You are here: Homeদেশসারা দেশItems filtered by date: Wednesday, 04 October 2017

 ডেস্ক, ৪ঠা অক্টোবরঃ   এবার রসায়ন শাস্ত্রে নোবেল পেলেন তিন দেশের তিন বিজ্ঞানী  ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপির উন্নতিতে যুগান্তকারী অবদান রাখার জন্য । বিজ্ঞানী ও গবেষক জ্যাকস ডুবোচেট, জোয়াশিম ফ্রাঙ্ক ও রিচার্ড হেন্ডারসন এবার সেই যুগান্তকারী আবিষ্কারেরই স্বীকৃতি পেলেন।
এই তিন বিজ্ঞানীরা  ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপির উন্নতিতে জৈব-অণুগুলিকে অণুবিক্ষণের নয়া পন্থা আবিষ্কার করেছেন।  
গতকাল  পদার্থবিদ্যায় নোবেল জয়ী বিজ্ঞানীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি মহাকর্ষীয় তরঙ্গ অনুসন্ধানের স্বীকৃতিস্বরূপ এই পুরস্কার পান রেইনার ওয়েইস, ব্যারি সি ব্যারিশ ও কিপ এস থোর্নে। এদিন নোবেলজয়ী তিন রসায়ন বিজ্ঞানীর নাম ঘোষণা করা হল।

নোবেল কমিটি এদিন এক বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায , এই তিন বিজ্ঞানীর গবেষণার ফলস্বরূপ জৈব অণুর গঠন সুস্পষ্টভাবে চিহ্নিত করা যাবে। ক্রায়ো ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ এতদিন বিস্তর ফাঁক ছিল। সমস্ত জৈব অণু অণুবীক্ষণ করা যেত না। তিন বিজ্ঞানীর নয়া প্রযুক্তি আবিষ্কারে সেই ফাঁক পূরণ হয়ে গেল। ফলে এখন থেকে সমস্ত জৈব অণুই তাঁর নির্দিষ্ট আকারে দৃশ্যমান হবে। নোবেলজয়ী তিন বিজ্ঞানীর মধ্যে একজন হলেন সুইজারল্যান্ডের নাগরিক জ্যাকস ডুবোচেট। তিনি লুজান বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেন। জার্মান বংশোদ্ভুত জোয়াশিম ফ্রাঙ্ক অধ্যাপনা করেন নিউইয়র্কে কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে। আর যুক্তরাজ্যের রিচার্ড হেন্ডারসন অধ্যাপনা করেন কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে। আণবিক গবেষণায় ক্রায়ো ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপির গুরুত্ব অপরিসীম। এর আগেও এই আণবিক গবেষণায় সাফল্যের জন্য নোবেল পুরষ্কার পেয়েছিলেন বিজ্ঞানীরা। গতবার মলিকিউলার মেশিন নিয়ে কাজের স্বীকৃতি  স্বরুপ জ্যাঁ পিয়েরে সোভাস, ফ্রেজার স্টোডার্ট ও বার্নাড এল ফেরিনগা পেয়েছিলেন নোবেল।

 

ডেস্ক, ৪ঠা অক্টোবরঃ  কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনী সমূহ ও আসাম রাইফেলস্ বাহিনীর শহীদ আধিকারিক-কর্মীদের স্কুল পড়ুয়া সন্তানদের জন্য ১১টি বৃত্তির চেক সরাসরি প্রাপকদের হাতে তুলে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শ্রী রাজনাথ সিংহ। আরও ১৭২ জনের বৃত্তির টাকাও ডিজিটাল পদ্ধতিতে সুবিধাভোগীদের অ্যাকাউন্টে জমা করে দিয়েছে আনুকূল্য প্রদানকারি সরোজিনী দামোদরণ ফাউন্ডেশন (এস ডি এফ)। 

২০১৬ থেকে এস ডি এফ এই বৃত্তি প্রদানের উদ্যোগ নেয়। সেইমতো কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে বিভিন্ন বাহিনীর শহীদ কর্মী আধিকারিকদের স্কুল পড়ুয়া ২৯৫ জন ছেলেমেয়েকে বাছাই করা হয়। উভয় পক্ষের মধ্যে আলোচনাক্রমে বৃত্তির পরিমাণ স্থির হয় মাথাপিছু ৬০০০ টাকা। চলতি বছরে এমনই ১৮৩ জনকে বৃত্তির সুবিধা প্রদান করা হলো। এই উপলক্ষে নিজের সংক্ষিপ্ত ভাষণে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এস ডি এফ কর্তৃপক্ষের উদ্যোগের প্রশংসা করেন। বিশেষ করে বয়স্ক ব্যক্তিদের দেখভাল ও সমাজের দুর্বল অংশের সেবার মতো জনহিতৈষী কাজে এই ফাউন্ডেশন নিয়োজিত আছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। সংশ্লিষ্ট অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ও কেন্দ্রীয় সশস্ত্র বাহিনীসমূহের উচ্চপদস্হ আধিকারিক, এস ডি এফ-এর পৃষ্ঠপোষক কুমারী শিবুলাল এবং বাহিনীর কর্মী আধিকারিকদের পরিবারবর্গও উপস্থিত ছিলেন। 

 

ডেস্ক, নয়াদিল্লি, ৪ অক্টোবর, ২০১৭ঃভারত ও স্যুইজারল্যান্ডের মধ্যে স্বাক্ষরিত রেল প্রকল্প সম্পর্কিত এক সহযোগিতা চুক্তি প্রসঙ্গেএক বিস্তারিত আলোচনা হয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে এবং তা অনুমোদিত হয়। এই মউ বা সহযোগিতা চুক্তিটি দু’দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয় এ বছরের ৩১ আগস্ট তারিখে।

সুড়ঙ্গ খনন কৌশল, বহু উদ্দেশ্যসাধক পরিবহণ ব্যবস্থা, রেল স্টেশনগুলির আধুনিকীকরণ, ট্রেনের সময়সূচি ও চলাচল ব্যবস্থার উন্নয়ন, রেলের বৈদ্যুতিক সাজসরঞ্জাম, যাত্রীবাহী ট্রেন ও তার মাশুল তালিকা, কোচ নির্মাণ ও বৈদ্যুতিক ইঞ্জিন সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুটি দেশ পরস্পরের মধ্যে প্রযুক্তিগত সহায়তা বিনিময় করবে স্বাক্ষরিত মউ-এর আওতায়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রেলের সার্বিক প্রসার ও উন্নয়নে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এবং সেখানকার জাতীয় রেলপথগুলির সঙ্গে প্রযুক্তিগত সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষরের এক বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ভারতের রেল মন্ত্রক। রেল প্রযুক্তি, জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা বিনিময়, প্রযুক্তিগত সফর বিনিময় কর্মসূচি, প্রশিক্ষণ, আলোচনাচক্র ও কর্মশালা ইত্যাদির মাধ্যমে পারস্পরিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে অন্যান্য দেশের সঙ্গে প্রযুক্তিগত সহযোগিতার প্রসার ঘটাতে আগ্রহী ভারতীয় রেল।

ডেস্ক, ৪ঠা অক্টোবরঃ মদ্যপানের প্রতিবাদ করায় কর্তব্যরত এক সিভিক ভলেন্টিয়ারকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল চার যুবকের বিরুদ্ধে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট শহর লাগোয়া চক্‌ভৃগু প্রিন্সক্লাব এলাকার ঘটনা। বাঁশ ও লোহার রড দিয়ে ওই সিভিক ভলেন্টিয়ারকে মারধর করে তার মাথা ফাটিয়ে দেয় দুস্কৃতিরা বলেও অভিযোগ। ঘটনার পর আশঙ্কাজনক অবস্থায় অমিত হালদার নামে ওই সিভিক কর্মীকে বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনা জানিয়ে বালুরঘাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন সিভিক ভলেন্টিয়ারের মা চামেলী হালদার। লিখিত অভিযোগের পরে বালুরঘাট থানার পুলিশ ঘটনার তদন্তে নামলেও অধরা অভিযুক্ত মুন্না দত্ত ও উজ্জ্বল সরকার। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়।
    পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, এবারের দুর্গা পূজোয় চক্‌ভৃগু এলাকার বিভিন্ন ক্লাবে শান্তিশৃঙ্খলার উপর নজর রাখার বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল চকভৃগুর শিমূলতলার বাসিন্দা তথা ওই সিভিক ভলেন্টিয়ারের উপর। পূজোয় যে কোন ধরনের অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটলে সাথে সাথে থানায় খবর দেওয়ার পাশাপাশি উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ ছিল তার কাছে। পুলিশ জানায়,  দশমীর ভোররাতে ডিউটি সেরে বাড়ি ফিরছিল সিভিক কর্মী অমিত হালদার। সেই সময় প্রিন্স ক্লাব এলাকায় রাস্তার উপরে বসে মদ্যপান করছিল স্থানীয় যুবক তথা অভিযুক্ত মুন্না দত্ত ও চকচন্দনের বাসিন্দা উজ্জ্বল সরকার সহ চার পাঁচ জন যুবক। এলাকা দিয়ে যাবার সময় এমন ভাবে মদ্য পানের প্রতিবাদ করে ওই সিভিক ভলেন্টিয়ার। এমন ঘটনায় ক্ষীপ্ত হয়ে ওই মদ্যপ যুবকরা তাকে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। বাঁশ ও লোহার রড দিয়ে মাটিতে ফেলে বেপরোয়া মারধরও করা হয় সিভিক অমিত হালদারকে বলেও অভিযোগ। ঘটনায় রক্তাক্ত অবস্থায় বালুরঘাট থানার পুলিশের সহায়তায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ওইদিন। এরপরেই ঘটনা জানিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন আক্রান্ত সিভিক কর্মীর মা। এদিকে থানায় অভিযোগ হবার পর থেকেই সিভিক কর্মীর বাড়িতে গিয়ে অভিযোগ তুলে নেবার জন্য নানান ভাবে ভয় দেখনো হচ্ছে অভিযুক্তদের পরিবারের তরফে বলেও অভিযোগ। প্রাণ নাশের হুমকিও দেওয়া হয়েছে আক্রান্ত সিভিক কর্মীকে।
    আক্রান্ত সিভিক কর্মী অমিত হালদার জানিয়েছেন, পূজোয় শান্তি বিঘ্নিত হবে বলে মদ্য পানের প্রতিবাদ করছিলাম। কিন্তু তাতেই উত্তেজিত হয়ে আমাকে ব্যাপক মারধোর করা হয়। মাথায় আঘাত করে আমার মাথা ফাঁটিয়ে দেওয়া হয়েছিল। অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাই।
    সিভিক কর্মীর মা চামেলী হালদার জানিয়েছেন, এলাকায় বিভিন্ন গন্ডোগোলের ঘটনায় জড়িত রয়েছে অভিযুক্তরা। মাঝে মধ্যেই মদ খেয়ে মারামারি গন্ডোগোল তাদের কাছে নতুন কিছু নয়। ছেলেকে মারধরের পর এখন অভিযোগ তুলে নেবার জন্য নানাভাবে হুশিয়ারী দেওয়া হচ্ছে অভিযুক্তদের পরিবারের তরফে।    
বালুরঘাট থানার আইসি সঞ্জয় ঘোষ জানিয়েছেন, অভিযোগ পেয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে।



ঞ্চত১ গ্রহণ করা হবে।  




Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্ক, ৪ঠা অক্টোবরঃ জালনোট সহ এক পাচারকারিকে গ্রেফতার করলো মালদার কালিয়াচক থানার পুলিশ। বুধবার ধৃতকে মালদা জেলা আদালতে পেশ করে পুলিশ।

জানা গেছে, ধৃতের নাম ষষ্ঠী মণ্ডল। বাড়ি কদম তলা এলাকায়। মঙ্গলবার রাতে কালিয়াচক থানার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জালালপুর বাস স্ট্যান্ড এলাকায় হানা দেয়। সেখানে হানা দিয়ে পুলিশ ষষ্ঠী মণ্ডলকে গ্রেফতার করে। ধৃতের কাছ থেকে উদ্ধার হয় ২০ হাজার টাকার জালনোট। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নামে একাধিক মামলা দায়ের রয়েছে। বেশ কিছু দিন ধরেই তাঁর খোঁজে ছিলো পুলিশ। ত্রদিন রাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জালাল পুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় হানা দিয়ে জালনোট সহ তাকে গ্রেফতার করা হয়।


Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্ক, ৪ঠা অক্টোবরঃ মালদার কালিয়াচকে আইনজীবির বাড়িতে ডাকাতির ঘটনার কিনারা করলো পুলিশ। ডাকাতি কান্ডে যুক্ত আরো এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে চুরি যাওয়া কিছু সামগ্রী উদ্ধার করলো কালিয়াচক থানার পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত জুলাই মাসের সাত তারিখ কালিয়াচক থানার জালালপুর স্ট্যান্ডের বাসিন্দা তথা পেশায় মালদা জেলা আদালতের আইনজীবি নেহারুল ইসলাম চৌধুরী বাড়িতে দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ঘটনার তদন্তে নেমে কালিয়াচক থানার পুলিশ চার জনকে গ্রেফতার করে চুরি যাওয়া টাকা, পয়সা এবং সোনা দানা উদ্ধার করে। এরপর পুলিশ তাদের হেফাজতে নিয়ে আরো একজনের নাম জানতে পারে। সেই মতো ঘটনার তদন্ত শুরু করে মঙ্গলবার রাতে কালিয়াচক থানার পুলিশ গোপন সুুত্রে খবর পেয়ে সুুজাপুর এলাকায় হানা দিয়ে মুসারোপ খালিপা ওরফে মিঠু সেখকে গ্রেফতার করে। ধৃতের কাছ থেকে উদ্ধার হয় চুরি যাওয়া বেশ কিছু সামগ্রী। উদ্ধার হয় একটি মটর বাইকও বলে জানাই পুলিশ।


Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্কঃ ৪ঠা অক্টোবরঃ  রাস্তার বেহাল দশার জন্য মালদার বামনগোলা থানার পাকুয়াহাট ১২ মাইলের কাছে রাজ্যসড়ক অবরোধ করল গ্রামবাসীরা। প্রায় ঘন্টা দেড়েক পর পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় গ্রামবাসীরা।
জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে মালদার বামনগোলা থানার পাকুয়াহাট ১২ মাইলের কাছে নালাগোলা মালদা রাজ্যসড়ক বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে। জায়গায় জায়গায় বড় বড় গর্ত, তাতে বৃষ্টির জল জমে রয়েছে। ভাঙা রাস্তায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে বিভিন্ন ধরনের যানবাহন। বারংবার জানানো সত্ত্বেও প্রশাসন কোনও বাবস্থা না নেওয়ায় এদিন মালদা নালাগোলা রাজ্যসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসীরা। প্রায় ঘন্টা দেড়েক অবরোধ চলার পাকুয়া ফাঁড়ির পুলিশ এসে প্রশাসনকে জানাবে বলে আশ্বাস দেওয়ায় বিক্ষোভ তুলে নেয় তারা।


Published in Malda-Dinajpur-2
ডেস্ক ,৪ অক্টোবর : তোলাবাজদের হাতে আক্রান্ত হল খোদ পুলিশই। ঘটনাটি ঘটেছে হরিশ্চন্দ্রপুরের ভালুকায়। হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন ভালুকা ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক। এদিন তাঁকে চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এই ঘটনায় পুলিশ মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করলেও পলাতক আরও ৬ অভিযুক্ত। তাদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।
      আহত পুলিশ আধিকারিকের নাম সুবীর সরকার। SI পদমর্যাদার সুবীরবাবু কিছুদিন আগে ভালুকা ফাঁড়ির দায়িত্ব নেন। দায়িত্ব নেওয়ার পরেই এলাকার তোলাবাজদের রুখতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেন তিনি। তাঁর হস্তক্ষেপেই ভালুকা এলাকায় এখন তোলাবাজদের দৌরাত্ম্য সম্পূর্ণ বন্ধ। দুর্গাপুজো ও মহরমেও তাঁর নেতৃত্বে ভালুকা ফাঁড়ির পুলিশের ভূমিকায় খুশি এলাকাবাসী। এই সব কাজের জন্যই এলাকার দুষ্কৃতীদের বিষ নজরে পড়েছিলেন তিনি। দুর্গা বিসর্জনের পর ভালুকায় শুরু হয়েছে দশমী মেলা। সোমবার রাতে সুবীরবাবু নিজেই সেই মেলায় নিরাপত্তা খতিয়ে দেখতে যান। সেই সময় এলাকার কুখ্যাত তোলাবাজ বৈশিষ্ঠ্যধর ওঝা দলবল নিয়ে দূর থেকে সুবীরবাবুর উপর পাথরবৃষ্টি চালায়। পাথরের আঘাত লাগে সুবীরবাবুর মাথায়। তাঁকে আক্রান্ত হতে দেখে অন্যান্য পুলিশকর্মীরা দুষ্কৃতীদের ধরতে ছুটে যান। বাকিরা পালিয়ে গেলেও ধরা পড়ে যায় বৈশিষ্ঠ্য। তার বিরুদ্ধে এলাকায় সাধারণ মানুষজনের কাছ থেকে তোলা আদায় করা ছাড়াও এলাকায় আসা পণ্যবাহী লরি থেকে টাকা আদায় করাই ছিল তার কাজ। তার বাড়ি স্থানীয় ওঝাপাড়ায়। সোমবার রাতের ঘটনায় পুলিশ বৈশিষ্ঠ্য সহ মোট ৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে।
       সোমবার রাতে ঘটনার পর সুবীরবাবুকে স্থানীয় ভালুকা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা করানো হয়। কিন্তু এদিন দুপুরে বমি শুরু হওয়ায় তাঁকে নিয়ে আসা হয় মালদা মেডিক্যালে। তিনি জানান, পরিকল্পনা করেই গতকাল রাতে তাঁর উপর হামলা চালানো হয়। তিনি গোটা বিষয়টি ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। এব্যাপারে চাঁচল মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সজলকান্তি বিশ্বাস বলেন, গতকাল রাতে একটি মেলায় ভালুকা ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক সুবীর সরকারের উপর হামলা চালায় এলাকার তোলাবাজরা। এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ধরা পড়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।
স্থানীয়দের দাবি অভিযুক্তরা সকলে শাসকদলের ঘনিষ্ঠ, পুলিশের একাংশ এই কথা স্বীকার করেছেন। ধৃত বৈশিষ্ঠকে বিভিন্ন সময়ে তৃনমূলের স্থানীয় নেতাদের সাথে ঘুরতে দেখা গেছে।
যদিও স্থানীয় তৃণমূল নেতা এবং জেলা তৃনমূল সহ সভাপতি তজমুল হোসেন এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, তিনি বলেছেন,  "দুষ্কৃতীদের সাথে দলের কোন সম্পর্ক নেই, তবুও কেঊ যদি দলের নাম ভাঙিয়ে এসব কাজ করে তাহলে তাকে ছেড়ে কথা  বলা হবে না।
Published in Malda-Dinajpur-2

ফটো গ্যালারী

Market Data

সম্পাদকের কথা

ফ্যান ছবিতে দেখা যাবে ১৭ বছরের শাহরুখকে

ফ্যান ছবিতে দেখ...

ডেস্ক: ছবির নাম যখন ফ্যান, আর অভিনয়ে যখন...

ধর্মীয় মৌলবাদীদের হামলায় খুন লেখক অভিজিৎ রায়

ধর্মীয় মৌলবাদীদ...

ঢাকা: একুশের বইমেলা থেকে ফেরার পথে ঢাকা ...

উদাসী হাওয়ায় গা ভাসিয়ে বলতেই পারেন, ""হোলি হ্যায়''!!!

উদাসী হাওয়ায় গা...

শান্তিনিকেতনে বসন্ত উত্সবের সূচনা হয় প্র...

বিবাহ বন্ধনে আবব্ধ হতে চলেছেন খ্যাতনামা অফ-স্পিনার হরভজন সিংহ

বিবাহ বন্ধনে আব...

কার্ত্তিক চন্দ্র পাল : ভারতের খ্যাতনামা ...

আপগ্রেড করুন

« October 2017 »
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
            1
2 3 4 5 6 7 8
9 10 11 12 13 14 15
16 17 18 19 20 21 22
23 24 25 26 27 28 29
30 31          

MC News

Contact Us

Email: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

Face Book: /newsbazar24 

Helpline No- 09434219594/9126173604