You are here: Homeদেশসারা দেশItems filtered by date: Thursday, 05 October 2017

ডেস্ক, ৫ই অক্টোবরঃ আগামীকাল ভারতীয় ফুটবল প্রেমীদের কাছে এক স্মরণীয় মুহূর্ত।এই  প্রথম ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে খেলতে নামছে ভারতীয় দল। যা ঘিরে অধীর অপেক্ষায় প্রহর গুণছে দেশবাসী। অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ প্রতিযোগিতার আয়োজক দেশ হিসেবে এই বিশ্বকাপে স্বাভাবিক নিয়মে ভারত খেলার সুযোগ পাচ্ছে। এই প্রতিযোগিতার অন্যতম দুর্বল দল যে ভারত, তা নিয়ে কোনও দ্বিমত নেই।কিন্তু, এই প্রতিযোগিতাকে স্মরণীয় করে তুলতে কোমর বেঁধে নেমেছে ভারতীয় অনূর্ধ্ব-১৭ দল। বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য  ফুটবলারদের ইউরোপ সফরে পাঠিয়েছিল এআইএফএফ। এছাড়া, মেক্সিকোতে একটি টুর্নামেন্টেও খেলে তারা।

আগামীকাল, ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের  উদ্বোধনী ম্যাচে শক্তিশালী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দলের মুখোমুখি ভারত।খেলা হবে  নয়াদিল্লির জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে। মার্কিন দলের অধিকাংশ ফুটবলার মেজর  লিগ সকারের বিভিন্ন জুনিয়র দলে খেলে। এ ছাড়াও অনেকে ইউরোপের ক্লাবেও খেলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ভারতের সবচেয়ে বড় সুবিধা হল ঘরের মাঠ। বিশ্ববাসীকে ভারতীয় ফুটবলারদের শক্তি দেখানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অধিনায়ক অমরজিত সিংহ ও তাঁর দলবল। সকলেই নিজেদের সেরাটা উজাড় দিতে বদ্ধপরিকর। দ্বিতীয়ত, কেউ ভারতীয় দল সম্পর্কে তেমন কিছু জানে না। ফলে, বিপক্ষ দলের রণকৌশল তৈরি করা কিছুটা সমস্যার হবে।

উল্টোদিকে, ভারতের সবচেয়ে বড় খামতি হল, এধরনের শীর্ষস্তরে প্রতিযোগিতার আগে, যতটা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ম্যাচ খেলা প্রয়োজন, তা ভারতীয় অনূর্ধ্ব-১৭ দল পায়নি । এই দল গঠিত হয়েছে   মাত্র সাতমাস আগে। গত মার্চ মাসে দলের দায়িত্ব নেন হেড কোচ লুই নর্টন দি মাতোস।

নতুন কোচ দলে একাধিক পরিবর্তন এনেছেন। তিনি জানান, ভারতীয় দল ওপেন গেম খেলতে পারবে না। ফলে, দলের রণনীতি হবে প্রতিরক্ষা মজবুত করে প্রতি-আক্রমণ করা। তিনি জানান, দলের প্রাথমিক লক্ষ্য হল, কম গোল হজম করা।

অনুমান করা যাচ্ছে  আগামীকাল গোলে থাকবেন মোইরাংথেম ধীরজ সিংহ। দুই রেগুলার সেন্টার ব্যাকে থাকবেন আনোয়ান আলি ও জীতেন্দ্র সিংহ। ফুল ব্যাকে থাকবেন সঞ্জীব স্তালিন। রাইট ব্যাকে হেন্দ্রি অ্যান্তোনে।

দলের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হল ৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার দীর্ঘকায় মিডফিল্ডার জ্যাকসন সিংহ। এছাড়া মাঝমাঠে থাকছেন অমরজিত সিংহ ও সুরেশ সিংহ। লেফট উইংয়ে থাকবেন কোমল ঠাটাল। একমাত্র স্ট্রাইকার হবেন অনিকেত যাদব।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের  এই দল  মারাত্মক শক্তিশালী। তবুও মাতোসের আশা, তাঁর দলের ছেলেরা রীতিমত ভাল টক্কর দিতে পারবে।

Published in Football

ডেস্ক, ৫ই অক্টোবরঃ   বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও জ্যপ্রকাশ মজুমদার সহ তাঁর অনুগামীরা  দার্জিলিংয়ে গিয়ে হেনস্থার শিকার হলেন  প্রকাশ্যে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক  মারধর করা হয় ৪ বিজেপি কর্মীকে।কোনওমতে পালিয়ে চকবাজার থানায় গিয়ে আশ্রয় নেন দিলীপ ও তাঁর অনুগামীরা। গোটা ঘটনায় বিনয় তামাংয় সহ শাসক দলের  দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। এদিকে, পাহাড়ের এই গটনার প্রতিবাদে কলকাতা সেন্ট্রাল অ্যাঊিনিউ থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে বিজেপি। দলীয় নেতার হেনস্থার প্রতিবাদে রাজ্যজুড়ে বিক্ষোঊ কর্মসূচিও নেয় দল। অন্যদিকে, দার্জিলিং-এর পুলিশ সুপার অখিলেষ চতুর্বেদী  জানিয়েছেন গোটা ঘটনার আইন অনুযায়ী ব্যবস্তা নেওয়া হবে।

রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ বুধবারই পাহাড়ে এসেছেন। কালিম্পংয়ে সভার করে বৃহস্পতিবারই তিনি  দার্জিলিংয়ে আসেন। ম্যালের ডিজিএনএস ভবনে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সভা ও বিজয়া সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু সভা শুরু হতেই সেখানে প্রবল বিক্ষোভের মুখে পড়েন তিনি। তাঁকে কালো পতাকা দেখানোর পাশাপাশি গো ব্যাক স্লোগান দিতে থাকে বিনয় তামাং গোষ্ঠী।
সভা ভণ্ডুল হয়ে যাওয়ায় হেঁটেই সেখান থেকে হেঁটে রওনা দেন দিলীপ ও তাঁর অনুগামীরা। কিন্তু  রাস্তাতেই তাঁকে ঘিরে আবার  বিক্ষোভ দেখাতে থাকে বেশ কিছু মানুষ। দিলীপ ঘোষকে ধাক্কা দেওয়ার পাশাপাশি তাঁর চার অনুগামীকে রীতিমত রাস্তায় ফেলে মারধর করা হয়।

এরপরই কোনওমতে সেখান থেকে চকবাজার থানায় গিয়ে আশ্রয় নেন তাঁরা। বিনয় তামাংয়ের গোষ্ঠীই তাঁদের ওপর হামলা চালিয়েছে,এই হামলার তার নবান্নের সঙ্গে জোড়া রয়েছে বলে অভিযোগ  করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। এমনকী পুলিশি নিস্ক্রিয়তারও অভিযোগ করেছেন তাঁরা। দিলীপ ঘোষের অভিযোগ, সভা থেকে বেরনোর পরও তাঁদের কোনও পুলিশি নিরাপত্তা দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।

দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, পুরোপুরি পরিকল্পনা করেই হামলা করা হয়েছে। পাহাড় ছেড়ে কোথাও ‌যাচ্ছি না। ভয় দেখানোর জন্যই এসব করা হয়েছে। এদিকে বিজেপি-র সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ দিলীপ ঘোষের কাছে ফোন করে গোটা ঘটনার বিস্তারিত রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন।

Published in State

ডেস্ক, ৫ই অক্টোবরঃ তৃণমুল নেতাদের কথামত পুলিশ বিজেপি কর্মীকে মিথ্যা মামালায় ফাঁসিয়ে দেবার অভিযোগ তুলে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাল বিজেপির নেতা কর্মী সমার্থকেরা।বুধবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুর হাইরোড়ে কয়েকশো বিজেপি নেতা কর্মী সমার্থকেরা অবরোধ শুরু করে।পুলিশ অবরোধ তুলতে গেলে থানার আই সি,মহুকুমা পুলিশ আধিকারিকেরা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায় তাঁরা।অবশেষে পুলিশ ২৫জন বিজেপি নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।৩ঘন্টা পরে অবরোধ উঠে যায়।
                  মঙ্গলবার দুপুরে গঙ্গারামপুর থানার দক্ষিণ জয়পুরের বাসিন্দা সাধারণ পরিবারের ছেলে বিজেপি সমার্থক অপু সিংকে এলাকার তৃণমুল সমার্থকেরা জোর করে তাঁদের পার্টি অফিসের মধ্যে আটকে রাখে বলে বিজেপির অভিযোগ।এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা তথা(২)১বেলবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়তের অঞ্চল তৃণমুলের সহ সভাপতি অরুপ দেবসিংহ অভিযোগ করে বলেন যেহেতু বিজেপি সমার্থকেরা এই অঞ্চলে কোন সুুবিধে করতে পারছে না ,তাই মাস্কেট নিয়ে এসে আমাকে খুনের চেষ্টা করে বলে তাঁর অভিযোগ।তৃণমুলের দলীয় কর্মীড়া তাঁকে মাস্কেট এক রাউন্ড গুলি সহ ধরে ফেলে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।মঙ্গলবার দুপুরেই বিজেপি নেতা  কর্মী সমার্থকেরা এই ঘটনার খবর পাবার পরেই থানায় ছুটে আসে।রাতেই থানা থেকে ওই বিজেপি কর্মী অপুকে ছেড়ে দেবার কথা থাকলেও বুধবার সকালে পুলিশ আগ্নেয়াঅস্ত্র ধারা দিয়ে অপুকে আদালতে পাঠায়।এই ঘটনার খবর পাবার পরেই কয়েকশো বিজেপি নেতা কর্মীরা গঙ্গারামপুর হাইরোড়ে মালদা বালুরঘাট ৫১২ নম্বর রাজ্য সড়ক অবরোধ করে।
              গঙ্গারামপুর বিজেপি মন্ডলের নেতা সোনাতন কর্মকার,নিখিল দাসের নেতৃত্বে বিজেপির গঙ্গারামপুর শহরের যুব নেতা রুপেশ দাস ,সোনাই রাজবংশী,গোপাল সেন,বৃন্দাবন ঘোষ সহ কয়েক শতাধিক বিজেপি নেতা কর্মী সমার্থকেরা এমন আন্দোলনে অংশ গ্রহন করেন।দির্ঘ সময় অবরোধ চলার বিশাল যানজোটের সৃষ্টি হয়।থানার পুলিশ অবরোধ তোলার চেষ্টা করে।কিন্তু নির্দোষ কর্মী অপুর মুক্তির দাবিতে তাঁদের অবরোধ চলতে থাকবে বলে জানানো হয়।পরে অবরোধ তুলতে আই সি মকসেদুর রহমান ,মহুকুমা পুলিশ আধিকারিক বিপুল ব্যানার্জীকে  দির্ঘ সময় ধরে ঘেরাও করে রাখে বিজেপি কর্মী ।পুলিশ বাধ্য হয়ে ২৫ জন বিজেপি নেতা কর্মীকে নেটে হিচড়ে গাড়িতে তুলে অবরোধ তুলে দেয়।
               বিজেপি মন্ডলের নেতা সোনাতন কর্মকার অভিযোগ তৃণমুল নেতারা যা বলছে পুলিশ তাই করছে।চোখ থাকতেও তাঁরা অন্ধের ভুমিকা পালন করেই চলেছে।তাই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে এমন আন্দোলনে নামা হয়েছে।প্রয়োজনে বৃহত্তর আন্দোলনে নামব।              
               গঙ্গারামপুর বাসীর অভিমত ভাঙ্গা মাস্কেট দিয়ে যদি কাউকে খুনের চেষ্টা করে  তাহলে পুলিশি  তদন্ত না করেই কেন আগ্নেয়াঅস্ত্র ধারায় মামলা দায়ের করল।তাহলে কি থানার আই সি ও মহুকুমা পুলিশ আধিকারিক কৃতদাসের ভুমিকা পালন করে চলেছেন নেতাদের খুশি করতে।না কি এর সঙ্গে রয়েছে অন্য কোন উদ্দেশ্যে।
              যদিও জেলা পুলিশ সুুপার প্রসুুন ব্যানার্জী জানিয়েছেন পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখে ব্যবস্থা নেবার নিদের্শ দেওয়া হয়েছে।
              


        ছবি ক্যাপশন ঃ-১) এই সেই
       
         
 


Published in Malda-Dinajpur-2


ডেস্ক, ৫ অক্টোবর-----বন্যা বিপর্যস্ত গ্রামবাসীদের ত্রাণের সামগ্রী বিলি না করে বাড়িতে মজুত করে রাখার অভিযোগ তৃনমুলের এক পঞ্চায়েত সদস্যর বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার দুপুরে এমনই অভিযোগ তুলে ওই তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন গ্রামবাসীরা। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট থানার বোল্লা গ্রাম পঞ্চায়েতের বৈদ্যপুর গ্রামের ঘটনা। গ্রামবাসীদের অভিযোগ শুধু ত্রাণ নয়, এলাকায় দীর্ঘ দিন ধরে একশো দিনের কাজ করেও কোন টাকা পায়নি বহু মানুষ। এমন সব ঘটনার প্রতিবাদেই ওইদিন পঞ্চায়েত সদস্য দিপ্তী কাজুয়ার বাড়িতে চড়াও হয় উত্তেজিতরা। বাড়ি ঘেরাও করে দীর্ঘক্ষণ বিক্ষোভ দেখান তারা। যদিও সেই সময় বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন না অভিযুক্ত পঞ্চায়েত সদস্যা দিপ্তী কাজুয়া। তবে এলাকার সুুপারভাইজার টারজান কাজুয়া বাসিন্দাদের বিক্ষোভে পড়ে খানিকটা ঘাবড়ে যান। পরিস্থিতি আঁচ করে সুুযোগ বুঝে এলাকা থেকে পালিয়ে যান।     
এলাকার বাসিন্দা মানস রায়, শিলা বানরা ও মিঠুন সরকাররা জানিয়েছেন, বন্যায় আমরা চরম সঙ্কটের মধ্যে ছিলাম। সেই সময় সরকারি সাহায্য আসা সত্বেও আমাদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিলি করা হয়নি। পঞ্চায়েত সদস্য ওই সমস্ত সামগ্রী নিজের বাড়িতে মজুত করে রেখেছে। ঘটনার প্রতিবাদে এদিন সকলে মিলে তার বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখানো হয়েছে। একশো দিনের কাজের টাকা পরিষোধের দাবীও জানাই আমরা।
    বোল্লা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সুুচিত্রা বর্মণ এদিন টেলিফোনে জানিয়েছেন, গ্রামবাসীদের অভিযোগ শুনেছি। দেরিতে হলেও ত্রাণ সমস্ত এলাকায় বিলি হয়েছে। কিন্তু ওই এলাকায় এখনো কেন তা বিলি হয়নি তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পঞ্চায়েত খুললে একশো দিনের কাজের বকেয়া টাকার বিষয়টিও গুরুত্বের সাথে দেখা হবে।


Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্ক, ৫ই অক্টোবরঃ আবার গরু মোষ পাচারের খবরের শিরোনামে মালদার কালিয়ায়াচক। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে ৬টি গরু এবং মোষ সহ একটি পিক আপ ভ্যান আটক করলো মালদার কালিয়াচক থানার পুলিশ। ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে এক পাচারকারিকেও। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশে পাচার করা হত গরু গুলি। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

জানা গেছে, ধৃতের নাম মানিক মণ্ডল। বাড়ি কালিয়াচক থানার সাহাবাজপুর এলাকায়। বুধবার রাতে কালিয়াচক থানার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মালদা-ফরাক্কা ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ফুটিয়া ব্রীজ এলাকায় হানা দেয়। সেখানে হানা দিয়ে পুলিশ একটি পিক আপ ভ্যান আটক করে। উদ্ধার হয় ৬টি গরু এবং মোষ। গ্রেফতার করা হয় মানিক মণ্ডল নামে ওই যুবককে। পুলিশ জানিয়েছে, মুর্শিদাবাদ থেকে মালদায় নিয়ে আসা হচ্ছিল গরুগুলি। ঠিক সেই সময় কালিয়াচকের ফুটিয়া ব্রীজের কাছে কালিয়াচক থানার পুলিশ হানা দিয়ে পিক আপ ভ্যানটি আটক করে গরুগুলি উদ্ধার করে। জানা গেছে, মালদহের সীমান্ত দিয়ে চোরা পথে বাংলাদেশে গরু গুলি পাচার করা হত। ধৃত মানিক মণ্ডলকে বৃহস্পতিবার মালদা জেলা আদালতে পেশ করে পুলিশ।

Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্ক, ৫ অক্টোবর : হরিশ্চন্দ্রপুর থানার তুলসিহাটা এলাকার একটি গ্রামে আক্রান্ত হলেন এক গৃহবধূ ও তার মেয়ে জমি মাফিয়াদের হাতে । শুধু তাই নয়, ওই গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয় বলেও অভিযোগ। আহত অবস্থায় দু’জনকেইই মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আক্রান্তের পরিবারের সদস্যরা  হরিশচন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন এই ব্যাপারে।  অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। 

আক্রান্ত কিশোরীর স্থানীয় একটি স্কুলের ক্লাস এইটের ছাত্রী। তার বাবা  পেশায় কৃষিজীবী। পাশাপাশি ছোটোখাটো ব্যাবসাও করেন। মা গৃহবধূ। রিয়াদের বাড়ির পাশেই এক শতক জায়গা রয়েছে।

অভিযোগ, বেশ কিছুদিন থেকে সেই জায়গাটি হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছিল এলাকারই এক জমি মাফিয়া রাজু শেখ ও তার দলবল। কিশোরীর বাবাকে জায়গাটি তাদের কাছে বিক্রি করে দেওয়ার জন্য  চাপ দেয়। কিন্তু, সেই চাপের কাছে মাথা নোয়াননি তার বাবা। এনিয়ে জমি মাফিয়াদের সঙ্গে তাদের বিরোধ শুরু হয়।

আজ সকালে রিয়ার বাবা কাজে বেরিয়ে জাওয়ার পর , রিয়া ও তার মা বাড়িতে একাই ছিলেন। অভিযোগ, কিছুক্ষণ পরেই তাঁদের বাড়িতে দলবল নিয়ে হাজির হয় রাজু। লাঠি দিয়ে রিয়াকে বেধড়ক মারতে শুরু করে। রিয়াকে বাঁচাতে গেলে রাজুরা তার মাকে তুলে বাড়ির পাশের একটি জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ।

মাকে বাঁচাতে চিৎকার করে রিয়া। তার চিৎকারে স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনাস্থানে এলে রাজু ও তার দলবল সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এরপর আহত অবস্থায় মা ও মেয়েকে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান বাসিন্দারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থানে আসেন রিয়ার বাবাও। এরপর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় রিয়া ও তার মাকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।  

Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্ক,৫ই অক্টোবরঃ ভিন রাজ্যে কাজে গিয়ে ফের প্রাণ হারাল মালদার এক যুবক। বুধবার রাতে ওই যুবকের নিথর দেহ গ্রামে এসে পৌঁছাতেই গোটা এলাকা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। পুরাতন মালদহের সাহাপুর অঞ্চলের রসিলাদহ এলাকার ঘটনা।
জানা গেছে, মৃত ওই যুবকের হাসিম শেখ। বাড়ি পুরাতন মালদা ব্লকের সাহাপুর অঞ্চলের রসিলা দহ এলাকায়। পরিবারে উপার্জনের একমাত্র হাসিম শেখই ছিল। গত এক মাস আগে ওই যুবক ব্যাঙ্গালুরু যায় টাওয়ার তৈরির কাজ করতে। চলতি মাসের গত ২ তারিখ টাওয়ার নির্মাণ করার সময় ইলেকট্রিক শক খয়ে উপর থেকে নীচে পড়ে গিয়ে মৃত্যু হয় হাসিম শেখ নামে ওই শ্রমিকের। বুধবার রাতে তার নিথর কফিন বন্দি দেহ গ্রামে এসে পৌঁছাতেই গোটা এলাকা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে।

Published in Malda-Dinajpur-2

ফটো গ্যালারী

Market Data

সম্পাদকের কথা

ফ্যান ছবিতে দেখা যাবে ১৭ বছরের শাহরুখকে

ফ্যান ছবিতে দেখ...

ডেস্ক: ছবির নাম যখন ফ্যান, আর অভিনয়ে যখন...

ধর্মীয় মৌলবাদীদের হামলায় খুন লেখক অভিজিৎ রায়

ধর্মীয় মৌলবাদীদ...

ঢাকা: একুশের বইমেলা থেকে ফেরার পথে ঢাকা ...

উদাসী হাওয়ায় গা ভাসিয়ে বলতেই পারেন, ""হোলি হ্যায়''!!!

উদাসী হাওয়ায় গা...

শান্তিনিকেতনে বসন্ত উত্সবের সূচনা হয় প্র...

বিবাহ বন্ধনে আবব্ধ হতে চলেছেন খ্যাতনামা অফ-স্পিনার হরভজন সিংহ

বিবাহ বন্ধনে আব...

কার্ত্তিক চন্দ্র পাল : ভারতের খ্যাতনামা ...

আপগ্রেড করুন

« October 2017 »
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
            1
2 3 4 5 6 7 8
9 10 11 12 13 14 15
16 17 18 19 20 21 22
23 24 25 26 27 28 29
30 31          

MC News

Contact Us

Email: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

Face Book: /newsbazar24 

Helpline No- 09434219594/9126173604