You are here: Homeরাজ্যহাওরা-হুগলিItems filtered by date: Tuesday, 02 January 2018

রাজ্যসভায় আজ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শ্রী অশ্বিনী চৌবে জানান,রক্তাল্পতাএবং অপুষ্ঠি হল বহুমাত্রিক, নানা দিকের এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এক সমস্যা। গর্ভবতী মহিলাদের অপুষ্টি কম ওজন সহ শিশু জন্মের প্রধান কারণ। ২০১৩-১৪ সালে শিশুদের ওপর চালানো এক দ্রুত সমীক্ষায় দেখা গেছে যে মোট সদ্যোজাত মোট শিশুদের ১৮.৬ শতাংশই ২.৫ কিলোগ্রামের কম ওজন নিয়ে জন্মায়।

নারী ও শিশুবিকাশ মন্ত্রক আইসিডিএস প্রকল্পের আওতায় অঙ্গনওয়াড়ি পরিষেবা রূপায়ণ করছে যাতে করে, গর্ভবতী ও স্তন্যদায়ী মায়েদের পরিপূরক পুষ্টি যোগানো যায়, আর তার মাধ্যমে তাঁদের আহারের ক্ষেত্রে পুষ্টিগত ব্যবধানটা দূর করা চলে।

জাতীয় স্বাস্থ্য মিশন ও তার আওতায় থাকা বংশবিস্তার ও শিশু স্বাস্থ্য কর্মসূচি অনুসারে সব গর্ভবতী মহিলার জন্যই নিম্নলিখিত ব্যবস্থা গ্রহনের সুপারিরেছেঃ

  1. রক্তাল্পতা এবং আয়রন ফলিক অ্যাসিডের অভাব পূরণ করার জন্য গর্ভবতী মহিলাদের সার্বিক বাছাইয়ের ব্যবস্থা;
  2. গর্ভাবস্থায় ক্যালশিয়াম;
  3. গর্ভাবস্থায় কৃমি দূর করা;
  4. দেহের ওজন বা ভারের দিকে নজর রাখা;
  5. পুষ্টি, পরিবার পরিকল্পনা এবং রোগ নিবারণের জন্য পরামর্শদান;
  6. জননী শিশু সুরক্ষা কার্যক্রম-এর আওতায় ভারত সরকার প্রসবকালে গর্ভবতী মহিলারা সরকারি স্বাস্থ্য টেন্টে থাকলে তাদের খাবারের ব্যবস্থা করে থাকে;
  7. ‘জাতীয় আয়রন প্লাস’ প্রয়াসের আওতায়আয়রন ফলিক অ্যাসিডের অভাব দূর করা এবং রক্তাল্পতার চিকিৎসা জীবনচক্র দৃষ্টিভঙ্গিতে গ্রহণ করে শিশু, কিশোর, জনন ক্ষমতা-বিশিষ্ট মহিলা, গর্ভবতী ও স্তন্যদায়ী মহিলাদের যোগানোর ব্যবস্থা করা হয়ে থাকে;
  8. আইইসি ও বিসিসি ব্যবস্থার মাধ্যমে আহারগত বৈচিত্র্য দূর করে আয়রন ও ফলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ খাবার যোগানোর ব্যবস্থা করা হয় যাতে আয়রন শোষণ বাড়ে।

ডেস্ক, ২রা জানুয়ারি:প্রধানমন্ত্রী আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসু’র ১২৫তম জন্মোত্সবে আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শ্রদ্বার সাথে স্মরণ করে বলেন আমি আপনাদের সবাইকে, বিশেষ করে বিজ্ঞানী বন্ধুদের অনেক অনেক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি| আজ আমরা আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসুর ১২৫তম জন্মজয়ন্তীর বর্ষব্যাপী অনুষ্ঠানের সূচনা করতে যাচ্ছি, যিনি ১৮৯৪ সালের এমনই দিনে (১ জানুয়ারি) জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

তিনি বলেন, "দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাস তাঁর এক গীতিকাব্যে বলেছিলেন, “বাংলার জল ও বাংলার মাটিতে এক চিরন্তন সত্য নিহিত রয়েছে”| স্বাধীনতা আন্দোলন হোক, সাহিত্য হোক, বিজ্ঞান হোক, খেলাধুলা হোক, সমস্ত ক্ষেত্রেই বাংলার জল ও বাংলার মাটির প্রভাব স্পষ্টভাবে প্রতীয়মান হয়ে থাকে। স্বামী রামকৃষ্ণ পরমহংস, স্বামী বিবেকানন্দ, গুরুদেব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, সুভাষচন্দ্র বসু, শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি, বঙ্কিমচন্দ্র, শরত্চন্দ্র, সত্যজিত রায়—আপনি যেকোনো ক্ষেত্রেরই নাম করুন, বাংলার কোনো না কোনো নক্ষত্রকে সেখানে উজ্জ্বল হয়ে দেখতে পাবেন| ভারতের জন্য এটা এক গর্বের বিষয় যে, এই বাংলায়  একের পর এক শ্রেষ্ঠ বৈজ্ঞানিককেও গোটা বিশ্বের সামনে তুলে ধরেছে| আচার্য এস.এন. বসু ছাড়াও জে.সি. বসু, মেঘনাদ সাহা আরও কতো নাম, যারা দেশে আধুনিক বিজ্ঞানের ভিত্তিকে সুদৃঢ় করেছেন।

তিনি আরও বলেন অজ্ঞাত বিজ্ঞানের প্রতি তাঁর একনিষ্ঠতার জন্যই ১৯২৪ সালে তাঁর যুগান্তকারী কাজ সম্ভব হয়েছে, যে উদ্যোগ কোয়ান্টাম স্ট্যাটিস্টিকসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিল এবং আধুনিক পরমাণু-তত্ত্বের মূলনীতির সূচনা করেছিল| আইনস্টাইনের জীবনীকার অ্যাব্রাহাম পেস তাঁর কাজকে কোয়ান্টাম থিওরির শেষ চারটি উল্লেখযোগ্য কাজের একটি বলে উল্লেখ করেছেন। বোস স্ট্যাটিস্টিক্স, বোস আইনস্টাইন কনভেনসেট, হিগস-বোসনের মতো বিজ্ঞানের বিভিন্ন পরিভাষা ও ধারনায় সত্যেন্দ্রনাথ বসুর নাম বিজ্ঞানের ইতিহাসে অমর হয়ে রয়েছে।

স্বদেশী ভাষায় বিজ্ঞান-শিক্ষা দেওয়ার ক্ষেত্রে অধ্যাপক বসু ছিলেন একজন অগ্রণী যোদ্ধা| তিনি বাংলায় বিজ্ঞানের সাময়িকপত্র ‘জ্ঞান ও বিজ্ঞান’-এর সূচনা করেন। আমাদের ছোটদের মধ্যে বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহ বাড়াতে এবং বিজ্ঞানকে সহজবোধ্য করে তুলতে হলে বিজ্ঞানের সঙ্গে তাদের যোগাযোগকে আরও ভালোভাবে করতে হবে| ভাষা এক্ষেত্রে যেন কোনো বাধা হওয়ার পরিবর্তে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে।

ভারতের বৈজ্ঞানিক গবেষণা অনেক বেশি মজবুত। আমাদের দেশে প্রতিভার যেমন অভাব নেই, তেমনি পরিশ্রম বা উদ্দেশ্যেরও ঘাটতি নেই। গত কয়েক দশক ধরে ভারত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ক্ষেত্রে আরও গতি নিয়ে এগিয়ে এসেছে। সেটা তথ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্রেই হোক, মহাকাশ গবেষণা হোক, ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি হোক, সব ক্ষেত্রেই ভারত গোটা বিশ্বে নিজের কর্তৃত্ব স্থাপন করতে পেরেছে| আমাদের বৈজ্ঞানিকগণ, আমাদের প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের এই সাফল্য গোটা দেশের জন্য এক গর্বের বিষয়|

ইসরো’র রকেটে করে যখন একবারেই একশটির বেশি কৃত্রিম উপগ্রহ উত্ক্ষেপণ করা হয়, তখন গোটা বিশ্ব বিস্ফারিত চোখে দেখে| সেসময় আমরা ভারতীয়রা আমাদের মাথা উঁচু করে নিজেদের বৈজ্ঞানিকদের এই কৃতিত্বের জন্য উৎফুল্ল হয়ে থাকি।

আমার বিশ্বাস যে, আমাদের দেশের বৈজ্ঞানিকগণ প্রথাগত ধারণার বাইরে নিজেদের ধারণার মধ্য দিয়ে দেশকে  সৃজনশীল প্রযুক্তির সমাধান দিতে থাকবেন, যার সুবিধা দেশের সাধারণ মানুষ পাবেন, তাদের জীবন আরও অনেক সহজ হয়ে উঠবে।

উন্নয়ন, প্রবৃদ্ধি ও রূপান্তরের জন্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি একটা অসাধারণ চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করে| আমি আপনাদেরকে, দেশের বৈজ্ঞানিকদেরকে আবার আহ্বান জানাবো, যাতে তাঁরা আমাদের আর্থ-সামাজিক প্রতিকূলতার দিকে মনোযোগ দিয়ে নিজেদের উদ্ভাবনার লক্ষ্য স্থির করেন|

এস.এন. বোস ন্যাশনাল সেন্টার ফর বেসিক সায়েন্স এবং এ ধরনের অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি আমার আবেদন, তারা যেন তাদের প্রতিষ্ঠানকে শীর্ষ মান-এর প্রতিষ্ঠান করে তোলার পাশাপাশি  প্রতিষ্ঠানে এমন ধরনের বাস্তুতন্ত্র তৈরি করুন, যাতে ছাত্রছাত্রী ও তরুণ-তরুণীরা গবেষণার জন্য আগ্রহান্বিত হতে পারেন|

যদি প্রত্যেক বৈজ্ঞানিক শুধুমাত্র একটি শিশুকে বিজ্ঞান শিক্ষা, এবং গবেষণার প্রতি তার আগ্রহ বৃদ্ধি করার জন্য সামান্য সময় দিতে পারেন, তাহলে দেশের লক্ষ লক্ষ ছাত্রছাত্রীর ভবিষ্যতে তৈরি হতে পারে| আচার্য এস.এন. বোসের ১২৫তম জন্মজয়ন্তীতে এটাই তাঁর প্রতি সবচেয়ে বড় শ্রদ্ধাঞ্জলি হবে।

ডেস্ক, ২রা জানুয়ারীঃ ওল্ড মালদা ব্লক জন জাগরণ মঞ্জের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হল সংবর্ধনা ও সচেতনতা সভা। ওল্ড মালদা ব্লক অফিসের সামনে আয়োজন করা হয়েছিলো এই অনুষ্ঠানের।
জানা যায় ত্রদিন অনুষ্ঠিত এই সংবর্ধনা ও সচেতনতা সভায় ব্লকের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মহিলারা পণ প্রথা বন্ধ, দুষণ মুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষ, এসো সকলে মিলে নির্মল বাংলা গড়ি সহ বিভিন্ন সচেতনতা মূলক প্ল্যা-কার্ড হাতে নিয়ে অনুষ্টানে যোগ দেন। ত্রদিন এই অনুষ্ঠান মঞ্জ থেকে এলাকার কৃর্তি ছাত্রছাত্রীদের সংবর্ধনা জানানো হয়। উপস্থিত ছিলেন, রামকৃষ্ণ মঠের অধ্যক্ষ ত্যাগ রুপানন্দ, পুরাতন মালদার ওসমানিয়া হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক উমর ফারুকে হোসেন সহ অন্যান্যরা।


Published in Malda-Dinajpur-2

 
সোমবার মালদা জেলা ৪১ তম পুস্প মেলার শেষ দিনে ভীড় ভীরে জমজমাট। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তণ মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীও। জানা যায় ত্রদিন সংস্থার পক্ষ থেকে জয়ী গাছ প্রেমীদের পুরস্কৃত করা হয়।
উল্লেখ্য,মালদা হর্টিকালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে প্রতিবছরের মতো এবছরো গত ২৮ শে ডিসেম্বর থেকে শুভঙ্কর শিশু উদ্যানের বোর্টিং কমপ্লেক্সে শুরু হয় ৪১ তম পুস্প প্রর্দশনী। জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে গাছ প্রেমী মানুষরা, তাঁদের ছাদে টবে ফোটানো চন্দ্রমল্লিকা, ডালিয়া, গোলাপ, বিভিন্ন মরশুমের ফুল সহ ফল, ক্যাকটাস জাতীয় গাছ এবং সবজির গাছ নিয়ে হাজির হয়েছিলেন এখানে। প্রায় ৬০ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছে এই পুস্প প্রদর্শনীতে। তাদের আনা প্রায় ১০১০ টি টপ সজ্জিত ছিল এই মেলায়। সোমবার ছিল পুস্প মেলার শেষ দিন। তাই ভিড় ছিলো চোখে পড়ার মতো। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী, মালদা জেলা ক্রিড়া সংস্থার সম্পাদক শুভেন্দু চৌধুরী, মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্সের সহ-সভাপতি কমলেশ বিহানী সহ অন্যান্যরা। জানা যায় ত্রদিন, সংস্থার পক্ষ থেকে জয়ী গাছ প্রেমীদের পুরস্কৃত করা হয়। জয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী।


Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্ক, ২রা জানুয়ারীঃ এক ব্যাক্তির রহস্যজনক মৃত্যু ঘিরে চাঞ্জল্য ছড়ালো। তবে মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার গাজোল থানার পারুইল এলাকায়।

জানা যায় মৃত ব্যক্তির নাম বিজয় মন্ডল। বাড়ি গাজোলের মাঝড়া অঞ্চলের পারুইল এলাকায়। পেশায় তিনি সব্জি ব্যবসায়ী ছিলেন। মৃতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিজয় মণ্ডল আলু ক্ষেতে কাজ করছিলেন। ঠিক সেই সময় তার এক মেয়েকে স্থানীয় দুই বাসিন্দা স্বাধীন মণ্ডল এবং নিরাঞ্জন মণ্ডল ধরে মারধোর করছিলো। মেয়েকে মারধোর করার প্রতিবাদ করায় তারা তাকে মারধোর করে। পরে স্থানীয়রা বিজয় মণ্ডলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই মর্মে ত্রদিন রাতেই গাজোল থানায় একটি খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।


Published in Malda-Dinajpur-2


ইংলিস মিডিয়াম স্কুলের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালো মালদহের রতুয়ার দেবীপুরের বাসিন্দারা। প্রায় এক ঘন্টা অবরোধের পর রতুয়া থানার পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।
জানা যায়, মালদহের রতুয়ার দেবীপুরে রয়েছে গর্ভামেন্ট মডেল স্কুল। ২০০২ সালে স্কুলটি স্থাপিত হয়। সম্পতি রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এক নির্দেশিকা আসে স্কুলটি ইংলিশ মিডিয়াম থেকে বাংলা মিডিয়াম রূপান্তর করার। এই বিষয়টি জানতে পেরেই স্থানীয়রা একরাশ ক্ষোভ উগরে  দেন। প্রতিবাদে ত্রদিন স্থানীয় দেবীপুরের বাসিন্দারা ভালুকা-রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায়। তাদের দাবী রতুয়া ব্লকের ৭ থেকে ৮ টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে একটি মাত্রও ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল নেই। তাই তাদের দাবি পুনরায় স্কুলটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে রুপান্তর করা হক। এই বিষয়ে  রতুয়া গর্ভামেন্ট মডেল স্কুল টি, আই, সি মহম্মদ সাজাৎ আলি জানান, তাদের কিছু করার নেই, সরকারি নির্দেশ মত তারা কাজ করে চলেছেন।


Published in Malda-Dinajpur-2

ডেস্ক ২রা জানুয়ারীঃ মঙ্গলবার ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের ডাকে মালদা সহ রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের ধর্মঘটের জেরে চরম হয়রানির মুখে পড়লেন রোগী ও তাঁদের আত্নীয়রা। যদিও কয়েক ঘন্টা ধর্মঘটের পর প্রশাসনের আবেদনে সাড়া দিয়ে ধর্মঘট তুলে নেন চিকিৎসকরা।

জাতীয় মেডিক্যাল কমিশন বিলের প্রতিবাদে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের ডাকা ১২ ঘন্টা ধর্মঘটে কার্যত ব্যাহত হল রাজ্যের সব হাসপাতাল গুলির বহির্বিভাগের পরিষেবা। মালদা। মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের চিত্রটাও একই রকম ছিলো। ত্রদিন প্রতিদিনের মতো মালদা সহ উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে শতাধিক রোগী হাসপাতালের বহির্বিভাগে চিকিৎসা করাতে আসেন। কিন্ত চিকিৎসক না থাকায় তাদের হয়রানির মুখে পড়তে হয়। এই নিয়ে রোগীরা ক্ষোভও প্রকাস করে। এই বিষয়ে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সহকারী সুুপার তথা আই, এম, এর মালদা জেলার সহকারী সভাপতি জ্যোতিষ চন্দ জানান, হাসপাতালের এমারজেন্সি পরিষেবা ঠিক আছে। বর্হির্বিভাগের চিকিৎকরা কালো ব্যাজ পরে চিকিৎসা করছেন।
রোগী সহ আমজনতার  প্রশ্ন এভাবে ডাক্তারদের ধর্মঘটের অধিকার কে দিল? সাধারন মানুষকে  চুড়ান্ত হয়রানীর মধ্যে ফেলে প্রতিবাদের অর্থ কি? এ প্রশ্নের জবাব কে দেবে? 


 

Published in Malda-Dinajpur-2

     পথদুর্ঘটনায় দুই বাইক আরোহীর মৃত্যু ঘিরে রণক্ষেত্র

ডেস্ক, ২রা জানুয়ারীঃ লরির ধাক্কায় মৃত্যু হল দুই বাইক আরোহীর। গুরুত্বর আহত আরো একজন। দুর্ঘটনা ঘিরে আজ ভোর থেকে  চরম উত্তেজনা ছড়ালো মালদহের কালিয়াচক থানার যদুপুর এলাকায় ৩৪ নং জাতীয় সড়কে । পুলিশকে মারধোর এবং  একটি লরি এবং পুলিশের একটি গাড়িতে ভাঙচুর চালায় স্থানীয়রা। আরও দুটি পুলিশের গাড়িকে ঠেলে নয়নজুলিতে ফেলে দেয়। পরে  ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ শুরু হলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। তারপর সকাল ১০টা নাগাদ উঠে যায় অবরোধ। পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দা সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ৫ পুলিশকর্মী। পরিস্থিতি সামাল দিতে ১০ রাউন্ড কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়া হয়েছে। আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দাও। পরে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃতরা হল নৈমুদ্দিন শেখ এবং বারেক শেখ। আহতের নাম সামেদ শেখ। আহত ও মৃতদের বাড়ি কালিয়াচক থানার উত্তর দারিয়াপুর মোমিন পাড়া এলাকায়। তারা চামড়া ব্যবসায়ী। মঙ্গলবার  ভোরে তারা দুটি মোটর বাইকে চেপে চামড়া  সংগ্রহ করতে যাচ্ছিলেন সুজাপুরে। যাওয়ার পথে যদুপুর ৩৪ নং জাতীয় সড়কের নাকা চেকিং-র কাছে একটি লরি তাদের ধাক্কা মারে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় নৈমুদ্দিন শেখের। আহত অবস্থায় দুইজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় বারেক শেখের। জানা গেছে, এরা সম্পর্কে শ্যালক-জামাই। অন্যদিকে সামেদ শেখ আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।

দুর্ঘটনার পর পুলিশের উপর উত্তেজিত হয়ে ওঠে স্থানীয় জনতা। তাঁদের অভিযোগ, জাতীয় সড়কে নাকাবন্দী  করে তল্লাশির নামে প্রতিদিনই তোলা আদায় করে পুলিশ। তাই পুলিশকে এড়িয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে বেশিরভাগ গাড়ি। তাড়াহুড়োর জন্য এর আগেও সেখানে বেশ কয়েকবার দুর্ঘটনা ঘটেছে। গোটা ঘটনা সম্পর্কে অবহিত  পুলিশকর্তারাব। তা সত্তেও  পুলিশের তোলা আদায় বন্ধ হয়নি। এই অভিযোগ তুলে  ঘটনাস্থানে মৃতদেহ রেখে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয়রা।  শুরু হয়ে যায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থানে আসে কালিয়াচক থানার পুলিশ। পুলিশকর্মীরা জাতীয় সড়ক থেকে অবরোধ তুলে নেওয়ার নির্দেশ দেন। কিন্তু পুলিশের নির্দেশ উপেক্ষা করে অবরোধ চালিয়ে যেতে থাকেন স্থানীয়রা। এরপরই পুলিশ ও গ্রামবাসীদের খণ্ডযুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে বলে অভিযোগ। ক্ষিপ্ত জনতাও পুলিশকে আক্রমণ করে। ভাঙচুর করা হয় একটি লরি ও পুলিশের একটি গাড়ি। সড়কের ধারে নয়নজুলিতে ফেলে দেওয়া হয় আরও  দুটি পুলিশের গাড়ি। জনতার রোষ থেকে বাঁচতে পুলিশকর্মীরা যে যেদিকে পারেন ছুটতে শুরু করেন। দু’জন পুলিশকর্মী এই ঠান্ডাতেও নয়নজুলিতে গলা পর্যন্ত জলে নেমে পড়েন। পরে কালিয়াচক থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী  ঘটনাস্থলে আসে। শুরু হয় বেধড়ক লাঠিচার্জ। ক্ষিপ্ত জনতা ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। অবরোধমুক্ত হয় জাতীয় সড়ক ।

 

Published in Malda-Dinajpur-2

ফটো গ্যালারী

Market Data

সম্পাদকের কথা

ফ্যান ছবিতে দেখা যাবে ১৭ বছরের শাহরুখকে

ফ্যান ছবিতে দেখ...

ডেস্ক: ছবির নাম যখন ফ্যান, আর অভিনয়ে যখন...

ধর্মীয় মৌলবাদীদের হামলায় খুন লেখক অভিজিৎ রায়

ধর্মীয় মৌলবাদীদ...

ঢাকা: একুশের বইমেলা থেকে ফেরার পথে ঢাকা ...

উদাসী হাওয়ায় গা ভাসিয়ে বলতেই পারেন, ""হোলি হ্যায়''!!!

উদাসী হাওয়ায় গা...

শান্তিনিকেতনে বসন্ত উত্সবের সূচনা হয় প্র...

বিবাহ বন্ধনে আবব্ধ হতে চলেছেন খ্যাতনামা অফ-স্পিনার হরভজন সিংহ

বিবাহ বন্ধনে আব...

কার্ত্তিক চন্দ্র পাল : ভারতের খ্যাতনামা ...

আপগ্রেড করুন

« January 2018 »
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
1 2 3 4 5 6 7
8 9 10 11 12 13 14
15 16 17 18 19 20 21
22 23 24 25 26 27 28
29 30 31        

MC News

Contact Us

Email: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

Face Book: /newsbazar24 

Helpline No- 09434219594/9126173604