বিশ্ব


  • রঙের বাহারের মধ্য দিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় কমনওয়েলথ গেমসের ২১ তম উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

    ডেস্ক ৪ই এপ্রিলঃ কমনওয়েলথ গেমসের ২১ তম উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মহাসমারোহে অনুষ্ঠিত হল  অস্ট্রেলিয়ায়।  নিজেদের দেশের সংস্কৃতি তুলে ধরা হল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে । গোল্ডকোস্টে কারারা স্টেডিয়ামে বুধবার দেশের পতাকা হাতে ভারতীয় দলকে নিয়ে হাঁটলেন পিভি সিন্ধু। এদিকে প্যারেডের আগেই হয় দারুণ বর্ণাঢ্য উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক দিক তুলে ধরার পাশাপাশি এই মুহূর্তে পৃথিবীর বিভিন্ন সন্ত্রাসের সমস্যাও উঠে আসে নাচ-গানে ভরা এই অনুষ্ঠানে। অস্ট্রেলিয়া এই নিয়ে পঞ্চমবারের জন্য কমনওয়েলথ গেমস আয়োজন করছে। এদিকে কমনওয়েলথ গেমস ভিলেজে ভার্চুয়াল রিয়েলিটির প্রচুর গেমস খেলার সুযোগ থাকবে। এবারই প্রথম ভারতীয় মহিলারা ব্লেজার পড়ে কোনও গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মার্চ পাস্টে অংশগ্রহন করলেন । কারণ এর আগে অবধি শাড়ি পড়েই অংশ নিতেন  মহিলা অ্যাথলিটরা। ৭১ টি দেশের ৪৫০০ জন  পদকের জন্য তাদের  সেরাটা দিয়ে লড়বেন। খেলা হবে ১১ দিন ধরে ২৩ টি ইভেন্টে খেলা হবে। এবারই প্রথম মহিলা ও পুরুষ দুই গোষ্ঠীর জন্যে একই সংখ্যক মেডেলের জন্য লড়বেন। এবারের ভারতীয় দলে আছেন ২০০ জন অ্যাথলিট। অলিম্পিক্সের পদকজয়ী একাধিক অ্যাথলিট লড়বেন এবারের পদকের  জন্যে। মহিলাদের প্রথম ইভেন্ট বৃহস্পতিবার হবে মহিলাদের ট্রায়াথেলন।  

  • এক নজরে ২৮শে মার্চের খবর।

    #১- পাকিস্তানকে একঘরে করার প্রস্ততি শুরু করল আমেরিকা। এবার পাকিস্তানকে রাজনৈতিক শাস্তি  দেওয়ার তোড়জোর শুরু। পাকিস্তানে ভিসার উপর নিষেধাঞ্জা জারি। সঙ্গে বরাবরের মতো মিলিটারিদের  সাহায্য বনধ করে দিল আমেরিকা। #২-মার্কিন মুকুকে খোদ পাক প্রধানমন্ত্রীর পোশাক খুলে তল্লাশি। সমালোচনায় আন্তর্জাতিক মহল। নিউ নিয়র্ক বিমানবন্দরে পাক প্রধানমন্ত্রী এই হেনস্থার সন্মুখীন হন। #৩- কংগ্রেসের হয়ে কাজ করছে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা। ফাঁস করলেন সংস্থারই প্রাক্তণ কর্মী। #৪- সরকারি প্রকল্পের সুুবিধা পেতে আধার সংযুক্তিকরণ। সময়সীমা বাড়াতে অস্বীকার সুপ্রিম কোর্টের। #৫- মেয়েদের পিছু নেওয়া জামিন-অযোগ্য অপরাধ হোক। নাবালিকা ধর্ষণে সাজা মৃত্যুদন্ড। আইন সংশোধনে দিল্লি বিধানসভায় প্রস্তাব গৃহীত। #৬- প্যান-আধার সংযোগের সময়সীমা বেড়ে হল ৩০ জুন। এনিয়ে মোট চারবার সময়সীমা বাড়াল সরকার। #৭- সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিকে সরাতে ইমপিচমেন্ট মোশন। প্রক্রিয়া শুরু করল কংগ্রেস সহ একাধিক বিরোধী দল। #৮- মাথায় ১,০০০ কোটির বোঝা। ঋণখেলাপির দায়ে পড়রা মুখে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক। #৯- রেলের ৯০ হাজার পদের জন্য আবেদন করার সময়সীমা পার হতে এখনও বাকি প্রায় চার দিন। এর মধ্যে আবেদনপত্র জমা পড়ল ২ কোটি। #১০- আইপি এল ২০১৮। ১৫ মিনিট পারফর্ম করার জন্যে ৫ কোটি টাকা নিচ্ছেন রণবী সিংহ। #১১- স্বীকৃতির আরো এক পলক যোগ হতে চলেছে রাহুল দ্রাভিড়ের মুকুটে। আসন্ন কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনে তাঁকে ইলেকশন আইকন ঘোষণা করছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন।          

  • ডোকলাম নিয়ে চিনের গলা ফের সপ্তমে।

    ডেস্কঃ (I.D). ২৭ মার্চ ২০১৮ঃ-ডোকলাম নিয়ে চিনের গলা ফের সপ্তমে। দিল্লির দিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে চিনের বিদেশ মন্ত্রক বলেছে,‘‘গত বছর ডোকলাম নিয়ে যে ঘটনা ঘটেছে, তা থেকে ভারতের শিক্ষা নেওয়া উচিত।’’বিভিন্ন ইস্যুতে দু’দেশের মধ্যে চাপানউতোর চরমে। তার উপর ডোকলাম নিয়ে চিনের মন্তব্য যে নতুন করে দিল্লির ক্ষোভ বাড়াবে, তাতে সন্দেহ নেই।সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট নামে হংকং-এর একটি সংবাদপত্রে সাক্ষাত্কার দিতে গিয়ে ডোকলাম-কাণ্ডের জন্য চিনকেই দায়ী করেন সে দেশে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত গৌতম বামবাওয়ালে। তাঁর দাবি, ‘‘ভারত আগ বাড়িয়ে কোনও পদক্ষেপ করেনি। বরং চিনের সেনাবাহিনী ডোকলামের স্থিতাবস্থা পাল্টানোর চেষ্টা করায় ভারত পরিবর্তিত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হয়েছিল।’’ এতেই চিন ফুঁসে উঠেছে। সোমবার চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র হুয়া চুনইং জানিয়ে দেন, ‘‘ডোকলাম তাদের এলাকা। সেখানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার তাদের রয়েছে।’’ডোকলাম নিয়ে চিন নতুন করে দাবি জানানোয় অশান্তির আশঙ্কা ফের প্রবল হচ্ছে। এমনিতে ডোকলাম মালভূমি ছোট্ট এক চিলতে এলাকা। ভারতের মিত্র দেশ ভুটানের দাবি, ডোকলাম তাদের। কিন্তু কৌশলগত কারণে এর অবস্থান এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যে, চিন এই এলাকা ‘গিলে খাওয়া’র চেষ্টা করেছিল বলে অভিযোগ।গত বছরের জুন মাসে ডোকলামের মাটিতে চিন রাস্তা তৈরির চেষ্টা করলে বাধা দেয় ভারত। এর পর রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনা। টানা তিন মাস মুখোমুখি দাঁড়িয়েছিল দু’দেশের সেনা। ডোকলাম নিয়ে ভারত এবং চিন যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রবল হয়ে উঠেছিল। সে যাত্রায় যুদ্ধ এড়ানো গেলেও, চিন যে ডোকলাম নিয়ে তাদের দাবি থেকে সরে আসেনি, সেটা তাদের কথা থেকেই স্পষ্ট। ভারতকে চিনের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখার পরামর্শ দিয়ে, বেজিং-এর সাফ কথা,‘‘ডোকলাম ঐতিহাসিকভাবে তাদের এলাকা। ভারতের এই সত্যিটা মনে রাখা উচিত।’’

  • সইদ সম্পর্কে কী অভিমত পাকিস্তানের সাধারণ নাগরিকের?

    ডেস্কঃ(I.D). ২৬ মার্চ ২০১৮ ঃ- দুনিয়াকে দেখানোর জন্য সইদের জামাত-উদ-দাওয়া-র সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করছে পাক সরকার। কিন্তু সইদ সম্পর্কে কী অভিমত পাকিস্তানের সাধারণ নাগরিকের?আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে লস্করের সহ প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ সইদকে এক সময় গৃহবন্দি করেছিল পাকিস্তান। তবে তাকে আটকে রাখা ‌যায়নি। পাক আদালত সইদকে মুক্তি দিয়েছে। আম পাকিস্তানিরা সইদ ও তার প্রতিষ্ঠান জামাত-উদ-দাওয়া সম্পর্কে কী ভাবে তা নিয়ে একটি সমীক্ষা প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক সমীক্ষা সংস্থা পিউ। পিউ তার ‘পিউ গ্লেবাল অ্যাটিটিউডস পোল ইন পাকিস্তান ২০১৫’-এ বলেছে, তেহরিকে-ই-তালিবানের থেকে লস্করের উপরে বেশি নির্ভর করে সাধারণ পাক নাগরিকরা।লস্করের কা‌র্যকলাপ পাকিস্তানের বেশকিছু মানুষ পছন্দই করে। কাশ্মীর নিয়ে লস্করের ভারত বিরোধিতা পাক জনগণের উপরে ভালো প্রভাব ফেলে। তবে দেখার বিষয় হল, লস্কর শুরু ভারত বিরোধীই নয়, তারা ইসরায়েল ও পশ্চিমী দুনিয়ারও বিরোধী।ওয়াশিং পোস্টের একটি রিপোর্টে অনু‌যায়ী ২০০৫ সালে ‌যখন পাকিস্তানে ভয়ঙ্কর ভূমিকম্প হয়েছিল তখন জামাত-উদ-দাওয়া সাধারণ মানুষরে ত্রাণে বড়সড় কাজ করেছিল। সেই সময়কার বেশকিছু মানুষের একটাই কথা, জামাত আহত মানুষদের চিকিৎসা করেছে। তারা কোনও হিংসার সঙ্গে জড়িত কিনা জানি না।

  • মূর্খ পাকিস্তানে হামলার শিকার পোলিও কর্মীরা ঃ ২ পোলিও কর্মীকে গুলি করে হত্যা।

    ডেস্ক ঃ হিংস্র , মূর্খ, মাতব্বর রাষ্ট্রগুলির তালিকায় এখনও রয়েছে পাকিস্তান। সেই পাকিস্তানেই হামলার শিকার পোলিও কর্মীরা। রবিবার পাক-আফগান সীমান্তের সাফি তেহসিলে ২ পোলিও কর্মীকে গুলি করে মারল জঙ্গিরা। এছাড়া আরও ৩ কর্মিকে তুলে নিয়ে গেল তারা। গোলাগুলির মধ্যে ২ কর্মী পালিয়ে গিয়ে প্রাণে বাঁচেন। তাঁরা এসে শেষপ‌র্যন্ত তাঁদের এসেন্সিতে এসে খবর দেন। কেন এই হামলা? পাকিস্তানের বহু জায়গায় এখনও মনে করা হয় পোলিও দেওয়ার নাম করে গোয়েন্দাগিরি করছে বিদেশি সংস্থাগুলি। এছাড়াও কোনও কোনও এলাকায় এমনও মনে করা হয়ে পোলিও টিকা দিয়ে নির্বিজকরণ করা হচ্ছে মুসলিম শিশুদের। ফলে হামলা থেকে রক্ষা নেই করাচির মতো শহরেও।গত মাসে করাচির একটি স্কুলে খোদ স্কুল কর্তৃপক্ষ পোলিও কর্মীদের উপরে হামলা চালায়। 

  • নেপালের কাটমান্ডু বিমানবন্দরে ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে বাংলাদেশি বিমান, হত ৫০

    ডেস্কঃ (I.D). ১২ মার্চ ২০১৮ঃ- ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডুগামী ইউএস বাংলা এয়ারলাইনসের বিমান দুর্ঘটনার কবলে পড়ল ।  স্থানীয় সময় সোমবার দুপুর ২.৩০ মিনিটে কাঠমান্ডু বিমানবন্দরে অবতরণের সময় দুর্ঘটনাগ্রস্ত হয় বোম্বাইডার ড্যাস কিউ৪০০ বিমানটি। টার্বোপ্রপ ইঞ্জিনচালিত এই বিমানটি রানওয়ের বদলে এয়ারপোর্টের একটি ফুটবল মাঠে দাঁড়িয়ে পড়ে। ঘটনায় এখনো প‌র্যন্ত ৫০ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে।  কাঠমান্ডুর ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় ঘটে যায় দুর্ঘটনাটি। রানওয়েতে নামার বদলে বিমানটি বাইরে চলে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই আগুন লেগে যায় তাতে। এখনও পর্যন্ত ১৭জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বিমানটি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।  বিমানটি ভেঙে পড়তেই উদ্ধারকাজে নামে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। উদ্ধার করা হয় ‌একাধিক ‌যাত্রীকে। ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছেন নিরাপত্তারক্ষীরা। ইতিমধ্যেই দুর্ঘটনার সেই ছবি সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকল। চেষ্টা চলছে আগুন নেভানোর। বিমানটি ১৭ বছরের পুরনো বলে জান গিয়েছে। তবে এখনও দুর্ঘটনার কারণ স্পষ্ট নয়। দুর্ঘটনার পর কাঠমান্ডুগামী সমস্ত বিমানকে কলকাতা ও লখনৌয়ের অভিমুখে ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

  • মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চাপে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াতে পারল না চিন।

    ডেস্কঃ (I.D).২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ঃ- মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চাপে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াতে পারল না চিন। ভারতকে চাপে রাখতে বিভিন্ন মঞ্চে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়ায় চিন। সেই বেজিংই এবার হাত ছাড়ল ইসলামাবাদের। ফলে অস্বস্তি বাড়ল পাকিস্তানের। সূত্রের খবর, পাকিস্তানে সন্ত্রাসে অর্থ খরচ হচ্ছে কিনা, তার উপরে নজরদারি চালাবে Financial Action Task Force।অর্থ তছরূপ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সংস্থা FATF-এর ৩৫ সদস্যই পাকিস্তানের উপরে নজরদারির পক্ষে সম্মত হয়েছে। বন্ধু দেশকে বাঁচাতে আগে ভেটো দিয়েছিল চিন। তবে এবার বেজিং সম্মতি দিয়েছে বলে খবর। শোনা যাচ্ছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য দেশের চাপের মুখেই অবস্থান বদল করেছে চিন।তবে পাক কূটনীতিকদের দাবি, এব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। ভারত একাধিকবার দাবি করেছে, সন্ত্রাসবাদীদের স্বর্গরাজ্য পাকিস্তান। ভারতবিরোধী সন্ত্রাসে মদত দেয় ইসলামাবাদ। মাসখানেক আগেই পাকিস্তানকে সবরকম আর্থিক সাহায্য বন্ধ করে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।    

  • যৌন মিলনের সময় কনডোম ব্যবহার করা উচিত নয়,কনডোম কোনও সুখ দিতে পারে না মন্তব্য করলেন ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রড্রিগো দুতের্তে।

    ডেস্কঃ ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ঃ- কয়েক দিন আগেই ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রড্রিগো দুতের্তে দেশের সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছিলেন, মহিলারা বিদ্রোহ করলে তাদের প্রাণে না মেরে যৌনাঙ্গে গুলি চালানোর জন্য। তাঁর এই মন্তব্যকে ঘিরে দেশজুড়ে বিদ্রোহ দেখা দেয়।ফের বিতর্কিত মন্তব্য করেন  ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রড্রিগো দুতের্তে। কুয়েতে কর্মরত ফিলিপিন্সের বাসিন্দারের একটি সভায় বক্তব্য রাখছিলেন দুতের্তে। সেখানে তিনি বলেন, ''এইডস-এর প্রকোপ ও তার প্রকিকার শীর্ষক এই আলোচনা সভায় তিনি বলেন, যৌন মিলনের সময় কনডোম ব্যবহার করা উচিত নয়। কারণ কনডোম কোনও সুখ দিতে পারে না।সভায় মহিলাদের সংখ্যা ছিল বেশি। তাদের উদ্দেশ্য করে প্রেসিডেন্ট দুতের্তের পরামর্শ, ''আপনারা কনডোমের বদলে গর্ভনিরোধক ওষুধ ব্যবহার করুন। কারণ কন্ডোম আপনিকে সুখ দিতে পারবে না।প্রসঙ্গত এশিয়ায় সবথেকে বেশি এইচআইভি আক্রান্তের সংখ্যা ফিলিপিন্সে। প্রত্যেক বছর এই সংখ্যাটা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে প্রসিডেন্টের এই মন্তব্যে বিরোধীতার ঝড় উঠেছে বিভিন্ন মহল থেকে।তাঁর মন্তব্যের সমালোচনায় মুখোর হয়েছেন সমাজকর্মীরা। প্রতিবাদে নেমেছে বিরোধীরাও।

  • বেনজির ভুট্টোর হত্যার এক দশক পর সামনে এল বিস্ফোরক তথ্য।

    ডেস্ক ঃ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর হত্যার এক দশক পর সামনে এল বিস্ফোরক তথ্য। ভুট্টোর হত্যার পিছনে হাত ছিল আল কায়দা জঙ্গিগোষ্ঠীর প্রধান ওসামা বিন লাদেনের। সেই কারণেই আফগানিস্তানে চলে গিয়েছিলেন লাদেন, এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য জানাচ্ছে পাক সংবাদমাধ্যমই। আরও জানা যাচ্ছে, লাদেনের মাস্টার প্ল্যানে টার্গেট হিসাবে ভুট্টোর পাশাপাশি পারভেজ মুসারফও ছিলেন। ২০০৭ সালে পাক গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিস ইন্টিলিজেন্স (আইএসআই) এবং পাক সেনাদের কাছে আগেই এই খবর ছিল। পাক অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকে চিঠি দিয়ে সে কথা জানানো হয়েছিল বলেও দাবি করছে গোয়েন্দা বিভাগ।প্রসঙ্গত, ২০০৭ সালের ২৭ ডিসেম্বর, রাওয়ালপিণ্ডির লিয়াকত বাগের সামনে এক নির্বাচনী প্রচারে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে এবং গুলি বিদ্ধ হয়ে মারা যান জুলফিকার আলি ভুট্টোর কন্যা বেনজির ভুট্টো। এই হত্যার ঠিক ১০ বছর পর এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আসায় রীতিমত বিপাকে পড়েছে পাক প্রশাসন। পাক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, ২০০৭-এর ডিসেম্বরে সেনা এবং আইএসআই এই হত্যার ষড়যন্ত্র সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট জমা দেয় পাক অভ্যন্তরীণ মন্ত্রককে। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট মুশারফ, পাকিস্তান পিপল পার্টির (পিপিপি) প্রধান তথা প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো, জামায়াত-উলেমা-ই- ইসলাম-ফজলের প্রধান ফলুর রহমানকে হত্যা করার জন্য মাস্টার প্ল্যান তৈরি করেছে লাদেন। ভুট্টোর হত্যার সপ্তাহ খানেক আগে পাঠানো ওই চিঠির প্রথম লাইনে লেখা ছিল-'প্রেসিডেন্ট মুশারফ, বেনজির ভুট্টো, ফজলুর রহমানের হত্যা প্ল্যান'। 

  • রাজস্থানে ভারত-পকিস্তান সীমান্তবর্তী এলাকায় অস্ত্র মোতায়েন করছে পাকিস্তান।

    ডেস্ক ঃ ইন্ডিয়া টিভির খবর অনুযায়ী, রাজস্থানে ভারত-পকিস্তান সীমান্তবর্তী এলাকায় অস্ত্র মোতায়েন করছে পাকিস্তান। সীমান্ত বরাবর মোতায়েন করা হয়েছে বেশ কিছু ট্যাঙ্কারও। ইতিমধ্যেই সীমান্ত বরাবর ভারতের দিকে তাক করে পাকিস্তান ২৫টি ট্যাঙ্কার মোতায়েন করেছে বলে খবর।রিপোর্টে প্রকাশ, ভারতের দিকে তাক করে যে ট্যাঙ্কার এবং ভারী অস্ত্র মোতায়েন করা হয়েছে, তার ছবি উঠে এসেছে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে। যদিও খবর পাওয়া যাচ্ছে, গত ২৫ ডিসেম্বর সীমান্ত ঘেঁষে সেনা মহড়া শুরু করে পাকিস্তান। যেখানে ১০ থেকে ১৫ হাজার পাক সেনা জওয়ান অংশ নিয়েছিলেন বলে খবর। ওই মহড়ার অংশ হিসেবেই কি ভারত-পাক সীমান্ত বরাবর ভারি ট্যাঙ্কার এবং অস্ত্র মোতায়েন করা হয়েছে, খতিয়ে দেখা হচ্ছে সেই বিষয়টিও।

  • রাশিয়ার জনবহুল সুপারমার্কেটে আচমকাই বড় মাপের বিস্ফোরণ

    ডেস্ক ঃ জোরাল বিস্ফোরণে এবার রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গের একটি জনবহুল সুপারমার্কেটে আচমকাই বড় মাপের বিস্ফোরণ ঘটে। বুধবারের হামলার জেরে ৪ জন আহত হয়েছেন বলে খবর।সংবাদ সংস্থা এএফপি-র খবর অনুযায়ী, হামলার পর পরই আহতদের স্থানীয় হাসপতালে ভর্তি করা হয়। বিস্ফোরণের সময় ওই এলাকায় বহু মানুষের জমায়েত ছিল। সেই কারণেই জোর কদমে চলছে উদ্ধার কাজ। হামলার পরই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিস প্রশাসন। শিগগিরই শুরু করা হয় উদ্ধার কাজ। তবে কী কারণে ওই বিস্ফোরণ ঘটে, সে বিষয়ে স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি।