You are here: Homeস্বাস্থ্যডক্টরস বলছে...সন্তানের কান্না থামাবেন কিভাবে
Sunday, 13 March 2016 11:12

সন্তানের কান্না থামাবেন কিভাবে

Written by 

বাবা মায়ের কাছে সন্তানের হাসি সবচেয়ে সুন্দর। কিন্তু সন্তানের কান্নাও সুখের হয়। কখন বলুন তো ? ঠিক তখন, ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরেই যখন সে প্রথম কেঁদে ওঠে। কিন্তু তারপরের সব কান্নাই অসুন্দর। শিশুরা যে কোনও সময় হঠাৎ হঠাৎ কেঁদে ওঠে। রাত দিনের ব্যতিক্রম থাকে না তাদের কাছে। মাঝ রাতেও অনেক শিশুর কান্নার আওয়াজ শোনা যায়। তাতে ঘুম ভেঙে যায় পাড়া পড়শিরও। আর কান্না না থামলে তখনই সেটা দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আপনার বাড়িতেও শিশু রয়েছে ? মাঝে মাঝেই এমন পরিস্থিতিতে আপনাকেও পড়তে হয় নিশ্চয়ই। চিন্তা করবেন না। কিছু নিয়ম জানা থাকলে আপনিও পারবেন ছোট্ট শিশুর কান্না থামাতে।
১) খিদে বা ঘুম পেলে, ন্যাপি ভিজে গেলে সাধারণত শিশুরা কেঁদে ওঠে। এ ছাড়া মনোযোগ পেতেও অনেক সময় তারা কাঁদতে থাকে। কোলে ওঠার জন্যও তাদের চোখে জল দেখা দেয়। এখন শিশুর কান্নার কারণ অর্থাৎ তার প্রয়োজনগুলি বুঝে নিতে হবে। প্রয়োজন মেটাতে পারলেই থেমে যাবে আপনার শিশুর কান্না।
২) ধৈর্য হারাবেন না। বরং শান্ত থেকে খেয়াল রাখুন শিশুর চাহিদার দিকগুলি। আপনি শান্ত না থাকলে বাচ্চাকে সামলানো মুশকিল হয়ে পড়বে।
৩) বাচ্চার কাছে আদর্শ হয়ে ওঠার চেষ্টা করুন। যাতে সে সময়ে অসময়ে আপনাকে আঁকড়ে ধরে ভরসা পায়। এতে বাচ্চার মনোবল বাড়বে। এড়ানো যাবে তার ছিঁচ কাদুনে স্বভাবও।
৪) নজর রাখুন কোলের শিশুর পোশাকে। গরম লাগছে না তো ? তাহলেও অনের সময় কাঁদতে শুরু করে তারা। তাই সবসময় সুতির নরম আরামদায়ক পোশাক কিনুন তার জন্য। তাতে স্বস্তি পারে আপনার শিশু। ভালো থাকবে ত্বকও।
৫) রেগে গিয়ে শিশুকে চোখরাঙাবেন না। ঝাঁকিয়েও দেবেন না যেমন তেমন ভাবে। এতে তারা ভয় পেয়ে আরও কাঁদবে। ঝাঁকালে ঘাড়ে লেগে বেগতিক পরিস্থিতি তৈরির সম্ভাবনাও থাকে।
৬) অনেক সময় বাচ্চারা কোল বদলাতে চায়। তাই আপনার কাছে না থাকতে চাইলে অন্য কারও কোলে দিন। পরিবারের সদস্যদের সাহায্য নিন তার কান্না থামাতে।
৭) দমবন্ধ ঘরে থাকতে ছোটোদের ভালো লাগে না। তাই বাচ্চা একটু বড় হলে তাকে বাড়ির বাইরে নিয়ে যান। নতুন পরিবেশ দেখতে শিখবে। তৈরি হবে ভালোলাগা। এভাবেও বাচ্চার কান্না থামানো সম্ভব।
৮) অনেক সময় হাত, পা, পিঠ ম্যাসাজ করে দিলে তারাও আরাম বোধ করে। তখন চুপ করে থাকে। তাই মাঝে মাঝে তেল দিয়ে বা খালি হাতে ম্যাসাজ করে দিতে পারেন।
৯) শিশুর কান্না একান্তই না থামানো গেলে তা চিন্তার বিষয়। তখন বাড়িতে চুপচাপ বসে থাকবেন না। পরামর্শ নিন কোনও বিশেষজ্ঞের।

 

Read 345 times Last modified on Sunday, 13 March 2016 11:14
Login to post comments

ফটো গ্যালারী

আপগ্রেড করুন

Contact Us

Email: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

Face Book: /newsbazar24 

Helpline No- 09434219594/9126173604