সারা ভারত

  • মুম্বাইতে ফুট ওভারব্রিজ ভেঙে মৃত ৫ ও আহত ৩৬ জন

    ডেস্ক, ১৪ মার্চঃ   মুম্বইয়ের ছত্রপতি শিবাজি টারমিনাস রেল স্টেশনের কাছে  ফুট ওভারব্রিজ ভেঙে ২ মহিলা-সহ ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। কমপক্ষে ৩৬ জন আহত হয়েছেন বলে খবর । মুম্বই পুলিশের তরফ থেকে  জানানো হয়েছে আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া  হয়। ছত্রপতি শিবাজি  স্টেশনের  প্ল্যাটফর্মে প্রবেশ করতে যে ওভারব্রিজ দিয়ে যাওয়া হয়  হয় সেটি ভেঙে পড়েছে। ওই এলাকার ট্রাফিক কিছুটা বিঘ্নিত হয়েছে। গত মাসে জুলাই মাসে অন্ধেরিতে রেল ব্রিজ ভেঙে পড়ে। তারপর থেকে ৪৪৫টি ওভারব্রিজের অডিট করা হয়।   জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর একটি দল উদ্ধারকার্যে হাত দিয়েছে। রয়েছেন মুম্বাই পুলিশের পদস্থ কর্তারাও। প্রথমে বলা হয়েছিল ১-১২ জন মারা গিয়েছেন পদপিষ্ট হয়ে। পরে সেই দাবি নাকচ করে দেয় পুলিশ। মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফডনবিশ টুইট করে বলেন, "মুম্বাইয়ের টাইমস অব ইন্ডিয়া ভবনের কাছে এমন মর্মান্তিক ঘটনার খবর শুনে আমি অত্যন্ত ব্যথিত। সকলে মিলে উদ্ধারকার্যে হাত লাগিয়েছে। আশা করি, খুব তাড়াতাড়িই সুষ্ঠুভাবে কাজটি সম্পন্ন হবে।  মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী বিনোদ তাওড়ে বলেন, "সেতুর অবস্থা যে খারাপ ছিল, তেমনটা নয়। একটি সংস্কারের দরকার ছিল। সেই কাজটিই চলছিল। কাজটি চলাকালীন কেন সেতুটি বন্ধ ছিল না, তা নিয়েও তদন্ত হবে"।   

  • রমজান মাসে জাতীয় নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক ‘ভীষণ বিরক্তিকর' বললেন বিখ্যাত গীতীকার ও চিত্রনাট্যকার জাভেদ আখতার

    Newsbazar 24 ডেস্ক, ১২ মার্চঃ তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ও কলকাতা মেয়র ফিরহাদ হাকিম আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের দীর্ঘ সময়সূচী নিয়ে প্রশ্ন তুলে সাত দফা ভোটের সমস্যা নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেন , বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তরপ্রদেশে রমজানের মাসে ভোটগ্রহণ খুব কঠিন। এই প্রসঙ্গে বিখ্যাত গীতীকার  ও চিত্রনাট্যকার জাভেদ আখতার রমজান মাসে  জাতীয় নির্বাচন নিয়ে বিতর্ককে ‘ভীষণ বিরক্তিকর' বলে মন্তব্য করলেন । গতকাল রাতে এক টুইট বারতায়  জাভেদ আখতার জানিয়েছেন , রমজান এর সঙ্গে নির্বাচনকে জড়িয়ে যে আলোচনা হচ্ছে তা এককথায় ভীষণই বিরক্তিকর। এই ধরনের আলোচনা প্রকৃত ধর্মনিরপেক্ষতার পক্ষে  বিকৃত ও সংকীর্ণ মানসিকতার পরিচায়ক  যা আমার কাছে বিরক্তিকর, অসহনীয় এবং অস্বস্তিকর। এক মিনিটের  জন্যও নির্বাচন  কমিশনের এই বিষয়টিকে পাত্তা দেওয়া উচিত নয়।” এদিকে সোমবার হায়দরাবাদের সংসদ সদস্য এবং এআইএমআইএমের  (ALL India Majlish-E- Ittehadual Muslimme lনেতা আসাদউদ্দিন ওয়াইসিও  টুইটে  জানিয়েছেন রমজান মাসে ভোটে অসুবিধা এই কথা বলে মুসলিমদের অপমান করা হচ্ছে এবং এটাকে নিয়ে ‘সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও অপ্রয়োজনীয় বিতর্ক' তৈরী করা হচ্ছে । তিনি আরও লিখেছেন “রোজা রাখা মুসলমানদের জন্য বাধ্যতামূলক। আমরা রোজা পালন করার সময় রান্না করি, কাজ করি, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখি এবং পরিবারের যত্ন নিই। তাহলে রমজান মাসে ভোট করা যাবে না  এটা বলা আসলে মুসলমানদেরই অবমাননা করা।”  (ছবিতে বিখ্যাত গীতীকার  ও চিত্রনাট্যকার জাভেদ আখতার ও সংসদ সদস্য   ALL India Majlish-E- Ittehadual Muslimmen নেতা আসাদউদ্দিন ওয়াইসিও)

  • এক নজরে জেনে নিন কোন জেলায় কবে ভোট

    newsbazar24: *১১ এপ্রিল* প্রথম দফায় পশ্চিমবঙ্গের লোকসভা কেন্দ্রে ভোট হবে *কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে*। *১৮ এপ্রিল* দ্বিতীয় দফায় ভোট নেওয়া হবে আসনে *জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং ও রায়গঞ্জে*। *২৩ এপ্রিল* তৃতীয় দফায় ভোট গ্রহণ হবে পাঁচটি আসনে। সেগুলি হল,- *বালুরঘাট, মালদহ উত্তর, মালদহ দক্ষিণ, জঙ্গিপুর ও মুর্শিদাবাদ*। *২৯ এপ্রিল* চতুর্থ দফায় আটটি আসনে ভোট হবে বাংলায়। সেগুলি হল,- *বহরমপুর, কৃষ্ণনগর, রাণাঘাট, বর্ধমান পূর্ব, বর্ধমান-দুর্গাপুর, আসানসোল, বোলপুর ও বীরভূম* । *৬ মে* পঞ্চম দফায় যে সাতটি আসনে ভোট নেওয়া হবে সেগুলি হল, *বনগাঁ, বারাকপুর, হাওড়া, উলুবেড়িয়া, হুগলি, শ্রীরামপুর, আরামবাগ* । *১২ মে* ষষ্ঠ দফায় বাংলার আরও আটটি আসনে ভোট হবে। ওই আসনগুলি হল, *তমলুক, কাঁথি, ঘাটাল, মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, বিষ্ণুপুর ও পুরুলিয়া* । ১৯ মে সপ্তম ও শেষ দফায় পশ্চিমবঙ্গে ৯ টি আসনে ভোট নেওয়া হবে। ওই ৯ টি লোকসভা কেন্দ্র হল, দমদম, বারাসত, বসিরহাট, জয়নগর, মথুরাপুর, ডায়মন্ডহারবার, যাদবপুর, কলকাতা দক্ষিণ ও কলকাতা উত্তর।

  • এই প্রথমবার পশ্চিমবঙ্গে ৭ দফায় লোকসভা ভোট

    newsbazar24: এই প্রথমবার পশ্চিমবঙ্গে ৭ দফায় লোকসভা ভোট। রাজ্যে লোকসভা নির্বাচন ৭ দফায়।১১ এপ্রিল, প্রথম দফায় ভোট  (রাজ্যের ২টি আসনে ভোট)।১৮ এপ্রিল,দ্বিতীয় দফায় ভোট (রাজ্যের ৩টি আসনে ভোট)। ২৩ এপ্রিল,তৃতীয় দফায় ভোট (রাজ্যের ৫টি আসনে ভোট)।২৯ এপ্রিল,চতুর্থ দফায় ভোট (রাজ্যের ৮টি আসনে ভোট)।৬ মে,পঞ্চম দফায় ভোট (রাজ্যের ৭টি আসনে ভোট)।১২ মে, ষষ্ঠ দফায় ভোট (রাজ্যের ৮টি আসনে ভোট)। ১৯ মে,সপ্তম ও শেষ দফায় ভোট (রাজ্যের ৯টি আসনে ভোট। ফলাফল ঘোষণা- ২৩ মে।

  • জম্মু ও কাশ্মীরে জঙ্গীরা বাড়ী থেকে সেনা জওয়ান অপহরণ করল,ভারতবাসীর সুরক্ষা প্রশ্নের মুখে কাশ্মীরে

    ডেস্ক, ৮ মার্চঃ শুক্রবার সন্ধেবেলা জম্মু ও কাশ্মীরের বাদগাম জেলা থেকে জঙ্গিরা এক সেনাকে তাঁর বাড়ি থেকে অপহরণ করে নিয়ে গেল। তাঁর পরিবারের তরফে এই অভিযোগ করা হয়েছে।   ওই সেনা জওয়ান  ছুটিতে নিজের বাড়ি এসেছিলেন। অপহৃত সেনা জওয়ানের নাম মহম্মদ ইয়াসিন। তিনি জাকলি ইউনিটে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বাড়ি বাদগামের কাজিপোরা চাদুরাতে। প্রসঙ্গত পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় ৪৪ জওয়ান শহীদ হওয়ার পর বালাকোটের জঙ্গিঘাঁটিতে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পরেও , কাশ্মীরে জঙ্গিদের হামলা বন্ধ নেই। মাঝেমধ্যেই জঙ্গিহামা ঘটছে। বাড়িতে জঙ্গি ঢুকে পড়ছে। এমনকী সেই জঙ্গি নিকেশ করতে গিয়েও প্রাণ হারাচ্ছেন  সেনা-জওয়ান বা পুলিশ  আধিকারিকরা। পুলওয়ামা-কাণ্ডের পরই কাশ্মীরে জঙ্গিনিকেশ করতে গিয়ে শহিদ হয়েছেন একাধিক সেনা-জওয়ান ও পুলিশ আধিকারিক। এর মধ্যে আবার  বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হল সেনাকে। আবার  ভারতবাসীর সুরক্ষাকে প্রশ্নের মুখে ঠেলে দিল কাশ্মীরে।      

  • নয়ডার একটি গুদাম থেকে প্রায় ২৫ হাজার লিটার বিষ মদ বাজেয়াপ্ত

    newsbazar24: শনিবার গ্রেটার নয়ডার একটি গুদাম থেকে প্রায় ২৫ হাজার লিটার বিষ মদ বাজেয়াপ্ত করেছে উত্তর প্রদেশ পুলিশ।অসমে বিষ মদে এখনও পর্যন্ত ১২০ জনের মৃত্যু হয়েছে, হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন প্রায় ৩৫০ জন। এরই মধ্যে দিল্লিতে থেকে আটক করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ বিষ মদ। এই মদ তৈরির জন্য যে উপাদানগুলি ব্যবহার করা হয়েছে, তা খুবই আশ্চর্যের! পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে, মূলত শ্যাম্পু এবং ডিটারজেন্ট পাউডার ব্যবহার করে সস্তায় এই মদ তৈরি করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, এই মদ তৈরি হয়েছে পঞ্জাবে। সেখান থেকে চোরা পথে বিক্রি হচ্ছে দিল্লি, নয়ডা, গ্রেটার নয়ডা-সহ উত্তর ভারতের বিভিন্ন অংশে। গ্রেটার নয়ডার এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ১০ জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

  • পাকিস্তানের যে কোনওরকম প্ররোচনার জবাব দিতে প্রস্তুত ভারতের তিন বাহিনী।

    ডেস্ক, ২৮ ফেব্রুয়ারীঃ সাম্প্রতিক ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে চরম  উত্তেজনার মধ্যে আজ সাউথ ব্লকে  যৌথ বিবৃতি দেন  স্থল, বায়ু ও নৌসেনার আধিকারিকরা।প্রথম যৌথ বিবৃতিতে সেনাবাহিনী, নৌসেনা এবং বায়ুসেনার তরফে যৌথ বিবৃতি দিয়ে বলা হল, পাকিস্তানের  পক্ষ থেকে যে কোনওরকম প্ররোচনার জবাব দিতে পুরোপুরি প্রস্তুত ভারতের তিন বাহিনী। আজ তিন বাহিনীর পক্ষে বেশ  কিছু তথ্য প্রমাণ তুলে ধরে বলা হয় পাকিস্তান  চরম মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছে। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতীয় বায়ুসেনা জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করার পর ভারতীয় আকাশ সীমায় ঢুকেছিল পাকিস্তানের F-16 বিমান। তবে তা অস্বীকার করে পাকিস্তান। তিন বাহিনীর বিবৃতি সংক্ষিপ্ত আকারে তুলে ধরা হল। বায়ুসেনা প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল আর জি কে কাপুর বলেছেনঃ   আমরা খুশি, যে আমাদের সতীর্থ অভিনন্দনকে কালই ছেড়ে দেওয়া হবে,পাকিস্তান বারবার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি  লঙ্ঘন করছে, যদিও চাপে পরে তারা তারা  বিষয়টি স্বীকার করে নেয় , পাকিস্তান F-16-বিমান ব্যাবহার করেছে তার প্রমান বিমানের  টুকরো পাওয়া গেছে  রাজৌরি সেক্টরে,  যদিও পাকিস্তান দাবি করে F16 বিমান ব্যবহার করা হয়নি।  এছাড়াও এ বিষয়ে  আমাদের কাছে  যথেষ্ট প্রমাণ আছে ,২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান বায়ুসেনা ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করেছিল কিন্তু আমাদের বাহিনী তাদের চেস্টা ব্যর্থ করে দেয়। স্থল বাহিনী প্রধান বলেছেন মেজ়র জেনারাল সুরেন্দ্র সিং মহল বলেছেনঃ  পাকিস্তান প্ররোচনা দিলে আমরা তৈরি,আমরা প্রস্তুত যে কোনও পরিস্থিতির মকাবিলার জন্য,বায়ুসেনার অভিযানের পর ২৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় বিনা প্ররোচনায় গুলি চালায় পাকিস্তানি সেনা , এখন পাকিস্তান কী চায় এখন সেটাই দেখার, নৌ বাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল ডি এস গুজরাল বলেছেনঃ আমরা আমাদের লক্ষ্য পূরণে অবিচল থেকেছি, পাকিস্তান যে F-16 ব্যবহার করেছে। তার প্রমাণ  আমাদের কাছে রয়েছে। ভারতীয় ভূখণ্ডে F-16-র অংশ পাওয়া গেছে।১৪ ফেব্রুয়ারির পর সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন বেড়ে গেছে। গত ২ দিনে ৩৫ বার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান , আমাদের দেশ এবং নাগরিকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে আমরা বদ্ধপরিকর।কতজন জঙ্গি মারা গেছে তা এখনই বলা সম্ভব নয়

  • আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতি স্বীকার করে ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনকে মুক্তি দিতে রাজী হল পাকিস্তান

    ডেস্ক, ২৮ ফেব্রুয়ারীঃ আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতি স্বীকার করে  ভারতীয়  বায়ুসেনার পাইলট অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতে ফিরিয়ে  দিতে  রাজী  হল  পাকিস্তান। প্রধানমন্ত্রী ইমরানখান  পাক সংসদে  আজ  জানালেন আগামী কাল মুক্তি দিয়ে দেওয়া হবে ওই পাইলটকে। তিনি বলেন গতকালই আমি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ফোন করে বলতে চেয়েছিলাম  আমরা শান্তি চাই। আটক পাইলটকে আমরা মুক্তি দিতে চাই। তবে সীমান্তে উত্তেজনা কমাতে হবে। কিন্তু এই বক্তব্যের ২৪ ঘণ্টা পেরোতে না পেরোতেই ইমরান খান জানালেন তাঁকে আমরা কাল মুক্তি দিয়ে দেব।  শান্তি প্রক্রিয়া চালিয়ে নিয়ে  যেতেই আমাদের  এই উদ্যোগ ।  প্রসঙ্গত উইং কমান্ডার অভিনন্দন  বর্তমানকে বন্দি করে পাকিস্তান।  পাকিস্তানে ভারত  স্ট্রাইক করার সময় তাঁকে আটক করে। তাঁকে  বন্দি করার আগেই তিনি পাকিস্তানের একটি এফ-১৬ বিমানে গুলি চালান । এর আগে ভারত জানায়  পাকিস্তানের সঙ্গে কোনও সমঝোতা হবে না, আমরা পাইলটকে ফেরত চাই। সমঝোতা করার প্রক্রিয়া অভিপ্রায় না থাকায় কূটনৈতিক চ্যানেল দিয়েও  বিষয়টিকে এগিয়ে  নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা নেই। এর আগে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে এ সংক্রান্ত তথ্য  তুলে  দেওয়া  হয়েছে। পাশাপাশি তাঁর মাধ্যমে ইসলামাবাদের কাছে  দিল্লি  ওই পাইলটকে দ্রুত ভারতে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি করেছেন। পুলওয়ামা হামলার পর থেকেই পাকিস্তানের উপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়ানোর চেষ্টা করছে  ভারত। তারই  অঙ্গ  হিসেবে গতকাল পাক রাষ্ট্রদূতকে  ডেকে পাঠায় ভারত। তাঁকে জানিয়ে দেওয়া হয় বায়ুসেনার পাইলটকে কেন যেন  দ্রুত মুক্ত করা  হয়। এদিকে আজ সকালে মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান প্রথম থেকেই আমেরিকা চায় দুই দেশের মধ্যে  উত্তেজনা কমুক। এবার  সেটা হবে  বলে মনে হচ্ছে। দশকের  পর দশক ধরে যে  বিবাদ চলছে  তা  মিটতে পারে বলে আমি আশা  প্রকাশ করছি।  

  • ভারতীয় ক্রীড়া মহল বায়ুসেনার এই কৃতিত্বকে স্যালুট জানালেন

    Newsbazar24, ২৬ ফেব্রুয়ারীঃ গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় জঙ্গি হানায় মৃত ৪০ সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যুর প্রতিবাদে সামিল হয়েছিলেন  ভারতের ক্রীড়াবিদরাও। যার ফলে ভারত-পাকিস্তান বিশ্বকাপের ম্যাচ নিয়েও দ্বিমত দেখা গিয়েছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, সচিন তেন্ডুকরের মতো প্লেয়ারদের মধ্যে। কিন্তু  এবার একসুরে সকলেই স্যালুট জানালেন ভারতীয় বায়ুসেনাকে। মঙ্গলবার সকালে লাইন অব কন্ট্রোল পেড়িয়ে ভারতের বায়ুসেনা হামলা চালাল জইশ-ই-মহম্মদের ডেরায়।১২টি মিরেজ, ২০০০ ফাইটার জেট  হাজারকেজি বিস্ফোরক ফেলল বালাকোটের শিবিরে। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই সচিন তেন্ডুলকর, গৌতম গম্ভীর, মহেশ ভূপতি, সাইনা নেহওয়ালরা টুইটারে বায়ুসেনার কৃতিত্বকে স্যালুট না জানিয়ে পারলেন না। জইশ-ই-মহম্মদের সব থেকে বড় শিবিরে হামলা চালিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা। বিদেশ সচিব বিজয় গোখলে জানিয়েছেন, বড়সংখ্যক জঙ্গিদের খতম করা গিয়েছে।তিনি বলেন, ‘‘খবর ছিল জইশ-ই-মহম্মদ ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে বড় নাশকতার ছক কষেছে। তার আগে এই আক্রমণ দরকার ছিল। ভারত সিদ্ধান্ত নিয়ে যে কোনও আতঙ্কবাদী হামলার কড়া জবাব দেবে।'' তিনি আরও বলেন, ‘‘আরও আত্মঘাতী হালমা ছক ছিল। সেই লক্ষ্যেই ট্রেনিং চলছিল।'' যে সচিন তেন্ডুলকর পাকিস্তানকে মাঠে নেমে খেলে হারানোর পক্ষে সওয়াল করেছিলেন এ দিন তিনি সবার আগে বায়ুসেনাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাদের সাফল্যের জন্য। সাইনা নেহওয়াল টুইট করে স্যালুট জানিয়েছে। মহেশ ভূপতি, লিখেছেন, ‘জয় হিন্দ'। হরভজন লিখেছেন, ‘সব সময়ের মতো আজও তোমাদের জন্য গর্বিত'।

  • পুলওয়ামার ঘটনার ঠিক ১২ দিন পর এয়ার স্ট্রাইক ভারতীয় বায়ুসেনার

    newsbazar24:  প্রলয় চক্রবর্তী ঃ সার্জিক্যাল স্ট্রাইক ২: গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফের কনভয়ে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা হয়। বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি নিয়ে এসে কনভয়ে ধাক্কা মারে এক জঙ্গি আদিল। ঘটনায় শহিদ হন ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান।এর পর থেকে প্রতিশোধ চাইছিল গোটা দেশ। মোদী সরকারও যোগ্য জবাব দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। জবাব দিতে সেনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।মঙ্গলবার ভোর রাতে ভারতীয় বায়ুসেনার হিন্ডন এয়ারবেস থেকে আকাশে ওড়ে ১২টি মিরাজ ২০০০ জঙ্গিবিমান। ভোর সওয়া তিনটে নাগাদ পাক অধিকৃত কাশ্মীরের ৩টি জায়গায় প্রায় ১০০০ কেজি বোমা ফেলে তারা। ধুলোয় মিশিয়ে দেওয়া হয় বালাকোট, মুজফফরাবাদ ও চকৌটিতে জঙ্গিশিবিরগুলি।হামলার নেতৃত্ব দিল ভারতীয় বায়ুসেনা। হামলায় গুঁড়িয়ে দেওয়া হল জইশ-ই-মহম্মদের কন্ট্রোল রুম। খতম প্রায় ২০০-৩০০ জঙ্গি।এয়ার স্ট্রাইকে লেজার গাইডেড বম্ব ব্যবহার করা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।বায়ুসেনা সূত্রে খবর, ১০০০ কিলোগ্রাম বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয় এই সার্জক্যাল স্ট্রাইকে। পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের খাইবার-পাখতুনওয়া এলাকায় এই হামলা চালানো হয়। এই হামলায় জইশ-ই-মহম্মদের ঘাঁটি সহ বহু জঙ্গিশিবির গুঁড়িয়ে দিয়েছে বায়ুসেনা।এই অভিযান চালানোর আগে এটাও নিশ্চিত করা হয়, যে কোনও সাধারণ নাগরিক যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। আর ভারতীয় বায়ুসেনা সেই লক্ষ্যে সফল।মোদী জমানায় আরও একটি সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। উরির সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হামলার পাল্টা হিসেবে মোদী জমানার প্রথম সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছিল। এবার পুলওয়ামা জঙ্গিহানার প্রতিশোধ নিতে হল দ্বিতীয় সার্জিক্যাল স্ট্রাইক।মঙ্গলবার ভোররাতে যখন ভারতীয় বায়ুসেনা হামলা চালাতে শুরু করে, তখন তা টের পায় পাকিস্তানি সেনাও।এএনআই সূত্রে জানা গিয়েছে, তখনই ভারতের হামলা রুখে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল তারা।তাদের তরফে পাঠানো হয় F-16 যুদ্ধবিমান। কিন্তু ভারতের শক্তি দেখে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয় পাকিস্তানি সেনা।পাল্টা পাক-প্রত্যাঘাতের জবাব দিতে সীমান্ত রেখায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ বায়ুসেনাকে।