���������������

  • ১৮ ই আগস্ট মালদা জুড়ে পালিত হলো স্বাধীনতা দিবস

    শাউলি সিংহ :   ১৯৪৭ এর ১৮ ই আগস্ট মালদায় প্রথমবার উড়েছিল ভারতীয় তিরঙ্গা পতাকা। ১৯৪৭এর ১৫ ই আগস্ট নয়, ১৯৪৭ এর ১৮ ই আগস্ট মালদায় প্রথম উড়েছিল ভারতীয় তিরাঙ্গা পতাকা।মালদা স্বাধীনতা পেয়েছিলো ১৮ ই আগস্ট।স্বভাবতই এই দিনটি মালদাবাসীর কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই দিনটি স্মরণে রেখে শনিবার স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালিত হলো মালদা জেলা জুড়ে। এদিন সকালে জেলার মানিকচক ব্লকের অন্তর্গত মথুরাপুর ক্লাব এন্ড লাইব্রেরীর উদ্যোগে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য পালন করা হয়।পাশাপাশি মানিকচক ব্লক তৃণমূলের পক্ষ থেকে এই দিনটি নানান কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়।এদিনের কর্মসূচিতে হাজির ছিলেন,মালদা জেলা পরিষদের বিদায়ী সহকারী সভাধিপতি গৌর চন্দ্র মন্ডল।মানিকচক ব্লক স্বাস্থ আধিকারিক ডঃ হেম নারায়ণ ঝা সহ এলাকার বিশিষ্ট সমাজসেবী বিশ্বজিৎ মন্ডল থেকে আরম্ভ করে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মকর্তারা।একেঅপরের মিষ্টিমুখ করানোর পাশাপাশি মথুরাপুর স্ট্যান্ডে বাইক চালকদের ফুল ও হেলমেট বিতরণ করা হয়।শোক পালনের মধ্যদিয়ে এদিন স্মরণ করাও হয় । আপনি এই খবরটি পড়লেন newsbazar24.com এ

  • মোথাবাড়ি এলাকায় পথ দুর্ঘটনার রেশ টানতে বৈঠক

    সুমিত ঘোষ: মালদা জেলা প্রশাসন এবং ব্লক প্রশাসনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো এক প্রশাসনিক বৈঠক। কলিয়াচক 2 নম্বর ব্লকের মোথাবাড়ি এলাকায় দিনের পর দিন বেড়ে চলা পথদুর্ঘটনার লাগাম টানতে এই প্রশাসনিক বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল কালিয়াচক 2 নম্বর ব্লকের কনফারেন্স রুমে। জেলা এবং ব্লকের প্রশাসনিক আধিকারিকদের পাশাপাশি বিভিন্ন বিদ্যালয় এর শিক্ষক প্রধান শিক্ষক এবং স্থানীয় ক্লাব সদস্য ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন এ দিনের এই প্রশাসনিক বৈঠকে। উপস্থিত ছিলেন ডিএসপি ট্রাফিক শুভতোশ সরকার, ডিএসপি বিপুল মজুমদার, কলিয়াচক 2 নম্বর ব্লকের বিডিও অরজিত মুখার্জি, আই সি. সুমন চটার্জী, ট্রাফিক ওসি জয়দেব দাস, মোথাবাড়ি থানার ওসি হারাধন দেব, মালা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি জয়ন্ত কুন্ডু সহ অন্যান্যরা। উল্লেখ্য দিনের পর দিন কলিয়াচক 2 নম্বর ব্লকের মোথাবাড়ি এলাকায় বেড়ে চলেছে পথ দুর্ঘটনা। এই নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রশাসন। তাই পথ দুর্ঘটনা রুখতে বেশ কিছু সচেতনতা অবলম্বনে এদিনের এই প্রশাসনিক বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল বলে জানা যায়।

  • আইহো বিজেপির , প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন অনুষ্ঠান পালন

    জিৎ বর্মন: আইহো বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় আজ বিকেলে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন অনুষ্ঠান পালন করা হয়। অাইহ লোকাল বিজেপি কমিটির উদ্যোগে অটল বিহারী বাজপেয়ীর আত্মার শান্তি কামনা কার্যক্রমে মানুষের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মত। মোম বাটি জ্বালিয়ে, বাজপেয়ির প্রতিকৃতিতে ফুল ও মাল্য দান করে প্রায় ৩০০ মানুষ। বিজেপি নেতা মধুময় সরকার জানান, পিতৃতুল্য বাজপেয়ীর মৃত্যু ভারতের প্রতিটি মানুষের কাছে বেদনা দায়ক। তিনি দেশের জন্য পুরো জীবন দিয়েছেন। বজপেয়ীর আত্মার শান্তি কামনায় আজ এই কার্যক্রম।

  • মালদা জেলা পুলিশের মহৎ কাজ, চুরি যাওয়া জিনিস ফেরত পেলো মালিকেরা

    সুমিত ঘোষ: গত দুই মাস ধরে চুরি যাওয়া মোটরবাইক,মোবাইল, সোনা ও চাঁদির গয়না,কম্পিউটারের বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করে অভিযোগকারীদের হাতে তুলে দিলেন মালদা পুলিশ সুপার অর্ণব ঘোষ। শুক্রবার বেলা বারোটা নাগাদ, অভিযোগকারীদের হাতে সমস্ত জিনিস তুলে দেওয়া হয়। পুলিশ সুপার ছাড়াও চুরি যাওয়া জিনিস পত্র ফিরিয়ে দেওয়ার এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ডিএসপি বিপুল মজুমদার, ইংরেজবাজার থানার আইসি পূর্ণেন্দু কুন্ডু, পুলিশ অফিসার সত্য ভট্টাচার্য সহ অন্যান্য অফিসার ও প্রাপকরা। পুলিশ সুপার জানান, গত দুই মাস ধরে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে চুরি যাওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে তল্লাশি শুরু করে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। তল্লাশি করে চুরি যাওয়া ১৮টি মোটর বাইক, একটি টোটো, ১৮টি নামি কোম্পানির মোবাইল, একটি সোনার ও চাঁদির গয়না এবং কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক ও রাম উদ্ধার করে অভিযোগকারীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। পুলিশের প্রতি সাধারণ মানুষের ভরসা অক্ষুন্ন রাখতে পুলিশের এই প্রয়াস। আপনি এই খবরটি পড়লেন newsbazar24.com এ ভিডিও দেখতে নিচের রেডিও বাটনে ক্লিক করুন।

  • ৫০ ফুট উঁচু মহানন্দা ব্রিজ থেকে পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা কিশোরীর

    সুমিত ঘোষ: প্রেমে প্রত্যাঘাত হয়ে একবারে ৫০ ফুট উঁচু মহানন্দা ব্রিজ থেকে পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন এক ১৪ বছর বয়সী কিশোরী।ঘটনাটি শুক্রবার সকাল ১১ টা নাগাদ ঘটেছে রতুয়া-২ এর মহানন্দা হল্ট স্টেশন এর পাশে মহানন্দা ব্রিজে।এহেন ঘটনায় এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানাগেছে,১৪ বছর বয়সী ওই কিশোরী আশপাশের একটি হাই মাদ্রাসায় সপ্তম শ্রেণীতে পড়াশুনা করতো।সে মাদ্রাসার হোস্টেলে থাকতো।ছুটি নিয়ে মামার বাড়ি রাণীনগরে আসে।পাশের গ্রাম বৈরগাছির কুরবান আলি নামক এক বিবাহিত যুবকের প্রেমে পড়ে।কুরবান বিয়ে করার প্রলোভন দিলেও ইদানিং বিয়ে করতে অস্বীকার করেন।বৃহস্পতিবার এনিয়ে রাণীনগরে কিশোরীর মামার বাড়িতে এক সালিসি সভাও বসে।কিন্তু মেয়েটি অন্ধভাবে ভালোবাসলেও ছেলেটি প্রেম অস্বীকার করে বিয়েতে অমত হন।এতেই ওই কিশোরীর গোসসা হয়। সাতপাঁচ না ভেবে প্রেমে প্রত্যাঘাত হয়ে আত্মহত্যা করার পথ বেছে নেয় ওই কিশোরী।খোদ ৫০ মিটার উঁচু মহানন্দা ব্রিজ থেকে সরাসরি ঝাঁপ দেয় মহানন্দা নদীতে।আধমরা অবস্থায় স্তানীয়রা নদীর জল থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রতুয়া-২ ব্লক সাস্থ কেন্দ্র(আড়ায়ডাঙ্গা) নিয়ে যাওয়া হয়।সেখানেই বর্তমানে চিকিৎসা চলছে ওই কিশোরীর।কোনোরকম বেঁচে আছে।কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন,চিন্তার কারণ নেই।শারীরিক অবস্থা অনেকটাই উন্নতির পথে।পুকুরিয়া থানার ওসি অভিষেক তালুকদার জানান,রতুয়া-২ এর মহানন্দা ব্রিজে এক কিশোরী এদিন প্রেমে প্রত্যাঘাত হয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করছিল শুনেছি।তিনি বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে তদন্তের আসসাস দিয়েছেন।

  • মালদায় প্রৌঢ়কে মারধরের অভিযোগ, ৪ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে

    জিৎ বর্মন:মালদা, ১৭ অগাস্ট : পুরনো বিবাদের জেরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে এক প্রৌঢ়কে মারধরের অভিযোগ উঠল ৪ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে, বৃহস্পতিবার রাত্রি নটা নাগাদ, ইংরেজবাজার থানার খাসিমাড়ি এলাকায়। আক্রান্ত প্রৌঢ় চিকিৎসাধীন মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের ইংরেজবাজার থানায়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত প্রৌঢ়র ণাম, নিরঞ্জন মন্ডল(৬০)। বাড়ি ইংরেজবাজার থানার মহদীপুর বেকি কালী মন্দির এলাকায়। জানা গিয়েছে, আক্রান্তর ছেলে রাজকুমার মন্ডল এর সাথে প্রতিবেশী বাসু ঘোষের বিবাদ ছিল। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের মধ্যে বচসা হয়। সেই সময় বচসা থেমে যায়। অভিযোগ, রাত্রি নটা নাগাদ, মোটর বাইক নিয়ে নিরঞ্জন মন্ডল মালদা শহরের যাচ্ছিলেন, সেই সময় খাসিমারি এলাকায় নিরঞ্জন মন্ডলের পথ আটকায় বাসু ঘোষ ও তার দলবল বলে অভিযোগ। নিরঞ্জন মন্ডলকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে নির্জন এলাকায় ব্যাপক মারধর করে বলে অভিযোগ। লাঠির আঘাতে মাথা ফেটে যায় নিরঞ্জন বাবুর।মারধোর করার অভিযোগ উঠে বাসু ঘোষ সহ চারজনের বিরুদ্ধে। এরপর খবর পেয়ে পরিজনেরা নিরঞ্জন বাবুকে উদ্ধার করে রাতেই মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সেখানেই চলছে তার চিকিৎসা। তবে কি কারণে ওই প্রৌঢ়কে মারধরের ঘটনা তা তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।

  • গয়েশপুর শান্তি কমিটির উদ্যোগে ৭২ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

    পায়েল সরকার : ৭২ তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে গয়েশপুর শান্তি কমিটির উদ্যোগে সড়ম্বরে পালিত হলো পতাকা উত্তোলন কর্ম সূচি। এদিন একটি বিশাল প্রভাত ফেরী বিধানচন্দ্র রোড পড়িভ্রমন করে। এলাকার কচিকাঁচা থেকে প্রবীণ লোকেরাও এই প্রভাত ফেরিতে অংশ গ্রহণ করেন। কদম কদম এগিয়ে যা, সাড়ে যাহা সে আচ্ছা, বিভিন্ন দেশত্ববোধক গান বাজতে থাকে বাজনা বালাদের কোরাসে। এদিন পতাকা উত্তোলন করেন কমিটির প্রবীণ সদস্য সুবোধ চকরবরতী, উপস্থিত ছিলেন ২১ নম্বর ওয়ার্দের কাউন্সিলর চৈতালি ঘোষ সহ বিশিষ্ট মানুষেরা। এদিন শান্তি কমটির সম্পাদক মানিক ঝা জানান, শান্তি কমিটি আজ কেবল এলাকার নয়, জেলার যে কোনো এলাকায় বিপদে দুর্যোগে মানুষের সাথে আছে, যার প্রমাণ গত বছর বন্যার সময় মানুষ পেয়েছে। এবং আগামী দিনে ১৫ আগস্ট দিনটিকে আরও যেনো ভালো ভাবে পালন করা যায় সেই চেষ্টা করা হবে আপনি এই খবরটি দেখলেন newsbazar24.com এ। ভিডিও টি দেখতে  নিচের রেডিও বটনে ক্লিক করুন।

  • কালিয়াচকে শান্তি ফিরিয়ে পুরুষ্কৃত পুলিশ অফিসার সুমন চ্যাটার্জি

    news Bazar24:    এক সময়ের সন্ত্রাসবাদীদের দখলে থাকা কালিয়াচকে শান্তি ফিরিয়ে পুরুষ্কৃত হলেন কালিয়াচক থানার  আধিকারিক সুমন চ্যাটার্জি। দেশের ৭২ তম স্বাধীনতা দিবসে মুখ্যমন্ত্রীর হাতে সন্মানীত হন। এদিন রাজ্য জুরে ভাল কাজের সুবাদে মোট দশ জন পুলিশ আধিকারিককে সন্মানিত করেন মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ এক সময় জাল নোট পাচার থেকে আফিম চাষ সহ খুনের মত ঘটনায় সন্ত্রাসবাদীদের স্বর্গ রাজ্য হয়ে উঠেছিল মালদহের কালিয়াচক থানা এলাকা। এলাকার সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে পুলিশ থানা ভাঙচুর ও পোড়ানোর অভিযোগ ওঠে। এমন সময়ে কালিয়াচক থানার আইসি পদে ২০১৬ সালের ২৫ আগষ্ট নিযুক্ত হন এসআই সুমন চ্যাটার্জি। থানার দায়িত্বভার পাওয়ার পর থেকেই এলাকাকে সন্ত্রাস মুক্ত করার কাজে নেমে পড়েন। এলাকার একাধিক প্রথম শ্রেণীর সমাজ বিরোধীদের গ্রেফতার করে পুলিশ। ধীরে ধীরে শান্তি ফিরে আসে কালিয়াচকে। বর্তমানে কালিয়াচক সন্ত্রাস মুক্ত। তারি ফল হিসাবে দেশের ৭২তম স্বাধীনতা দিবসে পুtরুষ্কৃত হলেন আইসি সুমন চ্যাটার্জি। এদিন রাজ্যের মোট দশ জন পুলিশ আধিকারিককে সন্মানিত করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায়। আপনি এই খবরটি পড়লেন newsbazar24.com এ

  • কালিয়াচক থেকে আবারও উদ্ধার হল জাল নোট।

    সুমিত ঘোষ: মালদহের কালিয়াচক থেকে আবারও উদ্ধার হল জাল নোট। প্রায় 50 হাজার টাকার জালনোটসহ এক যুবককে গ্রেফতার করল বৈষ্ণব নগর থানার পুলিশ। বৃহস্পতিবার ধৃত যুবক পুলিশ হেফাজতের আবেদন চেয়ে মালদা জেলা আদালতে পেশ করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে ওই যুবকের নাম রিন্টু শেখ। বয়স 32 বছর। বাড়ি বৈষ্ণব নগর থানার চর সেহীদি গ্রামে। বুধবার রাতে বস্টন নগর থানার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে আঠারোমাইল 34 নম্বর জাতীয় সড়কে হানা দেয়। সেখানে হানা দিয়ে পুলিশ রিন্টু শেখ কে গ্রেফতার করে। কার হেফাজত থেকে উদ্ধার হয় 40 হাজার টাকার জাল নোট। সবগুলোই ছিল 2 হাজার টাকার। 18 মাইল এলাকায় গাড়ি ধরার জন্য দাঁড়িয়ে ছিল ওই যুবক। kaliachak এ অন্য এক ব্যক্তির হাতে গুলি তুলে দেওয়ার কথা ছিল বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। কিন্তু তার আগেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

  • নিকাশি নালা পরিষ্কার করাকে কেন্দ্র করে বচসা: আক্রান্ত ছাত্র

    জিৎ বর্মন : নিকাশি নালা পরিষ্কার করাকে কেন্দ্র করে বচসার জেরে এক কলেজ পড়ুয়াকে ইট দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল ৮ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। আক্রান্ত ছাত্র চিকিৎসাধীন মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। ঘটনাটি ঘটেছে, বুধবার সন্ধ্যায় মালদা জেলার কালিয়াচক থানার জালালপুর অঞ্চলের নিচেরকানি গ্রামে। ৮জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের কালিয়াচক থানায়। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত ছাত্রের নাম মুকাররাম হোসেন(২১)। সে সাউথ মালদা কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। বাবুল শেখ, নিরু শেখ, সাহারাজ শেখ, জাহির শেখ সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের। আক্রান্তর অভিযোগ, গ্রামে নিকাশি ব্যবস্থা নেই। একটি নালা রয়েছে যেটা দিয়ে গ্রামের সমস্ত নোংরা আবর্জনা নিকাশি হয়। গ্রামের কয়েকজন মিলে নালা পরিষ্কার করা হচ্ছিল। আবর্জনা নালার পাশেই জমিয়ে রেখেছিলেন তারা। এই নিয়ে বাবুল শেখ,নিরু শেখদের সাথে বচসা শুরু হয়। মুকাররম হোসেনদের পরিবারের। অভিযোগ, বাড়ির সামনে নালার আবর্জনা রাখাকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে বচসা শুরু হয়। অভিযোগ সেই সময় ইট এবং লাঠি নিয়ে অভিযুক্তরা চড়াও হয় কলেজ পড়ুয়ার উপর। ইটের ঘায়ে মাথা ফেটে যায় ওই ছাত্রের। এর পর তড়িঘড়ি রক্তাক্ত অবস্থায় ছাত্রকে উদ্ধার করে প্রথমে কালিয়াচক গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে তাকে স্থানান্তর করা হয় মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। বর্তমানে সেখানেই চলছে তার চিকিৎসা। তবে কি কারণে হামলার ঘটনা তা তদন্ত শুরু করেছে কালিয়াচক থানার পুলিশ। অভিযুক্তরা পলাতক।