মুরশিদাবাদ -নদীয়া

  • মুর্শিদাবাদ চক্রের কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পালিত হলো জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ।

    News bazar24: মুর্শিদাবাদ চক্রের কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পালিত হলো জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ। এ উপলক্ষে বিদ্যালয়ের পাশ্ববর্তী এলাকায় পদযাত্রা সংগঠিত হয় যা ছিল বেশ বড়।প্রচুর অভিভাবক অভিভাবিকা উপস্থিত ছিলেন সেই পদযাত্রায়।এছাড়া সমস্ত শিক্ষক শিক্ষিকা ও মিড ডে মিলের রান্নার দিদিরাও পা মেলান। কলকাতা থেকে আগত বিশিষ্ট ডায়েটিশিয়ান পূর্ণিমা রায় ও কৃষ্ণেন্দু রায় উপস্থিত ছিলেন ওই পদযাত্রাকে সফল করার জন্য। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহামুদাল হাসান জানান যে, ১ লা থেকে ৭-ই সেপ্টেম্বর জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ, তার আজ শেষ দিন।আমরা এই পদযাত্রার মধ্য দিয়ে ছাত্রছাত্রী, অভিভাবক অভিভাবিকা, পথচলতি মানুষ সকলকে বোঝাতে চাইলাম সঠিক খাদ্যগ্রহনের মধ্য দিয়ে পুষ্টিলাভ সম্ভব। যেমন সকালে অঙ্কুরিত ছোলা, কম চর্বিজাতীয় খাবার, রেডমিট কম খাওয়া, মাছ বেশি খাওয়া যাতে হাড় ভালো থাকে, শাকসবজি, খাবার পাতে দই প্রভৃতি খাদ্যগ্রহন।বিশেষ করে গর্ভবতী মায়েদেরও মেনে চলা দরকার এই পুষ্টি সংক্রান্ত বিষয়।"

  • মুর্শিদাবাদের গরীবপুরের স্থানীয় ভৈরব নদীতে ভয়াবহ নৌকাডুবি, নিখোজ ১২

    Newsbazar 24 ডেস্ক, ৭ সেপ্টেম্বরঃ মুর্শিদাবাদের গরীবপুরে মর্মান্তিক নৌকা দুর্ঘটনা। মহিলা ও শিশুসহ প্রায় ১২ জন  নিখোঁজ । মৃতের কোন খবর এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।  জানা যায় সন্ধার আগে  মুর্শিদাবাদের গরীবপুরের  স্থানীয় ভৈরব নদীতে প্রায় ৭০-৮০ জন যাত্রী নিয়ে যাচ্ছিল নৌকা। মাঝনদীতে প্রবল ঝোড়ো হাওয়ায় যাত্রীসহ নৌকাটি উল্টে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন  উল্টোপাল্টা হাওার দাপটেই নৌকাটি ভারসাম্য হারিয়ে ডুবে যায়। যাত্রীদের অনেকেই সাঁতার দিয়ে  পারে উঠে আসেন বলে জানা গিয়েছে। বাকি বেশ কয়েকজন উদ্ধার করেছেন স্থানীয়রাই। কিন্তু, এখনও বেশ কয়েকজন মহিলা ও শিশুসহ প্রায় ১২ জন মতো নিখোঁজ রয়েছেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী বিশাল পুলিশ বাহিনী। তাঁদের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারের কাজে হাত লাগিয়েছে। তবে উদ্ধারকাজ চলতে চলতে রাত হয়ে যাওয়ায় পর্যাপ্ত আলোর অভাবে অসুবিধায় পড়েছেন উদ্ধারকারীরা। সেই সঙ্গে  প্রতিকূল আবহাওয়া তাদের কাজে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে । রাত বাড়তে থাকার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে ঝড়ের দাপটও। সেইসঙ্গে রয়েছে বৃষ্টিও। ফলে উদ্ধার কাজের গতি অনেক মন্থর হয়ে পড়েছে। এলাকার মানুষজন নৌকোডুবির কথা জানতে পেরে নদীর পারে ভিড় করেছেন। নিখোঁজরা বেশিরভাগই স্থানীয় বাসিন্দা হওয়ায়,তাদের উদ্বিগ্ন আত্মীয় পরিজনরা নদীর পারে ভিড় করেছেন।

  • স্বাধীনতা দিবস পালন করলো লালবাগ মহুকুমা প্রশাসন

    Newsbazar24: সারা দেশের সাথে তাল মিলিয়ে স্বাধীনতা দিবস পালন করলো লালবাগ মহুকুমা প্রশাসন। এদিন সকালে তেরাঙ্গা উত্তোলন করেন সদর মহুকূমা শাসক তোপ দেন লামা। উপস্থিতি ছিলেন মহুকুমা তথ্য সংস্কৃতি দপ্তরের বড়বাবু সুবীর সরকার সহ স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যাক্তিরা। এদিন কুচকা আওয়াজের সাথে পতাকা উত্তোলনের পর,স্থানীয় ছাfত্র ছাত্রী ও শিল্পীদের নিয়ে সংস্কৃতি অনুষ্ঠান করা হয়। সবশেষে সকলকে মিষ্টি মুখ করানো হয় ।

  • চরকাবিলপুরে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন দেশের ৭২তম স্বাধীনতা দিবস মহাসমারোহে পালন

    রাজকুমার দাস: মুর্শিদাবাদের সাগরদীঘির চরকাবিলপুর সমাজ ভাবনা কোচিং সেন্টারে। ২০১৮ সালের এই ব্যস্ততম পরিস্থিতিতে দেশের অখন্ডতা বজায় রাখা খুবই জরুরী। মহান স্বাধীনতা প্রাপ্তির দিবস ও স্বাধীনতা সংগ্রামীদের বিজয় ইতিহাস চর্চা করতে সকাল ৯টায় পতাকা উত্তোলন করে রহমতুল্লাহ ,র উদ্বোধনী সংগীতের মধ্য দিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়।স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন সমাজ ভাবনা সাহিত‍্য পত্রিকার সম্পাদক মোঃ মুস্তফা শেখ। এখনে বেশ কয়েক জন ছাত্র -ছাত্রী গজল ও দেশাত্মবোধক সংগীত পরিবেশন করে। প্রধান অতিথি কবি , প্রাবন্ধিক তথা কাবিলপুর উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমান বলেন বর্তমান রাজনৈতিক আক্রোশ ও ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতার উর্ধ্বে অবস্থান করে দেশের সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে , বহিঃশত্রুর আক্রমণ থেকে আমাদের দেশকে রক্ষা করতে হিন্দু - মুসলিম , ধনী -গরীব এবং বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মিলিত শক্তির প্রয়াস-ই অগ্রগণ্য ভূমিকা পালন করেছে। হাজার -হাজার তাজা প্রাণ ভারতীয় ভূখণ্ডের মুক্তির জন্য প্রাণ বিসর্জন দিয়েছেন। আজকেও আমরা সকলে মিলিতভাবে দেশের শান্তিময় পরিস্থিতি বজায় রাখব। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আব্দুর রউফ , মুর্শিদ সারোয়ার জাহান , ডাঃ মিজানুর রহমান , সাইফুল ইসলাম , নাজিমুদ্দিন বিশ্বাস ,আরিফ হোসেন , বুনিয়ামিন প্রমুখ।

  • নাম বদল নিয়ে বাঙালি সেন্টিমেন্টের হাওয়া তুলে রাজনীতির খেলা চলছে- অধীর চৌধুরি

    Newsbazar 24 , ডেস্ক, ২৮ জুলাই : লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে রাজ্যের নাম বদল নিয়ে রাজনীতি করছেন মুখ্যমন্ত্রী। বাঙালি সেন্টিমেন্টকে সুড়সুড়ি দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন তিনি। আজ বহরমপুরে জেলা কংগ্রেস কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠকে এই অভিযোগ তুললেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরি। পাশাপাশি তিনি রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে বলেন, "নাম পালটানোর থেকে কাম পালটানো দরকার।" পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তন নিয়ে রাজ্য সরকার ইতিমধ্যে অনেক দূর এগিয়ে গেছেন। ইতিমধ্যে বিধানসভায় নাম বদলের প্রস্তাব পাশ হওয়ার পর নাম পরিবর্তন এখন সময়ের অপেক্ষা । রাজ্যের নাম বদলের  প্রশ্নে অধীরবাবু বলেন, " এতদিন আমরা বাংলার মানুষ বলেই নিজেদের পরিচয় দিয়ে আসছি। কিন্তু বর্তমানে  পশ্চিমবঙ্গে হাওয়া তোলার চেষ্টা চলছে। নির্বাচনের আগে বাঙালি সেন্টিমেন্ট, জাতিসত্ত্বাকে জাগিয়ে তোলার চেষ্টা চলছে।  বাঙালি প্রধানমন্ত্রী, বাংলা ভাষা, বাংলার উন্নয়ন, বাংলার শ্রেষ্ঠত্ব, নির্বাচনের আগে এই হাওয়া তোলা হচ্ছে। বাঙালি সেন্টিমেন্টের হাওয়া তুলে রাজনীতির খেলা চলছে।" অধীরের মতে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এসব জেনেশুনে  করছেন। তিনি  তৃণমূল নেত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন, "সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যারা রাজনীতি করে, তাদের বক্তব্য মিলিয়ে দেখতে হয়। সেটা মেলাতে গিয়ে দেখছি, বাংলার নাম, নির্বাচন, বাংলার প্রধানমন্ত্রী সব মিলিয়ে দুয়ে দুয়ে  চার হয়ে যাচ্ছে,এবং এই সেন্টিমেন্টে সুড়সুড়ি দিয়ে ভোট কেনার চেষ্টা চলছে।"

  • তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হ যে গেল গ্ল্যামনেশন সিজন -৩ ফ্যাশন শো।

    শঙ্কর চকরবর্তী,news Bazar24: সমাজের তৃতীয় লিঙ্গের মানুষেরাও যে কিছু করতে পারে। তাদের ভিতরেও যে বিভিন্ন প্রতিভা আছে সেটা প্রমাণ করে দিলেন গ্ল্যামনেশন সিজন -৩ এর কর্নধার রিমেলী সাহা ও সুজয় প্রামাণিক। দিন কয়েক আগে বহরম পুরে র রবীন্দ্র সদনে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হ যে গেল সিজন -3 ফ্যাশন শো। যা সম্ভব ত রাজ্যে প্রথম। এদিন রবীন্দ্র সদনের রেম্পে প্রলয় দত্ত, মন্টি অধিকারী, দেবাশীষ সাহা, শুভজিৎ ঘোষ,বাবন ইসলাম, বিজয় বিশ্বাস এর পারফরম্যান্স ছিলো চোখে পড়ার মত।গ্ল্যামনেশন সিজন -৩ কর্নধার রিমেলী সাহা জানান, সমাজের চোখে এরা পিছিয়ে পড়া মানুষ থাকলেও,এদের মধ্যেও বিভিন্ন বিষয়ে যথেষ্ট প্রতিভা আছে। আর ফ্যাশন সম্পর্কে এরা নিজের থেকেই যথেষ্ট সচেতন। আর এই প্রতিভাবান দের তুলে ধরায় গ্লাম নেষনের চেষ্টা। যা সারা রাজ্যের প্রতিটা জেলায় জেলায় এই শো হবে।

  • কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাড়ম্বরে পালিত হলো আন্তর্জাতিক যোগ দিবস।

    News Bazar24: মুর্শিদাবাদ জেলা সার্কেলের কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাড়ম্বরে পালিত হলো আন্তর্জাতিক যোগ দিবস।এবারের উল্লেখ্যযোগ্য বিষয়, সরকারী নির্দেশনামা অনুযায়ী ছাত্রছাত্রীদের ক্লাস বন্ধ থাকলেও ছাত্রছাত্রীদের মায়েদের বা অভিভাবিকা দের নিয়ে যোগাসনের ক্লাস অনুষ্টিত হয়। যা সত্যি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। যদিও এই বিদ্যালয়ে যোগাসনের ক্লাস নির্দিষ্টভাবে ছাত্রছাত্রী-দের নেয়া হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহামুদাল হাসান বলেন,"সারা বিশ্বজুড়ে আজ ২১ জুন আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালিত হচ্ছে। বাহ্যিক ও অভ্যন্তরীণ উভয় দিক থেকেই নিজেদের দৃঢ় করে তোলার জন্য সারা পৃথিবীর লোক এই দিনে যোগ দিবস পালন করে থাকে।মানসিক ও শারীরিক উভয় দিক থেকেই নিজেকে সুষ্ঠু সবল রাখার জন্য যোগ ব্যায়ামের চেয়ে আদর্শ আর কিছু হতেই পারে না। `যোগা` শব্দটি সংস্কৃত শব্দ `যুজা` থেকে এসেছে, যার অর্থ হল ``যোগদান ও একত্রিত হওয়া``। যোগ দিবসের প্রতিপাদ্য ধরা হোক ``শান্তির জন্য যোগা``।

  • কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস পালন।

    Newsbazar24:১২- ই জুন বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষ্যে মুর্শিদাবাদ চক্রের কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এই দিবসটি গুরুত্ব সহকারে পালন করা হল। স্লোগান, ফেস্টুন, ফ্ল্যাগ প্রভৃতি নিয়ে এলাকা প্রদর্শন করে ছাত্রছাত্রীরা। এলায় বেশ সাড়া পড়ে অনেক অভিভাবক অভিভাবিকা এই শোভাযাত্রায় পা মেলান। ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসন করি, শিশু শিক্ষা নিশ্চিত করি’ স্লোগান উচ্চারিত হয় এই দিবসে। প্রধান শিক্ষক মাহামুদাল হাসান বলেন, লক্ষ লক্ষ শিশু শ্রম দিচ্ছে চায়ের দোকান, ইটভাটা, গ্যারেজ, কারখানা, ওয়ার্কশপ প্রভৃতি জায়গায়। অর্থনৈতিল অস্বচ্ছলতা ও দারিদ্র্যের জন্য বেড়ে চলেছে এই শিশুশ্রমিক। শিশুসংসদের মন্ত্রী ও বিভিন্ন দপ্তরের সদস্য-সদস্যারা খুব গুরূত্ব দিয়ে আজকের এই দিন টিকে সচেতনতার কর্মে নিয়োজিত করে। শিশুসংসদের প্রধানমন্ত্রী ঈশিতা বিশ্বাস বলে, বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবসে শিশুরা চায়ের দোকান, ইট ভাটায় যাতে কাজ না করে পড়াশুনা না করে সেদিকে লক্ষ্য রেখে প্রচার চালাতে হবে। কোথাও এমন দেখলে ১০৯৮ এ কল করতে হবে।"

  • মুর্শিদাবাদে কংগ্রেসের ইফতার পার্টিতে অনুপস্থিত জেলা সভাপতি, জোর গুঞ্জন তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন?

    Newsbazar, ডেস্ক, ১৩ জুনঃ মুর্শিদাবাদ জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ইফতার পার্টি।  সেই পার্টিতে অনুপস্থিত জেলা কংগ্রেস সভাপতি। উপস্থিত ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে  জেলা কংগ্রেস সভাপতি আবু তাহের খান অনুপস্থিত কেন ?  জল্পনা বাড়ছে  আবু তাহের খান কি কংগ্রেস ছেড়ে তৃনমূলে  যাচ্ছেন ? মুর্শিদাবাদ জেলা কংগ্রেসের তরফে সম্প্রতি আয়োজন করা হয়েছিল একটি ইফতার পার্টির। সেই ইফতার পার্টিতেই অনুপস্থিত কংগ্রেসের জেলা সভাপতি আবু তাহের। এই ইফতার পার্টিতে ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী, সাংসদ অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়-সহ অন্যান্যরা। এ ব্যাপারে  প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীরবাবু জানান , জেলা সভাপতির পক্ষ থেকে ডাকা  ইফতার পার্টিতে আবু তাহের  কেন এলেন না জানি না। পঞ্চায়েত নির্বাচনের  ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই মুর্শিদাবাদের রাজনৈতিক মহলে জল্পনা শুরু হয়েছিল যে   তিন কংগ্রেস বিধায়ক দল ছেড়ে তৃনমূলে যেতে পারেন । শুভেন্দু অধিকারী চ্যালে়ঞ্জ ছুড়েছিলেন মুর্শিদাবাদে কংগ্রেসকে একেবারে নিশ্চিহ্ন করে দেবেন । অধীর চৌধুরীর দিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে তিনি বলেছিলেন , অধীরবাবুর পাশে কেউ থাকবে না। কংগ্রেস বলেই কেউ থাকবে না মুর্শিদাবাদ জেলায়। এর আগেও বহু কংগ্রেস বিধায়ক, পঞ্চায়েত সদস্য, কাউন্সিলররা দল ছেড়েছেন। এবার পালা  ফারাক্কা ও নয়দার বিধায়কের। এদিকে আবদুল মান্নান এই দলবদলের ব্যাপারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি  দিয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছিল। মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে কথা দিয়েছিলেন তিনি আর কংগ্রেস ভাঙাবেন না। এরপর তৃণমূলে পা বাড়িয়ে থাকা কংগ্রেস বিধায়করা কী করেন সেটাই এখন  দেখার।  

  • নদিয়া জেলা জুড়ে বেহাল ডাক পরিষেবা : আন্দোলনে ডাক কর্মীরা

    অভিজিৎ লুইস সরকার : ডাক কর্মীদের লাগাতার কর্মবিরতির জেরে লাটে উঠেছে নদীয়ার ডাক পরিষেবা । জেলার বেশির ভাগ পোস্ট অফিসের কাজ বন্ধ। গত ২২শে মে থেকে অনশন চলছে ডাক কর্মীদের। খবরে প্রকাশ, ডাক কর্মীদের বিভিন্ন ইউনিয়ন মিলিত ভাবে কৃষ্ণগর পোস্ট অফিস সুপারিনটেনডেন্ট অফিসের সামনে ধর্নায় বসে । ৪টি দাবি নিয়ে অনির্দিষ্ট কালের ধারনাই বসেছে G.D.A । সংগঠনের এক নেতার কথায়, থেকে বলাহয় ,তাদের চারটে দাবী যদি না মানা হয় তাদের দাবি না মানা পর্যন্ত এই ধর্মঘট লাগাতার চলবে। দাবিগুলো হল, ১)ডাক বিভাগে (G.D.S) কর্মীদের জন্য কমলেশ চন্দ্র কমিটির সুপারিশ লাগু করে শূণ্য পদে লোক নিয়োগ করতে হবে। ২)কমলেশ চন্দ্র কমিটির ইতিবাচক সুপারিশ কার্যকরী করতে হবে।৩) মাসে ৭হাজার টাকায় সংসার চলেনা -উপোযুক্ত মাইনে দিতে হবে।৪) আওবিলম্বে শূণ্য পদে লোক নিয়োগ করতে হবে। উল্লেখ্য, এই অনশনের বিষয়ে ডাক বিভাগের কোনো আধিকারিকের মন্তব্য পাওয়া যায়নি।