শিলিগ�রি দার�জিলিং কোচবিহার,জল�পাই গ

  • কোচবিহারের কুচলিবাড়ি বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকায় হঠাৎ ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি।

    Newsbazar 24 ডেস্ক,৩ মেঃ  পশ্চিম  মেদিনীপুরের ন্যায় কোচবিহারের কুচলিবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকায় সুপার সাইক্লোন ‘ফণী’   আগেই আবির্ভাব  এক  ঘূর্ণিঝড়ের। যার প্রভাবে  তছনছ হয়েছে ৪০-৫০ টি বাড়ি। ঘরছাড়া হয়েছেন কয়েকশো মানুষ। শুক্রবার সকালে ঘূর্ণিঝড় ফণীর  তাণ্ডবে  ওড়িশ্যা বিপর্যস্ত, ঠিক তখনই কোচবিহারের কুচলিবাড়ি  গ্রাম পঞ্চায়েতের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকায় আচমকাই আকাশ কালো মেঘ ঘনীভূত হয় । কিছু সময়ের মধ্যেই  সেখানে প্রবল ঝড় আছড়ে পড়ে বলে জানা গেছে । মিনিট দুয়েক কিংবা তার একটু বেশি সময় স্থায়ী থাকা ওই ঝড়ে এলাকার ৪০ বাড়ি তছনছ হওয়ার পাশাপাশি বহু গাছপালা , হোর্ডিং ভেঙে পড়ে। বিদ্যুতের খুটি ভেঙে তার ছিঁড়ে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে বিস্তীর্ণ এলাকায় । আহত হন বেশ কয়েকজন। মেখলিগঞ্জ ব্লক প্রসাশনের আধিকারিকরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে  ছুটে যান ।  ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন তাঁরা। ক্ষতিগ্রস্তদের স্থানীয় পঞ্চায়েতের মাধ্যমে ব্লক প্রশাসনের কাছে  ক্ষতির পরিমান জানিয়ে আবেদন  করতে বলেন। যদিও স্থানীয় বাসিন্দারা এই ঝড়কে ফণী বলে দাবি করছেন কিন্তু  আবহাওয়া দফতরের বক্তব্য, রাজ্যে এখনও ফণী প্রবেশ করেনি। তারা জানিয়েছেন কোথাও কোথাও আবহাওয়ার পরিবর্তনে  বায়ুর চাপ হঠাই বেড়ে গেলে এধরণের ঘটনা ঘটে ।  

  • পাহাড়ে তৃনমূলে বিদ্রোহ,দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্বে মনোনয়ন জমা আর এক প্রভাবশালী তৃনমূল নেত্রীর।

    Newsbazar 24  ডেস্ক, ৩০ এপ্রিলঃ তৃনমূলের দার্জিলিং জেলায় অশনি সংকেত। দলীয় প্রার্থীর  বিরুদ্ধে  গিয়ে দার্জিলিং বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন পাহাড়ের তৃণমূল নেত্রী সারদা সুব্বা রাই।  তিনি নির্দল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন । এই আসনে তৃণমূলের দলীয়  প্রার্থী মোর্চা নেতা বিনয় তামাং। যদিও তিনি তৃনমূল সমর্থিত নির্দল প্রার্থী। এক কথায় বলা দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে তিনি নিজের প্রার্থীপদ জমা দিয়েছেন।    অন্যদিকে ওই  কেন্দ্রে  বিজেপিও প্রার্থী দিয়েছে। আজ ছিল মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। এই শেষ দিনে আচমকাই মনোনয়ন জমা দিলেন দলের প্রভাবশালী নেত্রীর। আর এই ঘটনায়  বিপাকে পাহাড়ের তৃণমূল কংগ্রেস। সংবাদ সংস্থার  খবর ,  তৃণমূল নেত্রী সারদা সুব্বা রাই বিনয় তামাংর বিরুদ্বে গুরুতর অভিযোগ এনেছেন, তিনি বলেছেন পাহাড়ে টানা বনধের সময়  বিমল গুরুং-এর পাশে বিশেষ ভূমিকায় ছিলেন এই  বিনয় তামাং। তাঁর  আরও অভিযাগ, পাহাড়ে বিনয় তামাং-এর সহযোগীরাই নানা সুবিধা পাচ্ছেন। এছাড়াও সেখানে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে বিনয় তামাং-এর বিরুদ্বে দুর্নীতির অভিযোগও করেছেন তিনি। পাশাপাশি তিনি নিজেকে  দলের অনুগত সৈনিক হিসেবে দাবি করেছেন ।

  • ভোটারদের সাথে ক্রিকেট খেললেন ঈশা খাঁ ন

    জিত বর্মন: রতুয়া সম্বলপুর সচিন পাইলটের সভায় যোগ দিতে যাওয়ার আগে, শিশুদের অনুরোধে গাড়ি থামিয়ে ক্রিকেট খেলায় ব্যস্ত উত্তর মালদার কংগ্রেস প্রার্থী ইশা খান চৌধুরী। মাতলেন ক্রিকেট খেলায়, এগিয়ে গিয়ে ছয় মেরে মন জয় করলেন ভোটারদের ও।

  • কেন ফোন নিয়ে বুথে ঢুকেছিল হরকা বাহাদুর ছেত্রী ? এফআইআর নির্দেশ কমিশনের

    newsbazar24: কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী বুথের মধ্যে ফোনের ব্যবহার নিষিদ্ধ। এর আগেই কানে ফোন নিয়ে বুথে ঢোকার ঘটনায় কড়া পদক্ষেপ করে কমিশন। কালিম্পংয়ের ১১০ নম্বর বুথে কানে ফোন নিয়েই ভোট দেন নির্দল প্রার্থী হরকা বাহাদুর ছেত্রী। ফোন কানে বুথে ঢোকার ঘটনায় হরকা বাহাদুর ছাত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর করার নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন। হরকা বাহাদুর ছেত্রী কেন ফোন নিয়ে বুথে ঢুকেছিল? প্রশ্ন কমিশনের। স্থানীয় থানায় হরকা বাহাদুর ছেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  সেখানকার প্রিসাইডিং অফিসারকে সরিয়ে দেয় কমিশন। প্রসঙ্গত, ঘটনাটি কালিম্পংয়ের ১১০ নম্বর বুথের। এই ছবি প্রচার হতেই, হরকা বাহাদুর ছেত্রীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জবাব দেন, "নিয়ম জানা ছিল না। আপত্তি করলে ফোন রেখে দিতাম। কিন্তু কেউ আপত্তিও করেননি।"

  • ভোটের শুরু থেকেই দফায় দফায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া ! তবুও ভোট চলছে স্বাভাবিক: অবজার্ভার বিবেক দুবে

    সুতপা কাঞ্জিলাল: দু-একটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ঘটেছে। বাগডোগরা থেকে কলকাতা ফিরে বিমানবন্দরে এমনটাই জানালেন স্পেশাল পুলিস অবজার্ভার বিবেক দুবে। প্রসঙ্গত, এদিন ভোটের শুরু থেকেই দফায় দফায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া। এনিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে, বিবেক দুবে বলেন, যাঁরা ভোট দিতে পারেননি তাঁদেরকে আধাসেনা দিয়ে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, সংবাদমাধ্যমে চোপড়ায় অশান্তির ছবি সামনে আসতেই তত্পর হয়ে ওঠে কমিশন। ভোটারদের বুথ পর্যন্ত নিরাপত্তা দিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য রাজ্য পুলিসকে নির্দেশ দেয় কমিশন। কমিশনের নির্দেশ পাওয়া মাত্রই ক্যামেরায় ধরা পড়ে পুলিসি নিরাপত্তায় ভোটারদের বুথে যাওয়ার ছবি! বৃহস্পতিবার সকালে দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ শুরু হতেই উত্তেজনা ছড়ায় দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত উত্তর দিনাজপুরের চোপড়ায়। ওই কেন্দ্রের একাধিক বুথ বহিরাগত দুষ্কৃতীরা দখল করে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। অভিযোগ ওঠে, ভোটারদের ভোটদানে বাধা দেওয়ার পাশাপাশি মারধরও করা হয়। পুলিস পর্যবেক্ষককে অভিযোগ জানিয়ে কাজ হয়নি।

  • অশান্তির ঘটনা ও ছাপ্পা ভোট সত্ত্বেও কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে ভোট মোটের উপর শান্তিপূর্ণ।

    আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহার, ১১ এপ্রিল : বেশ কিছু অশান্তির ঘটনা  ও ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ সত্ত্বেও  কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে মোটের উপর শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ হল।কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত ভোটদানের হার যথাক্রমে ৮০.১১ ও ৮১.৫৮ শতাংশ। গত লোকসভা ভোটে  এই দুইটি কেন্দ্র কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে ভোটদানের হার ছিল  যথাক্রমে ৮২.৬২ ও ৮৩.৩০ শতাংশ।   রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ় আফতাব আজ সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ  সাংবাদিক বৈঠক করে  বলেন, "কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে। যে কটা অভিযোগ পেয়েছি, উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কোচবিহারে সাতজন ও আলিপুরদুয়ারে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।" কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারের একাধিক জায়গায় বুথ দখল হয়েছে। তা নিয়ে অভিযোগ জানাতে রাজ্য মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দপ্তরে এলেন জয়প্রকাশ মজুমদার ও শিশির বাজোরিয়া। রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনীর আধিকারিকের দপ্তর থেকে বেরিয়ে জয়প্রকাশ মজুমদার সাংবাদিকদের জানালেন  ,যেখানে শান্ত বুথ সেখানে রাজ্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে লোকাল ইনটেলিজেন্স মানে মমতা ইনটেলিজেন্স ,স্পর্শকাতর বুথ কীভাবে ঠিক করা হয়, তা আমাদের জানা নেই,, কেন্দ্রীয় বাহিনীর কাজে বাধা দেওয়া হয়েছে, ৭০০ বুথে গণ্ডগোল হয়েছে, নির্বাচনে হিংসা দেখে মানুষ বাড়ি থেকে বেরোয়নি, যেখানে গণ্ডগোল হয়েছে সব জায়গায় পুলিশ পৌঁছয়নি, এবার দিল্লিতে গিয়ে  আমরা নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানাব, পরে আমরা বসে ঠিক করব যে কী করা উচিত, আমরা চাই গণতন্ত্র বেঁচে থাক, গণতন্ত্রের হত্যালীলায় মেতেছেন শাসক দল ,এটা গণতন্ত্রেের পরিহাস হচ্ছে, এখনও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে চাই, গণতন্ত্রকে বাঁচতে দিন, যেখানে গণ্ডগোল হয়েছে, সেখানে কজন মাইক্রো অবজ়ারভার রয়েছেন? কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঠুঁটো জগন্নাথ বানিয়ে রাখা হয়েছে,দিনহাটায় 40টি বুথ দখল করা হয়েছে, :এসব সত্ত্বেও আমরা আশাবাদী, মানুষের ভোটে BJP এই দুটি আসনে জিতবে কমিশন সুত্রে জানা যায়,বিকাল 5টা 50 মিনিট পর্যন্ত কমিশনে 538টি অভিযোগ জমা পড়েছে,তার মধ্যে ৫০২টির সমাধান হয়েছে, বিকেল তিনটে পর্যন্ত দুই কেন্দ্রে ভোটদানের হার 69.94 শতাংশ সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক সঞ্জয় বসু : সব জায়গায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোট  হয়েছে ,অভিযোগ পেলেই সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে ,এখন শান্তিপূর্ণ ভোট হচ্ছে, শীতলকুচিতে মহিলা ভোটারদের বাধা দেওয়ার খবর এসেছিল,সেখানে সেক্টর অফিসার যায়, সকাল 11 টা পর্যন্ত দুই কেন্দ্রে 38.08 শতাংশ ভোট পড়েছে, যেখানে EVM-র সমস্যা হয়েছিল, তা পালটে দেওয়া হয়েছে, রসমন্ডাতে একটি বিচ্ছিন্ন অশান্তির খবর এসেছিল। পরে তা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতির সামাল দেয়।  এক নজরে  নির্বাচনের কিছু চিত্রঃ    কোচবিহারের দিনহাটার EVM ভাঙচুরের ঘটনায় রিপোর্ট তলব কমিশনের, দিনহাটার মাতালহাটে এক ব্যাগ হাত বোমা উদ্ধার, বিকেল তিনটে পর্যন্ত 68.44 শতাংশ ভোট পড়েছে , 212 নম্বর বুথে EVM ভাঙচুর , দুপুর 1টা পর্যন্ত ভোটদানের হার 55.44 শতাংশ মাড়ুগঞ্জে ভোট দিয়ে ফেরার সময় BJP কর্মীদের উপর হামলা। জখম 3, মাথাভাঙার 238 নম্বর বুথ এলাকায় বাম প্রার্থীর গোবিন্দ রায়ের গাড়ি ভাঙচুর। তিনি পচাগড়ে যাচ্ছিলেন, মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দপ্তরে গিয়ে অভিযোগ জানালেন কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য, তিনি বলেন ,WB64B2424 গাড়িটি ওকলাবাড়ি এলাকায় অস্ত্র নিয়ে ঘুরছ, দিনহাটার 10টি বুথে কংগ্রেসের পোলিং এজেন্টকে বের করে দিয়েছে তৃণমূলের গুন্ডারা , দুটি বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি রবীন্দ্রনাথ ঘোষের, সাতটি বুথেই পুনর্নির্বাচনের দাবি BJP-র দিনহাটার 128,129,157,160,165,166,173 ও 204 নম্বর বুথ দখল করে নিয়েছে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা। রাজ্য পুলিশ তাদের মদত জোগাচ্ছে। অভিযোগ BJP-র সাবেক ছিটমহলের 7/128,129  ও 173 নম্বর বুথে তৃণমূল ভোট দিতে বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ সিতাইয়ের 6/257 ও 258 নম্বর বুথে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা অবাধে রিগিং করছে। নীরব দর্শক হয়ে রয়েছে রাজ্য পুলিশ ও ভোটকর্মীরা। অভিযোগ বিরোধীদের  দিনহাটার গড়কুরায় নিশীথ প্রামাণিকের সঙ্গে তৃণমূল কর্মীদের ঝামেলা। এলাকায় উত্তেজনা  সিতাই থানার অন্তর্গত বি আর ছাতারা গভরমেন্ট প্রাইমারি স্কুলে BJP এজেন্টকে অপহরণের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে দিনহাটার 255, 261, 268 ও 269 নম্বর বুথে ছাপ্পার অভিযোগ BJP-র, নাটাবাড়ির 253 নম্বর বুথে ছাপ্পার অভিযোগ BJP-র, শীতলকুচির 238 নম্বর বুথ এলাকায় তৃণমূল ও BJP সংঘর্ষ দিনহাটার তৃণমূল-BJP সংঘর্ষ নিয়ে রিপোর্ট চাইল নির্বাচন কমিশন, সীমান্তবর্তী এলাকায় BSF ভোট প্রক্রিয়ায় নাক গলাচ্ছে। অভিযোগ করলেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানের সঙ্গে তর্কে জড়ালেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ,ভোট দেওয়ার সময় তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়েন । (চিত্রে বুথের বাইরে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ উঠল তৃণমূল জেলা সহসভাপতি নিরঞ্জন  দাসের বিরুদ্ধে।)

  • সমস্ত বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি তুললেন কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক

    newsbazar24: বিভিন্ন বুথে সকাল থেকেই ভোট,প্রথম দফায় কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ারে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে।   মাথাভাঙ্গার পচগড় গ্রামপঞ্চায়েতের তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে। তবে, এখনও পর্যন্ত দুই জেলায় মোটের উপর শান্তির পরিবেশ রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। কোচবিহারে পুলিসের ওপর হামলা। কোচবিহারে পুলিসের ওপর হামলার অভিযোগ। পুলিসকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি। অভিযোগের তির বিজেপির দিকে। এক পুলিস কর্মী আহত হয়েছেন।  পুনর্নির্বাচনের দাবি বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিকের। রাজ্য পুলিস মোতায়েন রয়েছে এমন সমস্ত বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি তুললেন কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক। আর্মির পোশাকে হোমগার্ড। বীরপাড়ায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর পোশাকে বুথের বাইরে দেখা গেল এক হোমগার্ডকে। বিভ্রান্তিতে ভোটররা।বেশির ভাগ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে দেখা যায়নি।  রাত থেকে বিচ্ছিন্ন কিছু হিংসার ঘটনা এসেছে। দিনহাটার গড়কড়া স্কুল বুথে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধান মলি রায় সিংহ ও তাঁর স্বামী লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করে ছাপ্পা ভোট দিচ্ছেন বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে ওই স্কুলে যান বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক। এরপরই তৃণমূল-বিজেপি কর্মীদের মধ্যে বচসা শুরু হয়। বচসায় জড়িয়ে পড়েন নিশীথ প্রামাণিক। তিনি সাধারণ পর্যবেক্ষক চন্দ্র প্রকাশ বর্মাকে ফোন করে বিষয়টি জানান। অভিযোগ পেয়ে তিনিও ঘটনাস্থলে পৌঁছন। এই মুহূর্তে ওই বুথে উত্তেজনা রয়েছে। যদিও বিজেপির বিরুদ্ধে গুণ্ডামির অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল।কোচবিহারের ট্যাকগাছে বুথ পাহারার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে। রাজ্য পুলিসের সঙ্গে বুথে তৃণমূল কর্মীরাও থাকছেন বলে অভিযোগ।কোচবিহারের সিতাইয়ে বিজেপি এজেন্টকে অপহরণের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বিআর ছাত্র গর্ভমেন্ট প্রাইমারি স্কুলের ৬/২৫ নম্বর বুথের ঘটনা। ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। আলিপুরদুয়ারের নাগরাকাটার শুলকাপাড়ায় ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। পাল্টা অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। কোচবিহারের দিনহাটার ভূতকুড়ির  ১৪৭ নম্বর বুথে গুলি চলার অভিযোগ। অন্ধ ব্যক্তিকে সাহায্য করার নামে নিজেদের চিহ্নে ভোট দিয়ে দেওয়ার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে। তা নিয়ে গণ্ডগোল। অশান্তির জেরে বেশ কিছুক্ষণ এই বুথে ভোট গ্রহণ বন্ধ থাকে।  বক্সিরহাটে একটি বুথে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ। অভিযোগ পেয়ে এল কেন্দ্রীয় বাহিনী।  ভোট দিলেন কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক। চৌপথি উচ্চবিদ্যালয়ের বুথে ভোট দেন তিনি। বিজেপির এজেন্টকে বার করে দেওয়ার চেষ্টা তৃণমূল এজেন্টের। কোচবিহারের ছাট খাটের বাড়ি ২৩৪ নং বুথে  রাজ্য পুলিশ দিয়ে ভোট হচ্ছে। এই বুথে বিজেপির পোলিং এজেন্টকে তৃণমূল কর্মী বের করে দেওয়ার চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ। বাধা দেন প্রিসাইডিং অফিসার। বুথ থেকে বিজেপি এজেন্টকে বের করতে না পারায় বারংবার রাজ্য পুলিশের সঙ্গে তৃণমূল কর্মীকে  তর্কাতর্কি করতে দেখা যায় বলে অভিযোগ।কোচবিহারের দিনহাটার মাতালহাটে বিজেপির পথ অবরোধ। বোমাবাজির অভিযোগ। রাস্তার পাশে উদ্ধার বোমার স্পিল্টার।কোচবিহারের টাউন স্কুলে ভোট পরিদর্শনে এলেন জেলা শাসক কৌশিক সাহা। কৌশিক সাহা বলেন, "কোথাও এখনও পর্যন্ত কোনো সমস্যা নেই। ভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হচ্ছে।"

  • টোটো ছিনতাই এর ঘটনায় আতঙ্কিত মালবাজারের টোটো চালকেরা।

    News bazar24: হুগলী জেলার পর টোটো ছিনতাই নিয়ে আতঙ্কিত মালবাজারের মানুষ।দুদিন আগে টোটো ছিন্তাইয়ের পর ফের, শুক্রবার রাতে ধুমসিগারা জঙ্গলের ভেতর থেকে হাত পা বাধা অবস্থায় এক টোটো চালককে উদ্ধার করল মালবাজার মহকুমার ওদলাবাড়ি এলাকার বাসিন্দারা। আক্রান্ত মহম্মদ আছিরদ্দিন (৫৫)  ওদলাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার শান্তি কলোনীর বাসিন্দা। তিনি জানিয়েছেন, বেশ কিছু টাকা নেওয়ার পাশারপাশি তাকে বেধড়ক মারধর করে জঙ্গলে ফেলে দিয়ে টোটো নিয়ে চম্পট দেয় জনা তিনেক ব্যক্তি ।টোটো চালক আসিরুদ্দিন জানিয়েছেন, শুক্রবার বিকেলে ৩ জন ব্যাক্তি গাজলডোবা এলাকায় যাবে বলে ৩০০ টাকা দিয়ে আসিরুদ্দিনের টোটো ভাড়া করে। ধুমসিগাড়া এলাকায় পৌছানোর পর জঙ্গলের ভেতর টোটো নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ওই আরোহীরা। টোটো জঙ্গলে ঢুকতেই একটি গাছের সাথে বেধে ফেলা হয় চালককে, লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধোরও করা হয় বলে জানিয়েছে ওই টোটো চালক। এরপরই সমস্ত টাকা এবং টোটো নিয়ে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতিরা ।রাতে স্থানীয় লোকজন ওদলাবাড়ি হাসপাতালে ভর্তি করে  আসিরুদ্দিনকে। রাতেই ঘটনা স্থলে আসে মালবাজার পুলিস। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। মাঝে মধ্যে এভাবে টোটো ছিনতাই এর ঘটনায় আতঙ্কিত টোটো চালকেরা। 

  • দার্জিলিং কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী ঘোষনায় চমক।

    দার্জিলিং ২৪ মার্চঃ ভারতীয় জনতা পার্টি দার্জিলিং  কেন্দ্রে থেকে রাজু সিং বিস্তকে প্রার্থী করে চমক দিল। পাশাপাশি  জিএনএলএফ ও গুরুংপন্থী মোর্চাকে বাধ্য করল  রাজু সিং বিস্তকে সমর্থন করার জন্য ।দার্জিলিং  কেন্দ্রের বর্তমান সাংসদ  সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়াকে ছেটে তার  পরিবর্তে রাজু সিং বিস্তকে প্রার্থী করে বিজেপি  তৃণমূলকে  কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যে ফেলে দিল। পাশাপাশি  মোর্চার ভিতরের  লড়াইকে  প্রকাশ্যে নিয়ে এল। এখানে উল্লেখ্য, তৃণমূল মোর্চার মধ্যে বিভেদ তৈরী করে মোর্চার একাংশের সমর্থন নিয়ে  পাহাড়ে নিজেদের আধিপত্য  বিস্তার লাভ করতে চাইছে। এবং সেই দিকেই তাকিয়ে তারা  এবার  মোর্চার বিধায়ককেই নিজেদের প্রতীকে প্রার্থী করেছে। তার যোগ্য জবাব দিতেই রাজু সিং বিস্তকে তুলে ধরল  বিজেপি। বিজেপির  প্রার্থী রাজু সিং বিস্তক গুরুংপন্থী মোর্চার সমর্থন আদায়ের সঙ্গে সঙ্গে জিএনএলএফেরও সমর্থন আদায় করে নিয়ে তৃণমূলকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল। বিজেপির এই সিদ্ধান্তে তৃণমূল যেমন চাপে পড়ে গিয়েছে, তেমনই পাহাড়ের মোর্চা এখন কার দিকে, তারও এক বড় পরীক্ষা এবার সামনে। বিনয় তামাং মোর্চার মাথায় বসেছেন বিমল গুরুং-রোশন গিরিদের অনুপস্থিতিতে। মোর্চা কি তাঁর সঙ্গেই রয়েছেন, নাকি গুরুংপন্থী মোর্চার ক্ষমতা এখনও বেশি, তার প্রমাণও দেবে এবারের লোকসভা নির্বাচন। রবিবার দিল্লিতে কৈলাশ বিজয়বর্গীয় রাজু সিং বিস্ত-র  নাম দার্জিলিংয়ের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা  করেন। তাঁকে এবার  সমর্থন করল জিএনএলএফ ও বিমল গুরুংপন্থী মোর্চার।  রাজু সিং বিস্ত বর্তমানে  শিলিগুড়ির মাটিগাড়ার বাসিন্দা।  সেই দিক দিয়ে দেখলে সমতলের ভোটারদের একটা বিরাট অংশের সমর্থন তিনি পাবেন বলে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের অভিমত।  

  • সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর মায়ের নামে কুরুচিকর মন্তব্যের পরেও অধরা পুলিশ আধিকারিক।

    শিলিগুড়ি, ১৭ মার্চ : প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মায়ের নামে কুরুচিকর মন্তব্যের অভিযোগ উঠল    শিলিগুড়ির এক আউট পোস্টে কর্মরত এ এস আই-এর বিরুদ্ধে। জানা গেছে ঐ এ এস  আই-এর নাম  মহম্মদ খালিলুর রহমান ।  অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে  মহম্মদ খালিলুর রহমানের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশ। গঠন করা হয়েছে পৃথক কমিটিও। সূত্রে জানা যায়, এই মাসের  গত ১৪ তারিখ প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে একটি ফেসবুক পোস্ট করেছিল একজন। সেই পোস্টের কমেন্ট বক্সে প্রধানমন্ত্রীর মায়ের নামে কুরুচিকর কথা লেখেন  মহম্মদ খালিলুর রহমান নামে এক পুলিশ আধিকারিক। বিষয়টি নজরে আসার পর  স্থানীয় বিজেপি  নেতৃত্ব  গতকাল খালপাড়া ফাঁড়িতে একটি স্মারকলিপি জমা দেন । একইসঙ্গে ওই অফিসারের কঠোর শাস্তির দাবি জানান তাঁরা। বিজেপির তরফে স্মারকলিপি জমা পড়ার পর  তদন্ত কমিটি গঠন করা হয় শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে ।  শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশের এক মুখপ্ত্র জানান, "তদন্ত শুরু হয়েছে। দোষ প্রমাণিত হলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।" বিজেপি-র শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলার সভাপতি অভিজিৎ রায় চৌধুরি বলেন, আমার যে বারে বারে বলছি "পুলিশ  তৃণমূলের ক্যাডার। তা আর একবার  প্রমাণ হল। এই ঘটনায় ওই অফিসারের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছি। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া উচিত বলেই মনে করি আমরা।" পুলিশ সূত্রে আরও জানা যায় , উত্তরদিনাজপুর জেলার বাসিন্দা মহম্মদ খালিলুর রহমান। চলতি মাসের ৬ তারিখ থেকে ছুটিতে রয়েছেন তিনি। খালিলুর রহমানের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন "কীভাবে কী হল জানি না। আমি কিছুই বুঝে উঠতে পারছি না।" বিরোধীরা অভিযোগ করেছেন যে প্রার্থী তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহানের বিরুদ্বে কুরুচিকর পোস্টের অভিযোগে সাথে সাথে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অথচ পুলিশের বিরুদ্বে কুরুচিকর মন্তব্যের অভিযোগ উঠার পরেও ঐ পুলিশ কর্মীকে  এখনও গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না। প্রয়োজনে আমরা এই ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাব।