পর্বতারোহণে নতুন রেকর্ড গড়লেন ভারতের পর্বতারোহী সত্যদীপ গুপ্তা

news bazar24 : পর্বতারোহণে নতুন রেকর্ড গড়লেন ভারতের পর্বতারোহী সত্যদীপ গুপ্তা। তিনি খুব কম সময়ে এভারেস্ট ও লোৎসে শিখর জয় করেন। তিনি এই জোড়া শৃঙ্গ আরোহণ করতে সময় নিয়েছেন ১১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট। সত্যদীপের নেপালে এজেন্সি পাইওনিয়ার অ্যাভেঞ্চার এক্সেডিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘২৭ মে, সোমবার দুপুরে লোৎসে আরোহণ করেন। এরপর সেই দিন রাত ১২টা ৪৫ মিনিটে এভারেস্টের শীর্ষে ওঠেন। সময় নিয়েছেন ১১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট। তাঁর গাইড ছিলেন পাস্তেম্বা শেরপা এবং নিমা উঙ্গদি শেরপা।

অন্যদিকে, ইতিহাস তৈরি করলেন নেপালের অভিজ্ঞ আরোহী ও গাইড দাওয়া ফিনজক শেরপা। তিনি আট দিনে তিনবার বিশ্বের সর্বোচ্চ শিখর আরোহণ

করেন। ২০ মে এভারেস্ট আরোহণ করে এই কীর্তি স্থাপন করেন। এই রেকর্ডের কথা জানালেন সেভেন সামিট ট্রেকের অন্যতম অধিকর্তা চাঙ্গ দাওয়া শেরপা। চলতি পর্বতারোহণ মরশুমে

দাওয়া ফিনজক শেরপা প্রথম এভারেস্টের শীর্ষ ওঠেন ১২ মে সকাল ৭টা ২৫ মিনিটে। এরপর দ্বিতীয়বার সফল অভিযানে করেন ১৭ মে বিকেল ৩টে ১৬ নাগাদ। এক মরশুমে তিনবার এভারেস্ট আরোহণ করতে দাওয়া ফিনজক শেরপা সময় নিয়েছেন ৮ দিন ১৩ ঘণ্টা ৩৫ মিনিট। দাওয়া ফিনজকের কঠিন পরিশ্রম, শারীরিক ও মানসিক সক্ষমতার জন্য তিনি এই রেকর্ড করতে পেরেছেন বলে জানান চাঙ্গ দাওয়া শেরপা। বিশ্বের পর্বতারোহী মহলে ‘এভারেস্টম্যান’ নামে পরিচিট কামি রিতা শেরপা নিজের তৈরি ২৯ বার এভারেস্টে আরোহণের রেকর্ড ভাঙলেন। ২২ মে, বুধবার সকাল ৭টা ৪৯

মিনিটে তিনি আবার বিশ্বের সর্বোচ্চ শিখর আরোহণ করেন। এই নিয়ে কামির ৩০ বার এভারেস্ট জয় করলেন। নেপালের পর্যটন বিভাগের পক্ষ থেকে কামির এই সাফল্যের খবর প্রথম দেওয়া হয়। ১২ মে কামি ২৯ বার এভারেস্টের শিখরে ওঠেন। চলতি বসন্ত মরশুমে পরপর দু’বার পৃথিবীর সর্বোচ্চ বিন্দুতে আরোহণ করলেন ৫৪ বছরের কামি। এর আগেও ২০২৩-এ পরপর দু’বার এভারেস্টে সফলভাবে আরোহণ করেন। সেটা ছিল তাঁর ২৭ ও ২৮তম। কামি রিতা শেরপা ১৯৯৪-এর ১৩ মে প্রথমবার এভারেস্ট শৃঙ্গে উঠেছিলেন। তখন তাঁর বয়স ছিল ২৪ বছর। সেই শুরু। ১৯৯৪ থেকে ২০২৪ পর্যন্ত প্রতি বছর বিশ্বের সর্বোচ্চ শিখর আরোহণ করেছেন। একমাত্র ২০২০-তে করোনার জন্য অভিযান স্থগিত ছিল। এভারেস্ট ছাড়াও তিনি কে−২, চো-হউ (৮ বার), লোৎসে, মানাসলু জয় করেছেন।

এরকম আরো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন