Share on whatsapp
Share on twitter
Share on facebook
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

কলকাতায় নতুন পর্যটন স্থল, ইকো পার্কের ৬ নম্বর গেটের কাছে অভিনব চিড়িয়াখানা

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

news bazar24 : পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী হচ্ছে কলকাতা, যাকে আমরা সিটি ওফ জয় বলেও জানি। আর এই কলকাতার বুকেই রয়েছে ভারতের বৃহত্তম চিড়িয়াখানা। যার নাম  আলিপুর চিড়িয়াখানায়। আর এই একমাত্র চিড়িয়াখানার হাত ধরেই শহর কলকাতা সেজে উঠতে চলেছে আরও একটি অভিনব চিড়িয়াখানায়। আলিপুর চিড়ি়াখানার পর এই দ্বিতীয় মিনি চিড়িয়াখানাটি হতে চলেছে পর্যটকদের অন্যতম জনপ্রিয় স্থল। যেখানে থাকবে বাঘ, কুমির, জিরাফ-সহ একাধিক বন্য প্রাণী।

খবর অনুযায়ী, ইকো পার্কের ৬ নম্বর গেটের কাছের ডিয়ার পার্কের ১৭ একর জায়গা জুড়ে তৈরি হবে এই মিনি চিড়িয়াখানা।

আগামী এক বছরের মধ্যেই এই প্রকল্পকে বাস্তবায়িত করতে প্রস্তুতি চলছে জর কদমে। এই চিড়িয়াখানায় প্রাণী আনা হবে আলিপুর চিড়িয়াখানা থেকে, আলিপুরের বাঘ, সিংহ, গণ্ডারকে নিয়ে আসা হবে। ইতিমধ্যেই চিড়িয়াখানা তৈরির কাজ শুরুও হয়ে গেছে।  

হিডকো সূত্রে খবর, ডিয়ার পার্কে গড়ে ওঠা এই চিড়িয়াখানা নির্মাণের কাজ অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে। বিভিন্ন প্রাণী যেমন, জিরাফ, জেব্রা ও জলহস্তির আবাসস্থল তৈরির কাজ প্রায় শেষের দিকেই। এই চিড়িয়াখানার মধ্যে প্রায় ৭০ শতাংশ জায়গা মুক্ত থাকবে। এখানে তৈরি হচ্ছে চোখ জুড়ানো পাখিদের আবাস্থলও। 

ইতিমধ্যে এসে পড়েছে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের কয়েকটি কালো রাজহাঁস। নীল ও হলুদ ম্যাকাও আর কাকাতুয়া, যা এসেছে আলিপুর চিড়িয়াখানা থেকে। এসেছে আফ্রিকার সারস ও হাঁস। পাঁচটি মার্শ কুমির এবং সুন্দরবনের ভাগবতপুর কুমির প্রকল্প থেকে চারটি নোনা জলের কুমির আনা হয়েছে।

পাখিদের আবাস্থল তৈরির কাজ অনেকটাই শেষ হয়ে এসেছে। আগে থেকেই এখানে ছিল হরিণ। এশিয়ার সিংহ, রয়েল বেঙ্গল টাইগার এবং চিতাবাঘ আনা হবে আগামী বছর। দর্শকদের কাছে আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য কাঁচের ঘেরাটোপ তৈরি করা হচ্ছে। সমস্ত কাজ সঠিকভাবে অগ্রসর হলে, আগামী বছরই চালু হয়ে যেতে পারে ইকো পার্কের এই চিড়িয়াখানা।

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on telegram
Share on linkedin

Latest News