You are here: Homeদেশসারা দেশ“দেশের আর্থ-সামাজিক প্রতিকূলতার দিকে নজর দিয়ে নিজেদের উদ্ভাবনার লক্ষ্য স্থির করুন” প্রধানমন্ত্রী
Tuesday, 02 January 2018 18:35

“দেশের আর্থ-সামাজিক প্রতিকূলতার দিকে নজর দিয়ে নিজেদের উদ্ভাবনার লক্ষ্য স্থির করুন” প্রধানমন্ত্রী

Written by 
প্রধানমন্ত্রী আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসু’র ১২৫তম জন্মোত্সবে আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে ভাষন দিচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসু’র ১২৫তম জন্মোত্সবে আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে ভাষন দিচ্ছেন।

ডেস্ক, ২রা জানুয়ারি:প্রধানমন্ত্রী আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসু’র ১২৫তম জন্মোত্সবে আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শ্রদ্বার সাথে স্মরণ করে বলেন আমি আপনাদের সবাইকে, বিশেষ করে বিজ্ঞানী বন্ধুদের অনেক অনেক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি| আজ আমরা আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসুর ১২৫তম জন্মজয়ন্তীর বর্ষব্যাপী অনুষ্ঠানের সূচনা করতে যাচ্ছি, যিনি ১৮৯৪ সালের এমনই দিনে (১ জানুয়ারি) জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

তিনি বলেন, "দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাস তাঁর এক গীতিকাব্যে বলেছিলেন, “বাংলার জল ও বাংলার মাটিতে এক চিরন্তন সত্য নিহিত রয়েছে”| স্বাধীনতা আন্দোলন হোক, সাহিত্য হোক, বিজ্ঞান হোক, খেলাধুলা হোক, সমস্ত ক্ষেত্রেই বাংলার জল ও বাংলার মাটির প্রভাব স্পষ্টভাবে প্রতীয়মান হয়ে থাকে। স্বামী রামকৃষ্ণ পরমহংস, স্বামী বিবেকানন্দ, গুরুদেব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, সুভাষচন্দ্র বসু, শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি, বঙ্কিমচন্দ্র, শরত্চন্দ্র, সত্যজিত রায়—আপনি যেকোনো ক্ষেত্রেরই নাম করুন, বাংলার কোনো না কোনো নক্ষত্রকে সেখানে উজ্জ্বল হয়ে দেখতে পাবেন| ভারতের জন্য এটা এক গর্বের বিষয় যে, এই বাংলায়  একের পর এক শ্রেষ্ঠ বৈজ্ঞানিককেও গোটা বিশ্বের সামনে তুলে ধরেছে| আচার্য এস.এন. বসু ছাড়াও জে.সি. বসু, মেঘনাদ সাহা আরও কতো নাম, যারা দেশে আধুনিক বিজ্ঞানের ভিত্তিকে সুদৃঢ় করেছেন।

তিনি আরও বলেন অজ্ঞাত বিজ্ঞানের প্রতি তাঁর একনিষ্ঠতার জন্যই ১৯২৪ সালে তাঁর যুগান্তকারী কাজ সম্ভব হয়েছে, যে উদ্যোগ কোয়ান্টাম স্ট্যাটিস্টিকসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিল এবং আধুনিক পরমাণু-তত্ত্বের মূলনীতির সূচনা করেছিল| আইনস্টাইনের জীবনীকার অ্যাব্রাহাম পেস তাঁর কাজকে কোয়ান্টাম থিওরির শেষ চারটি উল্লেখযোগ্য কাজের একটি বলে উল্লেখ করেছেন। বোস স্ট্যাটিস্টিক্স, বোস আইনস্টাইন কনভেনসেট, হিগস-বোসনের মতো বিজ্ঞানের বিভিন্ন পরিভাষা ও ধারনায় সত্যেন্দ্রনাথ বসুর নাম বিজ্ঞানের ইতিহাসে অমর হয়ে রয়েছে।

স্বদেশী ভাষায় বিজ্ঞান-শিক্ষা দেওয়ার ক্ষেত্রে অধ্যাপক বসু ছিলেন একজন অগ্রণী যোদ্ধা| তিনি বাংলায় বিজ্ঞানের সাময়িকপত্র ‘জ্ঞান ও বিজ্ঞান’-এর সূচনা করেন। আমাদের ছোটদের মধ্যে বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহ বাড়াতে এবং বিজ্ঞানকে সহজবোধ্য করে তুলতে হলে বিজ্ঞানের সঙ্গে তাদের যোগাযোগকে আরও ভালোভাবে করতে হবে| ভাষা এক্ষেত্রে যেন কোনো বাধা হওয়ার পরিবর্তে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে।

ভারতের বৈজ্ঞানিক গবেষণা অনেক বেশি মজবুত। আমাদের দেশে প্রতিভার যেমন অভাব নেই, তেমনি পরিশ্রম বা উদ্দেশ্যেরও ঘাটতি নেই। গত কয়েক দশক ধরে ভারত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ক্ষেত্রে আরও গতি নিয়ে এগিয়ে এসেছে। সেটা তথ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্রেই হোক, মহাকাশ গবেষণা হোক, ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি হোক, সব ক্ষেত্রেই ভারত গোটা বিশ্বে নিজের কর্তৃত্ব স্থাপন করতে পেরেছে| আমাদের বৈজ্ঞানিকগণ, আমাদের প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের এই সাফল্য গোটা দেশের জন্য এক গর্বের বিষয়|

ইসরো’র রকেটে করে যখন একবারেই একশটির বেশি কৃত্রিম উপগ্রহ উত্ক্ষেপণ করা হয়, তখন গোটা বিশ্ব বিস্ফারিত চোখে দেখে| সেসময় আমরা ভারতীয়রা আমাদের মাথা উঁচু করে নিজেদের বৈজ্ঞানিকদের এই কৃতিত্বের জন্য উৎফুল্ল হয়ে থাকি।

আমার বিশ্বাস যে, আমাদের দেশের বৈজ্ঞানিকগণ প্রথাগত ধারণার বাইরে নিজেদের ধারণার মধ্য দিয়ে দেশকে  সৃজনশীল প্রযুক্তির সমাধান দিতে থাকবেন, যার সুবিধা দেশের সাধারণ মানুষ পাবেন, তাদের জীবন আরও অনেক সহজ হয়ে উঠবে।

উন্নয়ন, প্রবৃদ্ধি ও রূপান্তরের জন্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি একটা অসাধারণ চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করে| আমি আপনাদেরকে, দেশের বৈজ্ঞানিকদেরকে আবার আহ্বান জানাবো, যাতে তাঁরা আমাদের আর্থ-সামাজিক প্রতিকূলতার দিকে মনোযোগ দিয়ে নিজেদের উদ্ভাবনার লক্ষ্য স্থির করেন|

এস.এন. বোস ন্যাশনাল সেন্টার ফর বেসিক সায়েন্স এবং এ ধরনের অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি আমার আবেদন, তারা যেন তাদের প্রতিষ্ঠানকে শীর্ষ মান-এর প্রতিষ্ঠান করে তোলার পাশাপাশি  প্রতিষ্ঠানে এমন ধরনের বাস্তুতন্ত্র তৈরি করুন, যাতে ছাত্রছাত্রী ও তরুণ-তরুণীরা গবেষণার জন্য আগ্রহান্বিত হতে পারেন|

যদি প্রত্যেক বৈজ্ঞানিক শুধুমাত্র একটি শিশুকে বিজ্ঞান শিক্ষা, এবং গবেষণার প্রতি তার আগ্রহ বৃদ্ধি করার জন্য সামান্য সময় দিতে পারেন, তাহলে দেশের লক্ষ লক্ষ ছাত্রছাত্রীর ভবিষ্যতে তৈরি হতে পারে| আচার্য এস.এন. বোসের ১২৫তম জন্মজয়ন্তীতে এটাই তাঁর প্রতি সবচেয়ে বড় শ্রদ্ধাঞ্জলি হবে।

Read 18 times
Login to post comments

ফটো গ্যালারী

Market Data

সম্পাদকের কথা

ফ্যান ছবিতে দেখা যাবে ১৭ বছরের শাহরুখকে

ফ্যান ছবিতে দেখ...

ডেস্ক: ছবির নাম যখন ফ্যান, আর অভিনয়ে যখন...

ধর্মীয় মৌলবাদীদের হামলায় খুন লেখক অভিজিৎ রায়

ধর্মীয় মৌলবাদীদ...

ঢাকা: একুশের বইমেলা থেকে ফেরার পথে ঢাকা ...

উদাসী হাওয়ায় গা ভাসিয়ে বলতেই পারেন, ""হোলি হ্যায়''!!!

উদাসী হাওয়ায় গা...

শান্তিনিকেতনে বসন্ত উত্সবের সূচনা হয় প্র...

বিবাহ বন্ধনে আবব্ধ হতে চলেছেন খ্যাতনামা অফ-স্পিনার হরভজন সিংহ

বিবাহ বন্ধনে আব...

কার্ত্তিক চন্দ্র পাল : ভারতের খ্যাতনামা ...

আপগ্রেড করুন

« January 2018 »
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
1 2 3 4 5 6 7
8 9 10 11 12 13 14
15 16 17 18 19 20 21
22 23 24 25 26 27 28
29 30 31        

MC News

Contact Us

Email: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

Face Book: /newsbazar24 

Helpline No- 09434219594/9126173604