You are here: Homeরাজ্যমালদা -দিনাজপুরকালিয়াচক ৩নং ব্লকের পারদেওনাপুর শোভাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিস্তীর্ণ এলাকা ভাঙ্গনের কবলে।
Friday, 11 August 2017 19:08

কালিয়াচক ৩নং ব্লকের পারদেওনাপুর শোভাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিস্তীর্ণ এলাকা ভাঙ্গনের কবলে।

Written by 

মালদা, ১১ অগাস্ট : মালদার কালিয়াচক ৩ ব্লকের পারদেওনাপুর শোভাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের  পার অনুপনগর,গোলাপ মণ্ডল পাড়া, পাবনাপাড়া ও পারলালপুর সহ চারটি গ্রামের  গঙ্গার ভাঙ্গনের তীব্রতা ভয়াবহ আকার ধারন করেছে।  ইতিমধ্যেই নদীতে তলিয়ে গিয়েছে ১৮টি বাড়ি। তলিয়ে যাওয়ার আগে নিজেদের বাড়িঘর জিনিষপত্র সরিয়েও নিচ্ছেন অনেকে। সমস্ত ব্যাপারটা  বিধানসভায় সেচমন্ত্রীকে জানিয়েছেন জেলার বিধায়ক মোত্তাকিন আলম।
গতবারের পর এবারও কালিয়াচক ৩ ব্লকে গঙ্গার ভাঙন  শুরু হয়েছে পার অনুপনগর গ্রামে। তবে শুধু সেখানেই নয়, স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এবার ওপারের মুর্শিদাবাদ জেলার পুচপাড়া গ্রামেও ভাঙন শুরু হয়েছে। পারঅনুপনগর, গোলাপ মণ্ডল পাড়া, পাবনাপাড়া ও পারলালপুর সহ চারটি গ্রামের প্রায় ১৬ থেকে  ১৮টি বাড়ি গঙ্গাগর্ভে তলিয়ে গিয়েছে। পুচপাড়া গ্রামেরও হাসেম শেখ, রবি শেখদের বাড়ি এখন গঙ্গাগর্ভে। মালদা জেলা সেচ দপ্তরের এগজ়িকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার প্রণবকুমার সামন্ত জানিয়েছেন, পার অনুপনগরের রাধাগোবিন্দ মন্দির এলাকা থেকে প্রাথমিক স্কুল পর্যন্ত এলাকায় ভাঙন হচ্ছে। প্রাথমিক স্কুলটি যেকোনও সময় নদীগর্ভে তলিয়ে যেতে পারে। স্কুলটিকে বাঁচানোর জন্য তাঁরা সেখানে ৯০ মিটার এলাকায় একটি অস্থায়ী বাঁধ নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আজ থেকেই সেই কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। যেহেতু ওই এলাকায় ভাঙনরোধের কাজের দায়িত্বে ফরাক্কা ব্যারেজ কর্তৃপক্ষ, তাই ছোটোখাটো কাজ ছাড়া তাঁদের কিছু করার নেই। তবে স্থানীয় মানুষজন আজ সকাল থেকেই প্রাথমিক স্কুলের আসবাবপত্র, নথিপত্র সহ যাবতীয় জিনিসপত্র সরিয়ে নিতে শুরু করেছেন। কারণ, আজ স্কুল থেকে গঙ্গার দূরত্ব দাঁড়িয়েছে মাত্র ১৫-২০ ফুট দূরে।
 
এদিকে মানিকচকের ভূতনিতে গঙ্গার ভাঙন নিয়ে গতকাল বিধানসভার প্রশ্নোত্তর পর্বে সেচমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে মানিকচকের বিধায়ক মোত্তাকিন আলম জানতে চান, ২০১৬ সালে রাজ্য সরকার ভূতনিতে ভাঙনরোধের কাজ করবে বলে ঘোষণা করে। সেই কাজ কতদূর হয়েছে ? বিধায়কের দাবি, তাঁর প্রশ্নে সেচমন্ত্রী জানান, এবারের গঙ্গা ভাঙনের জন্য রাজ্য সরকার সেখানে বাঁধ রক্ষা করার জন্য ৪৪ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করেছে। সেখানেও ভাঙনরোধের কাজের দায়িত্বে রয়েছে ফরাক্কা ব্যারেজ কর্তৃপক্ষ। কিন্তু তারা সেই কাজ করছে না। এদিকে ভূতনির পুরোনো ও নতুন বাঁধের সংযোগস্থল একবার কেটে গেলে চরের প্রায় দেড় লক্ষ মানুষ সমস্যার মুখে পড়বেন। বিষয়টি তিনি জানেন। সেকারণেই তাঁরা তড়িঘড়ি সেখানে বাঁধ বাঁচানোর কাজ শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন।
 
এদিকে পার অনুপনগর সহ চারটি গ্রামে  আজ দুপুরেও আগ্রাসী রূপ নিয়েছে গঙ্গা। ফের ত্রাহি রব ছড়িয়েছে এলাকায়। রীতি অনুযায়ী,জলস্তর বাড়া ও কমার সময় গঙ্গার পাড় ভাঙে। আজ সকালে গঙ্গার জলস্তর ছিল ২৩.৬২ মিটার।বর্তমানে গঙ্গার জলস্তরও বাড়ছে ।  

পার অনুপনগর প্রাইমারী স্কুলে পরিবার পরিজন সহ আশ্রয় নেওয়া পরিবারগুলো  আজ একরাশ ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। তাদের বক্তব্য একটা দিন পার হয়ে গেলেও প্রশাসন বা গ্রাম পঞ্চায়েতের কেঊ যোগাযোগ করেননি। আজ পর্যন্ত একদানাও ত্রান মেলেনি।  

Read 19 times
Login to post comments

ফটো গ্যালারী

Market Data

সম্পাদকের কথা

ফ্যান ছবিতে দেখা যাবে ১৭ বছরের শাহরুখকে

ফ্যান ছবিতে দেখ...

ডেস্ক: ছবির নাম যখন ফ্যান, আর অভিনয়ে যখন...

ধর্মীয় মৌলবাদীদের হামলায় খুন লেখক অভিজিৎ রায়

ধর্মীয় মৌলবাদীদ...

ঢাকা: একুশের বইমেলা থেকে ফেরার পথে ঢাকা ...

উদাসী হাওয়ায় গা ভাসিয়ে বলতেই পারেন, ""হোলি হ্যায়''!!!

উদাসী হাওয়ায় গা...

শান্তিনিকেতনে বসন্ত উত্সবের সূচনা হয় প্র...

বিবাহ বন্ধনে আবব্ধ হতে চলেছেন খ্যাতনামা অফ-স্পিনার হরভজন সিংহ

বিবাহ বন্ধনে আব...

কার্ত্তিক চন্দ্র পাল : ভারতের খ্যাতনামা ...

আপগ্রেড করুন

« October 2017 »
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
            1
2 3 4 5 6 7 8
9 10 11 12 13 14 15
16 17 18 19 20 21 22
23 24 25 26 27 28 29
30 31          

MC News

Contact Us

Email: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

Face Book: /newsbazar24 

Helpline No- 09434219594/9126173604