���������������������

  • ভারতের বিরুদ্ধে একদিবসীয় ও টি-২০ সিরিজের ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল ঘোষণা

    Newsbazar 24, মালদা, ৮ অক্টোবর : সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড ভারতের  বিরুদ্ধে  আগামী  ২টি একদিবসীয়  ও ২টি টি-২০ সিরিজের দল ঘোষণা করে দিল। আগামী ২১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ একদিনের সিরিজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের  বিধ্বংসী ওপেনার ক্রিস গেইল ও স্পিনার সুনীল নারাইন নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের ১৫ সদস্যের দলে।  ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোর্ডের পক্ষে জানানো হয়েছে, ব্যক্তিগত কারণে ভারত সফর ও তারপরের ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফরে তিনি থাকছেন না। তার সঙ্গে ৫ ওয়ানডে ও ৩ টি২০ ম্যাচের দলে রাখা হয়নি স্পিনার সুনীল নারাইনকেও। বাদ পড়েছেন ডোয়েন ব্রাভোও। তবে  টি২০ ক্রিকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে থাকছেন অভিজ্ঞ ড্যারেন ব্রাভো ও অলরাউন্ডার কিরন পোলার্ড। আরেক অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল একদিনের ক্রিকেট ও টি২০ দুই দলেই খেলেন। কিন্তু চোটের জন্যই তিনি ওয়ানডে সিরিজে থাকছেন না। তবে তাঁকে টি২০ দলে রাখা হয়েছে। নভেম্বরে সিরিজ শুরুর আগেই তিনি সুস্থ হয়ে যাবেন বলে আশা করা হচ্ছে। আলজারি জোসেফকেও ভারত সফরে রওনা হওয়ার আগে ফিটনেস টেস্টে পাস করতে হবে।  আগামী একদিনের বিশ্বকাপ, আবার তার পরের বছরই  টি-২০ বিশ্বকাপের জন্য  কিছু নতুন মুখকে দলে নেওয়া হয়েছে ওপেনার চন্দরপল হেমরাজ, অলরাউন্ডার ফাবিয়ান অ্যালেন ও জোরে বোলার ওশানে থমাসকে। টেস্ট দলে থাকা তরুণ সুনীল অম্ব্রিশকেও সীমিত ওভারের দলে রাখা হয়েছে। তাদের বোর্ড জানিয়েছে, গত ২ বছর ধরে তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজ এ ও বি দলের হয়ে এবং ক্যারিবয়ান প্রিমিয়ার লিগে ভাল খেলেছেন। জানা গিয়েছে গুয়াহাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সীমিত ওভারের এই দুই দলই শিবির করবে। তাই ভারতের ভিসা ও বিমানের টিকিট ইত্যাদি পেতে যাতে সমস্যা না হয়, তার জন্যই এত আগে থেকে সীমিত ওভারের ক্রিকেটের দুটি দল ঘোষণা করা হয়েছে। একদিনের আন্তর্জাতিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে নেতৃত্ব দেরৃবেন জেসন হোল্ডার। আর টি২০ দলটির নেতৃত্বে থাকছেন কার্লোস ব্রেথওয়েট। ওয়ানডের দলঃ  জেসন হোল্ডার (অধিনায়ক), ফাবিয়ান অ্যালেন, সুনীল অম্ব্রিশ, দেবেন্দ্র বিশু, চন্দরপল হেমরাজ, শিমরন হেতমিয়ের, শাই হোপ, আলজারি জোসেফ, এভিন লুইস, অ্যাশলে নার্স, কিমো পল, রোভমান পাওয়েল, কেমার রোচ, মারলন স্যামুয়েলস, ওশানে থমাস। টি-২০ দল  কার্লোস ব্রেথওয়েট (অধিনায়ক), ফাবিয়ান অ্যালেন, ড্যারেন ব্রাভো, শিমরন হেতমিয়ের, এভিন লুইস, ওবেড ম্যাকয়, অ্যাশলে নার্স, কিমো পল, খারি পিয়ের, কিয়েরন পোলার্ড, রোভমান পাওয়েল, দেনেশ রামদিন, আন্দ্রে রাসেল, শেরফানে রাদারফোর্ড, ওশানে থমাস। ।  

  • ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে বাদ শিখর ধাওয়ান,দলে এলেন তরুণ মুখ মায়াঙ্ক ও সিরাজ।

    Newsbazar24, ডেস্ক, ৩০ সেপ্টেম্বরঃ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দুই টেস্টের সিরিজে বাদ পড়লেন শিখর ধাওয়ান। নূতন করে অন্তভুক্ত হলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল ও মহম্মদ সিরাজ। ধারাবাহিক ভাবে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল খেলার পুরস্কার পেলেন এই দুই তরুণ ক্রিকেটার। আসন্ন এই সিরিজে  বিশ্রাম দেওয়া হল  পেস জুটি ভূবনেশ্বর ও বুমরাকেও  জানিয়েছেন নির্বাচকেরা।   প্রসঙ্গত এশিয়া কাপে ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট হয়েছেন শিখর ধাওয়ান। কিন্তু সেটা ছিল একদিবসীয়  খেলা।   কিন্তু গত ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজে ৮ ইনিংস খেলে তিনি করেছিলেন মাত্র ১৬২ রান। অন্যদিকে মায়াঙ্ক গত রঞ্জি ট্রফিতে  ৮ ম্যাচে তিনি করেছেন ১১৬০ রান। দলে রেখে দেওয়া হয়েছে পৃথ্বী শ-কেও। গত ইংল্যান্ড সফরে  একটি টেস্টেও প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি তিনি। এবার ধাওয়ান না থাকায় অবশেষে ভারতের হয়ে, লোকেশ রাহুলের সঙ্গে তিনি ওপেন করার সুযোগ পাবেন বলে মনে হয় এছাড়াও  ইংল্যান্ড সফরের শেষ টেস্টে ভাল খেলার সুবাদে রাহুল আপাতত টিকে গেলেন।  ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে  ভাল খেলতে না পারলে  মায়াঙ্ককে জায়গা ছেড়ে দিতে হবে। কারন এই মুহূর্তে মায়াঙ্ক খুবই ভাল ফর্মে আছেন। মায়াঙ্ক ও পৃথ্বি দুজনেই ভারত এ দলের হয়ে ইংল্যান্ড সফরে দারুন  খেলেছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে বোর্ড একাদশের হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে  ৯০ রান করেছেন। দলে আরেক নতুন মুখ জোরে বোলার মহম্মদ সিরাজ। সাম্প্রতিক চতুর্দেশীয় সিরিজে ভারত এ দলের হয়ে তিনি অস্ট্রেলিয়া এ, দক্ষিণ আফ্রিকা এ দলের বিরুদ্ধে অসাধারণ বল করেছেন। এক  ম্যাচে ৫৯ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন ৮টি উইকেট!  এছাড়াও ভারতীয় বোর্ডের সফর পলিসি প্রশ্নের মুখে কারন গত তিন-চার মাসে একের পর এক জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার চোট পেয়েছেন। ভারতীয় বোর্ডের  কার্যনির্বাহী সেক্রেটারি অমিতাভ চৌধুরি জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে পেস জুটি ভূবনেশ্বর ও বুমরাকেও আরও ভালভাবে ফিট থাকার জন্য এই সিরিজে  বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। এছাড়া চোটের কারনে  রয়েছে হার্দিক ও ইশান্ত শর্মাকে বাদ দেওয়া হয়েছে।  সবচেয়ে খারাপ  অবস্থা করুণ নায়ারের। ইংল্যান্ড সফরে একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ না দিয়ে  পরের সিরিজেই তাঁকে দল থেকে বাদ দেওয়া হল। তাঁকে খেলার সূযোগ না দিয়ে  বাদ  দেওয়া হল কেন এ প্রশ্নের জবাব পাওয়া যায়নি বোর্ড কর্তাদের কাছে । তবে সম্ভবত টেস্টে ত্রিশতরান করা নায়ারের থেকে ওভাল টেস্টে অভিষেকে অর্ধশতরান করা হনুমা বিহারীকে তাঁর জায়গায় অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। স্পিনের ক্ষেত্রে অবশ্য কোনও নতুন চমক নেই।  অশ্বিন ও রবীন্দ্র জাদেজার উপরই আস্থা রাখা হয়েছে । তাঁদের সঙ্গে রয়েছেন চায়নাম্যান কূলদীপ যাদবও। আগামী ৪ অক্টোবর থেকে রাজকোটে সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। পরের টেস্ট ১২ অক্টোবর থেকে, হায়দরাবাদে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট সিরিজের সম্পূর্ণ দল  - বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), কেএল রাহুল, পৃথ্বী শ, মায়াঙ্ক আগরওয়াল, চেতেশ্বর পূজারা, আজিঙ্কা রাহানে (সহ-অধিনায়ক), হুনুমা বিহারী, ঋষভ পন্থ (উইকেটরক্ষক), আর অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব, মহম্মদ শামি, উমেশ যাদব, মহম্মদ সিরাজ, শর্দুল ঠাকুর  

  • আরবের মাটিতে এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ ও ভারত মখোমুখি।

     Newsbazar24, ডেস্ক, ২৭ সেপ্টেম্বরঃ এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ।  গতকাল আরবে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়ে  বাংলাদেশ  ফাইনালে   ভারতের মুখোমুখি।  বাংলাদেশের আক্রমণাত্মক বোলিংয়ের সামনে ৯ উইকেটে ২০২ রান  করে  পাকিস্তান। টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত  নেয়  বাংলাদেশ।  ১২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে যখন বিপর্যয়ের   মুখোমুখি , তখন তাদের  সমর্থকরাও  ভাবতে পারেনি  এই ম্যাচে বাংলাদেশ আবার ফিরে আসবে। কিন্তু আবুধাবি সাক্ষী থাকল বাঙালির লড়াইয়ের ।, মুশফিকুর রহিমের অন্যবদ্য লড়াইয়ে  জয়ের পথে ফিরে এল  বাংলাদেশ। ১২ রানে তিন উইকেট পড়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশকে টেনে তোলেন মুশফিকুর রহিম ও মহম্মদ মিঠুন। তাদের উপর ভর করেই এল জয়।মুশফিকুর রহিম (৯৯) মিঠুনকে সঙ্গে তিনি বাংলাদেশকে ভদ্রস্থ জায়গায় পৌঁছে দেন। মিঠুন ব্যক্তিগত ৬০ রানের মাথায় আউট হন। ১২ রানে তিন উইকেট হারানোর ১৪৪ রান করে যায় মুশফিকুর-মিঠুন জুটি। মিঠুনের ফিরে যাওয়ার পরই ১০ বলে ৯ রান করে ফিরে যান ইমরুল কায়েস। কিন্তু একদিকে মুশফিকুরের লড়াই চলতেই থাকে। ব্যক্তিগত ৯৯ রানে মুশফিকুর ফিরে যাওয়ার সময়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ১৯৭ উইকেটে। তারপর অবশ্য ৪২ রানের মধ্যেই শেষ হয়ে যায় তাঁদের ইনিংস। তবে পুরো ৫০ ওভার খেলতে পারলেন না বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। ১ ওভার ১ বল বাকি থাকতেই বাংলাদশের ইনিংস শেষ। ৪৮.৫ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৩৯ রান। অর্থাৎ পাকিস্তানের কাছে জয়ের লক্ষ্যমাত্রা ২৪০ রান।  পাকিস্তানেরও  ইনিংসের শুরুটাও ভাল হয়নি । প্রথম ওভারই ধাক্কা মেহেদির। আবারও  দ্বিতীয় ওভারে ধাক্কা  বোলার মুস্তাফিজুরের । ওপেনার ফাকহার জামান ও বাবর আজমের আউট হয়ে যাবার পর  সরফরাজের আউটে কোমর ভেঙে যায় পাকিস্তানের। পাকিস্তানকে সেখান  থেকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন শোয়েব মালিক ও ইমামুল হক। কিন্তু শোয়েব ফিরতেই পাকিস্তানের ব্যাটিংএ ধ্বস নামে, একে একে ফিরে যান  অন্য ব্যাটসম্যানরা। ৪৬ তম ওভারে নবম উইকেটের পতনের পর আর কিছুই করার ছিল না পাকিস্তানের। হার তখন সময়ের অপেক্ষা মাত্র। শেষমেশ ৩৭ রানে পরাজিত হন ইমানুলরা।  মুস্তাফিজুর রহমানের আক্রমণাত্মক বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতে পারেননি পাক ব্যাটসম্যানরা। মুস্তাফিজুর নেন চার উইকেট। মেহেদি নেন দুই উইকেট। ভারত ইতিমধ্যেই এশিয়া কাপ ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছে। এদিনের পাকিস্তান বনাম বাংলাদেশ ম্যাচ রূপ নিয়েছে সেমিফাইনালের। সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে ২৪০-এর লক্ষ্যমাত্রা রাখে বাংলাদেশ। শেষমেশ পাকিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপ ফাইনালের টিকিট পেয়ে গেলেন মুশফিকুর-মিঠুনরা। কিন্তু  মুশফিকুরের ভাগ্যটা শেষ পর্যন্ত সঙ্গ দিল না  তাই আক্ষেপ থেকেই  গেল মুশফিকুর রহিমের। সেই কারণে নড়বড়ে ৯৯ রানেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরতে হল বাংলাদেশের লিটল মাস্টারকে। পাঁজরের হাড় ভাঙা। ব্যাথানাশক ওষুধ খেয়ে নেমেছিলেন মুশফিকুর। কিন্তু শাহিন আফ্রিদির বলে উইকেট রক্ষকের হাতে ধরা পড়ে গেলেন সরফরাজ খান। ফলে সেঞ্চুরিটা আর তার করা হল না । আগামীকাল শুক্রবার এশিয়া কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হতে চলেছে ভারত ও বাংলাদেশ।এখন দেখার এশিয়া কাপ কোথায় যায় ভারতে না বাংলায়। এশিয়া চুপ      

  • ক্রীড়াজগতের সর্বোচ্চ সম্মান খেলরত্ন পুরস্কার জিতলেন বিরাট কোহলি ও মীরাবাঈ চানু।

    Newsbazar 24, ডেস্ক, ২৫ সেপ্টেম্বরঃ  এই বছর ক্রীড়াজগতের সর্বোচ্চ সম্মান রাজীব খেলরত্ন পুরস্কার জিতলেন ভারতীয় ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলি।  ও মহিলা ভারোত্তলক চ্যাম্পিয়ন মীরাবাঈ চানু।  মঙ্গলবার  রাষ্ট্রপতি ভবনে এক চোখ ধাঁধানো অনুষ্ঠানে বিরাট কোহলি ও মীরাবাই চানুর হাতে আজ খেলরত্ন পুরস্কার তুলে দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।  পাশাপাশি, জুনিয়র বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে সোনাজয়ী অ্যাথলিট হিমা দাস এবং এশিয়না গেমস ও কমনওয়েলথ গেমসে সোনাজয়ী তারকা জ্যাভলিন থ্রোয়ার নীরজ চোপড়া সহ ২০ জন ক্রীড়াবিদকে  অর্জুন পুরস্কার প্রদান করা হয়। । এই অনুষ্ঠানটি প্রতিবার "হকির জাদুকর" ধ্যানচাঁদের জন্মদিনে ২৯ অগাস্ট হয়ে থাকে। তবে এবার সেই সময় এশিয়ান গেমস চলার জন্য অনুষ্ঠানটি আজ হয়। এদিন কোহলির পুরস্কার গ্রহণের সাক্ষী থাকতে উপস্থিত ছিলেন স্ত্রী অনুষ্কা শর্মা, মা সরোজ কোহলি এবং দাদা বিকাশ। প্রসঙ্গত, কোহলি তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে খেলরত্ন পুরস্কার পেলেন। এর আগে সচিন তেন্ডুলকর ও মহেন্দ্র সিং ধোনি এই পুরস্কার পান। বিরাট কোহলী এ পর্যন্ত ৭১টি টেস্ট খেলে মোট ৬১৪৭ রান করেছেন ২৩টি সেঞ্চুরী সহ, এছাড়াও ২১১টি একদিনের ম্যাচে ৯৭৭৯ রান করেন তার মধ্যে ৩৫টি শতরান ছিল, ২০১৩তে তিনি অর্জুন পুরুস্কার ও ২০১৭তে পদ্মশ্রী পান।অন্য দিকে মীরাবাঈ চানু ২০১৭তে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ানশিপে ৪৮ কেজি বিভাগে ও কমনওয়েলথ গেমসে সোনা পান।

  • রবিবার এশিয়া কাপের সুপার ফোরে আবার মুখোমুখি ভারত ও পাকিস্তান

    Newsbazar24 ডেস্ক, ২২ সেপ্টেম্বর : রবিবার এশিয়া কাপের সুপার ফোরে আবার মুখোমুখি ভারত ও পাকিস্তান।  গ্রুপ পর্যায়ের ম্যাচে পাকিস্তানকে ভারত হেলায়  ৮ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছিল।  সুপার ফোরের প্রথম খেলায়  ভারত বাংলাদেশেকে ৭ উইকেটে পরাজিত করেছে । অপরদিকে পাকিস্তান  আফগানিস্তানের কড়া চ্যালেঞ্জ সামলে  রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে একেবারে শেষ ওভারে গিয়ে অভিজ্ঞ শোয়েব মালিকের পরপর একটি ওভার বাউন্ডারি ও বাউন্ডারির সাহায্যে জয় হাসিল করেছে । এশিয়া কাপের  সুপার ফোরের  ভারত বনাম পাকিস্তান লড়াই হবে  দুবাইতে , ভারতীয় সময় বিকেল ৫টায় সরাসরি সম্প্রচার - স্টার স্পোর্টস লাইভ স্ট্রিমিং - হটস্টার   রবিবার পাকিস্তান দলের কাছ থেকে লড়াই আশা করে ক্রিকেট বিশ্ব।    

  • যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডিলিট দেওয়ার প্রস্তাব সসন্মানে ফিরিয়ে দিলেন সচিন তেন্ডুলকার

    Newsbazar,24  ডেস্ক, ২০ সেপ্টেম্বরঃ ভারতের কিংবদন্তী ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকার সসন্মানে ফিরিয়ে দিলেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডিলিট দেওয়ার প্রস্তাব। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে  তিনি ই-মেল করে জানিয়েছেন এথিকাল কারণে ওই সম্মান তিনি   গ্রহণ করতে পারবেন না। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে আরও জানা গেছে এই বছর ২৪ ডিসেম্বর তারিখে অনুষ্ঠিত হবে যাদবপুরের ৬৩তম সমাবর্তন উৎসব। বিভিন্ন ক্ষেত্রে বেশ কয়েকজন কৃতী ব্যক্তিত্বের সাথে ভারতীয় ক্রীড়া জগতের উজ্জল নক্ষত্র সচিন তেন্ডুলকারকে সাম্মানিক ডিলিট দেওয়ার কথা চিন্তা করা  হয়েছিল।  ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটারকে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে একটি ই-মেল করা হয়েছিল। কিন্তু তাঁর জবাবে সচিন ই-মেল করে জানিয়েছেন তিনি কোনও বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই এই ধরণের সম্মান গ্রহণ করতে অনিইচ্ছুক। কারণ ডক্টরেট পাওয়ার জন্য যে  পরিশ্রম করতে হয় তা তিনি করেননি বলেই তিই এই উপাধি গ্রহণ করতে অপারগ। তিনি আরও জানিয়েছেন  এই সম্মান গ্রহণ নৈতিক দিক থেকে সঠিক নয়। এর আগে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও তাঁকে একই রকম প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল, কিন্তু তাও তিনি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন বলে ওই ইমেলে জানিয়েছেন সচিন। এর আগে ২০১১ সালে রাজীব গান্ধী ইনস্টিটিউট অব হেল্থ সায়েন্সেস-এর প্রস্তাবিত সম্মানও  সবিনয়ে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন সচিন। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস জানিয়েছেন  সচিন অরাজি হওয়ায়  এবছর  এই সন্মান দেওয়ার জন্য পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন  বক্সার মেরি কমকে বাছা হয়েছে  আচার্য  কেশরিনাথ ত্রিপাঠির সঙ্গে আলোচনা করেই। মেরি কম ওই সম্মান নিতে আসবেন বলে সম্মতি জানিয়েছেন । তাঁর সঙ্গে  সাম্মানিক ডিলিট দেওয়া হবে  প্রখ্যাত হেমাটোলজিস্ট তথা টাটা মেডিকাল সেন্টারের ডিরেক্টর মাম্মেন চ্যান্ডি, অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসু ও ব্যাঙ্কিং জগতের  চন্দ্রশেখর ঘোষকে । সাম্মানিক ডিএসসি পাচ্ছেন মলিকিউলার বায়োলজিস্ট দীপঙ্কর চ্যাটার্জী।  

  • মরুর দেশে এশিয়া কাপের দ্বিতীয় খেলায় ভারত চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে ৮ উইকেটে পরাজিত করল।

    Newsbazar 24, ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বরঃ মরুর দেশে এশিয়া কাপের দ্বিতীয় খেলায়   ভারত চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে ৮ উইকেটে পরাজিত করল। গতকাল যে ভারতীয় দলকে ক্রিকেটে নবাগত হংকংকে হারাতে রীতিমত বেগ পেতে হয়েছে  মতো দলকে হারাতে   তারাই আজ শক্তিশালী পাকিস্তানকে  হেলায় ৮ উইকেটে হারিয়ে দিল। ভারতীয় বোলাররা পাকিস্তানকে মাত্র ১৬২ রানে আটকে রেখেছে। ৭ ওভারে মাত্র ১৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট লাভ করে  ভূবনেশ্বর কুমার ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন। গতকাল হংকংয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে   পিঠের চোট কাটিয়ে ফিরে ভূবনেশ্বর কুমার নিস্প্রভ ছিলেন। পাকিস্তানের ইনিংসের শুরুতেই ভূবনেশ্বর কুমার ভয়ঙ্কর দুই পাক ওপেনার ইমাম উল-হক(২) ও ফখর জামান(০)-কে ফিরিয়ে দিয়ে যে ধাক্কাটা দিয়েছিলেন, তার থেকে আর বেরোতে পারেনি তারা। তারপর কিছুটা হলেও  বাবর আজম(৪৭) ও শোয়েব মালিক(৪৩)। এঁরা দুজনে পাকিস্তানকে ২১ ওভারে ৮৫ রানে পৌঁছে দেন। কিন্তু কূলদীপ যাদব তাঁর তৃতীয় ওভারের প্রথম বলেই জুটি ভেঙ্গে দেন। এরপর পাকিস্তান ব্যাটসম্যানরা একের পর এক উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন । তরুণ আসিফ আলি বা শাদাব খানের পাশাপাশি সরফরাজ নিজেও বাজে শট খেলতে গিয়ে আউট হয়েছেন। আর অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক দুবার জীবন পেয়ে রায়ডুর একটি দুর্দান্ত ডিরেক্ট থ্রোতে রান আউট হন। পাকিস্তান ব্যাটসম্যানরা  ভারতীয় পেসারদের বিরুদ্ধে সুবিধা করতে না পেরে তাঁরা সম্ভবত স্পিনারদের মারার জন্য নিশানা করেছিলেন। কিন্তু তাদের সেই চেস্টা সফল হয়নি । একেবারে শেষের দিকে ফাহিম আশরাফ (২১)ও মহম্মদ আমির (১৮) কিছুটা দায়িত্ব নিয়ে ব্যাট করেন। দুজনে জুটিতে ৩৭ রান যোগ করেন। কিন্তু বুমরা দ্বিতীয় স্পেলে  আক্রমণে ফিরে এসেই তিনি ফাহিমকে তুলে নেন। তবে আজ দ্বিতীয় সফল বোলার  কেদার যাদব।  তিনি তাঁর সীমিত ক্ষমতায় ৯ ওভারে ২৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে যান তিনি। পাক অধিনায়ক ম্যাচের পর বলেন তাঁরা ভারতের দুই স্পিনারের জন্য তৈরি ছিলেন। কিন্তু কেদার তাঁদের পরিকল্পনায় ছিলেন না। ভারতীয় বোলাররা ভাল বল করলেও ফিল্ডিংয়ে বেশ কিছু ক্যাচ মিস করেছে ভারত। শোয়েব মালিক দুই দুইবার জিবন পেয়েছেন  একবার ধোনি ও আরেকবার ভূবনেশ্বর তাঁর ক্যাচ ছেড়েছিলেন।  জবাবে ভারতীয় দল ব্যাট করতে নেমে  রোহিত শর্মা (৩৯ বলে ৫২) ও শিখরর ধাওয়ান(৫৪ বলে ৪৬)-এর ওপেনিং জুটি মাত্র ১৩ ওভারেই ৮৬ রান তুলে দিয়েছিল। শাদাব খান বল করতে এসে প্রথম বলেই বোল্ড করেন রোহিতকে। এরপর তিন ওভার পরেই ১০৪ রানের মাথায় ফাহিম আশরাফের বলে শেখর ধাবান পয়েন্টে বাবর আজমের হাতে ধরা পড়ে ফিরে যান। সেখান থেকে জেতার জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে  দেন রায়ডু (৪৬ বলে ৩১) ও কার্তিক (৩৭ বলে ৩১)। এদিন মাঠে দুইটি দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছে। প্রথমে বল করার সময় বল করতে গিয়ে পিঠের নিচের দিকে চোট পান হার্দিক পাণ্ড্য। মাঠের মধ্যেই তিনি শুয়ে পড়েন। শেষে মাঠ ছাড়তে হয় স্ট্রেচারে। পরে বোর্ডের তরফে জানানো হয় তিনি আপাতত সুস্থ আছেন। একই ঘটনা ঘটেছে পাকিস্তান বল করার সময় রোহিত শর্মাকে আউট করার পরের ওভারেই বল করতে গিয়ে একই জায়গায় চোট পান শাদাব খান। তিনি অবশ্য পায়ে হেঁটেই মাঠ ছাড়েন।  

  • বিসিসিআই আগামী অক্টোবরে দেশে ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের পূর্ণাঙ্গ সূচি প্রকাশ করল।

    Newsbazar,24 ডেস্ক, ৪ সেপ্টেম্বরঃ আগামী অক্টোবর ২০১৮ তে  ভারত সফরে  আসছে ওয়েস্ট  ইন্ডিজ। মঙ্গলবার সেই সিরিজের পূর্ণাঙ্গ সূচি প্রকাশ করল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।  দীর্ঘ প্রায় ১ মাসের বেশী  অর্থাৎ  ৪ অক্টোবর থেকে ১১ নভেম্বরের  ভারতের সঙ্গে তারা ২টি টেস্ট, ৫ টি ওয়ানডে ও ৩ টি টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। এই সিরিজকেও ২০১৯ বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে দেখছে  ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড । বর্তমানে ইংল্যান্ড সফরে রয়েছে  ভারত। শেষ টেস্ট খেলে দেশে ফিরেই ভারতীয ক্রিকেট দল যাবে আরব আমিরশাহিতে এশিয়া কাপ খেলতে। সেই টুর্ণামেন্ট সেরে ভারতে ফিরেই ওয়েস্টইন্ডিজের মুখোমুখি হবে তারা। অন্যদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভারত সফর শেষ করে  যাবে বাংলাদেশ। তারপর নিজেদের দেশের মাটিতে তারা ভারত ও ইংল্যান্ডের সঙ্গে ত্রিদেশীয় সিরিজে মিলিত হবে। তারপর আছে বিশ্বকাপ। ভারত  বিশ্বকাপের আগে  একটি লম্বা সিরিজ খেলবে। রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সফর। তাই ভারত অধিনায়ক কোহলিকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে এশিয়া কাপে।  যাতে দেশের মাটিতে  ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে  সূস্থ হয়ে  নূতন করে শুরু করতে পারেন বিরাট কোহলি । লর্ডস টেস্টে পিঠে চোট পেয়েছিলেন তিনি। তারপর নটিংহাম ও সাউদাম্পটনে তিনি খেললেও, কোনও রকম ঝুঁকি নিতে চাইছে না ভারতীয় বোর্ড।  ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের পূর্ণাঙ্গ সূচিঃ   -------- টেস্ট------  প্রথম টেস্ট  ৪-৮ অক্টোবর – রাজকোটে,  দ্বিতীয় টেস্ট - ১২-১৬ অক্টোবর – হায়দ্রাবাদ।   ----------ওডিআই ------------- প্রথম ওডিআই –গুয়াহাটি ২১ অক্টোবর, দ্বিতীয় ওডিআই- ইন্দোর  ২৪ অক্টোবর, তৃতীয় ওডিআই- পুনে ২৭ অক্টোবর , চতুর্থ ওডিআই – মুম্বই ২৯ অক্টোবর , পঞ্চম ওডিআই তিরুবনন্তপুরম  ১ নভেম্বর ।   --------------টি২0 -----------  প্রথম টি২0- কলকাতা ৪ নভেম্বর,  দ্বিতীয় টি২0 - লখনউ ৬ নভেম্বর , তৃতীয় টি২0 - ১১ নভেম্বর , চেন্নাই  

  • চতুর্থ টেস্টে ভারত ইংল্যান্ডের কাছে ৬০ রানে হেরে সিরিজে ৩-১ –এ পিছিয়ে পড়ল ।

    Newsbazar24, ডেস্ক, ২ সেপ্টেম্বরঃ সিরিজের চতুর্থ টেস্টে ইংল্যান্ডের দুর্দান্ত বোলিংএর ফলে  ভারত ম্যাচ হেরে গেল এবং   ৩-১ –এ সিরিজ হারতে হল।  ম্যাচের অধিকাংশ সময় ভারত চালকের আসনে থাকলেও  চতুর্থ দিনে ইংল্যান্ডের দুর্দান্ত বোলিং আক্রমণের সামনে  ম্যাচ হেরে গেল। ৬০ রানে জিতে ৩-১ -এ সিরিজে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড। চা পানের বিরতি পর্যন্ত ম্যাচ সমান সমান ছিল। ম্যান অব দি  ম্যাচ হয়েছেন মইন আলি। এদিন দিনের দিনের শুরুতে ২০ মিনিটের মধ্যে  ইংল্যান্ডকে গুটিয়ে দেন  ভারত। ইংল্যান্ড তৃতীয় দিনের রানের সাথে  মাত্র ১১ রান যোগ করে ইনিংস শেষ করে ২৭১ রানেই।   প্রথম ইনিংসে ৩৫ রানের লিড ছিল ভারতের। তাই ভারতকে জিততে গেলে চতুর্থ ইনিংসে ২৪৫ রান তুলতে হত। কিন্তু ইনিংসের শুরুতেই ব্রড-অ্য়ান্ডারসনের বোলিং ভারতের ভিত নড়িয়ে দেয়। ২২ রানেই পড়ে যায় ভারতের ৩ টি উইকেট। কে এল রাহুল কোনও রান তোলার আগেই তাঁর স্টাম্প ছিটকে দেন ব্রড।  ভারতের অন্যতম ভরসা  পুজারা যিনি  প্রথম ইনিংসে  শতরান করেছিলেন। কিন্তু মাত্র ৫ রানে তিনি এলবিডব্লু হয়ে যান অ্য়ান্ডারসনের বলে। এরপর স্টোকস-এর একটি অসাধারণ ক্যাচে অ্য়ান্ডারসনের বলে ফিরে যান ধাওয়ানও। এরপর খেলা ধরে নিয়েছিলেন ভারতীয় ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি ও ভাইস ক্যাপ্টেন আজিঙ্কা রাহানে । লাঞ্চে ভারতের স্কোর ছিল ৪৬-৩। লাঞ্চের পর যেভাবে খেলা শুরু করেছিলেন তখন কিন্তু  মনে হয়নি ভারত এই ম্যাচে হেরে যাবে।  তাদের জুটিতে  ভারত  ১০০ রানে পৌছায়।  কিন্তু এরপরেই ফের ধাক্কা লাগে ভারতের ব্যাটিং লাইনআপে। ৫০ তম ওভারে ইংল্যান্ড স্পিনার মইন আলির একটি বল বিরাট কোহলির গ্লাভস-এ লেগে শর্টলেগে দাঁড়ানো কুকের হাতে চলে যায়। রিভিউতে থার্ড আম্পায়ার কোহলিকে আউট ঘোষণা করেন। চা পানের বিরতিতে ভারতের স্কোর ছিল ৪ উইকেট হারিয়ে ১২৬। ক্রিজে অপরাজিত ছিলেন রাহানে ও হার্দিক পান্ড্য। কিন্তু  চা পানের পর  ইংল্যান্ড-র বোলিং আক্রমণে ভারত বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে । চায়ের পরের প্রথম ওভারেই বেন স্টোকস-এর বলে দ্বিতীয় স্লিপে কুক-এর হাতে ক্যাচ দিয়ে শূন্য রানেই ফিরে যান হার্দিক পান্ড্য। ক্রিজে আসেন তরুণ ঋষভ পন্থ। শুরুর থেকেই স্পিনের বিরুদ্ধে আক্রমণ শুরু করেন ঋষভ। বেশ কয়েকবার আউট হতে হতে বাঁচলেও তিনি আক্রমণের রাস্তা থেকে সরেননি। এরপর রীতিমতো পরিকল্পনা করে ঋষভের উইকেট তুলে নেন মইন আলি। মারতে গিয়ে কভারে কুকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ১২ বলে ১৮ রান করে ফিরে যান ঋষভ। এরপর রাহানেকেও ৫১ রানে তুলে নেন মইন। ব্যাকফুটে খেলতে গিয়ে মইন আলির অফব্রেকে পরাস্ত হন রাহানে। ৫১ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে যান রাহানে।  

  • প্রথম টেস্টে ৩১ রানে জিতে টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড

    Newsbazar 24 ডেস্ক, ৪ আগস্টঃ  ভারত শেষ পর্যন্ত লড়াই করে পরাজিত হল। ভারত ও ইংল্যান্ডের  প্রথম টেস্টে ৩১ রানে জিতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড।  ১৯৪ রান তাড়া করতে নেমে ১৬২ রানে শেষ হল ভারতের ইনিংস। এদিন জিততে হলে ভারতকে করতে হল ৮৪ রান। হাতে ছিল ৫ উইকেট। ক্রিজে ছিলেনঅপরাজিত  বিরাট কোহলি ৪৩ রানে।  সঙ্গে ছিলেন ১৮ রানে দীনেশ কার্তিক। তবে এদিন খেলার শুরুতেই কার্তিক ২০ রানে ফিরে যান। হার্দিক পান্ডিয়াকে সঙ্গে নিয়ে কোহলি ইনিংসের হাল ধরার চেষ্টা করেন। তবে অর্ধশতরান করার পরই বেন স্টোকসের বলে আড়াআড়ি খেলতে গিয়ে ৫১ রানে ফিরে যান। ব্যস, ওখানেই ভারতের জয়ের আশা শেষ হয়ে গিয়েছিল। শেষদিকে হার্দিক ৩১ রান করে কিছুটা ইনিংস লম্বা করেন। টেল এন্ডারদের মধ্যে মহম্মদ শামি (০), ইশান্ত শর্মারা (১১) ফিরে যান। শেষ অবধি পান্ডিয়া আউট হলেও উমেশ যাদব অপরাজিত থাকেন। ইংল্যান্ডের হয়ে বেন স্টোকস ৪টি, জেমস অ্যান্ডারসন ২টি, স্টুয়ার্ট ব্রড ২টি, স্যাম কারান ১টি ও আদিল রশিদ ১টি উইকেট পেয়েছেন। প্রথম টেস্টে জয়ের সামনে এসেও হারতে হল ভারতকে।