শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বোমাবাজি ও গুলিতে উত্তপ্ত দক্ষিণ কলকাতার কসবা

Newsbazar24:শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বোমাবাজি ও গুলিতে উত্তপ্ত দক্ষিণ কলকাতার কসবা। শনিবারের পর রবিবার রাতেও ইন্দুপার্কে চলল বোমাবাজি, সঙ্গে গুলি চালানো হয় বলে অভিযোগ। রবিবার দুপুরে এলাকার বর্তমান কাউন্সিলর লিপিকা মান্নার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানায় প্রাক্তন কাউন্সিলর সুশান্ত ঘোষ এবং তাঁর গোষ্ঠী।
সেই কারণেই রবিবার রাতে হামলা চলে বলে দাবি এলাকাবাসীর। শনিবার রাত্রিবেলা ১০৭ নম্বর ওয়ার্ডে রাজডাঙা ইন্দুপার্কে দফায়-দফায় হামলা চলে বলে অভিযোগ এলাকার বাসিন্দাদের ।সেখানকার কাউন্সিলর লিপিকা মান্নার দিকে আঙুল তোলেন তাঁরা।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, এই ওয়ার্ডে তৃণমূল কংগ্রেস লোকসভা ভোটে খারাপ ফল করেছে। আর সেই জন্য সুশান্ত ঘোষ ও তার অনুগামীদের বিরুদ্ধে আঙুল তুলেছে লিপিকার গোষ্ঠী। ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এরপরই লিপিকার দলবল ওই এলাকায় গিয়ে দফায়-দফায় হামলা চালায় বলে অভিযোগ, রাত্রিবেলা আলো নিভিয়ে বোমাবাজি ও গুলি চালানো হয় বলে অভিযোগ। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে পুলিশ। লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে কসবা থানায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ,লিপিকা মান্নার ছেলেরা এলাকার মহিলাদের উপর অত্যাচার করছে। কাপড় ধরে টানাটানি করে এক মহিলাকে মেরেছে। সুশান্ত কুমার ঘোষ বলেন, নির্বাচনের রেজাল্ট বেরনোর পর থেকে এই হামলা চলছে। প্রাক্তন তৃণমূল কর্মীদের উপর বেছে বেছে এই অত্যাচার করা হচ্ছে। জেলা সভাপতি দেবাশীষ কুমারকে ঘটনা সম্পর্কে জানানো হয়েছে। কিন্তু পুলিশ এদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।গতকাল থানায় কেন অভিযোগ জানানো হয়েছে এই কারণে দুষ্কৃতীরা আবারো হামলা চালিয়েছি। দলীয় নেতৃত্ব ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে‌ এ ব্যাপারে একটা বিহিত করার জন্য আবেদন জানিয়েছেন তিনি। না হলে পরিস্থিতি হাতের বাইরে বেরিয়ে যাবে।

এরকম আরো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন