মালদা

  • কাশ্নীর ইস্যুু নিয়ে সরব

    news bazar24:দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে বুধবার মালদায় এলেন বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কাশ্নীর ইস্যুু নিয়ে মুখ খুললেন তিনি। জানা যায়, ত্রদিন সকালে মালদা রেল স্টেশনে পৌঁছে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে জম্বু-কাশ্নীরের পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়েছে। মাঝে পাথর ছোঁড়ার ঘটনা কিছুটা কমে ছিল। এখন পরিস্থিতি রাজ্য সরকার বা রাজনৈতিক কারণে বাড়ছে। সেই দায় ভারতীয় জনতা পার্টির ওপর চেপে আসছে। সেই কারণে সমর্থন প্রত্যাহার করা ছাড়া আর দ্বিতীয় কোন রাস্তা ছিল না। সেই কারণে ওখানে সরকার থেকে সমর্থন তোলা হয়েছে। যাতে উগ্রপন্থী ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জোরদার লড়াই করা যায়। তাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আবহাওয়া তৈরী করার জন্য এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এবার আমরা আতঙ্গবাদিদের নির্মূল করবো এই বিশ্বাস নিয়েই আমরা সমর্থন প্রত্যাহার করেছি। কেন্দ্রীয় সরকার করা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে উগ্রপন্থী ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে. ।  

  • আক্রান্ত এক কলেজ পড়ুয়া সহ ৩

    news bazar24: বাড়ি ফেরার পথে দুস্কুতীদের হাতে আক্রান্ত এক কলেজ পড়ুয়া সহ ৩ জন। ঘটনাটি ঘটেছে রতুয়া থানার হরগোবিন্দপুর এলাকায়। জানা গেছে, আক্রান্ত কলেজ পড়ুয়ার নাম সেখ সিকতার। তার চিকিৎসা চলছে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সে সামসি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। অন্যদিকে আক্রান্ত আরো দুইজনের নাম সাদিউল সেখ এবং ফুরকি বিবি। তারা চিকিৎসাধীন রতুয়া গ্রামীন হাসপাতালে। সিসা শেখ, এসাবুদ্দিন সেখ সহ সাত জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে রতুয়া থানায়। ঘটনা প্রসঙ্গে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে হরগোবিন্দপুর এলাকায় মোড়ের মাথায় আড্ডা দিচ্ছিলেন কলেজ পড়ুয়া সহ কয়েকজন। সেই সময় আচমকা সাতজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে কলেজ পড়ুয়ার উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। কলেজ পড়ুয়াকে বাঁচাতে গিয়ে পরিবারের দুই সদস্য আহত হয় দুস্কুতীদের হামলায়। আহত অবস্থায় তিনজনকে ভর্তি করা হয় রতুয়া গ্রামীণ হাসপাতালে। কিন্ত সেখানে কলেজ পড়ুয়ার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে তাকে স্থানান্তর করা হয় মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। অভিযুক্তরা পলাতক। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।       

  • তড়িদাহত হয়ে মৃত্যু এক শ্রমিকের

    news bazar24:তড়িদাহত হয়ে মৃত্যু হল এক শ্রমিকের। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার বৈষ্ণব নগর থানার ১৮ মাইলের ব্যারেজ কলোনী এলাকায়। জানা গেছে, মৃত শ্রমিকের নাম মনিরুল সেখ। বাড়ি ওই এলাকাতেই। পেশায় তিনি শ্রমিক। ত্রদিন দুপুরে তিনি বাড়ির পাশেই একটি আম গাছে লকড়ি ভাঙতে ওঠে। জানা যায় ওই গাছের উপর দিয়ে ৩৩ হাজার ভল্টের তার বয়ে গেছে। লকড়ি ভাঙার সময় তিনি তড়িদাহত হয়ে মাঠিতে লুঠিয়ে পড়েন। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ওই শ্রমিকের। পরে বৈষ্ণব নগর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়। ত্রদিকে এই ঘটনায় মৃতের পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

  • পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে আক্রান্ত

    news bazar24: পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে আক্রান্ত হলেন জামাই, শ্যালক। ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদের মারধোর করার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, বৈষ্ণব নগর থানার ক্যাম্প পারা এলাকায়। ঘটনায় সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। জানা গেছে, আক্রান্তদের নাম নাজিম সেখ এবং তার শ্যালক আজিজুল জামাল। তারা বর্তমানে বেদরাবাদ গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনায় মিস্টার সেখ সহ সাত জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। জানা যায়, কয়েক মাস আগে নাজিম সেখ মিস্টার সেখকে কিছু টাকা ধার হিসেবে দেয়। গত সোমবার সেই টাকা চাইতে গেলে নাজিম সেখকে মারধোর করে মিস্টার সেখ বলে অভিযোগ। মঙ্গলবার রাতে এই মর্মে মিস্টার সেখের বিরুদ্ধে বৈষ্ণব নগর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে বাড়ি ফিরছিলেন, নাজিম সেখ এবং তার শ্যালক আজিজুল জামাল। অভিযোগ ঠিক সেই সময় মিস্টার সেখ এবং তার দলবল তাদের দুইজনের পথ আটকে বেধড়ক মারধোর করে। গুরুতর আহত হয় তারা দুইজনই। নাজিম সেখের ডান হাতের ৩টি আঙ্গুল কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠে। অন্যদিকে তার শ্যালকে মুখে, এবং পিঠে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারধোর করার অভিযোগ উঠে। এই ঘটনায় মিস্টার সেখ সহ ৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তরা পলাতক। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

  •  ভাড়া বাড়ানোর প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ

    news bazar24:আচমকা ভাড়া বাড়ানোর প্রতিবাদে মালদা নালাগোলা রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালো প্রায় শতাধিক শ্রমিক। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকাল ৯টা নাগাদ আইহো মোর এলাকায়। জানা যায়, প্রায় দুই ঘন্টা পথ আটকে অবরোধ দেখাউ উত্তেজিত জনতা। পুলিস ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখায় শ্রমিকরা। পরে হবিবপুর থানার বিশাল পুলিসবাহিনী পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অবরোধকারিদের অভিযোগ, হঠাৎ করে বাস ভাড়া বাড়ানো হয়। এতে প্রত্যেকে অসুুবিধায় পরতে হয়। কয়েকজন শ্রমিক কাজে যাওয়ার জন্য বেসরকারি বাসে চাপেন সেই বাসে উঠার সময় তাদের কাছে বরাদ্দ যে টিকিটের দাম তার থেকে বেশি নেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এরপরে ক্ষোভে ফেটে পড়ে শ্রমিকরা। তারা মালদা নালাগোলা রাজ্য সড়কের আইহো মোড় এলাকায় রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তারা। বাস ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তারা। প্রায় দুঞ্চঘন্টা ধরে অবরোধ চলে তাদের। এর ফলে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় হবিবপুর থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। তাদেরকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখায় অবরোধকারীরা। পরে পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় অবরোধকারীরা।

  •  আম চুরিতে বাধা, আক্রান্ত ৩ যোগানদার

    news bazar24: আম চুরিতে বাধা, তিন যোগানদারকে কোপানোর অভিযোগ দুস্কৃতীদের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে কালিয়াচক থানার আলিপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। অভিযোগ দায়ের কালিয়াচক থানায়। জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে বাগানে পাহারা দিচ্ছিলেন তিনজন যোগানদার। সেই সময় তিন থেকে চার জন দুস্কুতী বাগানেরট আম চুরি করতে যায়। ঘটনায় বাধা দিতে যায় যোগানদারেরা। অভিযোগ সেই সময় ধারালো অস্ত্র নিয়ে ১০ থেকে ১২ জন দুস্কুতী হামলা চালায় তাদের উপর। দুস্কুতীদের হামলায় গুরুতর জখম হয় তিনজন যোগানদার। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে আহতদের নাম দাবিরুদ্দিন মৌমিন, এনামূল মৌমিন এবং আনোয়ার মৌমিন। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। তাদের বাড়ি কালিয়াচক থানার আলিপুর এলাকায়। আক্রান্তরা জানিয়েছেন, অভিযুক্তদের চিনতে পারেননি তারা। রাতের বেলা হঠাৎ করে দুস্কুতীরা আম চুরি করতে যায় বাগানে। সেই ঘটনায় বাধা দিতে গেলে ধারালো অস্ত্র ওপ লোহার রড় নিয়ে তারা তাদের উপর হামলা চালায়।

  • সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিবাদ       

    news bazar24: সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিবাদের জেরে একই পরিবারের তিন জনকে বঁটি দিয়ে কোপানোর অভিযোগ, দাদার পরিবারের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে মালদা শহরের বিবেকানন্দ পল্লীতে ঘটেছে ঘটনাটি। ইংরেজবাজার থানায় এই মর্মে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।  জানা গিয়েছে, পেশায় স্বর্ণ ব্যবসায়ী অরুণ কর্মকারের সাথে সম্পত্তি নিয়ে গত কয়েক বছর ধরে বিবাদ চলছিল তারই দাদা অসিত কর্মকারের সাথে। অভিযোগ সোমবার রাতে এই নিয়ে আবার বচসা শুরু হয় তাদের মধ্যে। বচসার জেরে ধারালো বঁটি এবং লোহার রড় নিয়ে আসিত কর্মকারের পরিবারের লোকেরা চড়াও হয় অরুণ কর্মকারের পরিবারের উপর। ধারালো অস্ত্রের কোপে জখম হয় অরুণ কর্মকার, অভিজিৎ কর্মকার এবং মালা কর্মকার। তারা চিকিৎসাধীন মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। অভিযুক্ত আসিত কর্মকার, সুুদীপ্ত কর্মকার, কৃষ্ণ কর্মকার এবং যমুনা কর্মকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের ইংরেজবাজার থানায়। আক্রান্তরা জানাইয়েছেন, গত কয়েক বছর ধরেই তাদেরকে উচ্ছেদ করার পরিকল্পনা করেন আসিত কর্মকার। বার বার এই নিয়ে বচসা হয়। সোমবার রাতে অযথা একটি কারণ নিয়ে বচসা শুরু করেন অসিত কর্মকার। বচসার জেরে রাত্রি নঞ্চটা নাগাদ ধারালো বটি ও লোহার রড় নিয়ে পরিবারের চার সদস্য তাদের উপর হামলা চালায়। ঘটনায় জখম হন তারা তিনজন। ঘটনায় ইংরেজবাজার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

  • জামাই রাজারা কি আম লিচু থেকে আতঙ্কিত। শাশুড়ি রা দেখে নিন CMOH এর কথা

    News Bazar24 :এই বছর নিপা ভাইরাস আতঙ্কে মালদার অধিকাংশ মানুষ আম ও লিচু থেকে দূরে সরে রয়েছে। বাজারে বিগত বছর গুলোর তুলনায় আম সস্তা হলেও খদ্দেররা মুখ ঘুরিয়ে। এদিকে আজ জামাই সষ্ঠী । জামাই দের মন ভরে আম খেতে না দিলে শাশুড়ি রা আবার শান্তি পায় না। জামাই রাও আজ আমের লোভে ছুটে আসে শশুর বাড়ি। এখন সব কিছুতেই বাঁধা হয়েছে নিপা ভাইরাস আতঙ্ক। তবে কি জামাই রা আম খাবেনা। দুপুরে ভাত খাবার পর হাতে নেবে না লিচু। এই বিষয়ে আমাদের কাছে জানালেন মালদার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সৈয়দ শাহজাহান সিরাজ। ভিডিও তে দেখেনিন উনি কি বললেন । ।  

  • মেলার শেষ দিনে ৬৪ মহন্তের ভোগ

    news bazar24; রামকেলি উৎসবের শেষ দিনে ৬৪ মহন্ত ভোগ উৎসবের আয়োজন করল রুপ সনাতন মিলন মন্দির ত্রবং বৈষ্ণব শাস্ত্র চর্চা কেন্দ্র। মহাপ্রভু চৈতন্য দেবের মাতৃ বর্গ,পিতৃ বর্গের শিষ্যদের আহ্বান জানিয়ে আয়োজন করা হয়ে থাকে এই উৎসবের বলে জানা যায়। প্রসঙ্গ,তখন সালটা ছিল ১৫১৪। সারা বাংলা জুড়ে তখন চলছে ভক্তি আন্দোলন। তার অন্যতম পুরোধা  ছিলেন চৈতন্যদেব। নবদ্ধীপ থেকে তাঁর বাণী  ছড়িয়ে পড়েছিল গোটা দেশ। সেই বছরই নবদ্ধীপ থেকে পদব্রজে বৃন্দাবনের উদ্দেশ্যে বেরিয়েছিলেন,নিমাই। জৈষ্ঠ সংক্রান্তির আগের দিন এসে পৌঁছেছিলেন তৎকালীন বাংলার রাজধানী গৌড়ে। সে সময় বাংলার সুুলতান ছিলেন, নবাব হুসেন শাহ। তাঁর ছিল মন্ত্রী গোষ্ঠী। সেই গোষ্ঠীরই অন্যতম সদস্য ছিলেন সাকর মল্লিক। চৈতন্যদেবের বাণী শুনে উদবুদ্ধ হন তিনি। নবাবের রাজ্যসভার কাজ বন্ধ রেখে দিনের পর দিন তিনি চলে যেতেন নিমাই-র কাছে। ত্রক সময় তারা দুই ভাই চৈতন্য দেবের কাছে দীক্ষা নিতে চান। স্থানীয় ত্রকটি তমাল গাছের নীচে দুই জনকে দীক্ষা দেন চৈতন্যদেব। তিনি দুই ভাইয়ের নতুন নামকরণ করেন। সেদিন থেকে সাকর মল্লিক পরিচিত হন সনাতন গোস্বামী নামে ত্রবং দাবিরের নাম হয় রুপ গোস্বামী। শ্রী চৈতন্য দেবের এই দুই শিষ্যের মন্দির তৈরি করা হচ্ছে রানমকেলিতে। রামকেলি উৎসবের শেষ দিনে সনাতন মিলন মন্দির ত্রবং বৈষ্ণব শাস্ত্র চর্চা কেন্দ্রের উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছিল,৬৪ মহন্ত ভোগ উৎসবের। সনাতন মিলন মন্দির ত্রবং বৈষ্ণব শাস্ত্র চর্চা কেন্দ্রের আচার্য্য কৃষ্ণচন্দ্র গোস্বামী জানান, মহাপ্রভু চৈতন্য দেবের মাতৃ বর্গ,পিতৃ বর্গের শিষ্যদের আহ্বান জানিয়ে আয়োজন করা হয়ে থাকে এই উৎসবের। এই উৎসব ঘিরে ত্রদিন ভক্তদের ভীড় আছড়ে পড়ে। উৎসবে সামিল হন মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সম্পাদক উজ্জ্বল সাহা অন্যান্যরা।  

  • বৈষ্ণব-বৈষ্ণবীদের ভিড় রাধানাথ ধর্মশালায়

    news bazar24: রামকেলি মেলার তৃতীয় দিন শেষ হতেই পুরাতন মালদার রাধানাথ ধর্মশালায় নেমে এলো বৈষ্ণব বৈষ্ণবীদের ভিড়। রামকেলি মেলা শেষ করে ভক্তরা এই ধর্মশালায় একদিনের জন্য আসেন। এখানে এক রাত্রি নিবাস করে আবার ভক্তরা কেউ কামাক্ষা, কেউ বা নিজের কন্তব্যস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। ভক্তরদের জন্য সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সেবার আয়োজন করে থাকেন ধর্মশালা কর্তৃপক্ষ। ধর্মশালার আয়োজক অভিজিৎ রাহুত জানান, এই ধর্মশালায় বৈষ্ণব সেবা তাদের জন্মের আগে থেকে হয়ে আসছে।

  • ঝান্ডা উৎসব পালিত পুরাতন মালদায়

    news bazar24; প্রতিবছরের মতো এবছরও ঝান্ডা উৎসব পালিত হল পুরাতন মালদায়। পুরাতন মালদা পুরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের শাকমোহন ত্রলাকায় আয়োজন করা হয়েছিল এই ঝান্ডা উৎসবের। প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও ঝান্ডা উৎসবে মাতল পুরাতন মালদা পুরসভার মুসলিম সম্প্রদায়ের অগণিত মানুষ। নিধারিত সময় অনুযায়ী রাত ৯ টা নাগাদ এই উৎসব শুরু হয় পুরাতন মালদা পুরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের শাকমোহন ত্রলাকায়। গাজোলের পান্ডুয়া সরিফ থেকে দুই শতাধিক ফকির বাবা এই পবিত্র ঝান্ড হাতে নিয়ে পায়ে হেটে ত্রদিন পৌছে যান শাকমোহন ত্রলাকায়। এরপর-ই শুরু হয় ঝান্ডা উৎসব। পবিত্র ঝান্ডা স্পর্শ করতে নেমে আসে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের ঢল। জানা গেছে, এই পরম্পরা প্রায় ৭০০ বছরের প্রাচীন। বর্তমানে এই প্রাচীন পরম্পরায় যত সামান্যও ভাটা পরেনি। প্রাচীন নিয়ম মেনেই চলে আসছে এই নীতি পরম্পরা।

  • আক্রান্ত একই পরিবারের তিন

    news bazar24;স্বামী-স্ত্রীর গন্ডগোল নিয়ে সালিশি সভা ডাকাকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষে আহত তিন। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাতে ইংরেজবাজার থানার যদুপুর ১ নম্বর অঞ্চলের কাটাগর এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই এলাকার বাসিন্দা রঘু সেখ তার স্ত্রীকে মারধোর করছিল। প্রতিবাদ করে এলাকারই যুবক ইব্রটআহিম শেখ। এই ঘটনায় গ্রামে রবিবার রাতেই নরেন্দ্রপুর এলাকায় সালিশি সভার ডাক দিয়েছিল এলাকার মাতব্বরেরা। সেই সালিশি সভায় আসার জন্য অভিযুক্ত রুঘু শেখকে তার বাড়িতে ডাকতে যায় ইব্রাটহিম শেখ, তার মা আঙ্গুরি বিবি ও হাসিনা খাতুন। সালিশি সভায় আসার জন্য ডাকতে গেলে অভিযুক্ত রুঘু শেখ ও তার পরিবারের লোকেরা সালিশি সভায় যাবেনা বলে জানিয়ে দেন। এই ঘটনাতে দুই পরিবারের মধ্যে বচসা বাধে। অভিযোগ রুঘু শেখ, শেফালী খাতুন, সোনালী খাতুন সহ ৪ জন ইব্রাহিম শেখ, আঙ্গুরি বিবি ও হাসিনা খাতুনকে মারধোর করে। লাঠি ও লোহার রড় দিয়ে দুজনের মাথা ফাটিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। একজনের কোমরে আঘাত লাগে। পরিবারের লোকেরা গুরুতর অবস্থায় রবিবার রাতেই মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তাদের চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। এই ঘটনায় সোমবার সকাল থেকেই এলাকায় তীব্র চাঞ্জল্য ছড়িয়ে পরে। পুলিশ প্রশাসন থাকতে এরকম সালিশি সভা কেন হলো এটাই প্রশ্ন এলাকাবাসীদের। অভিযুক্তরা পলাতক।  আক্রান্ত ইব্রাহিম শেখ জানিয়েছে, রবিবার সকালে বচসার জেরে রুঘু তার স্ত্রীকে মারধোর করছিল। এই ঘটনায় বাধা দিতে যায় তারা। এই নিয়ে রবিবার রাতে একটি সালিশির আয়োজন করা হয় গ্রামে। সালিশি সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্য রুঘুকে ডাকতে যান তারা। সেই সময় ধারালো অস্ত্র, রড় এবং লাঠি নিয়ে তাদের মাধোর করা হয়।

  • নিপা ভাইরাসে আতঙ্কের পর, এবারে অজানা রোগের প্রকোপে দিশেহারা মালদার লিচু চাষীরা।

    জিৎ বর্মন: নিপা ভাইরাসে আতঙ্কের পর, এবারে অজানা রোগের প্রকোপে দিশেহারা মালদার লিচু চাষীরা। মালদার অন্যতম অর্থকরী ফসলের মধ্যে আম ও লিচুর নাম আসে সর্বপ্রথমেই ।এবছর রেকর্ড ফলন হওয়ায় আশায় বুক বেঁধেছিলেন জেলার চাষিরা। কিন্তু প্রথম থেকেই নিপা ভাইরাসের আতঙ্কে প্রায় বন্ধ ভিন রাজ্য সহ বাংলাদেশ মালদার আম ও লিচুর রপ্তানি। ফলে ,দাম পাচ্ছেন না চাষিরা । এবারে নতুন উপদ্রব, লিচু চাষে ব্যাপক ফলন হলেও হঠাৎ করে গাছ থেকে ঝরে পড়ছে প্রচুর লিচু। গাছের লিচু আক্রান্ত অজানা রোগে ।কালো হয়ে গাছের নিচেই ঝরে পড়ে যাচ্ছে। বহু লিচু বাগানে ,লিচু গাছের তলায় পড়ে আছে বহু পচা লিচু। তাই একদিকে নিপা আতঙ্ক আর ওদিকে এই অজানা রোগ ,এই দুইয়ের সাঁড়াশি আক্রমনে নাজেহাল জেলার লিচু চাষীরা। এ বছরে ব্যাপক ফলন হলেও এখনও পর্যন্ত মালদা জেলায় গড়ে ওঠেনি কোন লিচু সংরক্ষণের ব্যবস্থা। ফলে দাম পাচ্ছেন না চাষিরা। আর তাদের এই অসহায়তার সুযোগ নিচ্ছে একদল ফড়েরা ।তাই লোকসান হলেও কম দামে লিচু বিক্রি করে দিতে বাধ্য হচ্ছেন চাষীরা। চাষীদের এহেনো সমস্যার সময় অভিযোগ উঠেছে সরকারি উদাসীনতার ও। নেই কোনো প্রশিক্ষণ বা দ্রুত সমস্যা সমাধানের চেষ্টা । ফলে দ্রুত ছড়াচ্ছে সমস্যা। যদিও এটাকে স্বাভাবিক ঘটনা বলে এই দায়ী এড়িয়েছেন মালদার বাগিচা ফলন এবং উদ্যান দফতরের আধিকারিকরা মালদার উদ্যানপালন এবং বাগিচা দপ্তরের অধিকর্তা রাহুল চক্রবর্তী জানিয়েছেন এটি একটি স্বাভাবিক ঘটনা ।তবে জেলায় লিচু সংরক্ষণের ব্যবস্থা না থাকায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে চাষীরা ।তাই সরকারিভাবে দ্রুত এই ব্যবস্থা গড়ে তোলার চেষ্টা হচ্ছে। জেলার উদ্যানপালন দফতরের কর্তারা জেলার জেলার লিচু চাষিদের এই সমস্যাকে হালকাভাবে নিলেও ,দ্রুত চাষীদের সমস্যার কথা শুনে ,তার সমাধানে এবং দ্রুত বিভিন্ন বিষয়ে দফতরের উদ্যোগে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে চাষীদের সচেতন না করলে ,আগামী দিনে মালদা জেলার লিচু চাষীরা যে অনেকেই এই চাষের প্রতি তাদের আগ্রহ হারাবেন একথা বোধ হয় বলার অপেক্ষা রাখে না।

  • মালদায় স্ত্রী কে নিয়ে সালিশি সভায় সংঘর্ষ, আহত ৩

    জিৎ বর্মন :স্ত্রীকে মারধর, সমস্যা মেটাতে গ্রাম্য শালিশের আয়োজন ।সালিশি কে ঘিরে সংঘর্ষ আহত 3 সকলেই ভর্তি মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। তদন্তে ইংরেজবাজার থানাপুলিশ। সালিশি সভা কে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষে আহত তিনজন। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাতে ইংরেজবাজার থানা যদুপুর অঞ্চলের কাটা গর । এলাকায় স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ওই এলাকার বাসিন্দা রঘু সেখ তার স্ত্রীকে মারধরের প্রতিবাদ করেছিল এলাকারই যুবক ইব্রাহিম শেখ । এই ঘটনায় গ্রামে রবিবার রাতেই নরেন্দ্রপুর এলাকায় সালিশি সভার ডাক দিয়েছিল এলাকার মরুল। আর এই সালিশি সভার আসার জন্য অভিযুক্ত রুহু শেখ কে বাড়িতে ইব্রাহিম শেখ ও তার মা আঙ্গুরা বিবি হাসিনা খাতুন সালিশি সভায় আসার জন্য ডাকতে গেলে অভিযুক্ত রহু শেক উত্তর বাড়ির পরিবারের লোকেরা সালিশি সভার আসবে না বলে জানিয়ে দেন এবং এতেই দুই পরিবারের মধ্যে বচসা বাধে এবং তারপরই অভিযোগ শেফালী খাতুন সোনালী খাতুন আরো দুজন ইব্রাহিম শেখ আঙ্গুরা বিবি হাসিনা খাতুন এর কে মারধর করে লোহার রড দিয়ে দুজনের মাথা ফাটিয়ে দেয় । এবং একজনের কোমরে আঘাত করে। স্থানীয় লোকেরা গুরুতর আহত অবস্থায় রবিবার রাতেই মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাদের চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসে । এই ঘটনায় সোমবার সকাল থেকেই এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে যেখানে পুলিশ প্রশাসন থাকতে এরকম সালিশি সভা কেন হলো এটাই প্রশ্ন এলাকাবাসীদের অভিযুক্ত অভিযুক্তদের তল্লাশি চালানো হচ্ছে পুলিশ ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে

  • আবার মালদহে ডাইনি অপবাদে এক আদিবাসী পরিবারকে গ্রামছাড়া করার অভিযোগ।

    ডেস্ক, মালদা, ১৭ জুন :  আবার মালদহে ডাইনি অপবাদে এক আদিবাসী পরিবারকে গ্রামছাড়া করার অভিযোগ পাওয়া গেল। ঘটনাটি ঘটেছে  পুরাতন মালদা ব্লকের যাত্রাডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতের কানপাড়া গ্রামে।  পরিবারটি ভয়ে  বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন পাশের গ্রামে।এই ঘটনায়  আজ মালদা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগ পেয়ে ওই গ্রামে যায় মালদা থানার পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে গ্রামে সচেতনতা শিবিরেরও আয়োজন করা হয়েছে। তবে, অভিযুক্তরা সবাই গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ায় তাঁদের সন্ধান পায়নি পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় মুসিলাল সোরেন তার মা, ভাই ও  পরিবার সহ কানপাড়া গ্রামে বসবাস করেন।  সম্প্রতি মুসিলাল অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। সেই সময় পাশের গ্রামের  এক মধ্যবয়সী মহিলা সাগি মুর্মু  তাঁদের বাড়ি আসেন।  তিনি গ্রামে কবিরাজিও করেন।  তিনি মুসিলালকেও  ওষুধ দেন। বেশ কিছুদিন ওষুধ খাওয়ার পর সুস্থ হয়ে ওঠেন মুসিলাল। সুস্থ হওয়ার পর শুক্রবার মুসিলালকে নিয়ে সাগি দক্ষিণ দিনাজপুরের বোল্লা কালীমন্দিরে পুজো দিয়ে ফেরার পথে ওই মন্দির থেকে কালীর ছবি ও  লাল শালু সঙ্গে নিয়ে আসেন সাগি। তিনি মুসিলালের বাড়িতে সেই ছবি ও লাল শালু টাঙিয়ে দেন। তাঁদের বিশ্বাস ছিল, কালীর ছবি ও মন্দির থেকে পাওয়া লাল শালু বাড়িতে টাঙিয়ে রাখলে পরিবারের কেউ আর অসুস্থ হবেন না।  ঘরে কালীর ছবি ও লাল শালু টাঙানোর ঘটনা দেখে মুসিলালের  আত্মীয়রা সাগিকে ডাইন বলে  চিহ্নিত  করেন। এদের মধ্যে  ছিলেন মদন সোরেন,মাইকু হাঁসদা ও পার্বতী সোরেন। সাগির সঙ্গে থাকার জন্য তাঁরা মুসিলালকেও ফুকসিনের সহযোগী বলে চিহ্নিত করেন। শুক্রবার রাতেই তাঁরা সাগি ও মুসিলালকে মারার চেষ্টা করেন। সাগি ও মুসিলাল বুঝে যান, গ্রামে থাকলে তাঁরা খুন হয়ে যাবেন। তাঁরা রাতেই গ্রাম থেকে পালিয়ে যান। কাল সকালে তাঁরা মালদা থানায় এসে গোটা ঘটনা মৌখিকভাবে জানান। বিষয়টি জানতে পেরে গতকাল ওই গ্রামে খোঁজখবর নেওয়ার জন্য ভিলেজ পুলিশ পাঠানো হয়। আজ সকালে তাঁরা ফের মালদা থানায় যান। গোটা ঘটনায় মদন, মাইকু, পার্বতী সহ বেশ কযেকজনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। আজ দুপুরে গ্রামে যায় পুলিশ। সেখানে একটি সচেতনতা শিবিরেরও আয়োজন করা হয়। কিন্তু অভিযুক্তরা সবাই গ্রাম থেকে পালিয়ে যাওয়ায় তাঁদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। পুলিশ জানিয়েছে, মুসিলালের পরিবার সহ সাগি মুর্মুকে দ্রুত নিজেদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। অভিযুক্তদের খোঁজ চলছে।

  • বাগানের আম লুট করতে বাধা দেওয়ায় প্রতিবেশীর হাতে আক্রান্ত দুই

    News Bazar24 :বাগানের আম লুট করতে বাধা দেওয়ায় প্রতিবেশীর হাতে আক্রান্ত হলেন এক পৌঢ়া ও তার ছেলে। মালদার রতুয়া বালুপুর এলাকার ঘটনা। আহতরা মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আহত পৌঢ়ার নাম ভারতী ঘোষ। অভিযোগ প্রতিবেশী দেবাশিস ঘোষ বাগান থেকে আম লুট করছিল। সেই সময় বাধা দেনা় ভারতী । শুরু হয় বচসা। অভিযোগ সেই সময় দেবাশীষ ভারতীর ওপড় ওপর চড়াও হয় এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায়।মাকে বাচাতে ছুটে যায় ছেলে বিফল। তাকেও কোপায় অভিযুক্তরা। এতে ভারতীর ডানহাতে গুরুতর আঘাত লাগে বিফলের দুটি হাত ক্ষতিগ্রস্ত হয়। গ্রামবাসীরা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্র নিয়ে যায় তাদের আঘাত গুরুতর থাকায় মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ভারতী ঘোষের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

  • রোহন এর পাশে দাঁড়ালেন জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের সভাপতি

    জিৎ বর্মন : অভাবী মায়ের কান্না শুনে এবারে মালদা জেলায় উচ্চ মাধ্যমিকে প্রথম রোহন সাহার জীবন যুদ্ধে শামিল মালদা জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের সভাপতি। রোহন এর জীবন যুদ্ধ তার স্বপ্ন পূরণের মূল প্রতিবন্ধকতা আর্থিক সমস্যা কাটাতে নিজের কাঁধেই তুলে নিলেন রোহনের সব দায়িত্ব। মাত্র সাত বছর বয়সে বাবাকে কার্যত বিনা চিকিৎসায় হারাতে মালদার মানিকচকের ছোট্ট রোহন কে তখন এই এত বড় পৃথিবীতে মা ,দিদি আর রোহন ।সঙ্গে অবশ্যই ছেলে আর তার মায়ের ছিল অদম্য জেদ ডাক্তার হতে শপথ নিতে। রোহনের মা মীরা সাহা জানালেন তার স্বপ্ন রোহন কে একজন বড় ডাক্তার হিসেবে গড়ে তোলা কিন্তু আজ তাদের সামনে বড় প্রতিবন্ধকতা আর্থিক সমস্যা ,তাই আজ তিনি চান সরকারি সাহায্য । জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে তাই তার আজ আর্তি সংসদ সভাপতির কাছে ও। রোহন এর বক্তব্য তার বাবা কার্যত বিনা চিকিৎসায় হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিলেন এই গ্রামে ।তাই সে চায় না তার মত অন্য কেউ ছোট বয়সে তার বাবাকে হারাক, এই গ্রামের কেউ মারা যাক বিনা চিকিৎসায় ।তাইতো তার স্বপ্ন সে বড় ডাক্তার হয়ে, গ্রামের মানুষের সেবা করতে চায়। এ ব্যাপারে মালদা জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষা সংসদের সভাপতি আশিস্ কুন্ডু বলেন ইতিমধ্যেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং শিক্ষা মন্ত্রী বিভিন্ন জেলার কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের কোলকাতায় সম্বর্ধনা দিয়েছেন ।তাদের আগামী দিনে এগিয়ে যেতে প্রেরণা যুগিয়েছেন। মূলত মুখ্যমন্ত্রী এবং শিক্ষামন্ত্রী অনুপ্রেরণায় মালদা জেলায় তাদের একজন ছোট সৈনিক হিসাবে রোহনের গ্রহণের দায়িত্ব আমরা তুলে নিলাম ।সমস্ত ধরনের সরকারি সাহায্য ছাড়াও তার জীবনের স্বপ্ন পূরণে যেকোন ধরনের সাহায্য করা হবে। রোহন এর মায়ের এই যুদ্ধ, রোহনের স্বপ্নপূরণের পাশে মালদা জেলা বিদ্যালয় সংসদের সভাপতির উপস্থিতি এবং সক্রিয় সহযোগিতার আশ্বাস, আগামী দিনে যে মালদার বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তরুন তরুণী এবং ছাত্র-ছাত্রীদের সমাজের মূলস্রোতে এগিয়ে আসতে, এবং তাদের জীবনের স্বপ্ন পূরণে অনুপ্রেরণা যোগাবে একথা বোধহয় বলার অপেক্ষা রাখেনা, ।এখন দেখার বিষয় রোহন ডাক্তার হয়ে, রুগীকে অসহায় মানুষ না খদ্দের মনে করে।  /p>

  • ইদের নমাজ সেরে ফেরার পথে বাইক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল দুই যুবকের

    ডেস্ক,মালদা, ১৬ জুন : ইদের নমাজ সেরে ফেরার পথে বাইক দুর্ঘটনায়   মৃত্যু হল  দুই যুবকের। মৃত যুবকদের  নাম সোহেল খান ও আকলেশ শেখ।  গুরুতর জখম হয়েছেন আরও দুই জন। জখম দু’জনকে মালদা মেডিকেল কলেজ  ও হাসপাতালে  ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি  ঘটেছে মালদার পুখুরিয়া থানার পরাণপুর এলাকার।  জানা যায় যে , আজ দুপুরে মালদা-বাহারালের রাস্তায় পরাণপুর এলাকায়  দু’টি বাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। বাইক দু’টিতেদুইজন করে  চার যুবক ছিলেন। সোহেলের বাড়ী  মানিকচক থানার নুরপুরে আর  আকলেশের বাড়ি রতুয়ার বাহারাল এলাকায়। তাঁদের কারও মাথায় হেলমেট ছিল না। সংঘর্ষের পর  স্থানীয়রা ছুটে এসে আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে আড়াইডাঙা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান।  আহতদের পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় চিকিৎসকদের  পরামর্শে ৪ জনকেই  মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সোহেল ও আকলেশকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় , ইদ উপলক্ষ্যে সকালে নমাজ় পড়ার পর এক বন্ধুকে নিয়ে মোটরবাইকে চেপে ফিরছিল সোহেল। তখনই ঘটে দুর্ঘটনা। 

  • সাড়ম্ভরে পালিত পবিত্র ঈদ

    news bazar24:দীর্ঘ একমাস রোজা পালনের পর সেই শুভদিন। শনিবার দেশজুড়ে পালিত হল পবিত্র খুশির ঈদ। একমাসের রোজা পালন শেষে খুশির ঈদে মাতোয়ারা হলেন সারা দেশের মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। ঈদ উপলক্ষ্যে সকাল থেকেই নতুন পোষাক পরে মসজিদে মসজিদে চলল প্রার্থনা........নামাজ পাঠ। সারা দেশের সঙ্গে শনিবার এরাজ্যেও পালিত হল ঈদ-উল-ফিতর। সাতসকালে নামাজ পাঠের মাধ্যমে দিনভর উৎসবের আমেজে মাতল গোটা দেশ। ঈদের খুশিতে উচ্ছসিত মালদা সহ গোটা রাজ্য। উত্তরবঙ্গের বূহত্তর ঈদগাহ ময়দান মালদা জেলার কালিয়াচকের সুুজাপুর নয়মৌজা ঈদগাহ ময়দানে সকাল সকাল নামাজ পাঠে অংশ নেয় প্রায় লক্ষাধিক মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। সকাল ৯.১২ শুরু হয় পবিত্র ঈদের নামাজ পাঠ। অবাল বৃদ্ধ-বনিতা সকলেই ত্রদিন এই নামাজ পাঠে অংশ নিয়েছিল। নামাজ শেষে ত্রকে-উপড়ে অলিঙ্গন করে  ঈদের শুভেচ্ছা আদান প্রদান করেন ত্রদিন। নামাজ ঘিরে যাতে কোন রকমের অপ্রিতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য ব্যাবস্থ করা হয়েছিল কঠর নিরাপত্তারও।  কালিয়াচকের জালালপুর ফতেকখানি ২২ মোজা ঈদগাহ ময়দানেও ত্রদিন ঈদের নামাজ পাঠ অনুষ্টিত হয়। এই উপলক্ষে ত্রখানে ত্রকটি মেলাও বসেছিল। পাশাপাশি ইংরেজবাজারেরও ত্রদিন ব্যাপক উংসাহ আর উদ্দীপনার মাধ্যেমে পালিত হল ঈদ। শহরের সুুভাষপল্লী ঈদগাহ ময়দানে ত্রদিন পবিত্র ঈদের নামাজে অংশ নিয়েছিল প্রায় ১০ হাজার মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। ইংরেজবাজারের হায়দারপুর মুসলিম জনকল্যাণ কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিবছরের মত ত্রবছরও..... মহিলাদের নামাজের ব্যাবস্থা করা হয়েছিল। প্রায় তিনশতাধিক মহিলা ত্রদিন ত্রকসাথে পবিত্র ঈদের নামাজ পাঠ করেন। পাশাপাশি ত্রদিন ইংরেজবাজারের বক্ষাটুলি জামে মসজিদেও অনুষ্ঠিত হয় খুশির ঈদের নামাজ পাঠ। নামাজ পাঠে অংশ নিয়েছিল তিনশতাধিক মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ।  অন্যদিকে ইংরেজবাজারের পাশাপাশি ব্যাপক উৎসাহ আর উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে পুরাতন মালদার বিভিন্ন ঈদগাহে ত্রদিন ঈদের নামাজ পাঠ অনুষ্টিত হয়। মঙ্গলবাড়ির পারা সামুন্ডি ঈদগাহ ময়দানে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর-ত্রর নামাজ অনুষ্টিত হয় সকাল ৯ টায়। প্রায় ১০ হাজার মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ ত্রদিন ঈদের নামাজে এই ঈদগাহ ময়দানে সামিল হয়েছিল। নামাজ শেষে মুসলিম ভাইয়েরা ত্রকে-উপরে আলিঙ্গনে মেতে উঠেন। খুশির ঈদে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে পুলিশ কর্মী সকলকে এদিন মিষ্টি মুখ করানো হয়। সুুষ্ঠভাবে নামাজ পাঠ সম্পুর্ণ করতে মালদা থানা ত্রবং পুরাতন মালদা পুরসভার পক্ষ থেকে সব রকমের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কালিয়াচক,ইংরেজবাজার ত্রবং পুরাতন মালদার পাশাপাশি গাজোলের পালিত হল খুশির ঈদ। গাজোলের ময়না,হলদিবাড়ি জামে মসজিদ,সিলনাগরা জামে মসজিদ,পান্ডুয়া ত্রদিন সর্বত্র পালিত হয় ঈদের নামাজ। পাশাপাশি মানিকচক ত্রবং চাঁচল মহকুমাতেও ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে পালিত হল পবিত্র ঈদ।  পাশাপাশি মানিকচক ত্রবং চাঁচল মহকুমাতেও ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে পালিত হল পবিত্র ঈদ।

  • কালিয়াচকে ঈদকে সামনে রেখে বস্ত্র বিতরণ

    news bazar24: ঈদ উপলক্ষ্যে এক বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো কালিয়াচক থানার শুভানিয়া হাইমাদ্রাসা প্রাঙ্গণে। কালিয়াচক থানার আই,সি সুুমন চ্যাটার্জীর উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছিলো বস্ত্র বিতরণ অনুষ্টানের। শনিবার গোটা দেশ জুড়ে খুশির ঈদ পালন করা হয়। সকাল হতেই বিভিন্ন ঈদগাহ ময়দানে খুশির ঈদের নামাজ পাঠে অংশ নেন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। ঠিক এই দিনই উত্তরবঙ্গের বূহত্তর ঈদগাহ ময়দান মালদা জেলার কালিয়াচকের সুুজাপুর নয়মৌজা ঈদগাহ ময়দান সংলগ্ন শুভানিয়া হাইমাদ্রাসায় আয়োজন করা হল এক বস্ত্রবিতরণ অনুষ্ঠানের। ত্রদিন শতাধিক দুঃস্থের হাতে নতুন বস্ত্র তুলে দেওয়া হয়। কালিয়াচক থানার আই,সি সুুমন চ্যাটার্জী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় বিশিষ্ট্য জনেরা।

  • উত্তরবঙ্গে ঈদের নামাজ উপলক্ষে সবথেকে বড় জমায়েত

    জিৎ বর্মন:মালদার সুজাপুরে এদিন নয়মৌজা ঈদগাহ ময়দানে প্রায় ১ লক্ষ মানুষ একসাথে ঈদের নামাজ পড়লেন। নামাজের অনুষ্ঠানকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করার জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থাও ছিল চোখে পড়ার মতো। এদিন ঈদগাহ সংলগ্ন ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক প্রায় এক ঘণ্টা বন্ধ করে দেওয়া হয় ।এক মাসের পবিত্র রোজা পালনের পর এদিন সকালেই বহু ধর্মপ্রাণ মুসলমান মানুষ হাজির হন সুজাপুরের এই ঈদগাহ ময়দানে ।আট থেকে আশি সকলেই ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো ।ঈদের নামাজ শেষে সকলেই মেতে ওঠেন খুশির এই আনন্দ উৎসবে ।ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মিলিত এই উৎসবে ,সত্যিই আজ এক মিলন উৎসবে রূপ নেয়। সারাদেশে আজ যখন অসহিষ্ণুতা ,হিংসা আর বিভেদ এর খবর বারবার উঠে আসছে ,তখন আজ মালদা জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বারবার উঠে এসেছে ,মিলন উৎসব সম্প্রীতি আর সৌভ্রাতৃত্বের কোলাজ চিত্র ।এটাই বোধহয় আমাদের ভারতের আসল চিত্র।

  • মালদা জেলা সদর পোস্ট অফিসে বোমাতঙ্ক ঘিরে চাঞ্চল্য।

    ডেস্ক, মালদা ১৫ জুন : আজ দুপুরে মালদা জেলা সদর পোস্ট অফিসে বোমাতঙ্ক ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ীয়ে পড়ল।  জানা যায় যে   পোস্ট অফিসের দপ্তরের সিঁড়ির নিচে একটি ব্যাগ পড়ে থাকতে  দেখেন অফিসের এক কর্মী । তিনি তার উর্ধতন কতৃপক্ষকে ঘটনাটি জানান। সাথে সাথে ইংরেজবাজার থানায় জানানো হয় । পুলিশ  বম স্কয়্যাডে খবর পাঠায় । কিছুক্ষন  পরে ব্যাগের মালিকের খোঁজ পাওয়া যায়। হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন পোস্ট অফিসের কর্মী থেকে অনেকেই। ঘটনার বিবরণে জানা যায় আজ দুপুরে  অফ পোস্ট অফিসের দপ্তরের সিঁড়ির নিচে  একটি ব্যাগটি পড়ে থাকতে দেখেন পোস্ট অফিসের কর্মীরা।  ব্যাগটি দেখতে পেয়ে অফিসের কর্মীরা  সেটির মালিকের খোঁজ শুরু করেন। কিন্তু, সেই মুহূর্তে ব্যাগের মালিককের খোজ না পাওয়ায় ব্যাগ ঘিরে বোমাতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পোস্ট অফিসে কাজে আসা অনেকেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। খবর দেওয়া হয় ইংরেজবাজার থানায়। খবর পেয়ে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ ঘটনাস্থানে আসে। সিঁড়ি দিয়ে যাতায়াত বন্ধ করে দেয় তারা। খবর দেওয়া হয় বম স্কয়্যাডকেও। এরপরই এক ব্যক্তি  অফিস এসে  ব্যাগের খোঁজ করতে থাকেন । তাঁকে ব্যাগটি দেখানো হয়। তিনি সেটি নিজের বলে দাবি করেন। জিজ্ঞাসাবাদে ওই ব্যক্তি জানান, মাকে সঙ্গে নিয়ে তিনি পোস্ট অফিসে এসেছিলেন। কাজ মেটার পর ব্যাগটি ফেলে চলে গিয়েছিলেন।

  • পুরাতন মালদায় বিদ্যুৎ পিষ্ট হয়ে মৃত এক মহিলা

    News bazar24:পুরাতন মালদায় রাস্তায় পড়ে থাকা তারে বিদ্যুৎ পিষ্ট হয়ে মৃত এক মহিলা মালদা। । শুক্রবার পুরাতন মালদার ভাবুক অঞ্চলে কালুয়া দিঘির কলম দীঘি গ্রামে এক মহিলা তার নাতিকে ইস্কুলে রেখে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তায় ইলেকট্রিকের তার পড়ে থাকায় সে তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মারা যান। মৃত মহিলার নাম তুলসী মন্ডল বয়স ৪০ বছর। জানা গেছে মিতার স্বামী ও ছেলে ভিন রাজ্যে শ্রমিকের কাজের দিল্লিতে আছেন বাড়িতে সে একাই থাকতেন এবং তিন মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। শুক্রবার সকাল বেলা এলাকাবাসী দেখতে পায় একটি গর্তে ইলেকট্রিক তারের সঙ্গে তাঁর দেহ পেঁচানো অবস্থায় পড়ে আছে। সঙ্গে সঙ্গে মালদা থানা পুলিশকে খবর দেওয়া হয় মালদা থানার পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠাই মালদা মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালের মরগে। এলাকাবাসীর একটাই দাবি এই পরিবারটি খুবই দরিদ্র যদি এই পরিবারকে সরকার আর্থিকভাবে সাহায্য করে তবে পরিবারটি উপকৃত হবে। /p>

  • আবার ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি মালদা শহরে

    জিৎ বর্মন :আবার ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি ।এবারে গ্রামে নয, খোদ শহরে ই। ইংরেজবাজার পৌরসভা ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের অরবিন্দ পার্কে এক যুবককে ইতস্তত ঘুরে বেড়াতে দেখে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে মারধর করার অভিযোগ উঠল এলাকার কিছু যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনার সময় খবর পেয়ে দ্রুত ইংরেজবাজার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই যুবককে উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করেছে ।এই মারধরের ঘটনায় যুক্ত যুবকদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ ।গতকাল মালদার হবিবপুর এ গণপিটুনিতে এক ব্যক্তির মৃত্যুর পর আজ শহরের বুকে আবার ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে গোটা শহর জুড়ে। ওয়ার্ডের অরবিন্দ পার্কে ছেলেধরা সন্দেহে এক যুবককে পিটিয়ে খুনের চেষ্টা খবর পেয়ে ইংলিশবাজার থানার পুলিশ যুবককে উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে ।প্রাথমিকভাবে জানা যায় এই যুবকটি ঝাড়খন্ডে র বাসিন্দা, গতকাল বিকেল থেকে অরবিন্দ পার্ক এলাকায় ঘোরাঘুরি করছিল যুবকটি। আজ সকালে নিছক সন্দেহের বশে স্থানীয় কিছু যুবক তাকে আটক করে এবং কিছু প্রশ্ন করতে শুরু করে এই প্রশ্নের উত্তরে যুবক অসংলগ্ন কথা বলায় তাকে বিদ্যুতের খুঁটিতে বেঁধে মারধর করা হয়। প্রাথমিকভাবে জানা যায় পুরুষ হয়েও মহিলাদের শাড়ি কাপড় পড়ে ঘুরছিল এই যুবক। তাই আজ ছেলেধরা সন্দেহে তাকে মারধর করা হয়।

  • স্বামীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় নির্মমভাবে খুনকরা হল স্ত্রীকে

    ডেস্ক , ১৪ জুন : স্বামীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের  প্রতিবাদ করায় নির্মমভাবে খুন করা হল  স্ত্রীকে। পরিবারের অভিযোগ, স্ত্রীর গোপন জায়গায়  লাঠি ঢুকিয়ে অত্যাচার করা হয়, তারপর শ্বাসরোধ করে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয় মহিলাকে। ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী গেদু শেখকে  পুলিশ আটক  করেছে । স্থানীয় সূত্রে জানা যায় মালদার পুখুরিয়া থানার আড়াইভাঙা এলাকার ছড়কামারি গ্রামের বাসিন্দা গেদু শেখের সাথে তার স্ত্রী,  মিনু বিবির  প্রায়ই ঝগড়াঝাটি  লেগে থাকত। কারন   এলাকার এক বিধবা মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক ছিল গেদুর দীর্ঘ দিন ধরে। তাই নিয়ে দু’জনের বিবাদ লাগত। ঝগড়া মেটানোর জন্য গ্রামে অনেকবার সালিশিসভা হয়। তাতে কোনও লাভ হয়নি। বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের প্রতিবাদ করায়  স্ত্রীকে  প্রায়ই মারধর করত গেদু। আজ সকালে প্রতিবেশীরা মিনুকে  ঘরের মধ্যে  রক্তাক্ত অবস্থায়  পড়ে থাকতে দেখেন। তখন গেদুও বাড়িতে ছিল। প্রতিবেশীরা মিনুর বাবারবাড়িতে খবর দেন। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। পুলিশ এসে দেহ  ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠিয়েছে। মিনুর পরিবার সূত্রে জানা যায় , বছর দুয়েক ধরে স্থানীয় এক মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক ছিল  গেদুর। । বছর দেড়েক আগে গ্রামের পাশের একটি বাগানে  ঐ মহিলার স্বামীর ক্ষতবিক্ষত দেহ  পাওয়া গেছিল । তারপর থেকেই মহিলার সাথে  গেদুর সম্পর্ক আরও গাড়  হয়। প্রতিবাদ করায় মিনুর উপর অত্যাচার বাড়তে থাকে।  তারই পরিনতি হিসাবে আজ  মিনুকে প্রচন্ড মারধর করে এবং খুন করে। মিনুর পরিবারের লোকজন এসে দেখেন  মেঝেতে পড়ে রয়েছে মিনুর দেহ। ঘর রক্তে ভর্তি । গেদু ঘরেই ছিল। সে বলে ও-ই নাকি ফাঁস কেটে দেহ নিচে নামিয়েছে। মিনুর সারা শরীরে কালসিটের দাগ ছিল, গলায় কালসিটে ছিল। গোপন জায়গা থেকে তখনও রক্ত ঝরছিল।  লাঠি বা বাঁশ জাতীয় কিছু ঢুকিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে। তারপর দেহ ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।” মিনুর পরিবারের তরফে গেদু ও মহিলার  বিরুদ্ধে পুখুরিয়া থানায় এফ আই আর  করা হয়েছে। গেদুকে গ্রেপ্তার করা হলেও মহিলা  পলাতক। পুখুরিয়া থানার পুলিশ জানিয়েছে,  অভিযুক্ত মহিলার  খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।