপতি হওয়ায় শুভ কিন্তু মূলত্রিকোণ দ্বাদশ রাশিতে পড়ায় অশুভত্বই বেশী। তবে দ্বাদশ স্থান যেহেতু পরতন্ত্রী, সেই হেতু মঙ্গল সপ্তম-এর ফলই দেবে। তবে মঙ্গল যেহেতু সপ্তম পতি, তাই এর শুভত্ব অশুভত্বের উপর বিবাহিত জীবন বা স্বামী/স্ত্রী সম্পর্কিত বিষয় অনেকটাই নির্ভরশীল। মঙ্গলের জোর থাকলে ব্যবসার উন্নতিও হতে পারে।


(ঘ) বুধ দ্বিতীয় ও পঞ্চম পতি হওয়ায় শুভ। মূলত্রিকোণ পঞ্চম স্থানে হওয়ায় বুধের বল থাকলে এর দশায় জাতকের পরীক্ষা, পুত্র-কন্যা ইত্যাদি সম্পর্কে ভাল ফল দিতে পারে। তবে বুধ যেহেতু অন্য গ্রহের দ্বারা প্রভাবিত হয় বেশী, তাই শুভ গ্রহের সঙ্গে যুক্ত হলে অর্থাগম বা সঞ্চয় বিষয়ে শুভ ফল দিতে পারে। রবি ও বুধের যোগ অন্য ভাবে অশুভত্ব প্রাপ্ত না হলে কিছুটা রাজযোগের ফল দিতে পারে। ভাবার্থ রত্নাকরের মতে বৃষ লগ্নে বুধ ও শুক্র এবং সপ্তমে অর্থাৎ বৃশ্চিক রাশিতে বৃহস্পতি থাকলে, বুধের দশায় প্রবল রাজযোগের ফল হবে।


(ঙ) বৃহস্পতির মূলত্রিকোণ ধনু রাশি অষ্টম স্থানে হওয়ায় বৃহস্পতি এই লগ্নের পক্ষে অশুভ। একাদশ পতি হিসাবে স্থান বিশেষে কিছু ভাল ফল দিলেও অশুভত্বই বেশী। তবে শক্তিশালী বৃহস্পতি অর্থ প্রাপ্তিতে সাহায্য করতে পারে এবং এই দশায় বড় ভাইএর ( একাদশ স্থান থেকে বড় ভাই/বোনের বিচার হয়) ভাগ্য বৃদ্ধিও হতে পারে।


(চ) শুক্র লগ্নপতি হিসাবে শুভ হলেও যেহেতু মূলত্রিকোণ তুলা রাশিতে অর্থাৎ ষষ্ঠে পড়েছে তাই শুক্র এই লগ্নের পক্ষে লগ্ন পতি হওয়া সত্বেও সমভাবাপন্ন বলা হয়েছে। তবে খুব জোরালো হলে অবশ্যই ভাল ফল দেবে।


(ছ) শনি নবম ও দশম পতি হওয়ায় কেন্দ্র ও কোণ পতি হিসাবে একাই রাজযোগের ফল দেবে। কিন্তু দুঃখের বিষয় অনেক জ্যোতিষীর লব্ধ অভিজ্ঞতায় দেখা গেছে শনি কুম্ভে অর্থাৎ দশমে না থাকলে খুব ভাল ফল দেয় না। ভাবার্থ রত্নাকর গ্রন্থেও শনিকে রাজযোগকারী বলা হয় নি। জ্যোতিষশাস্ত্রের অনেক তত্বই বাস্তবে অন্য রকম ফল দেয়। সব সময়েই অভিজ্ঞতা লব্ধ জ্ঞানের দ্বারা যাচাই করে নেওয়া উচিত।


৩। মিথুন লগ্ন

(ক) রবি তৃতীয় পতি হিসাবে শুভ ফলদায়ক নয়। তবে জোড়ালো হলে কর্মক্ষমতা বাড়াতে পারে, তবে একগুঁয়ে ভাবও বৃদ্ধি পেতে পারে।


(খ) চন্দ্র দ্বিতীয় পতি। যদি চন্দ্র বলবান হয়, তবে অর্থাগম, বিবাহ, পড়াশুনা ইত্যাদি বিষয়ে শুভ ফল হতে পারে। কিন্তু চন্দ্র দুর্বল হলে বিপরীত ফল হবে। চন্দ্র দ্বিতীয় পতি হলেও মারকত্ব দোষ খুব একটা থাকবেনা যদি না অন্য কোন মারক লক্ষণাক্রান্ত গ্রহের সঙ্গে সংযুক্ত হয়।


(গ) মঙ্গল এই লগ্নে ষষ্ঠ ও একাদশ পতি। দুটো স্থানই অশুভ। তবে ভাবার্থ রত্নাকর গ্রন্থে বলা হয়েছে, মিথুন লগ্নের মঙ্গল ও চন্দ্র একাদশ স্থানে অর্থাত্‍ মেষ রাশিতে অবস্থিত হলে আয় বৃদ্ধি হবে। আবার শনি নবমে অর্থাৎ কুম্ভে থাকলে বিশেষ ধনযোগ হবে। একাদশ পতি (একাদশ থেকে আয় বিচার হয়) দ্বিতীয় পতি (দ্বিতীয় স্থান সঞ্চয় নির্দেশ করে) সহ একাদশে থাকলে এবং নবম পতি (নবমে থেকে ভাগ্য বিচার হয়) শনি নবমে বসে একাদশে দৃষ্টি দিলে যে ধন লাভ হবে এতে আর আশ্চর্য কি! তবে মঙ্গল যদি লগ্নকে বা লগ্নপতিকে দৃষ্টি দেয় বা অন্য পাপ গ্রহের সঙ্গে সংযুক্ত হয় তবে জাতকের শরীরের ক্ষতি করতে পারে, কঠিন পীড়া হওয়াও অসম্ভব নয়।


(ঘ) বুধ লগ্ন ও চতুর্থ পতি। বুধ শক্তিশালী হলে, জাতকের স্বাস্থ্য ভল হবে, আত্মীয় বন্ধুদের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকবে। কিন্তু বুধ দুর্বল বা অশুভ গ্রহ দ্বারা যুক্ত হয়ে অশুভ স্থানে থাকলে, শরীর খারাপ ছাড়াও নানা অশান্তি ডেকে আনতে পারে।


(ঙ) বৃহস্পতি সপ্তম ও দশম কেন্দ্রের অধিপতি হিসাবে কেন্দ্রাধিপত্য দোষে দুষ্ট। তবে বৃহস্পতি উপচয় স্থানে অথবা কোণে (৫ম বা ৯ম) থাকলে সাধারণত খারাপ ফল দেয় না। তা না হলে বিবাহ বা পারিবারিক ক্ষেত্রে নানা বিপর্যয় ঘটতে পারে।


(চ) এই লগ্নের ক্ষেত্রে শুক্রকেই (দ্বিতীয় ও দ্বাদশ পতি) একমাত্র শুভ গ্রহ হিসাবে ধরা হয়। দ্বাদশ পতি হিসাবে শুক্র 'পরতন্ত্রী'। কাজেই পঞ্চম পতি হিসাবে ফল দেবে। শুক্র শক্তিশালী হলে পরীক্ষায় সাফল্য, সন্তানের শুভ ইত্যাদি ঘটতে পারে। তবে শুক্র অশুভ গ্রহ দ্বারা প্রভাবিত হলে মহিলা সংক্রান্ত ব্যাপারে জড়িয়ে পড়া অসম্ভব নয়।


(ছ) এখানে শনি অষ্টম ও নবম পতি হওয়ায় শুভ না অশুভ তা নিয়ে মতভেদ আছে। তবে মূলত্রিকোণ নবমে পড়ায়, শনি বলশালী হলে শনির দশায় ভাগ্যোন্নতি হতে পারে। বৃহস্পতির কেন্দ্রাধিপত্য দোষ এবং শনির অষ্টম পতিত্ব হেতু শনি ও বৃহস্পতির যোগ রাজযোগকারী হবে না বলে বলা হয়েছে।


৪। কর্কট লগ্ন

(ক) রবি এই লগ্নে দ্বিতীয় পতি। শক্তিশালী হলে রবি অর্থযোগ, পারিবারিক শুভত্ব, ক্ষমতা বৃদ্ধি ইত্যাদি ঘটাতে পারে। আবার রবি দুর্বল হলে ঠিক বিপরীত ফলও ফলতে পারে। চক্ষুরোগও হতে পারে।


(খ) চন্দ্র লগ্ন পতি। চন্দ্র পক্ষবলে বলী এবং অবস্থানগত ভাবে শুভ হলে চন্দ্রের দশায় শরীর ও মন সুস্থ থাকবে। সম্মান বৃদ্ধি পাবে। মাতার ক্ষেত্রেও শুভ। কিন্তু দুর্বল চন্দ্র এর ঠিক উল্টো ফলও দিতে পারে।


(গ) মঙ্গল কর্কট লগ্নে কোণ ও কেন্দ্রপতি বলে (পঞ্চম ও দশম পতি) একাই রাজযোগকারী। মঙ্গল শক্তিশালী হলে মঙ্গলের দশা খুব ভাল যাবার কথা। সাধারণত লগ্নপতি লগ্নে অবস্থিত হলে ভাল হবার কথা। কিন্তু এখানে চন্দ্র কর্কট রাশিতে নীচস্থ হওয়ায় ফল কি হবে? লগ্নপতি নীচস্থ হয়ে লগ্নে থাকলে ফল ভাল না হবারই কথা। কিন্তু অনেকের বক্তব্য হল মঙ্গল কর্কট রাশিতে থাকলে, তার স্বক্ষেত্র বৃশ্চিক থেকে নবমে এবং মেষ থেকে চতুর্থ কেন্দ্রে থাকার জন্য ভাল ফলই দেবে।


(ঘ) বুধ এই লগ্নে তৃতীয় ও দ্বাদশ পতি হওয়ায় অশুভ। তবে অনেকে মনে করেন যদি বুধ এমন কোন ঘরে থাকে যাতে তৃতীয় ও দ্বাদশ এই দুই অশুভ ঘরের অশুভত্ব কেটে যায় তবে বুধ ভাল ফল দেবে। যেমন, বুধ যদি লগ্নের পঞ্চমে অর্থাত্‍ বৃশ্চিকে থাকে তবে বুধ তৃতীয় ঘরের থেকে তৃতীয়ে এবং দ্বাদশ ঘরের ৬ষ্ঠে থাকবে। অতএব তৃতীয় ও দ্বাদশ ঘরের থেকে দুঃস্থানে থাকায় ঐ দুই ঘরের অধিপতি হিসাবে বুধের অশুভত্ব কেটে যাবে এবং বুধ ভাল ফল দেব। এটা পরীক্ষা সাপেক্ষ।


NewsDesk - 2

aappublication@gmail.com

Newsbazar24 Reporter

Post your comments about this news