ত্রি মুকুট জয়ের স্বপ্ন অধরা,আইএসএল কাপ ফাইনালে ৩-১এ পরাজিত সবুজ মেরুন ব্রিগেড

*মোহনবাগান ১ (কামিংস)মুম্বই সিটি ৩ (দিয়াস,
বিপিন, ইয়াকুব)*
Newsbazar24:ত্রিমুকুট জয়ের স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল সবুজ মেরুনের। আইএসএল কাপ ফাইনালে পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে মাঠ ছাড়তে হলো মোহনবাগানকে। যা এবারের আইএসএলের সবুজ মেরুনের পারফরম্যান্স এর সাথে একেবারেই বেমানান। শনিবার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে এক গোলে এগিয়ে থেকেও ১-৩ গোলে পরাজিত হল মোহনবাগান।
ডুরান্ড কাপ, আইএসএল শিল্ড নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হল আইএসএল কাপ জয়ের স্বপ্নপূরণের/ পরাজিত সবুজ মেরুন ব্রিগেড।
ডুরান্ড কাপ, আইএসএল শিল্ডের পর আইএসএল কাপ জয়ের স্বপ্নপূরণের একদম কাছে এসেও মুম্বাইয়ের গতির কাছে পরাজিত সবুজ মেরুন ব্রিগেড। এদিন খেলা শুরু থেকেই আক্রমণে রাস্তা বেছে নেয় মুম্বাই। দেখা গেল মোহনবাগান কিছুটা রক্ষণাত্মক হয়ে ওঠে। প্রথম ২০ মিনিটে মুম্বইয়ের আক্রমণের ঝাঁঝ ছিল বেশি। অন্যদিকে মাঝে মাঝে প্রতিআক্রমণের রাস্তা বেছে নেয় মোহনবাগান।তবে ম্যাচের ২৫ মিনিট থেকে মুহুর্মুহু আক্রমণ করতে থাকে ছাংত, বিক্রমরা। ছাংতের শট একবার অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।
৩৯ মিনিটে আবারও গোলের কাছাকাছি পৌঁছে যায় মুম্বই তবে ছাংতের শট পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। অন্যদিকে ৪২ মিনিটে লিস্টন ও দিমিত্রির বক্সের বা দিক থেকে পর পর দুটি শট বাচিয়ে দেন লাচেনপা।
এরপরেই ৪৩ মিনিটে দিমিত্রির দুরপাল্লার শট ফিস্ট করেন মুম্বই গোলরক্ষক লাচেনপা। বলটি বক্সের ভিতর কামিংসের পায়ে পরে সেখান থেকে গোল করতে ভোলেননি শীতল মস্তিস্কের কামিংস।। প্রথমার্ধ শেষ হয় ১-০ তে। তবে দ্বিতীয়ার্ধে শুরু থেকেই চাপ সৃষ্টি করে মুম্বই। তাদের ক্রমাগত চাপে ৫৩ মিনিটে মুম্বইয়ের পেরেইরা ডিয়াজ গোল করে খেলায় সমতা ফেরান। এরপর আরও দুইবার গোলের ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পায় মুম্বই তবে গোল করতে ব্যর্থ হন মুম্বইয়ের ফুটবলাররা। এরপর ৮১ মিনিটে বিপিন সিং গোল করে মুম্বই সিটি এফসিকে ২-১এ এগিয়ে দেন। এরপর ৯০+৭ মিনিটে জেকব গোল করে ব্যবধান বাড়ান মুম্বইয়ের। ম্যাচ তার আগেই একপ্রকার শেষ। মুম্বইয়ের ফুটবলাররা ম্যাচের দখল নিয়ে নেয় । ম্যাচ শেষ হয় ১-৩ ফলাফলে। আইএসএল কাপ চ্যাম্পিয়ন মুম্বই সিটি এফসি। বলা যায় মোহনবাগানের মাঝমাঠ আজ পুরোপুরি ব্যর্থ।