Share on whatsapp
Share on twitter
Share on facebook
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

শীতকালে ঘুরতে যাচ্ছেন ? কি নেবেন আগাম প্রস্তুতি

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

news bazar24:   জানুয়ারি এলেই শীত বাড়ছে। কিন্তু ঘুরে বেড়ানো তো আর শীতের জন্য থামবেনা। তবে শীতে বেশি সতর্ক থাকতে হয়। তাই প্রস্তুতিও নিতে হবে ঠিকঠাক। 

ভ্রমণ কতটা মনোরম হবে তা নির্ভর করে ভালো প্রস্তুতির ওপর। তাই শীতের ভ্রমণকে মনোরম করতে ভ্রমনের প্রস্তুতি নিয়ে কিছু টিপস ও কৌশল জেনে নিন।

স্থান বাছাই

প্রথমেই স্থানের কথা ভাবতে হবে ভ্রমণের আগে। জানতে হবে শীতকালে ঘুরে বেড়ানোর জন্য কোন স্থান উপযুক্ত। ভাবতে হবে কতদিনের জন্য যাবেন, বাজেট, কাদের সাথে যাবেন এবং যেখানে যাবেন সেখানের সুযোগ-সুবিধা কেমন।

যাতায়াত মাধ্যম

ভ্রমণের জন্য যাতায়াত একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কোন বাহনে যাতায়াত করবেন তা সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরী। পরিবহন নির্বাচনের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা ও সুরক্ষার কথা খেয়াল রাখতে হবে।

ভ্রমণকালীন আবাস

বেড়াতে গিয়ে কোথায় থাকবেন তার ওপর অনেকটা নির্ভর করে বেড়ানোর আনন্দ। আপনার বাজেট, কতজন যাবেন, কেমন পরিবেশে থাকতে চান, নিরাপত্তার বিষয় ভেবেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তাই আগে থেকে আবাস ঠিক করে যাওয়া ভালো। আবার, খোঁজ-খবর নিয়েও যাওয়া যায়। 

খোঁজ-খবর

সেখানের আবহাওয়া ও আইন-শৃঙ্খলা সম্পর্কে খবর নিয়ে যান। সেখানের জরুরী ফোন নম্বর এবং লোকেশন নিয়ে সঠিক তথ্য কাছে রাখুন। ওই স্থানে পরিচিত কেউ থাকলে, তার ফোন নম্বরও রাখুন। পরিবেশ সম্পর্কে জানা যেতে পারে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে।

ব্যাগ প্যাকিং

কোথায় বেড়াতে যাবেন, আর কতদিনের জন্য – তার ওপরে নির্ভর করবে কী কী নেবেন। ব্যাগভর্তি অনেক জিনিস না নিয়ে, শুধু দরকারি জিনিস নেওয়াই উচিৎ। প্রয়োজনীয় জিনিসের তালিকা তৈরি করুন। তালিকা ধরে টিক চিহ্ন দিয়ে দিয়ে জিনিস ব্যাগে রাখুন। তাহলে দরকারি কিছু ভুলবেন না।

পোশাক

শীতকালে গাঢ় রঙের মোটা তাপনিরোধক কাপড়ের জামা পরুন। তবে শীতের কাপড়ের ওজন যেন কম হয়। নাহলে ব্যাগ ভারি হবে। ঠান্ডা থেকে বাঁচতে মোজা, মাফলার, গ্লাভস, হুডসহ জামা পরা যায়। জুতোর ব্যাপারে বাড়তি চিন্তার দরকার। আরামদায়ক কেডস হলে ভালো হবে। মেয়েরা হিল জুতা না পরলেই ভালো।

ওষুধ

শীতে সর্দি-জ্বর, শ্বাসকষ্ট বা হাঁপানি, কাশি, চোখ ওঠা, নাকের প্রদাহ, ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, আমাশয়ের মতো রোগ হয়। প্রয়োজন মতো ওষুধ রাখতে পারেন। অ্যাসিডিটি, জ্বর, পেট খারাপ, বমি, মাথা ধরার ওষুধও রাখুন। এছাড়া ব্যান্ড এইড, পরিমাণমতো তুলা, অ্যান্টিসেপ্টিক ও গজ রাখুন। ডায়াবেটিস, প্রেসার বা অন্য কোনও সমস্যা থাকলে প্রয়োজনীয় ওষুধ পরিমাণ মতো নিন। সূর্যের আলোয় বেরোবার আধ ঘণ্টা আগে সানপ্রোটেক্ট লোশন ও ক্রিম লাগিয়ে নিন।

খাবার

শীতকালে ঘুরতে গেলে সময়োপযোগী খাবার নিতে ভুলবেন না। হাইজেনের কথা মাথায় রাখতে হবে। খাবার স্বাস্থ্যসম্মত কিনা যাচাই করে নিতে হবে। কিছু শুকনো খাবার রাখা যায়। বেশি তেলে ভাজা খাবার না রেখে স্বাভাবিক খাবার রাখুন।

সানস্ক্রিন 

শীতকালে ঠান্ডা থাকলেও সানস্ক্রিন নিতে হবে। শীতের রোদও ত্বকের ক্ষতি করে। তাই সানস্ক্রিন নিন।

সতর্কতা

শীতে সন্ধ্যার পর অথবা বেশি রাত পর্যন্ত বাইরে থাকবেন না। বিশেষত পরিবারের সঙ্গে গেলে। শিশুদের দিকে লক্ষ্য রাখতেই হবে। 

তাহলে এবার ভ্রমণের প্রস্তুতি শেষ। এই শীতে ঘুরে নিন আপনার পছন্দের যেকোনো জায়গা। এই ঘুরে বেড়ানোর প্রস্তুতি আপনার ভ্রমণকে আনন্দময় করে তুলুক।  

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin